আজঃ বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২
শিরোনাম

হবিগঞ্জে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ৩০

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালেহ আহমেদ বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে মাধবপুর থেকে সিলেটগামী একটি যাত্রীবাহী বাসের সাথে মহাসড়কের নুরপুর এলাকায় সিলেট থেকে কুমিল্লাগামী অপর একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধলে একটি বাস উল্টে খাদে পড়ে যায়। এতে অন্তত ৩০ যাত্রী গুরুতর আহত হয়।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। গুরুতর আহত অবস্থায় ১৫ জনকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ওসি আরও জানান, সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদেরকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



নাটোরে ঘুমের ওষুধ খেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আত্মহত্যা

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নাটোর শহরের বড় হরিশপুর চেয়ারম্যান রোডের আর আর ছাত্রাবাস থেকে সাজ্জাদুল ইসলাম (২০ ) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মৃত সাজ্জাদুল ইসলাম রাজশাহী সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং পাবনার ফরিদপুর উপজেলার আড়কান্দি গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে।

নাটোর সদর থানার এসআই আবদুল মজিদ জানান, রবিবার সন্ধ্যায় বড় হরিশপুর চেয়ারম্যান রোডের আর আর ছাত্রাবাসের একটি রুম থেকে সাজ্জাদুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় লাশের পাশ থেকে ঘুমের ওষুধ টিপটিন-৫ এমজির ২০০টি ট্যাবলেটের খোসা পাওয়া যায়।

ধারণা করা হচ্ছে ঘুমের ওষুধ খেয়েই তিনি আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যার সঠিক কারণ জানা যায়নি। লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

নিউজ ট্যাগ: আত্মহত্যা

আরও খবর



চট্টগ্রাম টেস্টে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে বাংলাদেশর

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ১৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চট্টগ্রাম টেস্টে শেষ দিনে রোমাঞ্চের আশায় বাংলাদেশ। বুধবার চতুর্থ দিনের শেষ বিকেলে ব্যাটিংয়ে নামা শ্রীলংকার ২ উইকেট উইকেট তুলে নিয়ে কাজ কিছুটা এগিয়ে রাখলেন তাইজুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার শেষ দিনের শুরু থেকেই সাকিব-তাইজুলরা যদি শ্রীলংকাকে কম রানে গুঁড়িয়ে গিতে পারেন তাহলে রোমাঞ্চকর জয়ের সুবর্ণ সুযোগ থাকছে মুমিনুল হকদের সামনে।

বুধবার ৬৮ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপাকে পড়ে যায় শ্রীলংকা। প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রান করা দলটি, দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৯ রানে হারায় ২ উইকেট। আর এই দুই উইকেট শিকারে অবদান রয়েছে তাইজুলের।

বৃহস্পতিবার শেষ দিনের শুরুতেই শ্রীলংকার টপাটপ উইকেট তুলে নিয়ে কম রানে আটকাতে পারলে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে।

সাকিব আল হাসানের করা ১২তম ওভারের পঞ্চম বলটি মিড-উইকেটে খেলেন লংকান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। নন-স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা ওশাদা দৌড় দেন রানের জন্য।

অনেকদূর চলে যাওয়া ব্যাটসম্যান ওশাদাকে না করেন শ্রীলংকান অধিনায়ক করুনারত্নে। কিন্তু তিনি সময় মতো ফিরে যেতে পারেননি।

ততক্ষণে মিড উইকেট থেকে দুর্দান্ত ফিল্ডিং করে সরাসরি থ্রোতে নন-স্ট্রাইক প্রান্তের স্টাম্প ভেঙে দেন তাইজুল। ১৯ রানে রান আউট হয়ে ফেরেন ওশাদা।

ওশাদাকে সরাসরি থ্রোয়ে সাজঘরে ফেরানো তাইজুল বোলিংয়েও এসেও দুর্দান্ত। ১৮তম ওভারের প্রথম বলেই নাইটওয়াচম্যান হিসেবে খেলতে নামা লাসিথ এম্বুলদেনিয়াকে বোল্ড করেন তাইজুল।

