আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

গাজায় মেয়াদোত্তীর্ণ করোনার ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে ইসরাইল

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ৫০ হাজার ডোজ মেয়াদোত্তীর্ণ করোনার ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে ইসরাইল। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ খবর জানিয়েছে। মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, গাজা উপত্যকায় পাঠানোর জন্য রাশিয়ায় তৈরি ভ্যাকসিনগুলো ইহুদিবাদী ইসরাইলকে দেওয়া হলেও তেলআবিব এগুলো অনুপযুক্ত পরিবেশে রেখে দিয়েছিল।

এ ছাড়া ভ্যাকসিনের চালানটি ঠিক সময়ে গাজায় পৌঁছাতে বাধা দেয় ইসরাইল।  সম্প্রতি গাজার কারেম আবু সালেম ক্রসিং দিয়ে রাশিয়ার তৈরি স্পুৎটনিক লাইট টাইপের ভ্যাকসিনের চালানটি অবরুদ্ধ এ উপত্যকায় পাঠানো হয়। কিন্তু সেফটি টেস্টে দেখা যায়, ভ্যাকসিনগুলোর মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে।

এর আগে ইসরাইলি গণমাধ্যম খবর দিয়েছিল— মেয়াদোত্তীর্ণ হতে যাওয়া ভ্যাকসিনগুলো প্রথমে তেলআবিব পশ্চিমতীরের স্বশাসন কর্তৃপক্ষকে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু মাহমুদ আব্বাসের নেতৃত্বাধীন ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ ওই চুক্তি বাতিল করে দেয়। এর পরই চালানটি গাজা উপত্যকায় পাঠায় দখলদার ইসরাইল।

সর্বশেষ পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গাজা উপত্যকায় এখন পর্যন্ত এক লাখ ৪৭ হাজার ৩৬৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, যাদের মধ্যে এক হাজার ২২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ ছাড়া অবরুদ্ধ এই উপত্যকায় প্রায় ২০ লাখ মানুষ বসবাস করলেও এ পর্যন্ত মাত্র তিন লাখ ৫৪ হাজার মানুষ করোনাভাইরাসের টিকা নিতে পেরেছেন। পশ্চিমতীর ও গাজা উপত্যকায় বসবাসরত ফিলিস্তিনি নাগরিকদের জন্য করোনাভাইরাসের টিকা সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ইহুদিবাদী ইসরাইল চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে।

অথচ ইসরাইল তার প্রাপ্তবয়স্ক প্রায় সব নাগরিককে টিকার আওতায় এনেছে এবং অনেকে এরই মধ্যে তৃতীয় অর্থাৎ বুস্টার ডোজও নিয়ে ফেলেছে।


আরও খবর
বিশ্বজুড়ে বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




ভারতে পাচার ৭ যুবতীকে বেনাপোলে হস্তান্তর

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভালো কাজের প্রলোভনে ভারতে পাচারের শিকার সাত যুবতীকে দুই বছর পর বেনাপোল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকালে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের ট্রাভেল পারমিট প্রক্রিয়ায় বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশে হস্তান্তর করে।

ফেরত আসা যুবতীরা হলেন, যশোরের অভয়নগর উপজেলার শিরিনা বিশ্বাস (২৪), কুড়িগ্রামের আজ্ঞুমা সুমি (২২), ফরিদপুরের মৌসুমি খাতুন (২৩), চট্রগ্রামের রিয়া আক্তার (২৪), মাগুরা জেলার শ্রীপুর থানার সোহাগী আক্তার মিম (২৪), খাগড়াছড়ির জাকিয়া আক্তার (২৩) ও সুনামগঞ্জের সুমি আক্তার (২৩)। গত দুই বছরে বিভিন্ন সময়ে তারা ভারতে পাচার হন। পাচারের শিকার ওই সাত জন নারী জানান, ভাল কাজ দেওয়ার নাম করে তাদের অবৈধপথে ভারতে নেয় দালালরা।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ইমিগ্রেশনের কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আইনী সহায়তা দিতে জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা এই সাত নারীকে গ্রহণ করেছে।

এনজিওর সিনিয়ার প্রোগ্রাম অফিসার এবিএম মুহিত হোসেন জানান, দালাল চক্রের খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করে। সেখান থেকে ভারতীয় একটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে। পরে দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি চালাচালির এক পর্যায়ে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে তাদের দেশে ফেরত আনা হয়।

বর্তমান কোভিড পরিস্থিতির কারণে ফেরত আসা সাতজনকে যশোর গাজীর দরগায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ১৪ দিন পর তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


আরও খবর
বিস্কুটের কার্টন থেকে নবজাতক উদ্ধার

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বগুড়ায় ধানক্ষেতে মিলল নারী ইউপি সদস্যের লাশ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




তালেবান সরকার নিয়ে ইরানের প্রতিক্রিয়া

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কাবুল দখলের তিন সপ্তাহ পর মঙ্গলবার আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ঘোষণা করেছে তালেবান। এই সরকার নিয়ে বিভিন্ন দেশ তাদের নিজস্ব অবস্থান জানাচ্ছে। বৃহস্পতিবার ইরান তালেবান সরকার নিয়ে তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে।

