আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

হোয়াটসঅ্যাপ কি নিরাপদ!

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক

Image

সারাবিশ্বের বেশির ভাগ মানুষ এখন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন। হোয়াটসঅ্যাপের মূল উদ্ভাবক মেটার দাবি, তাদের প্ল্যাটফর্মে মেসেজ এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড, যার কারণে সিকিউরিটি বেশ শক্তিশালী। কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ নিয়ে এমনও বহু অভিযোগ আছে যে অ্যাপ ব্যবহারকারীদের অজান্তেই মেসেজ পড়েন অন্যরা।

নিজের অজান্তের মেসেজ শনাক্ত

হোয়াটসঅ্যাপ ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ ডিভাইসে কিউআর স্ক্যান করে লগইন করতে হয়। ভুলবশত লগআউট না করলে সংশ্লিষ্ট ডিভাইসে প্রবেশ করে অনাহূত ব্যবহারকারীর মেসেজ দেখতে পারে। তাই অন্য কোনো ডিভাইসে লগইন করলে অবশ্যই লগআউট নিশ্চিত করতে হবে। যার জন্য হোয়াটসঅ্যাপ ওপেন করে থ্রি-ডট অপশনে ক্লিক করলে লিঙ্কড ডিভাইস নামে অপশন দৃশ্যমান হয়। ওই অপশনে কতগুলো ডিভাইসে লগইন হয়ে আছে, তা দেখা যাবে। লিঙ্কড ডিভাইসের ওপর ক্লিক করলেই লগআউট অপশন পাওয়া যাবে। লগআউটে ক্লিক করলে অন্য ডিভাইস থেকে অ্যাপটি পুরোপুরি লগআউট হয়ে যাবে।

প্রোফাইল সিকিউরিটি কন্টাক্ট লিস্ট সতর্কতা

স্মার্টফোনে এখন আগের তুলনায় অনেক বেশি সংখ্যক কন্টাক্ট সংরক্ষণ করে রাখা যায়। হোয়াটসঅ্যাপ সরাসরি ফোন কন্টাক্টের অ্যাকসেস নিয়ে থাকে। হোয়াটসঅ্যাপের বর্তমান নীতি অনুযায়ী যে কোনো ব্যক্তির কাছে কন্টাক্ট নম্বর থাকামাত্রই সে চাইলে কন্টাক্ট করার চেষ্টা করতে পারবে। সচেতন হতে হবে যে কার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে সংযুক্ত থাকতে চাই বা যোগাযোগ করতে চাই। বহু অপ্রয়োজনীয় নম্বরও কন্টাক্ট লিস্টে থাকতে পারে বা বহু পুরোনো কেউ, যার সঙ্গে বর্তমানে তেমন একটা যোগাযোগ নেই; সে ক্ষেত্রে এসব কন্টাক্ট ডিলিট করে দেওয়া বা তাদের হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করতে না দেওয়াই উত্তম।

ছবি নির্বাচনে সাবধানতা

হোয়াটসঅ্যাপে অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার মতো প্রোফাইল ছবি দেওয়া যায়। প্রোফাইলের ছবি নির্বাচনে সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। যাতে প্রোফাইলের ছবি পরে কোনো বিব্রতকর পরিস্থিতিতে না ফেলে। প্রোফাইলের ছবি নিজের বা কর্মক্ষেত্রের খুব সাধারণ কোনো ছবি হওয়া উচিত। প্রোফাইলের ছবিটি যদি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া থাকে, তাহলে অবশ্যই বিবেচনায় রাখতে হবে ছবিটি হোয়াটসঅ্যাপে যুক্ত যে কারও নজরে আসতে পারে।

দুই স্তরের ভেরিফিকেশন

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারে অবশ্যই দুই স্তরের ভেরিফিকেশন পদ্ধতি চালু রাখা উচিত। যাতে ব্যবহারকারীর অগোচরে অন্য কেউ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে অন্য কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পারে। সাধারণত ফোন নম্বর ব্যবহার করে ফোন ছাড়া অন্য ফোনে বা কম্পিউটারে হোয়াটসঅ্যাপ লগইন করার চেষ্টা করা যায়। অবশ্যই দুই স্তরের ভেরিফিকেশন পদ্ধতিতে অনুমোদনহীন লগইন প্রতিহত করা যায়।