চট্টগ্রামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের সেঞ্চুরি (১৯৯) আর দিনেশ চান্দিমাল (৬৬) ও কুশল মেন্ডিসের জোড়া ফিফটিতে ভর করে ৩৯৭ রান করে শ্রীলংকা।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে তামিম ইকবাল (১৩৩) ও মুশফিকুর রহিমের (১০৫) জোড়া সেঞ্চুরি আর লিটন দাস (৮৮) এবং মাহমুদুল হাসান জয়ের (৫৮) জোড়া ফিফটিতে ভর করে ৪৬৫ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ।


আরও খবর



শনিবারও দেশের আট বিভাগে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ এপ্রিল 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ এপ্রিল 20২২ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শুক্রবার বিকেলে ঝড়ের সঙ্গে বৃষ্টিপাত হয়েছে। শনিবারও (২৩ এপ্রিল) দেশের আট বিভাগের বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশের দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।

আজ শুক্রবার (২২ এপ্রিল)  সকাল থেকেই ঢাকার আকাশ ছিল রৌদ্রোজ্জ্বল। সঙ্গে ছিল ভ্যাপসা গরম। গরমে কিছুটা অস্বস্তিতে ছিল সাধারণ মানুষ। তবে দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে রাজধানীজুড়ে নামে মুষলধারে বৃষ্টি। আর এই বৃষ্টি থামে শেষ বিকেলে।

আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম বলেন, সারা দেশেই বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। তবে অন্য বিভাগের তুলনায় রংপুর, ময়মনসিংহ এবং সিলেটে বেশি বৃষ্টি হবে। শনিবার এই তিন বিভাগ ছাড়া বাকি বিভাগ গুলোতে বৃষ্টির প্রবণতা কমে আসবে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়ার সঙ্গে বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৩৭ মিলিমিটার। এ সময় টাঙ্গাইলে ৩৫, রংপুরে ৩৩, বদলগাছিতে ২৭, তাড়াশ ১৭, ফরিদপুরে ১০, কিশোরগঞ্জের নিকলীতে ২৬, নেত্রকোনায় ৩৬, সিলেটে ১, শ্রীমঙ্গলে ১৮, চাঁদপুরে ১৬, তেঁতুলিয়ায় ১৪, বগুড়াতে ৪, ঈশ্বরদী ২, রাজশাহী ১, ময়মনসিংহে ২, ডিমলায় ৪, রাজারহাটে ১৩ ও কুমারখালীতে ২০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল নেত্রকোনায় ১৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল রাজশাহী ও চুয়াডাঙ্গায়। 


আরও খবর



আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’, সমুদ্র বন্দরে ১ নম্বর দূরবর্তী সংকেত

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | ৬১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। রোববার (০৮ মে) এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। ফলে সমুদ্রবন্দরগুলোকে এক নম্বর দূরবর্তী সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে নাম হবে অশনি, এটি শ্রীলংকার দেওয়া নাম। বর্তমানে উত্তর ও উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে এটি। আগামী সোমবার (০৯ মে) মধ্যরাতে ভারতের উড়িষ্যা উপকূলের কাছাকাছি পৌঁছতে পারে। এরপর এটি পূর্ব দিকে গতিমুখ পরিবর্তন করে পশ্চিমবঙ্গের দিকে আসতে পারে ১১ মে। এই সময়ে ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত। তবে বাংলাদেশের উপকূলে আসবে কি-না, তা এখনই বলা যাচ্ছে না।

আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম জানিয়েছেন, দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগর এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি আরও সামান্য উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে শনিবার  (০৭ মে) দুপুর ১২টায় একই এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এ সময় নিম্নচাপটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৪২৫ কি.মি. দক্ষিণে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৪০ কি.মি. দক্ষিণে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৪৬০ কি.মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৪০৫ কি.মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে অবস্থান করছিল। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কি.মি. এর মধ্যে বাতাসের একটানা সৰ্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কি.মি., যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

