আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

গত ২৪ ঘন্টায় ময়মনসিংহে আরও ১৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পাঁচ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। অপর ১০ জন করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন ইউনিটের কনসালটেন্ট ও করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. মো. মহিউদ্দিন খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডা. মহিউদ্দিন খান জানান, করোনা ইউনিটে আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় মারা যাওয়া পাঁচ জন হলেন ময়মনসিংহ সদরের কোহিনূর (৪০), অঞ্জলি (৮০), শরফুদ্দিন আহমেদ (৮৪), ত্রিশালের রিয়াদ (৬০) ও টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার আবু সাঈদ (৬০)।

এ ছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ১০ জন হলেন ময়মনসিংহ সদরের আব্দুল জব্বার (৮০), হেলাল উদ্দিন (৯২), সুরতজান (৪২), ফুলবাড়িয়ার আব্দুল মজিদ (১০৫), গৌরীপুরের রফিক (৫০), গফরগাঁওয়ের নিজামউদ্দিন (৬৫), নেত্রকোনা সদরের আবুল হোসেইন (৬৫), পূর্বধলার শামীম তালুকদার (৫০), শামসুল হক (৬৮) ও শেরপুরের নকলা উপজেলার এনামুল হক (৬৫)।

ডা. মহিউদ্দিন খান আরও জানান, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে মোট ৩৮১ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। এর মধ্যে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি রয়েছে ২০ জন।


আরও খবর



রাতে আসছে সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ টিকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ জুলাই ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চীন থেকে সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসছে। আজ বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দিবাগত রাতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের তিনটি ফ্লাইটে টিকাগুলো হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

বিমাবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, চীন থেকে সিনোফার্মের টিকা নিয়ে বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১০টা, দিবাগত রাত সোয়া ১টা ও রাত সোয়া ৪টায় টিকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

গত ১২ মে প্রথমবারের মতো সিনোফার্মের ৫ লাখ টিকা দেশে আসে। সেই টিকাগুলো চীন সরকার বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে দেয়।

এরপর ১৯ মে সরকার চীনের সিনোফার্মের তৈরি সার্স-কোভ-টু ভ্যাকসিন সরাসরি ক্রয়ের নীতিগত অনুমোদন দেয়।

এরপর কয়েক ধাপে চীন থেকে কেনা এবং উপহারের টিকা আসে। দেশে সরকার গণটিকাদানের যে কর্মসূচি শুরু করেছে, তাতে একটি বড় অংশকে এসব টিকা দেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে গত ৮ মে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। এরপর তা ব্যবহারে অনুমোদন দেয় বাংলাদেশও।


আরও খবর



সাতক্ষীরা মেডিকেলে ৮ আইসিইউ বেডের বিপরীতে অপেক্ষামান ১০৩ জন

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১ | ৯৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাতক্ষীরা থেকে দিলীপ কুমার দেব:

সাতক্ষীরায় ঈদ পরবর্তী আবারো করোনা সংক্রমণ ও উপসর্গের মৃত্যুর ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ১জনসহ উপসর্গে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে জেলায় করোনায় ৮৪ জন এবং উপসর্গে ৫২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

জেলায় গত একদিনে ২২২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয় এবং ৭৯ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ। গত কয়েকদিন যাবৎ শনাক্তের এই হার ২০ শতাংশের আশে পাশে ছিল। এদিকে জেলায় মঙ্গলবার করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রোগী ছিল ১ হাজার ১৮৩ জন। এরমধ্যে ২১ জন সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও বেসরকারি হাসপাতালে ৩ জন চিকিৎসাধীন ছিল। এছাড়া ১ হাজার ১৫৯ জন রোগী বাড়িতে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সাতক্ষীরা ২৫০ বেডের করোনা ডেডিকেটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গতকাল সকালে ২১ জন করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গের রোগী চিকিৎসাধীন ছিলেন ১৯১ জন । সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৮ টি আইসিইউ বেডের সবকটিতে রোগী ভর্তি রয়েছেন।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক কুদরত ই খোদা জানান, সাধারণত করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গে গুরুতর অসুস্থ রোগীরা সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। অন্যরা বাড়িতে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। তিনি বলেন, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গুরুতর অসুস্থ রোগীদের জন্য আইসিইউ সুবিধা প্রয়োজন। তাছাড়া রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থান থেকে রোগীদের পক্ষে আইসিইউ সুবিধার জন্য প্রতিনিয়িত খোজ খবর নেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের মধ্যে আইসিইউ সুবিধা প্রয়োজন হাসপাতালে এমন রোগী রয়েছেন ১০৩ জন। তিনি আরো বলেন, ঈদে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমলেও ঈদের পর গত দুইদিনে আবারো রোগীর চাপ আবারো বাড়তে শুরু করেছে।


আরও খবর



‘গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ব্ল্যাকমেইল করতেন হেলেনা’

প্রকাশিত:শনিবার ৩১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ৩১ জুলাই ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গে প্রথমে সখ্যতা তৈরি করতেন আলোচিত-সমালোচিত রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর, এরপর ব্ল্যাকমেইল করে তাদের কাছ থেকে টাকা আদায় করতেন তিনি।

