আজঃ মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

হ-য-ব-র-ল বাইডেনের নথি

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফ্লোরিডার মার-এ-লাগো রিসোর্ট থেকে গত আগস্টে সরকারি গোপন নথি উদ্ধার হওয়া নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছিল। সে সময় যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ট্রাম্পকে সম্পূর্ণ দায়িত্বজ্ঞানহীন বলে কড়া সমালোচনা করেছিলেন। ট্রাম্পের সেই নথি উদ্ধারের বিষয়টির এখনো সুরাহা হয়নি। এর মাঝে সম্প্রতি ওয়াশিংটন ডিসিভিত্তিক পেন বাইডেন সেন্টার ফর ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড গ্লোবাল এনগেজমেন্ট যেটি বাইডেন ব্যক্তিগত অফিস হিসেবে ব্যবহার করতেন সেখান থেকে উদ্ধার হলো গোপন নথি। ট্রাম্পের গোপন নথি উদ্ধার নিয়ে তিরস্কার করা বাইডেনের নথি উদ্ধার নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে #বাইডেনগ্যারেজ চালু হয়ে গেছে। দ্য ইকোনমিস্টের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, নিশ্চয়ই বাইডেনের গ্যারেজ থেকে সরকারি গোপন নথি উদ্ধারের বিষয়টি ভালো দেখায় না।

সম্প্রতি খবর ছড়িয়ে পড়ে, গত ২ নভেম্বর আমেরিকার মধ্যবর্তী নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে, বাইডেনের ব্যক্তিগত আইনজীবীরা পেন বাইডেন সেন্টার পরিষ্কার করার সময় বেশ কয়েকটি স্পর্শকাতর নথি খুঁজে পায়। পরে সেগুলো জাতীয় আর্কাইভে জমা করা হয়। এ ঘটনার পর হোয়াইট হাউজের একজন আইনজীবী রিচার্ড সাউবের আরও জানান, দ্বিতীয় দফায় গোপন নথি ডেলাওয়্যারের উইলমিংটনে বাইডেনের বাড়ির গ্যারেজ ও একটি রুম থেকে পাওয়া গেছে।

ডেমোক্র্যাটদের জন্য, যারা ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তার মার-এ-লাগোর রিসোর্ট থেকে পাওয়া গোপন নথি ভুলভাবে পরিচালনার জন্য ফৌজদারি মামলার মুখোমুখি হওয়া উচিত বলে জোর দিচ্ছিলেন, তাদের জন্য এটি ভয়ানক সংবাদ। অপরদিকে, রিপাবলিকানদের জন্য, এটি একটি অপ্রত্যাশিত উপহার, বিশেষ করে ট্রাম্প বিষয়টি উপভোগ করছেন।

এফবিআই কি এখন জো বাইডেনের বাড়িতে, এমনকি হোয়াইট হাউজেও অভিযান চালাবে? ট্রাম্প তার সোশ্যাল-মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ট্রুথ সোশ্যাল-এ এমন প্রশ্ন রেখেছেন? অন্যান্য রিপাবলিকানরাও দাবি করছেন, বিচার বিভাগ বাইডেনের সঙ্গে ট্রাম্পের মতোই যেন একই আচরণ করে। নভেম্বরেই মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড ঘটনা তদন্তের তদারকি করার জন্য বিশেষ পরামর্শক নিয়োগ দিয়েছেন। মেরিক গারল্যান্ড বাইডেনের কেস পর্যালোচনা করার জন্য বিশেষ পরামর্শক রবার্ট হুরকে নিযুক্ত করেছেন। শুধু তাই নয় তদন্ত থেকে উদ্ভূত যেকোনো ফেডারেল অপরাধের বিচার করার জন্য তাকে অনুমোদন দিয়েছেন। হুর একজন আইনজীবী যাকে ২০১৭ সালে ট্রাম্প মেরিল্যান্ডে অ্যাটর্নি হিসাবে কাজ করার জন্য মনোনীত করেছিলেন। ২০২১ সালে তার পদত্যাগ না হওয়া পর্যন্ত এ ভূমিকায় কাজ করছেন তিনি। তবে তিনি ভয়ভীতি বা পক্ষপাত ছাড়াই দ্রুত ও পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে ঘটনা তদন্ত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