ইরান বলেছে, আফগানিস্তানে তালেবান সকল মানুষের সমন্বয়ে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করুক।

বুধবার আফগানিস্তানের ৬ প্রতিবেশী দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক ভার্চুয়াল বৈঠকে যুক্ত হন। দেশগুলো হলো- ইরান, চীন, তাজিকিস্তান, তুর্কিমিনিস্তান, উজবেকিস্তান এবং পাকিস্তান।

এই বৈঠকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির আব্দুল্লাহিয়ান বলেন, ইরান আফগানিস্তানের ঘোষিত সরকারের ওপর দৃষ্টি রাখছে। আমরা চাই তালেবান সকল নৃগোষ্ঠীর মানুষের সমন্বয়ে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করুক।

৬ দেশের বৈঠকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অতীত অভিজ্ঞতা বলে আফগানিস্তানে নন-অন্তর্ভুক্তিমূলক কোনো সরকার শান্তি, সমৃদ্ধি এবং স্থিতিশীলতা অর্জন করতে পারনি। এ কারণে আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের একযোগে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠনে কথা বলা উচিত।

ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি প্রশাসন গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আফগানিস্তানে তালেবানের ক্ষমতা গ্রহণ নিয়ে আকস্মিক বৈঠক করে যাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির আব্দুলাহিয়ান কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল রাহমান আল থানির সঙ্গে বৈঠকে বসেন।

তালেবান শাসনকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি না দিয়েই তাদের সঙ্গে ছয়টি দেশ ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রাখছে। সেগুলো হলো পাকিস্তান, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন ও ইরান। আফগানিস্তানে এই রাষ্ট্রগুলোর বৈচিত্র্যপূর্ণ এবং এমনকি পরস্পরবিরোধী স্বার্থ রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: তালেবান-ইরান

আরও খবর
বিশ্বজুড়ে বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




ঘুমন্ত অবস্থায় বাস চালাচ্ছিলেন চালক, খাদে পড়ে নিহত ১

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর 20২১ | ১৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টাঙ্গাই‌লের কা‌লিহাতী‌তে যাত্রীবা‌হী বাস খা‌দে প‌ড়ে একজন নিহত হ‌য়ে‌ছেন। এ‌ সময় আহত হ‌য়ে‌ছেন কমপ‌ক্ষে ১৫ জন। আহত‌দের উদ্ধার ক‌রে টাঙ্গাইল জেনা‌রেল হাসপাতা‌লে পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে।

মঙ্গলবার (২১ সে‌প্টেম্বর) ভো‌রে ভুঞাপুর-টাঙ্গাইল আঞ্চ‌লিক মহাসড়‌কের উপ‌জেলার নারা‌ন্দিয়া ইউ‌নিয়‌নের যদুরপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘ‌টে।

নিহতের নাম ছা‌য়েদ আলী খান (৬০)। তিনি নওগাঁর পোরশা উপ‌জেলার কোচপুর গ্রা‌মের মৃত নূর মোহাম্ম‌দের ছে‌লে।

নিহ‌তের ভা‌তিজা ও বাস যাত্রী আ‌মিনুল ইসলাম ব‌লেন, চাচাসহ তিনজন ঢাকা যাওয়ার জন্য রা‌তে নওগাঁ থে‌কে রওনা দেই। বাস‌টি বঙ্গবন্ধু সেতু পার হ‌য়ে মহাসড়ক দিয়ে না গিয়ে ভুঞাপুর হ‌য়ে ঢাকার দি‌কে যা‌চ্ছিল। গা‌ড়ি ঠিকভা‌বে চালা‌তে চালক‌কে বার বার সতর্ক করা হ‌য়ে‌ছিল। প‌রে বাস‌টি সড়‌কের বাক ঘুর‌তে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হা‌রি‌য়ে খা‌দের পা‌নি‌তে প‌ড়ে যায়।

বাসযাত্রীরা জানান, চালক ঘু‌মন্তভাবে বাস চালা‌চ্ছি‌লেন। বার বার সতর্ক করার পরও দুর্ঘটনা ঘট‌লে। দুর্ঘটনার পর চালক, সুপারভাইজার ও হেলপার পা‌লি‌য়ে গে‌ছে।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর
শিয়ালের ফাঁদে মানুষের মৃত্যু

শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

খালে গোসল করতে নেমে ৩ ছাত্রীর মৃত্যু

সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




বিজয় উদযাপনে কাবুলে নিহত ১৭

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাঞ্জশির উপত্যকা নিজেদের দখলে নেওয়ার আনন্দে কাবুলের আকাশে গুলি ছুড়ে উদযাপন করেছে তালেবান যোদ্ধারা। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ১৭ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে, আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪১ জন।

শনিবার আফগান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের বরাতে আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে। এ ঘটনার পর বাতাসে গুলি ছুড়ে বিজয়োল্লাস না করতে আহ্বান জানিয়েছেন তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ।

