আজঃ শনিবার ০২ মার্চ 2০২4
শিরোনাম

গাজায় ব্যবহারে ইসরায়েলকে বাঙ্কার বাস্টার বোমা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

হামাসের বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধের জন্য ইসরায়েলকে বাঙ্কার বাস্টার বোমাসহ অসংখ্য অস্ত্র দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এসব বোমা ও অস্ত্র অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ব্যবহার করা হচ্ছে। শনিবার (২ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল।

বিএলইউ-১০৯ নামের এই বাঙ্কার বাস্টার বোমাগুলো শক্ত কাঠামো ছেদ করতে সক্ষম। শক্ত কাঠামো ছেদ করার পর এটিতে বিস্ফোরণ ঘটে। ওয়ালস্ট্রিট জার্নালকে নাম গোপন রাখার শর্তে এক সামরিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলকে এ ধরনের ১০০টি বোমা দিয়েছে। এই বোমা ৯০০ কেজির ওয়ারহেড বহনে সক্ষম। এসব বোমা এর আগে আফগানিস্তানে ব্যবহার করেছিল মার্কিন সেনারা।

তবে অবৈধ দখলদার ইসরায়েলকে যুক্তরাষ্ট্র শুধুমাত্র এই বোমাই দেয়নি সঙ্গে আরও শক্তিশালী ও আধুনিক মারণাস্ত্র দিয়েছে। যেগুলোর আঘাতে এখন পর্যন্ত গাজায় ১৫ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে শিশুই হলো ৬ হাজার ১১৫ জন।

হামাসের সঙ্গে যুদ্ধ শুরুর পর ইসরায়েলকে নিয়মিত অস্ত্র সরবরাহ করে আসলেও; সেগুলোর তথ্য গোপন রাখছে যুক্তরাষ্ট্র। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইসরায়েলের নিন্দা জানানোয় তারা চুপিচুপি ইসরায়েলের কাছে বোমা পৌঁছে দিচ্ছে।

ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলকে গাজায় ব্যবহারের জন্য ১৫ হাজার বোমা এবং ১৫৫ মিলিমিটারের ৫৭ হাজার শেল পাঠিয়েছে। যেগুলো সি-১৭ মিলিটারি কার্গো বিমানে করে ইসরায়েলে পৌঁছে দিয়েছে মার্কিনিরা।

ইসরায়েলে পাঠানো ১৫ হাজার বোমার মধ্যে রয়েছে ৫ হাজার এমকে৮২ বোমা, ৫ হাজার ৪০০ এমকে৮৪ বোমা, প্রায় এক হাজার জিবিউ-৩৯ স্মল-ডায়ামিটার বোমা এবং প্রায় তিন হাজার জেডিএএমস। প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলের সেনাবাহিনীকে কয়েক বিলিয়ন ডলার সাহায্য করে থাকে। হামাসের বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্য যেসব বোমা দেওয়া হয়েছে সেগুলো এ সাহায্যের বাইরে।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো বোমা দিয়ে গাজায় সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী হামলাগুলো চালানো হয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম হলো জাবালিয়া শরণার্থী ক্যাম্পের একটি ভবনে ভয়াবহ হামলা। ওই হামলায় ১০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছিলেন। ইসরায়েল দাবি করেছিল এটি ন্যায়সঙ্গত হামলা ছিল। কারণ এতে হামাসের এক কমান্ডার নিহত হয়েছিলেন।


আরও খবর



শেরপুরে বিদ্যালয়ের জমি দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মো. নাজমুল হোসাইন, শেরপুর

Image

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার ফুলহারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিতে স্কুল কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে ব্যক্তিগত ভাবে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে জমি দাতা মৃত ঈশ্বর চন্দ্র চৌকিদারের নাতি মুক্তার কোচ বাদী হয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বাদীর লিখিত অভিযোগ ও সরেজমিনে তথ্য সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের ফুলহারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের সময় তৎকালীণ সময়ে ফুলহারি মৌজার বিআরএস দাগ নং- ১৯৫, জমির পরিমাণ ৫৭ শতাংশ এবং একি মৌজার দাগ নং-১৯৫/৬৬১বাট্টা, জমির পরিমাণ ৩ শতাংশ, উভয় খতিয়ান নং-৭৫ সহ মোট ৬০ শতাংশ জমি দান করেন ঈশ্বর চন্দ্র চৌকিদার যা বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে শিক্ষা বিভাগের নামে রেকর্ডভুক্ত।

অপরদিকে ওই বিদ্যালয়ের মাঠের পূর্বাংশে ১৪৫নং খতিয়ানভুক্ত ১৯৬নং দাগের রেকডিও ৭ শতাংশ জমির মালিক স্বর্বেশ্বর চন্দ্র কোচ। কিন্তু উক্ত বিদ্যালয়ের জমির সীমানা নির্ধারণ না করেই বিদ্যালয়ের দক্ষিণ পাশের জমির মালিক মৃত সুরুজ্জামানের দুই ছেলে জহুরুল ইসলাম ও মোশারফ হোসেন বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে বিদ্যালয়ের জমির মধ্যে বহুতল ভবন নির্মাণ করছে।