স্পষ্টতই ট্রাম্প ও বাইডেন উভয়েই একই জায়গায় নেমে এলেন। যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ম অনুযায়ী, সরকারি গোপন নথি গ্যারেজ বা ক্লাবে নয়, সুরক্ষিত স্থানে সংরক্ষণ করার কথা। সমস্ত হোয়াইট হাউজ রেকর্ড সরাসরি জাতীয় আর্কাইভে যাওয়া উচিত যখন প্রেসিডেন্টের পদের দায়িত্ব শেষ হয়। যদিও বাইডেনের অফিস ও বাড়ি থেকে পাওয়া নথিগুলোর বিষয়বস্তু এখনো জানা যায়নি। তার আইনজীবীরা দাবি করেছেন তারা উদ্ধার হওয়া নথি হস্তান্তর করার আগে সেগুলোতে উঁকি মারেননি।

এ জাতীয় ঘটনার মিল পাওয়ায় বাইডেনের অধীনে নৈতিক উচ্চতায় ভাটা পড়েছে। যদিও দুটি কেস আলাদা হতেও পারে। তবে ডেমোক্র্যাটদের অভিপ্রায়, নথির ধরন ও পরিমাণের দিক থেকে কিছুটা হলেও বিচ্যুত হয়েছে। ডেমোক্র্যাটরা যে বিষয়টিতে চাপ দিচ্ছিলেন সেক্ষেত্রে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা চালানোর সম্ভাবনা আরও কমে গেলো।

বাইডেন মিত্ররা জোর দিচ্ছে, দুটি কেস মৌলিকভাবে আলাদা। তারা দাবি করছে বাইডেনের জন্য এটি একটি সৎ ভুলের বিষয় ছিল, যেখানে ট্রাম্প তার বাড়িতে রাখা শত শত নথি উদ্ধার করার যে কোনো প্রচেষ্টাকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন এবং এতে অনেক সময় লেগেছিল। বাইডেনের দল আরও দাবি করছে, তারা প্রথম দফার নথিগুলো পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেগুলো হস্তান্তর করেছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নথিগুলো বাইডেনের সম্পত্তির অনুসন্ধানের অংশ হিসাবে পাওয়া গেছে যা এফবিআইয়ের ওয়ারেন্টে নয় বরং বাইডেনের নিজের ইচ্ছায়।

যদিও বাইডেনের জন্য বেশ কিছু অস্বস্তিকর প্রশ্ন রয়ে যাচ্ছে। বারাক ওবামার প্রেসিডেন্সির নথিগুলো কীভাবে এসব স্থানে পৌঁছায়? কেন সেগুলো এখনো সেখানে ছিল? এসব নথি কি তথ্য ধারণ করে? প্রথম দফায় নভেম্বরের শুরুতে এবং দ্বিতীয় দফায় ২০ নভেম্বর উদ্ধার হলো, কেন এ সমস্ত কিছু প্রকাশ্যে আসতে সময় লাগলো? তবে একটি বিষয় নিশ্চিত, কংগ্রেসে নতুন ক্ষমতাপ্রাপ্ত রিপাবলিকানরা এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বের করাকে তাদের লক্ষ্য হিসাবে নেবে।

নিউজ ট্যাগ: জো বাইডেন

আরও খবর
আজ নেলসন ম্যান্ডেলার জন্মদিন!

