আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

গোল্ডেন বুট জিতেও সেরা একাদশে জায়গা হয়নি রোনালদোর

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ২৩৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো জিতেছেন ইউরো ২০২০ টুর্নামেন্টের গোল্ডেন বুট। চেক প্রজাতন্ত্রের পাত্রিক শিক তাঁর সমান গোল করলেও গোলে একটি সহায়তা করায় পুরস্কারটি উঠেছে পর্তুগাল তারকার হাতে।

পর্তুগাল শেষ ষোলো থেকে বাদ পড়ায় এবার ইউরোর সেরা দল-এ জায়গা হয়নি রোনালদোর। আজ ইউরোর টিম অব দ্য টুর্নামেন্ট-এ ১১ খেলোয়াড়ের নাম নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে উয়েফা।

চ্যাম্পিয়ন ইতালি থেকে এই একাদশে জায়গা পেয়েছেন সর্বোচ্চ পাঁচ খেলোয়াড় জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা, লিওনার্দো বোনুচ্চি, লিওনার্দো স্পিনাৎসোলা, জর্জিনিও ও ফেদরিক কিয়েসা।

রানার্সআপ ইংল্যান্ড থেকে জায়গা পেয়েছেন তিনজন রাহিম স্টার্লিং, হ্যারি ম্যাগুয়ার ও কাইল ওয়াকার। ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড ও স্পেন থেকে জায়গা পেয়েছেন একজন করে খেলোয়াড়। এর মধ্যে ১৮ বছর বয়সী স্পেনের সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার পেদ্রির অন্তর্ভুক্তি চমক জাগানিয়া হলেও প্রত্যাশিতই। তবে চেক প্রজাতন্ত্রের ফরোয়ার্ড পাত্রিক শিকের বাদ পড়াটা অবাক করে দেওয়ার মতো।

ইউরো ২০২০এর এই একাদশের কোচ প্রত্যাশিতভাবেই রবার্তো মানচিনি। ২০১৮ বিশ্বকাপে খেলতে না পারা ইতালিকে টানা ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত রেখে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন বানানো কোচকে এড়াতে পারেনি উয়েফার টেকনিক্যাল কমিটি।

ইউরোর সেরা দল বাছাই করা মোট ১৬ সদস্যের এই কমিটিতে রয়েছেন এস্তেবান ক্যাম্বিয়াসো, ফাবিও ক্যাপেলো, রবি কিন, এইতর কারাঙ্কা ও ডেভিড ময়েসের মতো কোচ ও সাবেক খেলোয়াড়েরা। একাদশ সাজানো হয়েছে ৪-৩-৩ ফরমেশনে।

গোলপোস্টে ইতালির গোলকিপার জিয়ানলুইজি দোন্নারুমাকে বেছে নেওয়া হয়েছে প্রত্যাশিতভাবেই। এবার ইউরোর সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন তিনি।

তাঁর সামনে চার ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার থাকবেন রাইটব্যাক পজিশনে, মাঝখানে দুই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে থাকবেন বোনুচ্চি ও ম্যাগুয়ার। লেফটব্যাক পজিশনে থাকবেন এবার ইউরোয় দারুণ খেলা স্পিনাৎসোলা।

চোটের জন্য ইতালির সেমিফাইনাল ও ফাইনালে খেলতে পারেননি স্পিনাৎসোলা। তবে ইংলিশ তারকা ম্যাগুয়ারের চেয়ে বেশিসংখ্যক বল রিকভার করেও জর্জো কিয়েল্লিনি কেন একাদশে সুযোগ পেলেন না, সেটি বড় প্রশ্ন। ইতালির ইউরো জয়ে রক্ষণে দারুণ ভূমিকা অধিনায়ক কিয়েল্লিনির।

মধ্যমাঠে বাঁ প্রান্তে পেদ্রি, মাঝখানে জর্জিনিও এবং ডান পাশে পিয়ের-এমিল হইবিয়া। ডেনমার্কের সেমিফাইনালে ওঠায় দারুণ ভূমিকা রাখেন টটেনহাম হটস্পার্সের এই মিডফিল্ডার। এদিকে স্পেনের মধ্যমাঠে নিউক্লিয়াস ছিলেন পেদ্রি।

বার্সার এই কিশোর ৭৬.১ কিলোমিটার দৌড়ে পাসের মালা গেঁথেছেন মধ্যমাঠে। অ্যাটাকিং থার্ডেও সবচেয়ে বেশি পাস দিয়েছেন তিনি। জর্জিনিও ৮৬.৬ কিলোমিটার দৌড়েছেন। আক্রমণভাগে ডান প্রান্তে ইতালির ফরোয়ার্ড ফেদেরিক কিয়েসা, মাঝখানে বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকু ও বাঁয়ে ইংল্যান্ডের স্টার্লিং।

ইউরো ২০২০ একাদশ:

গোলকিপার: জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা (ইতালি)।

ডিফেন্ডার: কাইল ওয়াকার (ইংল্যান্ড), লিওনার্দো বোনুচ্চি (ইতালি), হ্যারি ম্যাগুয়ার (ইংল্যান্ড) ও লিওনার্দো স্পিনাৎসোলা (ইতালি)।

মিডফিল্ডার: পিয়ের-এমিল হইবিয়া (ডেনমার্ক), পেদ্রি (স্পেন) ও জর্জিনিও (ইতালি)।

ফরোয়ার্ড: ফেদেরিক কিয়েসা (ইতালি), রোমেলু লুকাকু (বেলজিয়াম) ও রাহিম স্টার্লিং (ইংল্যান্ড)।


