আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

গত ২৪ ঘণ্টায় কিশোরগঞ্জে ১৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জে প্রাণঘাতী ক‌রোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যু আশঙ্কাজনক হা‌রে বাড়‌ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ক‌রোনায় আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নি‌য়ে ১৪ জ‌নের মৃত্যু হ‌য়ে‌ছে।

তা‌দের ম‌ধ্যে পাঁচজনই প‌জিটিভ ছি‌লেন। অপর নয়জন মারা গে‌ছেন ক‌রোনার উপসর্গ নি‌য়ে। এ নি‌য়ে জেলায় ক‌রোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়া‌ল ১২৬ জ‌নে।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন আরও ১২৪ জন। বর্তমানে কি‌শোরগ‌ঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতা‌লের ক‌রোনা ইউ‌নি‌টে ২৫০ আস‌নের ম‌ধ্যে ভ‌র্তি আছেন ১৯৪ জন।

রবিবার (১৮ জুলাই) রা‌তে প্রকা‌শিত সি‌ভিল সার্জ‌নের রি‌পোর্ট অনুযা‌য়ী- গত ২৪ ঘণ্টায় কি‌শোরগঞ্জ সদর উপ‌জেলায় দুইজন, কু‌লিয়ারচর উপ‌জেলায় একজন, ভৈরব উপ‌জেলায় দুইজ‌নের মৃত্যু হ‌য়ে‌ছে।

তা‌দের ম‌ধ্যে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে তিনজন এবং অন্য হাসাপাতা‌লে চি‌কিৎসাধীন অবস্থায় অপর দুই জ‌নের মৃত্যু হয়। এ ছাড়া সৈয়দ নজরুল মে‌ডি‌কে‌লে উপসর্গ নি‌য়ে মারা যান আরও নয় জন।

জেলায় নতুন শনাক্তের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪১ জন, হোসেনপুর উপ‌জেলায় ৭ জন,ক‌রিমগঞ্জ উপ‌জেলায় ২ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ৬, কটিয়াদী উপজেলায় ২৫, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১০, ভৈরব উপজেলায় ২২, নিকলী উপজেলায় ২, বাজিতপুর উপজেলায় ১০, ইটনা উপ‌জেলায় ৩, মিঠামইন উপজেলায় ১ জন ও মিঠামইন উপ‌জেলায় ১ জন শনাক্ত হয়েছেন।

সর্বশেষ তথ্যমতে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় সর্বোচ্চ ৬৪০, হোসেনপুর উপজেলায় ৪৬ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৫৯, তাড়াইল উপজেলায় ৫৫, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১৪১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১৯২, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩০, ভৈরব উপজেলায় ১৭০, নিকলী উপজেলায় ১৩, বাজিতপুর উপজেলায় ৫২, ইটনা উপজেলায় ৩০ ও মিঠামইন উপজেলায় ১৫ জন এবং অষ্টগ্রাম উপ‌জেলায় ৩ জন ক‌রোনা প‌জিটিভ রোগী র‌য়ে‌ছেন।


আরও খবর



করোনায় মৃত্যু ২০ হাজার ছাড়ালো, একদিনে ২৩৭

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৩৭ জন। তাদের নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে মৃত্যু ২০ হাজার ছাড়ালো। এর আগে গত ১৯ জুলাই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ১৯ হাজার ছাড়ায়। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৩৭ জনকে নিয়ে দেশে মোট মারা গেলেন ২০ হাজার ১৬ জন।

আজ দেশে করোনায় নতুন রোগী শনাক্তের রেকর্ড হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ২৩০ জন, যা দেশে করোনা মহামারিকালে দৈনিক শনাক্তে রেকর্ড। একদিনে এত রোগী এর আগে শনাক্ত হননি। গত ২৬ জুলাই একদিনে শনাক্ত হয়েছিলেন ১৫ হাজার ১৯২ জন, যা আজকের আগে ছিল সর্বোচ্চ শনাক্ত। আজকের শনাক্ত হওয়া ১৬ হাজার ২৩০ জনকে নিয়ে দেশে করোনা শনাক্ত ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেলো। দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হলেন ১২ লাখ ১০ হাজার ৯৮২ জন।