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
এস এ শফি, সিলেট

Image

সাড়ে ৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) রাত ৩টা ২০ মিনিটের দিকে লাইনচ্যুত বগি দুটি উদ্ধারের পর ওই রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট রেলস্টেশনের ব্যবস্থাপক মো. নুরুল ইসলাম।

নুরুল ইসলাম জানান, বুধবার সন্ধ্যায় পাহাড়িকা ট্রেন লাইনচ্যুত হলে, জয়ন্তিকা, কালনি, উদয়ন ও উপবন ট্রেনের যাত্রীরা আটকা পড়েন। রাত ৩টা ২০ মিনিটের দিকে সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস চালুর মাধ্যমে সিলেট থেকে সারাদেশের রেলযোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে।

তিনি বলেন, উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেন রাত ১০টায় চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরুর কথা ছিলো। এরপর সকাল ৭টায় সিলেট থেকে ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। যেটি রাত সাড়ে ১১টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিলো।

স্টেশন ম্যানেজার আরও বলেন, সকাল সোয়া ৬টার কালনী এক্সপ্রেসের যাত্রাও বিলম্বিত হয়েছে। সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করা কালনী এক্সপ্রেস ট্রেন এখনও সিলেট স্টেশনে আছে এটি সকাল সাড়ে ৮টা থেকে পৌনে ৯টার মধ্যে সিলেট রেলওয়ে স্টেশন ত্যাগ করবে।

এর আগে বুধবার (২৬ জুন) সন্ধ্যা ৭টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে সিলেটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা পাহাড়িকা এক্সপ্রেসের দুটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। এতে সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের কটালপুরে এই ঘটনা ঘটে।


আরও খবর



সন্ধ্যার মধ্যে ঢাকাসহ ১৮ জেলায় ঝড়ের সতর্কবার্তা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের বিভিন্ন স্থানে কয়েক দিন ধরে ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে। আবহাওয়া অফিস বলছে, সব বিভাগেই ঝড়বৃষ্টির প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে। এর মধ্যে ঢাকাসহ ১৮ জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য দেয়া এক সতর্কবার্তায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ খো. হাফিজুর রহমান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপিতে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট জেলার ওপর ওপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেইসঙ্গে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে।

তাই এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এদিকে আবহাওয়া অফিসের অপর এক বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, এ সময় দেশের সব বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে। বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কয়েক দিন অব্যাহত থাকতে পারে।


আরও খবর



আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়ার ফাইনালে ব্রাজিলের ৫ রেফারি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

শেষের পথে কোপা আমেরিকার ৪৮ তম আসর। আমেরিকার মাটিতে অনুষ্ঠিত ১৬ দলের এই টুর্নামেন্টে শিরোপার লড়াইয়ে টিকে আছে কেবল দুই দল। টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে, ২৩ বছর পর প্রথমবারের মতো কোপার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে কলম্বিয়া।

আগামী সোমবার (১৫ জুলাই) বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টায় মায়ামির হার্ডরক স্টেডিয়ামে ফাইনালে মুখোমুখি হবে দুই দল। রেকর্ড ১৬তম শিরোপা জয়ের অপেক্ষায় মেসি-ডি মারিয়ারা। অন্যদিকে, নিজেদের ইতিহাসে দ্বিতীয় কোপার শিরোপা জেতার সুযোগ কলম্বিয়ার সামনে। চলমান আসরে দুই দলই এখনও পর্যন্ত অপরাজিত আছে।

কোপার ফাইনাল কারা পরিচালনা করবেন তালিকা প্রকাশ করেছে কনমেবল কর্তৃপক্ষ। ম্যাচ পরিচালনা করবেন ব্রাজিলের রেফারি রাফায়েল ক্লস। এ ছাড়া ক্লাউসের সহকারী হিসেবে দায়িত্বে থাকবেন ব্রুনো পাইরেস ও রদ্রিগো কোরেয়া। এই দুই রেফারিও ব্রাজিলিয়ান।

