আজঃ শনিবার ১৫ জুন ২০২৪
শিরোনাম

গরমে তালের শাঁসের যত উপকারিতা

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৩ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

তালের শাঁস বাজারে এখন বেশ সহজলভ্য। গরমেই ফলটির দেখা পাওয়া যায়। এটি খেতে যেমন সুস্বাদু, তেমনই স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। গরমে শরীর ও পেট ঠাণ্ডা রাখে তালের শাঁস। এছাড়া বিভিন্ন শারীরিক সমস্যারও সমাধান করে এই ফল।

জানেন কি, তালের শাঁসে থাকে আয়োডিন, মিনারেলস, পটাশিয়াম, জিংক ও ফসফরাস। বিভিন্ন ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে ভরপুর তালের শাঁস নানা রোগের দাওয়াই হিসেবে কাজ করে। জেনে নিন এই ফল কোন কোন রোগ সারায়-

১. এই ফল শরীরে শক্তি জোগায় ও দৈহিক তাপমাত্রা কমিয়ে দেয়। ফলেই শরীর ভেতর থেকে ঠান্ডা থাকে।

২. শরীরকে আর্দ্র রাখতেও তালের শাঁস বিশেষ উপকারী। তবে গরমে এই ফল বেশি খেলে আবার পেট গরম হতে পারে। তাই অল্প পরিমাণে খাওয়াই ভালো।

৩. পাকস্থলীর বিভিন্ন সমস্যা, পেট গরমভাব ও জ্বালাপোড়া কমায় এই ফল। এই ফল খেলে হজমের সমস্যাও দূর করে।

৪. বর্তমানে অনিয়মিত জীবনযাপনের কারণে অনেকেই ভুগছেন লিভারের সমস্যায়। জানেন কি তালের শাঁস লিভারের সুরক্ষায় কাজ করে। লিভারের উপর এটি পাতলা আস্তরণের মতো কাজ করে।

৫. গরমে হাত পায়ে চুলকানি কিংবা অ্যালার্জির সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। শরীরে পানিশূন্যতা সৃষ্টি হওয়ার কারণে এমনটি ঘটে। এ সমস্যারও সমাধান করে তালের শাঁস। তাই গরমে দৈনিক খাদ্যতালিকায় রাখুন তালের শাঁস।

নিউজ ট্যাগ: তালের শাঁস

আরও খবর



ভাওয়াল রিসোর্টে বেনজীরের আড়াই একর সম্পদ উচ্ছেদে যাচ্ছে প্রশাসন

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
গাজীপুর প্রতিনিধি

Image

পদে থেকে জুনিয়র অফিসারদের নীতি-নৈতিকতার নসিহত শুনিয়ে গেছেন বেনজীর। অথচ তার বিরুদ্ধেই কিনা অনিয়ম-দুর্নীতির কত-শত অভিযোগ। গত কয়েক দিন ধরেই আলোচনায় পুলিশের সাবেক আইজিপি বেনজীরের নানা কর্ম। এবার মিলল তার গাজীপুরে মালিকানাধীন ভাওয়াল রিসোর্টের দখলে থাকা বনের প্রায় আড়াই একর সম্পত্তির খবর। যা তিনি জোর পূর্বক দখল করেছেন জমির মালিকদের থেকে। ইতোমধ্যে সেই জমি উচ্ছেদের উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসক।

দেশের আরও কয়েক জেলার মতো গাজীপুরেও হদিস মিলেছে সাবেক পুলিশ প্রধানের নজীরবিহীন সম্পত্তির। অভিযোগ আছে, ক্ষমতার দাপটে সদর উপজেলায় বনের জমি হাতিয়েছেন বেনজীর। গড়ে তুলেছেন, ভাওয়াল রিসোর্ট।

স্থানীয় ভুক্তভোগী জানান, আমার জমির দলিল থাকা স্বত্ত্বেও বেনজীর আমার জমি কিনে নেয়। দলিল থাকার কথা জানালে আমাকে বলা হয় দলিল নিয়েই বসে থাক। আরেকজন বলেন, ২০১৩ সালে ধানের এই জমিগুলোতে রাতে মাটি ভরাট করে দখল করে নিয়েছে।

এদিকে দখল করা জমি উদ্ধারে পদক্ষেপের কথা জানিয়েছেন, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক। বলেন, বনের জমি থেকে স্থাপনা অপসারণে চালানো হবে অভিযান।

গাজীপুর জেলা প্রশাসক আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা নোটিশ দিয়েছি। উচ্ছেদের প্রক্রিয়াতে এক সপ্তাহ সময় দিতে হয়। আমরা সে সময় দিয়েছি। আইনানুগভাবে উচ্ছেদের যে প্রক্রিয়া রয়েছে আমরা সে প্রক্রিয়ায় যাব।