গত ১৮ জুলাই মোট রোগীর সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়ে যায়। সে হিসাবে সর্বশেষ গত ১০ দিনে এক লাখ রোগী শনাক্ত হলেন।

বুধবার (২৮ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ৫৬ হাজার ১৫৭ টি, আর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫৩ লাখ ৮৭৭টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৭৬ লাখ ১২ হাজার ৫৮৮টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৫৫ লাখ ৯৭ হাজার ১৫৭টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ২০ লাখ ১৫ হাজার ৪৩১টি।


আরও খবর
করোনায় আরও ২৩৫ জনের মৃত্যু

মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১




রেহানা মরিয়ম নিয়ে নিজের মুগ্ধতার কথা জানালেন অনুরাগ ক্যাশপ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ১৪১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কান উৎসবের অফিসিয়াল সিলেকশনে বাংলাদেশের প্রথম ছবি হিসেবে আমন্ত্রণ পেয়েছে রেহানা মরিয়ম নূর। ছবিটির চিত্রনাট্য ও সম্পাদনা করেছেন নির্মাতা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ। সিনেমাটি বাংলাদেশসহ গোটা পৃথিবী জুড়ে বেশ সুনাম কুড়িয়েছে। মুগ্ধ করেছে বিশ্বের নামিদামি সব পরিচালকদের। এবার এই সিনেমা নিয়ে নিজের মুগ্ধতার কথা জানালেন বলিউডের ভার্সেটাইল মেধাবী পরিচালক অনুরাগ ক্যাশপ।

কানের ৭৪তম আসরে উপস্থিত হয়েছিলেন অনুরাগ। সেখানে বসেই তিনি একটি ভিডিওর মাধ্যমে বাংলাদেশের এই সিনেমা নিয়ে প্রশংসা করেন। ভিডিওটি রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমার নাম ভূমিকায় অভিনয় করা আজমেরী হক বাঁধন রেকর্ড করেন এবং তার অফিসিয়াল ভেরিফায়েড ফেসবুকে শেয়ার করেন। ভিডিওর শুরুতেই অনুরাগ সিনেমাটির ভূয়সী প্রশংসা করেন। এরপর এই সিনেমার গল্প, ডিজাইন, সাউন্ড ও কালার কম্বিনেশন দেখে নিজের মুগ্ধতার কথা প্রকাশ করেন। এ ছাড়া বাঁধনের চরিত্রসহ সবার চরিত্রও তাকে মুগ্ধ করেছে বলে জানান তিনি। ভিডিওর শেষের দিকে তিনি এই সিনেমার পরিচালক সাদের প্রশংসা করে বলেন, সাদের হাত ধরে কানে বাংলা সিনেমা নাম লেখাল। তাকে আমার হৃদয় থেকে অভিনন্দন ও ভালোবাসা। নিঃসন্দেহে বাংলা সিনেমার জন্য এটি একটি ভালো সংবাদ।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যার পর অনুরাগ ক্যাশপের সঙ্গে দেখা ও আড্ডা হয় আজমেরী হক বাঁধনের। সঙ্গে ছিলেন রেহানা মরিয়ম নূর প্রযোজক জেরেমি চুয়া। তারও আগে অনুরাগ রেহানা মরিয়ম নূর দেখেন।

অনুরাগকে বলা হয় বলিউডের ভার্সেটাইল মেধাবীদের অন্যতম। বলিউড বক্স অফিস থেকে বিশ্ব চলচ্চিত্রে যার দৃপ্ত পদযাত্রা সমানতালে। চলমান কান ফেস্টিভ্যালে গিয়ে সেই অনুরাগের দেখা পেলেন ঢাকার বাঁধন। বিপরীতে রেহানা মরিয়ম নূর নামের এক বাংলাদেশী নারীকে খুঁজে পেলেন গ্যাংস অব ওয়াসিপুর-খ্যাত অনুরাগ।