এ বিষয়ে অভিযোগকারী মুক্তার কোচ জানান, ‘‘আমি তাদেরকে বিদ্যালয়ের জমিতে ভবন নির্মাণের নিষেধ করলেও তারা আমার নিষেধ অমান্য করে অন্যের নামে রেকডিও ৭শতাংশ এবং সরকারি রাস্তার জমি দিয়ে বিদ্যালয়ের জমি বুঝ দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, দাতা পক্ষের উত্তরাধিকার থাকা সত্বেও আমাদেরকে ব্যবস্থাপনা কমিটিতে কোন স্থান দেয়া হয়নি’’। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

বিদ্যালয়ের জমিতে ব্যক্তিগত ঘর নির্মাণের বিষয়ে ঘর উত্তোলনকারী জহুরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ জায়গার পরিবর্তে সর্বেশ্বর চন্দ্র কোচের নামে থাকা ৭শতাংশ জমি ক্রয় করে বিদ্যালয়কে দেয়া হবে বলে জানান।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহফুজা বেগম জানান, আমি বিদ্যালয়ের জমির বিষয়টা তেমন জানতাম না। জানার পর ঘর উত্তোলনকারীদের বিরোধ নিষ্পত্তির আগে কাজ করতে নিষেধ করে দিয়েছি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার(ভারপ্রাপ্ত) নুরুন নবী লিখিত অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সরকারি সার্ভেয়ার চেয়ে ইউএনও স্যারের বরাবর আবেদন জানিয়েছি। অনুমোদন পেলে ওই বিদ্যালয় ও সরকারি রাস্তার জমি পরিমাপ করা হবে। সরকারি জমিতে ব্যক্তিমালিকানা ঘর উত্তোলণ করে থাকলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ ভুইয়া একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে কাজ চালু রাখতে নিষেধ করেছি। উভয় পক্ষের কাগজপত্রাদি দেখে সরেজমিন তদন্তপূর্বক বিদ্যালয়ের সরকারি রাস্তা উদ্ধারসহ বিদ্যালয়ের সীমানা নির্ধারণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এতে কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা বলেও জানান তিনি।

এলাকাবাসীসহ অভিযোগকারী দ্রুত তদন্তপূর্বক বিদ্যালয়ের জমি উদ্ধারসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উধর্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।


আরও খবর



নরসিংদীতে পৃথক ঘটনায় ২ জন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নরসিংদী প্রতিনিধি

Image

নরসিংদীতে পৃথক ঘটনায় দুজন নিহত হওয়ায় খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার সংগীতা এলাকায় দুর্বৃত্তের হামলা নিহত হয় সুমন মিয়া (৩২) নামে এক যুবক।

তাছাড়া শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে পলাশ উপজেলায় জিনারদীতে রেললাইনের পাশে একটি ঝোপ থেকে একই নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার বাড়ি সদর উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার মো. ইকতিয়ার উদ্দিন।

শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিক নরসিংদী শহরের সংগীতা এলাকায় সুমন মিয়াকে কুপিয়ে আহত করে দুর্বৃত্তরা। পরে নরসিংদী সদর হাসপাতাল থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে নেওয়া হলে সেখানে মারা যান তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. তানভির আহমেদ।

তিনি বলেন, হামলার খবর পেয়ে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

নিহত সুমন মিয়ার স্বজন জানান, রাতে বাসায় ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা সুমনকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে সে মারা যায়। নিহত সুমন পৌরসভার সংগীতা এলাকার সোবহান মিয়ার ছেলে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (বেলা ১১টা) নিহত সুমনের মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে বলে জানান তারা।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কে এম শহিদুল ইসলাম সোহাগ বলেন, পৃথক ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা তৎপর রয়েছি। দুটি ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

তবে ঝোপ থেকে উদ্ধার হওয়া মরদেহটি রেল দুর্ঘটনা নাকি হত্যা করা হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



যেসব এলাকায় ৩ দিন বন্ধ থাকবে ইন্টারনেট

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বগুড়া শহরের সাতমাথায় তিনতলা টেলিফোন ভবনটি বুয়েট কর্তৃক ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল)। সংস্থাটি জানিয়েছে, ভবন স্থানান্তরের জন্য বগুড়া শহর ও উপজেলাগুলোতে তিন দিনের জন্য টেলিফোন ও ইন্টারনেট সেবা বন্ধ থাকবে। সংস্থাটির উপমহাব্যবস্থাপক (টেলিকমের) কার্যালয় থেকে টেলিফোন ও ইন্টারনেট বন্ধের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