সদর উপজেলার পাশাপাশি কালীগঞ্জেও সাবেক আইজিপির স্ত্রী-সন্তানদের নামে আছে বিপুল সম্পদ। নামমাত্র মূল্যে যা বেচতে বাধ্য করার অভিযোগ স্থানীয়দের। বেনজীর আহমেদের দখলে থাকা জমি উদ্ধার ও যথাযথ ক্ষতিপূরণের দাবি ভুক্তভোগীদের।


আরও খবর



মেয়রের সামনে কাউন্সিলর রতনকে জুতাপেটা করলেন চামেলী

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ মে ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আবারও আলোচনায় এসেছেন সংরক্ষিত ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রোকসানা ইসলাম চামেলী। এবার ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস এর সামনেই ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ রতনকে জুতাপেটা করেছেন তিনি।

আজ সোমবার নগর ভবনে ডিএসসিসির বোর্ড সভায় এমন ঘটনা ঘটে। বোর্ড সভায় উপস্থিত একাধিক কাউন্সিলর বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। বোর্ড সভায় উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ রতন বলেন, আমি বুঝে উঠতে পারিনি। পেছন থেকে এসে এভাবে মারবে বুঝতে পারিনি। আমি হতভম্ব!

আপনার প্রতি এমন আক্রশের কারণ কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি জানি না। এটা পারিবারিক শিক্ষার অভাব। একটা বোর্ড সভায় যেখানে মেয়র মহোদয় উপস্থিত সেখানে এরকম ঘটনা ঘটবে বুঝতে পারিনি। আমি কোনো কথা বলিনি।

ঘটনা সম্পর্কে সংরক্ষিত কাউন্সিলর রাকসানা ইসলাম চামেলী বলেন, আমি তো বোর্ড সভায় ছিলাম। এরকম ঘটনা ঘটেছে কিনা আমি জানি না। কেউ যদি প্রচার করে তাহলে সেই ভালো মন্দ বলতে পারবে। আমি এ বিষয়ে আর কোনো মন্তব্য করব না।

কাউন্সিলর রতনের গায়ে আপনি হাত তুলেছেন নাকি সেই আপনার গায়ে হাত তুলেছে জানতে চাইলে বলেন, আমি বলতে পারব না।

বোর্ড সভায় উপস্থিত আরও একজন কাউন্সিলর বলেন, আমি ভেতরে প্রবেশ করেই দেখি এমন কাণ্ড। এটা দুঃখজনক। মেয়র মহোদয়ের উপস্থিতি একজন কাউন্সিলর আর একজন কাউন্সিলরের গায়ে হাত তুলতে পারেন না। তাদের ব্যক্তিগত কোন দ্বন্দ্ব থাকলে সেটা বাইরে গিয়ে করতে পারতো। আমরা লজ্জিত।

২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, আমার কাজের ব্যস্ততা থাকায় আজ বোর্ড সভায় একটু পরে প্রবেশ করি। আমি দেখিনি। তবে শুনেছি এরকম ঘটনা ঘটেছে।

গত ২২ এপ্রিল ওই নারী কাউন্সিলরের একটি আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর ২৪ এপ্রিল তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগ। তিনি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন।


আরও খবর



নতুন অ্যাডভেঞ্চার নিয়ে আসছে ‘মোয়ানা টু’

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ডিজনির অন্যতম জনপ্রিয় অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র মোয়ানার অ্যানিমেটেড সিকুয়েল পর্দায় আসছে। সম্প্রতি প্রকাশ পেয়েছে মোয়ানা টুর টিজার।

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ডেভিড জি ডেরিক জুনিয়র পরিচালিত সিনেমাটিতে আগের মতোই মোয়ানা চরিত্রে কণ্ঠ দিয়েছেন আউলি ক্রাভালিও এবং মাউয়ি চরিত্রে কণ্ঠ দিয়েছেন ডোয়াইন জনসন। টিজারে সমুদ্রে আরেকটি অ্যাডভেঞ্চারের জন্য প্রস্তুত হতে দেখা গিয়েছে মোয়ানাকে। এসময় মোয়ানাকে হাঙরের সামনেও পড়তে দেখানো হয়েছে এক দারুণ শটে। টিজারের শেষে মাউয়িকে মোয়ানার নৌকায় পৌছাতে দেখা যায়।

এটি প্রথমে টেলিভিশন সিরিজ হিসেবে নির্মাণ করা হলেও পরে আরও কিছু কাজ করে এটাকে থিয়েট্রিক্যাল সিকুয়েল হিসেবে মুক্তি দেয়া হচ্ছে। ছবিটি মুক্তি পাবে ২৯ নভেম্বর।

এদিকে অ্যানিমেটেড সিকুয়েল ছাড়াও ডিজনি লাইভ-অ্যাকশন মোয়ানাও রিমেক করছে। সেটি নির্মাণ করবেন থমাস কেইল। এতে ডোয়াইন জনসন থাকবেন, যেটি মুক্তি পাবে ২০২৬ সালের ১০ জুলাই।