শনিবার (৩১ জুলাই) দুপুরে উত্তরা র‌্যাব সদর দপ্তরে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, হেলেনা সুনির্দিষ্ট একজন ব্যক্তির জন্য থেমে থাকেননি। প্রতিনিয়ত বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে পরিচয় ঘটেছে তার। উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য যাকেই প্রয়োজন হয়েছে তাকে তিনি ঘায়েল করেছেন। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গে ছবি তুলেছেন এবং সেটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েছেন শুধু উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য। আমাদের মামলার কারণ এটাই। সে রাষ্ট্রের ব্যক্তিদের সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করেছে যা তাদের বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেছে, জনগণের মধ্যেও বিব্রতকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

হেলেনা জাহাঙ্গীরকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, তার ১৫ থেকে ১৬টি ফ্ল্যাট রয়েছে। এ ছাড়া বেশ কয়েকটি ফাউন্ডেশনের সঙ্গে তিনি জড়িত। বিভিন্ন সময় চাঁদাবাজি কিংবা ব্ল্যাকমেইল করে আদায় করা টাকাগুলো তিনি ফাউন্ডেশনের কাজে লাগাতেন। সুনামগঞ্জে তিনি ত্রাণ বিতরণ করায় স্থানীয়রা তাকে পল্লী মাতা উপাধি দিয়েছেন। ফাউন্ডেশনের নামে প্রবাসীদের কাছ থেকে অনেক টাকা এনেছেন। এগুলো কী কাজে ব্যবহার করা হয়েছে সে বিষয়ে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি।

জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা গেছে, ফ্ল্যাট কিংবা গাড়ির সংখ্যা কতগুলো সে বিষয়ে প্রকৃত কোনো তথ্য আমাদের দিতে পারেননি। কখনো ৬টি গাড়ি, কখনো ৮ গাড়ির কথা উল্লেখ করেছে হেলেনা। এসব বিষয়ে যারা তদন্ত করবেন তারা খতিয়ে দেখবেন। তার আয়ের উৎস সম্পর্কে সিআইডি কিংবা দুর্নীতি দমন কমিশন এ ব্যাপারে কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলেও মনে করেন খন্দকার আল মঈন।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যদি মনে করেন এই মামলাটির র‌্যাব তদন্ত করবে তাহলে যথাযথ প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে আমরা আবেদন করব। তবে তা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের ওপর ভিত্তি করে হবে। হেলেনা জাহাঙ্গীরের স্বামী ১৯৯০ সাল থেকে গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। পরবর্তীতে বিভিন্ন সময়ে অন্যদের সঙ্গে পার্টনারশিপের মাধ্যমে ব্যবসা শুরু করে এখন পর্যন্ত পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের মালিক তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমরা জানতে পেরেছি গত দুই বছরে বিভিন্ন মাধ্যম এবং টেলিভিশনে চাকরি দেওয়ার কথা বলে, এজেন্সি দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে বিভিন্ন পরিমাণ টাকা আদায় করতেন। কারও কাছ থেকে ১০ হাজার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা, আবার কারও কাছ থেকে এক লাখ টাকা নিয়েছেন বলে আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। কী কারণে টাকা নিয়েছেন এবং কী কাজে ব্যবহার করা হয়েছে- এ বিষয়ে হেলেনা জাহাঙ্গীর কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক বলেন, বাসায় এবং অফিসে যে পরিমাণ ভাউচার পাওয়া গেছে তা এখনো পর্যালোচনা করা হচ্ছে। জয়যাত্রা টেলিভিশনের আইডি কার্ড ব্যবহার করে অনেক প্রতিনিধিও এই চাঁদাবাজির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি।


আরও খবর



খুলনা বিভাগে একদিনে করোনায় মৃত্যু ৪৭ জনের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই ২০২১ | ৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৬৩৯ জনের। বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে খুলনায় জেলায়।

বৃহস্পতিবার বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এর আগে গতকাল বুধবার বিভাগে মারা যায় ৩৬ জন।

স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে খুলনায় জেলায়। বাকিদের মধ্যে কুষ্টিয়ায় ১০ জন; ঝিনাইদহ, যশোর, চুয়াডাঙ্গা ৪ জন করে; মাগুরা ও মেহেরপুরে ৩ জন করে এবং বাগেরহাট, নড়াইল ও সাতক্ষীরায় ১ জন করে মারা গেছেন।

গত বছরের ১৯ মার্চ খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায়। সংক্রমণের শুরু থেকে আজ সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০টি জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৭৮ হাজার ৪০ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৭৭২ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৯ হাজার ৯৬১ জন।


আরও খবর



নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের আধ্যাত্মিক নেতা গ্রেফতার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ জুলাই ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের আধ্যাত্মিক নেতা মাহমুদ হাসান গুনবি ওরফে হাসানকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।  বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর শাহ আলী থানাধীন বেড়িবাঁধসংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

র‍্যাবের মিডিয়া উইং থেকে পাঠানো বার্তায় এসব তথ্য জানানো হয়।  বার্তায় আরও বলা হয়, শুক্রবার বিকাল ৪ টায় রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে ব্রিফিং করে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

সম্প্রতি আনসার আল ইসলামের কয়েক সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  এর আগে এপ্রিলে আনসার আল ইসলামের আইটি বিভাগের প্রধানসহ দুই সদস্য আরিফুল ইসলাম জাহেদ ওরফে আইমান ওরফে আরাহান ওরফে রেহান (৩০) এবং বাকী বিল্লাহ ওরফে আবু সামির ওরফে জাফর ওরফে ফয়সালকে (৩৪) গ্রেফতার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগ (সিটিটিসি)। 

 


আরও খবর