এই অবস্থায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ০১ (এক) নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদেরকে গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

এদিকে অন্য এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রোববার (০৮ মে) সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বিজলী চমকানোসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এছাড়া রাঙ্গামাটি, সৈয়দপুর, খুলনা, মোংলা, সাতক্ষীরা ও যশোর অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে নবমবারের মতো তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থেকে বিস্তার লাভ করতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়বে।

সোমবার (৯ মে) নাগাদ আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে। বর্ধিত ৫ (পাঁচ) দিনের আবহাওয়ায় বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে।


আরও খবর



৩ ঘরোয়া টোটকা: গরমেও ঠোঁট থাকবে কোমল

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শীত বিদায় নিয়েছে বেশ কিছু দিন। বঙ্গে এখন গ্রীষ্মের দাপট। তবু শীতকালীন কিছু কিছু সমস্যা দেখা দিচ্ছে গরমেও। তার মধ্যে অন্যতম ঠোঁট ফাটা। আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে শুধু শীতকাল নয়, গ্রীষ্মেও ত্বক ও ঠোঁট রুক্ষ হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যায় ভুগছেন অনেকে। গরমে শরীরে জলের পরিমাণ কম থাকে। ফলে ঠোঁটের জলীয় ভাব ক্রমশ হ্রাস পায়। ঠোঁটের চামড়া খুব পাতলা হয়। ফলে তা অল্পেতেই রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে পড়ে। গরমে ঠোঁট ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন ঘরোয়া স্ক্রাবার।

১) ব্রাউন সুগার স্ক্রাবার : ত্বকের মৃত কোষ দূর করার অন্যতম একটি উপাদান হল ব্রাউন সুগার। শুষ্ক ত্বক কোমল ও মসৃণ করতে ব্রাউন সুগার ব্যবহার করতে পারেন। এক চামচ ব্রাউন সুগার, দু চামচ মধু ও কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। আঙুল দিয়ে এই মিশ্রণটি আলতো করে ঠোঁটে ঘষে নিন। কিছু ক্ষণ রেখে দিয়ে জলে ভেজানো নরম কাপড় দিয়ে ঠোঁটে বুলিয়ে নিন।

২) স্ট্রবেরি স্ক্রাবার: স্ট্রবেরিতে রয়েছে ভিটামিন সি। ঠোঁটের রক্ষতা দূর করতে দারুণ কাজ করে এই ভিটামিন। গরমেও ঠোঁটের গোলাপি ভাব বজায় রাখতে ব্যবহার করতে পারেন স্ট্রবেরি। একটি পাত্রে এক চামচ অলিভ অয়েল, স্ট্রবেরির কুচি, মধু মিশিয়ে নিন। এ বার মিশ্রণটি ভাল করে ঠোঁটে বুলিয়ে কিছু ক্ষণ রেখে দিন। শুকিয়ে এলে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ঠোঁট থাকবে কোমল ও মসৃণ।

৩) কফি স্ক্রাবার: ধোঁয়া ওঠা কফির চাইতে এই গরমে ক্রিম দেওয়া ঠান্ডা কফিতেই গলা ভেজাতে ভালবাসেন অনেকে। গলা ভেজানোর পাশাপাশি ঠোঁটের যত্নেও কাজে লাগাতে পারেন কফি। এক চামচ কফির গুঁড়ো ও দু'চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে মেখে নিন। চাইলে এই মিশ্রণটি বানিয়েও রেখে দিতে পারেন। সপ্তাহে তিন-চার দিন মাখতে পারেন। উপকার পাবেন।

 

নিউজ ট্যাগ: কোমল ঠোঁট

আরও খবর
‘আম’ চিনুন তারপর কিনুন

বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২