পাবলিক শেয়ারে সতর্ক

অনেকে হয়তো জানেন না, হোয়াটসঅ্যাপে স্ট্যাটাস মেসেজ দেওয়া যায়, যা কিনা ভুল সেটিংসের কারণে পাবলিক মেসেজ হিসেবে সবার কাছে উন্মোচিত হতে পারে। এটা না করে সব সেটিংস বদলে স্ট্যাটাস মেসেজগুলো শুধু পরিবার, বন্ধু বা যারা হোয়াটসঅ্যাপে সংযুক্ত আছেন, তাদের জন্য উন্মুক্ত করা যেতে পারে।

গ্রুপে সবাইকে যুক্ত না করা

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও প্রয়োজনীয় দিক হলো বিভিন্ন গ্রুপ এবং সেসব গ্রুপের আলোচনা। কাজের পরিপ্রেক্ষিতে কয়েকজন মিলে গ্রুপ তৈরি করা যায়। যেসব গ্রুপের আলোচনা শুধু গ্রুপের সদস্যদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে। কিন্তু কাউকে যে কোনো গ্রুপে যুক্ত করার বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। তা না হলে বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি সেটিংসে গিয়ে  (Who can add me to groups) তিনটি অপশন পাওয়া যায়। যেমন Everyone বা  My Contacts বা  My Contact Except; যার মধ্যে অবশ্যই Everyone অপশনটা বাদ দিয়ে বাকি দুটি অপশনের মধ্যে নির্বাচন করা নিরাপত্তার জন্য শ্রেয়।

হ্যান্ডসেটে ডাউনলোড না করা

হোয়াটসঅ্যাপে কথা বলা বা মেসেজ বিনিময়ের বাইরেও প্রয়োজনীয় ফাইল শেয়ার করা যায়। এসব ফাইল যেন সরাসরি ফোন মেমোরিতে সেভ না হয়, সে বিষয়ে সচেতন হতে হবে। ডিফল্ট সেটিংস অনুযায়ী হোয়াটসঅ্যাপে শেয়ারকৃত সব ছবি সরাসরি ফোন গ্যালারিতেই সংরক্ষিত হয়। শেয়ার করা ফাইল ব্যবহারকারীর অনুমতি সাপেক্ষে ফোন মেমোরিতে সংরক্ষিত হতে হবে। তা না হলে বহু অপ্রয়োজনীয় বা অপ্রত্যাশিত ফাইল নিজের স্মার্টফোনে সংরক্ষণ হতে থাকবে। ফলে ফোনের স্টোরেজ যেমন বেশি ব্যবহৃত হবে, তেমনি অপ্রত্যাশিত ফাইলের মাধ্যমে ম্যালওয়্যার ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কাও থেকে যায়।

ক্লাউড স্টোরেজে অটো ব্যাকআপ না করা

হোয়াটসঅ্যাপে ব্যবহৃত সব তথ্য ক্লাউডে অটোমেটিক ব্যাকআপ না রাখাই শ্রেয়। তা না হলে ক্লাউডের মূল্যবান স্টোরেজ ব্যবহৃত হতে থাকবে; বরং প্রয়োজনীয় ব্যাকআপটুকু ক্লাউডে রাখার চর্চা করতে হবে। ফলে ক্লাউড স্টোরেজের বহুমাত্রিক ব্যবহার সুনিশ্চিত হবে।

আপত্তিকর ছবি বা ভিডিও

হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে কোনো রকম আপত্তিকর ছবি বা ভিডিও শেয়ার করা থেকে বিরত থাকা উচিত। যেহেতু আমাদের দেশে পর্নোগ্রাফি শাস্তিযোগ্য অপরাধ (সাইবার ক্রাইম)। তাই এ সংশ্লিষ্ট কোনো ভিডিও, ছবি বা অডিও ফাইল অন্যের সঙ্গে শেয়ার করাও শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবেই বিবেচ্য। যদি কেউ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে পর্নোগ্রাফি শেয়ার করেন, তাহলে যিনি এটি রিসিভ করছেন, তিনি চাইলে আইনি ব্যবস্থার সহায়তা নিতে পারবেন।