আরও খবর



হেলেনাকে ‌‘নাতনি’ ডাকতেন সেফুদা, ছিল আর্থিক লেনদেন : র‌্যাব

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩০ জুলাই ২০২১ | ৬৩৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে আওয়ামী লীগের উপকমিটি থেকে পদ হারানো হেলেনা জাহাঙ্গীরের সঙ্গে অস্ট্রিয়া প্রবাসী সমালোচিত বাংলাদেশি নাগরিক সেফুদার নিয়মিত যোগাযোগ ও আর্থিক লেনদেন ছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব। সেফুদা তাকে নাতনি হিসেবে সম্বোধন করতেন বলে র‌্যাবকে জানিয়েছেন হেলেনা জাহাঙ্গীর।

শুক্রবার বিকালে রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‍্যাব সদরদপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অস্ট্রিয়া প্রবাসী আলোচিত সেফুদার নাতনি হিসেবে সম্বোধন করতেন। সেফুদার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করতেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। করতেন লেনদেনও।

খন্দকার আল মঈন বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীর নিজেকে মাদার তেরেসা, পল্লীমাতা, প্রবাসীমাতা হিসেবে পরিচিতি পেতে জয়যাত্রা ফাউন্ডেশনকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেন। তার পৃষ্ঠপোষকতায় একটি সংঘবদ্ধ চক্র ভুয়া খেতাবের অপপ্রচার চালাত।

তিনি আরও বলেন, হেলেনা বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ততা রেখে নিজের বিভিন্ন এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতেন। তিনি ১২টি ক্লাবের সদস্যপদে রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, অস্ট্রিয়া প্রবাসী সেফুদা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে সমালোচনায় আসে।


আরও খবর



ময়মনসিংহে করোনায় ১৯ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ১০৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহ মেডিকেলকলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৭ জন ও উপসর্গ নিয়ে ১২ জন মারা গেছেন।

বুধবার (১৪ জুলাই) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন।

তিনি জানান, করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে নতুন ৪৮ জন ভর্তিসহ এখন পর্যন্ত ৪৩০ জন এবং আইসিউতে ২২ জন চিকিৎসাধীন আছেন।

করোনায় মৃত ব্যক্তিরা হলেন, ময়মনসিংহ সদরের আব্দুস সালাম (৮০), ফুলবাড়িয়া উপজেলার রাজ মাহমুদ (৭০), গফরগাঁও উপজেলার আয়েশা খাতুন (৭০), ভালুকা উপজেলার নুরুল হক (৮৫), টাঙ্গাইল কালিহাতি উপজেলার সুলতান মোহাম্মদ (৫৫), ধনবাড়ি উপজেলার আব্দুর সোবহান (৭০) এবং নেত্রকোনা সদরের মরিয়ম নেসা (৭০)।

সিভিল সার্জনডা. নজরুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৫৮ টি নমুনা পরীক্ষায় আরও ২৮৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৬.৭৪ শতাংশ। জেলায় মোট শনাক্ত ১০ হাজার ৬৯৪ জন। সুস্থ হয়েছে ৭ হাজার ৭৪৫ জন। মোট মৃত্যু ১০৯ জন।


আরও খবর



বগুড়ার তিন হাসপাতালে ১৯ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ জুলাই ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বগুড়ার তিন হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৯ জন মারা গেছেন। সোমবার (০৫ জুলাই) সকাল থেকে মঙ্গলবার (০৬ জুলাই) সকাল পর্যন্ত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সকালে বগুড়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. টিএম নুরুজ্জামান জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনায় ১২ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

এদিকে বগুড়া টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ জন মারা গেছেন।

এছাড়া বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. আব্দুল ওয়াদুদ জানান, হাসপাতালে চিকিৎধীন অবস্থায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।


আরও খবর



রাজশাহীর করোনা ইউনিটে আরও ১৯ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে করোনায় পজিটিভি ছিলেন ৬ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ১১ জন মারা যান। আর নেগেটিভ হওয়ার পর মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। এদিকে বিভাগে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা অনেকটাই কমেছে, বর্তমানে শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

রবিবার (১১ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টার বিভিন্ন সময়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, রামেক হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ৯, নাটোরের ৬, পাবনা ১, নওগাঁ ২ ও কুষ্টিয়ার একজন করে আছেন।

করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে রোগীদের ভর্তি ও সংক্রমণের বিষয়ে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৭৪ জন। বর্তমানে রামেক হাসপাতালের ৪৫৪টি করোনা ডেডিকেটেড শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি আছেন ৫১৮ জন।

রামেকের দুই ল্যাবে করোনা পরীক্ষা ও শনাক্তের বিষয়ে পরিচালক বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে ২৮২টি নমুনা পরীক্ষায় ৩০ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৬৩ শতাংশ।



আরও খবর



খুলনায় একদিনে রেকর্ড ২২ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | ১১৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনার চার হাসপাতালে করোনায় ২২ জন মরা গেছেন। এর মধ্যে করোনায় ২১ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ১ জন মারা গেছেন। মঙ্গলবার (০৬ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে বুধবার (০৭ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় চার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫ জন, খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১০ জন, জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৫ জন ও আবু নাসের হাসপাতালে ২ জন মারা গেছেন।

খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে একদিনে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় ৯ জন ও উপসর্গ নিয়ে ১ জন মারা গেছেন।


আরও খবর