২০১৬ সালে মুক্তি পায় অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্র মোয়ানা। সিনেমাটি পরিচালনা করেছিলেন রন ক্লেমেন্টস এবং জন মুস্কার। পলিনেশিয়ার এক গ্রাম প্রধানের তীব্র ইচ্ছাশক্তির অধিকারী মেয়ে মোয়ানাকে কেন্দ্র করে নির্মিত চলচ্চিত্রটি। এক পৌরাণিক দেবীর হৃদয় পুনরুদ্ধারের জন্য মহাসাগর তাকে নির্বাচন করে।

নিউজ ট্যাগ: মোয়ানা

আরও খবর



সাভারে জামায়াতের ২২ নেতাকর্মী আটক

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সাভার প্রতিনিধি

Image

ঢাকার সাভারে একটি রেস্তোরায় গোপন বৈঠকের সময় জামায়াতে ইসলামীর ২২ নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার  করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২৪ মে) সন্ধ্যায় আশুলিয়ার পল্লী বিদ্যুৎ এলাকার ফুড প্লানেট রেস্টুরেন্টে গোপন বৈঠকের সময় তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, রাজবাড়ীর পাংশা থানার জিল্লুর রহমান (৪৫), নাটোরের বাগাতিপাড়ার আশিকুর রহমান (৪০), চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের আনোয়ার (২৯), জামালপুর জেলার মেলান্দহের আব্দুর রাজ্জাক (৫০), টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানার রফিকুল ইসলাম (৪২), মেহেরপুরের গাংনীর আবুল বাশার (৪৩), টাঙ্গাইলের মির্জাপুর থানার আব্দুল কাদের (৬০), সিরাজগঞ্জ সদরের আমিনুল ইসলাম (৩৩), আশুলিয়ার আরমান হোসেন (৩৭), মাদারীপুর জেলার শিবচরের জলিল খান (৪২), লক্ষীপুরের রামগঞ্জের সোহেল রানা (২৮), চাঁদপুরের মতলব উত্তর থানার আবুল কালাম আজাদ (৫৩), বগুড়ার ধনুটের আব্দুল করিম (২৯), নীলফামারীর ডোমারের নুরনবী (৩৮), লক্ষীপুরের রামগঞ্জ থানার তৈয়ব উল্লাহ (৪৭), ময়মনসিংহের ত্রিশালের মোজাম্মেল হক (৪০), দিনাজপুরের মিরাজ হোসেন (৩৪), আশুলিয়ার পলাশবাড়ি বটতলা এলাকার মানিক (৩৪), বরিশালের মুলাদির মো. হাসান (৩৫), বরিশাল সদরের জসিমউদ্দীন (৪০) ও সিরাজগঞ্জের চৌহালীর জাহিদ হাসান (৪১)। গ্রেপ্তার আরেকজনের নাম জানা যায়নি।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) মাসুদুর রহমান বলেন, নাশকতার পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে জামায়াতের ২২ নেতা-কর্মীকে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে ঢাকার মুখ্য বিচারিক আদালতে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



রাঙামাটিতে দুর্বৃত্তের গুলিতে ইউপিডিএফ কর্মীসহ নিহত ২

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি

Image

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় দুর্বৃত্তের গুলিতে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) কর্মীসহ ২ জন নিহত হয়েছেন। আজ শনিবার সকালে উপজেলার কাট্টলী এলাকার ধনপুতি বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ইউপিডিএফ কর্মী বিদ্যাধন তিলক (৪৯) ও স্থানীয় ধন্যমনি চাকমা (৩২)। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হারুনুর রশিদ।

তিনি জানান, আমরা শুনেছি সন্তু লারমা জেএসএস কর্তৃক এক ইউপিডিএফ কর্মী ছাড়াও স্থানীয় একজন নিহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে যাচ্ছে। বিস্তারিত পরে জানানো যাবে।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) দলীয় সূত্র থেকে জানা যায়, আজ সকালে ধনপুতি এলাকায় সাংগঠনিক কাজ করার সময় জেএসএসের হামলায় দুইজন নিহত হন। এর মধ্যে একজন তাদের কর্মী আরেকজন স্থানীয় বাসিন্দা।

ইউপিডিএফের প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগের নিরন চাকমা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, সন্তু লারমা আবারও তার খুনি বাহিনীকে দিয়ে ইউপিডিএফের কর্মী-সমর্থকদের ওপর হত্যাকাণ্ড শুরু করেছেন। পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণের কাছে সন্তু লারমা একজন খুনি হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে অবিলম্বে লংগদুতে ইউপিডিএফ কর্মী, সমর্থককে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার এবং মদদদাতা সন্তু লারমাকে গ্রেপ্তারপূর্বক আঞ্চলিক পরিষদ থেকে অপসারণ করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানানো হয়।

তবে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি লংগদু উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মনি শংকর চাকমা বলেন, ওই এলাকায় জেএসএসএর কোনো কার্যক্রম নেই। এটা তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে হয়ে থাকতে পারে। তাদের নিজেদের অপকর্মের দায় আমাদের ওপর চাপাতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে।


আরও খবর