তে বলা হয়েছে, ওই ভবন থেকে সুইচ রুমের যাবতীয় যন্ত্রপাতি অন্যত্র স্থানান্তর করা হবে। এ কারণে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৫টা থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৫টা পর্যন্ত ৭২ ঘণ্টা বগুড়া শহর, উপজেলাসমূহ এবং জয়পুরহাট জেলায় বিটিসিএল কর্তৃক বাস্তবায়িত প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বেতার ও গ্রন্থাগারে সংযোগকৃত ইন্টারনেট সেবা বন্ধ থাকবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, এ অফিসের আওতায় টেলিফোন (AGW) কপার ক্যাবলের মাধ্যমে দেয়া সংযোগ বগুড়া শহরে ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩ মার্চ বিকেল ৫টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। পাশাপাশি ঘোষিত এই সময়ের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হবে বলে জানায় সংস্থাটি। এ ব্যাপারে সবার সহযোগিতা কামনা করে দুঃখ প্রকাশ করেছে বিটিসিএল।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




শরীয়তপুর ও ঝিনাইদহে নতুন এডিসি

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

শরীয়তপুর ও ঝিনাইদহে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) হিসেবে দুই কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকা বিআইডব্লিউটিএ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোছা. তাছলিমা আকতারকে শরীয়তপুর এবং বান্দরবানের রোয়াংছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ আতিকুল মামুনকে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদায়ন করা হলো।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে বদলি কর্মকর্তাদের নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা অর্পণ করা হলো। জনস্বার্থে জারিকৃত এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।

নিউজ ট্যাগ: শরীয়তপুর

আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




মিউনিখে শেখ হাসিনার সাহসী কূটনীতিই আমরা দেখলাম: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে নিমন্ত্রণ এবং তার বক্তব্যে অংশ নেওয়া বাংলাদেশের গুরুত্বকেই তুলে ধরে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বাংলাদেশে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই নির্বাচন নিয়ে সমালোচনা মুখর ছিল বহির্বিশ্বের একটা অংশ। তারপরও আজ এই সংকটে সিকিউরিটির মতো সেনসেটিভ ইস্যুতে নিমন্ত্রণ পাওয়া এবং গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্যে অংশগ্রহণ করা বাংলাদেশের গুরুত্বকেই তুলে ধরে। যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধের বিরুদ্ধে, শান্তির পক্ষে জোরালো বক্তব্য রেখেছেন। এখানে শেখ হাসিনার সাহসী কূটনীতিই আমরা দেখলাম।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

দেশের মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও সার্বভৌমত্বে আওয়ামী লীগ আঘাত করেছে বলে বিএনপি নেতাদের দেওয়া বক্তব্যের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনও বিবেকবান রাজনীতিক এ কথা বলতে পারেন না। এটা হচ্ছে পাগলের অসংলগ্ন প্রলাপ। বিএনপির রাজনীতিতে মিথ্যাচার চিরজীবনই। তাদের রাজনীতিতে মিথ্যাচার অপরিহার্য বিষয়। এটা তাদের চিরাচরিত মিথ্যাচারের ধারাবাহিকতা। 

আরও পড়ুন>> একুশে ফেব্রুয়ারিতে কোনো নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই : ডিএমপি কমিশনার

দ্রব্যমূল্য বাড়ছে, সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকার- বিএনপির এমন অভিযোগ নিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিরোধী দলের এখন আর কিছু নেই। জনগণ নেই, তাদের কর্মীরাও নেই। এখন কিছু না কিছু তো জনগণ ও কর্মীদের সামনে বলতে হবে। এ জন্য কথামালার চাতুরি তারা করছে।

তিনি বলেন, কিছু কিছু জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে, আবার কিছু কিছু পণ্যের দাম কমতির দিকে। বাজার ওঠানামা চিরদিনই আছে। বিশ্ব পরিস্থিতিতে দ্রব্যমূল্য বাড়ছে। সরকার এখানে কোনও উদাসীনতা দেখায়নি। সক্রিয় আছে, সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সীমান্ত রক্ষায় বাংলাদেশ সদা জাগ্রত। মিয়ানমারে যে অস্থিরতা বিরাজ করছে এর ফলে সীমান্তে নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকি থাকতে পারে। কাজেই এই বিষয়ে আমরা প্রস্তুত আছি। আমাদের প্রস্তুতি আছে।

গোয়েন্দা সংস্থা দিয়ে জাতীয় পার্টিকে ভাঙ্গা হচ্ছে, বিএনপির এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যারা সংসদে বিরোধী দল গঠন করেছে এর বাইরে জাতীয় পার্টির নামে কোন একটা ভাগ সৃষ্টি করা হলে সেটা তাদের নিজেদের ব্যাপার। এতে জাতীয় সংসদে থাকা জাতীয় পার্টির কেউ নেই। কাজেই এ নিয়ে আমাদের মাথা ঘামানোর কিংবা উদ্বেগের কিছু নেই। 

আরও পড়ুন>> মেক্সিকোয় সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ আর্জেন্টাইন পর্যটক নিহত

ঢাকা শহরের বায়ু দূষণ নিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, বায়ু দূষণ রোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বন ও পরিবেশ এবং জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী সর্বাত্মক কাজ করে যাচ্ছেন। এরই মধ্যে তিনি কিছু পদক্ষেপ নিয়েছেন। ইটের ভাটা বন্ধ করা একটা বড় কাজ।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এস এম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, সুজিত রায় নন্দী, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ।


আরও খবর