চতুর্থ ও পঞ্চম রেফারির দায়িত্ব পেয়েছেন যথাক্রমে প্যারাগুয়ের হুয়ান বেনিতেজ ও এদুয়ার্দো কারদোজা। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট ও সহকারী ভিএআর রেফারির দায়িত্ব পালন করবেন দুই ব্রাজিলিয়ান। তারা হচ্ছেন রডোলফো টস্কি এবং দানিলো মেনিস।

২০১৫ সাল থেকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দায়িত্ব পালন করে আসছেন রাফায়েল ক্লাউস। চলমান কোপা আমেরিকার বেশকিছু ম্যাচও পরিচালনা করেছেন তিনি। এ ছাড়া বিশ্বকাপ, বিশ্বকাপ বাছাই, অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপসহ প্রায় সব বৈশ্বিক টুর্নামেন্টেই ম্যাচ পরিচালনা করার অভিজ্ঞতা আছে তার। দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবলে অন্যতম সেরা অফিসিয়াল হিসেবে বিবেচনা করা হয় ক্লাউসকে।

এদিকে, ফাইনালে কলম্বিয়াকে হারালেই দারুণ এক রেকর্ড গড়বে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। এখনও পর্যন্ত টানা তিন আন্তর্জাতিক শিরোপা জেতার রেকর্ড নেই দক্ষিণ আমেরিকার কোনো দেশের। দুইবার মহাদেশীয় শিরোপা এবং এক বিশ্বকাপ জেতার কীর্তি গড়তে পারেনি লাতিনের কালজয়ী সব দল। এমনকি ইউরোপে প্রজন্ম বা সর্বকালের সেরা দলগুলোও পারেনি নিজেদের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে। একমাত্র দেশ হিসেবে এই কৃতিত্ব আছে স্পেনের। ২০০৮ সালের ইউরো, ২০১০ বিশ্বকাপ এবং ২০১২ সালের ইউরো টানা জয় করেছিল দেশটি।

এবার আর্জেন্টিনার সামনে আছে সেই সুযোগ। ২০২১ সালে কোপা আমেরিকা আর ২০২২ সালে বিশ্বকাপ নিজেদের ঝুলিতে পুরেছে লিওনেল মেসিরা। এবার বাকি ২০২৪ সালের কোপা আমেরিকা। স্বপ্নের এই ট্রেবলের চক্রপূরণ করতে আর্জেন্টিনার দরকার আর এক জয়। ১৫ জুলাইয়ের ফাইনালে জিতলেই ফুটবলের বিরল এই রেকর্ড স্পর্শ করবে আর্জেন্টিনা।


আরও খবর



নিষিদ্ধ পাক প্রোমোটারের সঙ্গে মাধুরী দীক্ষিত!

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

সমালোচনার ঝড়ে বলিউড অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিত। ভারতে নিষিদ্ধ এক পাকিস্তানি ব্যবসায়ীর সঙ্গে কাজ করে বিতর্কে জড়িয়েছেন অভিনেত্রী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলিউড হাঙ্গামার একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় মাধুরীকে তার কাজের জন্য বিতর্কিত করেছেন রাজনৈতিক ভাষ্যকার সুনন্দা বশিষ্ঠ। টুইটারে মাধুরীর একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার ছবি ও নিউজ শেয়ার করে তিনি জানান, জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসআই-এর সঙ্গে যোগসাজশ রয়েছে পাকিস্তানের ব্যবসায়ী রিয়েল অ্যাস্টেট সংস্থার মালিক রেহান সিদ্দিকির। আর তার সঙ্গেই কাজ করতে চলেছেন মাধুরী।

রাজনৈতিক ভাষ্যকার সুনন্দা আরও জানান, রেহান বর্তমানে হিউস্টনে আছেন। চলতি বছরের আগস্টে টেক্সাসের হিউস্টন শহরেই একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন তিনি। আর সে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চলেছেন ভারতীয় অভিনেত্রী মাধুরী। প্রকাশিত পোস্টার অনুযায়ী, শুক্রবার (১৬ আগস্ট) রাত ৯টায় রেহানের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে চলেছেন মাধুরী।