আরও খবর
পরীমনির বাসায় শত শত মদের বোতল

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১

নায়িকা পরীমণি আটক

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: ফেরির মাস্টার আটক

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ১৬৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতুর একটি পিলারে ধাক্কা দেওয়ার ঘটনায় মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌপথে চলাচলরত রো রো ফেরি শাহ্ জালালের ইনচার্জ ইনল্যান্ড মাস্টার আবদুর রহমানকে আটক করেছে শিবচর থানা পুলিশ।

শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে বাংলাবাজার ঘাট এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন।

পুলিশ ও ঘাট সূত্র জানায়, গতকাল শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল সোয়া ৯টার দিকে মাদারীপুরের বাংলাবাজারঘাট থেকে শিমুলিয়া যাওয়ার পথে রো রো ফেরি শাহ্ জালাল পদ্মা সেতুর ১৭ নম্বর পিলারটিকে সজোড়ে ধাক্কা দেয়। এতে ফেরিতে থাকা ৩৩টি যান একটি আরেকটির ওপর ধাক্কা দেয়। এতে ফেরিতে থাকা অর্ধশত যাত্রী আহত হয়।

এ ঘটনায় ফেরিটির ফিটনেস ছিল কি না, চালকের যথাযথ যোগ্যতা, শারীরিক সুস্থতা বা অবহেলা ছিল কি না এইসব বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে শিবচর থানায় শুক্রবার সন্ধ্যায় সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেন।

জিডিতে আব্দুল কাদের জানান, পিলারের সঙ্গে এর আগেও ফেরির সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে আগেপরে লিখিত ও মৌখিকভাবে সচেতনতার সঙ্গে ফেরি চলাচলের জন্য বিআইডব্লিটিসি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়। অথচ এরপরেও এমন ঘটনা আবার ঘটলো। শুক্রবারের ঘটনা ফেরির যাত্রীদের প্রাণহানি ও বড় দুর্ঘটনা ঘটে যেত পারতো। এছাড়াও পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে।

শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন মুঠোফোনে বলেন, থানায় ডিডি হওয়ার পরে আমরা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছি। আর এই তদন্তের স্বার্থেই আমরা রো রো ফেরি শাহ্ জালালের ইনচার্জ ইনল্যান্ড মাস্টার আবদুর রহমানকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করি। বর্তমানে তিনি আমাদের হেফাজতে আছেন। থানায় তার জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।


আরও খবর
মুন্সিগঞ্জে শিশু হত্যার অভিযোগ

মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১




খুলনার ৪ হাসপাতালে ২৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ জুলাই ২০২১ | ৯৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে খুলনার চারটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সকাল সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার (৯ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত তাদের মৃত্যু হয়। যা এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। শুক্রবার জেলা সিভিল সার্জন এ তথ্য জানান।

খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১১ জন, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১০ জন ও জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঁচজন ও আবু নাসের হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় এ হাসপাতালে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৮৫ জন। এর মধ্যে রেড জোনে ১২৬ জন, ইয়োলো জোনে ১৯ জন, আইসিইউতে ১৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৪৬ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৯ জন।

গাজী মেডিকেল হাসপাতালের সত্ত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। বেসরকারি এ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও ১২৯ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ৮ জন ও এইচডিইউতে আছেন ১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২১ জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, এ হাসপাতালে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭১ জন। এর মধ্যে ৩৪ জন পুরুষ ও ৩৭ জন মহিলা। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬ জন।

শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৫ জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন পাঁচজন।