শুক্রবার রাতে তালেবানবিরোধীদের শেষ ঘাঁটি পাঞ্জশির প্রদেশ নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দাবি করে তালেবান। এ খবরে কাবুলের বিভিন্ন স্থানে আকাশের দিকে গুলি ছুড়ে বিজয়োল্লাস করে সংগঠনটির যোদ্ধারা। এর পরপরই শহরের হাসপাতালগুলোতে দলে দলে গুলিবিদ্ধ মানুষ আসতে শুরু করেন।

শুক্রবার রাতেই বেশ কিছু ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, অ্যাম্বুল্যান্সে করে অনেককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

হাসপাতালগুলো জানিয়েছে, তাদের কাছে এ পর্যন্ত আহত ৪১ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। এছাড়া মরদেহ এসেছে ১৭টি।

তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ এক টুইটে বলেন, বাতাসে গুলি করা এড়িয়ে চলুন এবং এর পরিবর্তে আল্লাহকে ধন্যবাদ দিন। অস্ত্র-গোলাবারুদ আপনাদের হাতে, সেগুলো নষ্ট করার অধিকার কারো নেই। গুলিতে সাধারণ মানুষের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বেশি, তাই অযথা গুলি করবেন না।


আরও খবর
বিশ্বজুড়ে বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




পাঞ্জশিরে বেসামরিক জনগণকেও হত্যা করছে তালেবান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাঞ্জশির উপত্যকায় কমপক্ষে ২০ জন বেসামরিক নাগরিককে হত্যা করেছে তালেবান। সেই সাথে এই উপত্যকার সাথে সব রকমের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এ অবস্থায় সংবাদ সংগ্রহ কঠিন হয়ে পড়লেও, তালেবানের মানুষ হত্যার প্রমাণ রয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বিবিসির তথ্য মতে, উপত্যকার একটি রাস্তার ধারের ভিডিও ফুটেজ পাওয়া গেছে, যেখানে দেখা যায়, একজন সাধারণ ব্যক্তিকে ঘিরে রেখেছে সশস্ত্র তালেবান সদস্যরা। এরপর গুলির শব্দ এবং দেখা যায় লোকটি মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে। নিহত ওই ব্যক্তি সেনাবাহিনীর সদস্য কিনা তা ভিডিওতে স্পষ্ট বোঝা না গেলেও একজন প্রত্যক্ষদর্শী জোর দাবি জানিয়েছেন যে, ওই ব্যাক্তি সাধারণ মানুষ।

এদিকে স্থানীয় একটি সূত্র বিবিসিকে জানিয়েছে, এলাকার এক দোকানদারেরও মৃত্যু হয়েছে তালেবানের নির্যাতনে। আবদুল সামি নামের ওই দোকানদার ভেবেছিলেন, সাধারণ দরিদ্র খেটে খাওয়া মানুষ, যার সাথে যুদ্ধের কোন সম্পর্ক নেই, তাকে কেন হত্যা করবে তালেবান? কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। প্রতিরোধ যোদ্ধাদের কাছে মোবাইল ফোনের সিম কার্ড বিক্রি করার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং পরে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির মরদেহে নৃশংস নির্যাতনের চিহ্ন দেখেছেন তারা। পাঞ্জশিরে এ ধরণের কমপক্ষে ২০টি হত্যার প্রমাণ রয়েছে বিবিসির কাছে।

তালেবান আফগানিস্তানের দখল নিলেও শুধুমাত্র এই উপত্যকাটিই এর বাইরে ছিল। আর এই পাঞ্জশির উপত্যকা বরাবরই প্রতিরোধের কেন্দ্রবিন্দু। এখানকার নেতা আহমদ শাহ মাসউদের অধীনে গড়ে ওঠা তালেবান প্রতিরোধ বাহিনী এর আগে ২০০১ সালেও একইভাবে তালেবান প্রতিরোধ করেছিল। শুধু তাই নয়, তার আগে সোভিয়েত বাহিনীর আগ্রাসনের সময়ও এই উপত্যকা থেকে জোর প্রতিরোধ ছিল তাদের। উপত্যকাটি পুরোটাই ঘিরে রেখেছে পাহাড়। যেকারণে কারও পক্ষেই এই অঞ্চলের দখল নেয়া সহজ নয়। এখন দেখার বিষয় এবারে কী হতে চলেছে।

এদিকে পাঞ্জশিরের সাধারণ জনগণকে স্বাভাবিক জীবন যাপনের পরামর্শ দিচ্ছেন তালেবান শীর্ষ নেতারা। যদিও বাস্তবের চিত্র অনেকটাই আলাদা। এখন এই উপত্যকার বেশিরভাগ রাস্তা-ঘাট ফাঁকা, হাট-বাজারেও মানুষের ভিড় নেই। লোকজন এলাকা ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করছে। এরইমধ্যে এই উপত্যকায় খাদ্য ও খাবারের ঘাটতি হতে পারে বলেও সতর্কতা জারি করা হয়েছে।


আরও খবর
বিশ্বজুড়ে বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১