মাধুরীর এ কাজকে কটাক্ষ করে সুনন্দা বলেন, যে পাকিস্তানি প্রোমোটারকে ভারত সরকার নিষিদ্ধ করেছে, তার সঙ্গে মাধুরীকে জোট বাঁধতে দেখে সত্যিই অবাক হয়েছি। ভারত সরকার পরিষ্কার করে ঘোষণা করেছিল, রেহান সিদ্দিকি ভারতে নিষিদ্ধ এবং বলিউডের তারকারা যাতে তার সঙ্গে কাজ না করেন।

এ প্রসঙ্গে সুনন্দা মন্তব্য করে বলেন, আইএসআই-এর তালিকাভুক্ত একজন পাকিস্তানি প্রোমোটারের সঙ্গে কাজ করার কী অর্থ? দেশের নিরাপত্তার কথা ভেবে মাধুরীর এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়া উচিত নয়।


আরও খবর



জানমাল অনিশ্চয়তায় পড়লে পুলিশ বসে থাকবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কোটা আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, আন্দোলনে জানমাল অনিশ্চয়তায় পড়লে পুলিশ বসে থাকবে না।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, যারা আন্দোলন করছে তারা শিক্ষিত, মেধাবী। তারা কেন রাষ্ট্রের বিপক্ষে যাবে? তারা নিশ্চয়ই সবকিছু পর্যবেক্ষণ করে ফিরে যাবে।

মন্ত্রী বলেন, আদালতের যে নির্দেশনাটা এসেছিল, শিক্ষার্থীরা মনে করেছেন তাদের যে চিন্তা-ভাবনা, সেটা থেকে তাদের দূরে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সেজন্য তারা রাস্তায় চলে এসেছিলেন। আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী, বিশেষ করে পুলিশকে আমরা বলেছি, এদের ডিমান্ড যেটা আছে, সেটা আমরা শুনবো। কিন্তু শোনারও একটা লিমিট বোধহয় থাকে। তারা বোধ হয় এগুলো ক্রস করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বেশ কয়েকদিন হলো তারা (আন্দোলনরত শিক্ষার্থী) কিন্তু একই কাজ করছেন। এরই মধ্যে প্রধান বিচারপতি একটা নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি স্পষ্ট বলেছেন, যে নির্দেশনা হাইকোর্ট দিয়েছেন সেটি স্থগিত। যে মামলাটি চলছে সেটির রায় না হওয়া পর্যন্ত স্থগিত থাকবে। তাই হাইকোর্ট যে নির্দেশনা (কোটা বহাল করে) দিয়েছিলেন সেটি অচল, সেটি এখন নেই। কাজেই এরপর রাস্তায় থেকে তাদের কষ্ট করার কোনো প্রয়োজন আমার মনে হয় নেই। তারা যেটা চেয়েছিলেন সেদিকেই তো যাচ্ছে। আমি শিক্ষার্থীদের অনুরোধ করবো, অযথা যাতে ভিড় না করেন। তারা তাদের লেখাপড়া ছেড়ে বসে থাকবেন, জনগণের দুর্ভোগ হবে। এটাও যাতে তাদের মাথায় থাকে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশ যখন অপারগ হয়ে যায়, তখনই অ্যাকশনটা আসে। যখন অগ্নিসংযোগ ও ধ্বংস করতে যায়, যখন জান-মালের অনিশ্চয়তা তৈরি হয়, অনৈতিক কোনো পরিস্থিতি তৈরি হয়, সেগুলো করলে পুলিশ বসে থাকবে না।

আসাদুজ্জামান খান আরও বলেন, তাদের দাবির প্রতি সরকার সব সময় খেয়াল রাখছে। যেহেতু বিষয়টি কোর্টে আছে এজন্য কোর্টের মাধ্যমে এটি নিষ্পত্তি হবে।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