আরও খবর



কোপা আমেরিকার সেরা একাদশ ঘোষণা

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ৫৭৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কোপা আমেরিকা ও ইউরো কাপ শেষ হয়ে গেলেও এই দুই টুর্নামেন্টের আমেজ এখনও বিদ্যমান। এরইমধ্যে টুর্নামেন্ট দুটির সেরা একাদশ ঘোষণা দিয়েছে আয়োজকরা।

মঙ্গলবার কোপার টুর্নামেন্ট সেরা একাদশ ঘোষণা করে কনমেবল।

তার তাতে আধিপত্য চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনারই দেখা গেছে। যেখানে চার ফুটবলারকে রাখ হয়েছে সেরার তালিকায় সেখানে ব্রাজিলের তিন জন।

তবে অবাক করা বিষয় হলো আর্জেন্টিনার চার ফুটবলারের মধ্যে নেই আনহেল ডি মারিয়া। যিনি ফাইনালে গোল করে আলবিসেলেস্তেদের জিতিয়ে ২৮ বছরের শিরোপা খরা ঘুচিয়েছেন। হয়েছেন ম্যাচসেরা।

আর সেই ডি মারিয়াই স্থান পায়নি কোপায় সেরার একাদশে!

টুর্নামেন্টে দুটি ম্যাচে শুরুর একাদশে ছিলেন ডি মারিয়া। এই দুই ম্যাচে ভালো খেলেছেন। অন্য কয়েকটি ম্যাচে বদলি নামানো হয়। ওই দুই ম্যাচেও রক্ষণে চিড় ধরিয়েছিলেন। আলো ছড়িয়েছেন। তবুও টুর্নামেন্টের সেরা একাদশে জায়গা হয়নি তার।

অনুমিতভাবেই কোপা আমেরিকার সেরা একাদশে রাখা হয়েছে লিওনেল মেসি ও দলকে নকআউটপর্ব পার করে দেওয়া গোলরক্ষক আর্জেন্টিনার এমিলিয়ানো মার্তিনেস।

চ্যাম্পিয়ন দল থেকে একাদশে সুযোগ পাওয়া বাকি দুজন হলেন- ডিফেন্ডার ক্রিস্তিয়ান রোমেরো, মিডফিল্ডার রদ্রিগো দি পল।

তিন ব্রাজিলিয়ানের মধ্যে অনুমিতভাবেই জায়গা পেয়েছেন নেইমার। মেসির সঙ্গে যৌথভাবে টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ব্রাজিলের বাকি দুইজন হলেন- ডিফেন্ডার মার্কিনিয়োস ও মিডফিল্ডার কাসেমিরো।

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সাতজন শেষে বাকি খেলোয়াড়রা হলেন - ইকুয়েডরের লেফট ব্যাক পেরভিস এস্তুপিনান, পেরুর মিডফিল্ডার ইয়োশিমার ইয়োতুন ও চিলিয়ান রাইট ব্যাক মাউরিসিও ইসলা এবং ২৪ বছর বয়সি ফুটবলারের কলম্বিয়ার লুইস দিয়াস।

টুর্নামেন্টে মেসির সঙ্গে যৌথভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতা দিয়াস। তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে পেরুর বিপক্ষে জোড়া গোলের পর তার গোলসংখ্যা দাঁড়ায় ৪টি।

কোপা আমেরিকার সেরা একাদশ:

গোলরক্ষক: এমিলিয়ানো মার্তিনেস (আর্জেন্টিনা)।

ডিফেন্ডার: ক্রিস্তিয়ান রোমেরো (আর্জেন্টিনা), মার্কিনিয়োস (ব্রাজিল), পেরভিস এস্তুপিনান  (একুয়েডর) ও মাউরিসিও ইসলা (চিলি)।

মিডফিল্ডার: রদ্রিগো দে পল (আর্জেন্টিনা), কাসেমিরো (ব্রাজিল) ও ইয়োশিমার ইয়োতুন (পেরু)।

ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (আর্জেন্টিনা), নেইমার (ব্রাজিল) ও লুইস দিয়াস (কলম্বিয়া)।


আরও খবর