নিউজ ট্যাগ: হোয়াটসঅ্যাপ

আরও খবর



দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ৮.৪৮ শতাংশ

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
স্বাস্থ্য ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৯ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৫৫২ জনে। এ সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কারো মৃত্যু হয়নি। ফলে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২৯ হাজার ৪৮৩ জন অপরিবর্তিত রয়েছে।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩৫ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২০ লাখ ১৪ হাজার ৭৪৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষা করা হয় ৩৪২ নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৮.৪৮ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩.০৮ শতাংশ।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। ২০২১ সালের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন করোনায় সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

নিউজ ট্যাগ: করোনা ভাইরাস

আরও খবর



গাইবান্ধায় সাঁওতাল-বাঙালি সাংস্কৃতিক উৎসব

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
গাইবান্ধা প্রতিনিধি

Image

সাঁওতালসহ সকল ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় শনিবার গাইবান্ধা নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংস্থা উন্মুক্ত মঞ্চে সাঁওতাল-বাঙালি সাংস্কৃতিক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। বর্ণাঢ্য একটি র‌্যালি গাইবান্ধা শহরের প্রধান প্রধান সড়কে প্রদক্ষিণ করে।

 এই ভূমির মানুষের সুকৃতি, আদিবাসী-বাঙালি সংস্কৃতি এই স্লোগানকে সামনে রেখে গাইবান্ধা নাগরিক সংগঠন ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা অবলম্বন উৎসবের আয়োজন করে। শতাধিক সাঁওতাল-উড়াওঁসহ বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর নারী-পুরুষরা অংশগ্রহণ করে।

র‌্যালি শেষে গানাসাস মিলনায়তনে জন-উদ্যোগের সদস্য সচিব প্রবীর চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন শিক্ষাবিদ মাজহারউল মান্নান, আদিবাসী বাঙালি সংহতি পরিষদের আহবায়ক অ্যাড. সিরাজুল ইসলাম বাবু, নারী নেত্রী অঞ্জলী রানী দেবী, নাজমা বেগম, সামাজিক সংগ্রাম পরিষদের সদস্য সচিব হাসান মোর্শেদ দীপন, শিক্ষক আহাদুজ্জামান রিমু, অবলম্বনের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর এ.কে.এম. মাহবুব আলম মুকুল, সাঁওতাল নেত্রী মারিয়া মুর্মু, তেরেসা সরেন, ইয়ুথ নেতা সান্তনা রবিদাস প্রমুখ। সবশেষে বাঙালিসহ বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর শিল্পীরা এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশন করে।

বক্তারা বলেন, সাঁওতালসহ বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মাতৃভাষা হারিয়ে যেতে বসেছে। তাদের সংস্কৃতিও বিলুপ্ত হচ্ছে। এরা বাংলাদেশের দরিদ্রতম প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, অধিকাংশই ভূমিহীন। আদিবাসীদের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় অবিলম্বে সরকারি উদ্যোগ নিতে হবে। অবিলম্বে আলাদা মন্ত্রণালয় গঠন করে হলে আদিবাসী ও তাদের সংস্কৃতি বাঁচিয়ে রাখতে হবে। এটি তাদের জন্য খুবই হতাশাজনক যে,  বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর ভাষায় রয়েছে অনেক গীত, ঝুমুর, গল্প; যা কালের পরিক্রমায় হারিয়ে যাচ্ছে। এই সকল ভাষা ও সংস্কৃতি সংরক্ষণ জরুরি। না হলে ভাষাগুলো গবেষণা ও পরিচর্যার অভাবে হারিয়ে যাবে। 


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলো ১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ হবিগঞ্জের রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডে নতুন কূপের গ্যাস সঞ্চালনের উদ্বোধন করেছেন। এ কূপের উদ্বোধনের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে নতুন করে যুক্ত হলো আরও ১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তিনি এই কূপ দুটির উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আমাতুল কিবরিয়া চৌধুরী কেয়া, জেলা প্রশাসক জিলুফা সুলতানা।

উদ্বোধনের পর গ্যাস ফিল্ডের ২ ও ৯ নম্বর কূপ থেকে গ্যাস সরবরাহ শুরু হয়। এতে গ্যাসক্ষেত্রটির উৎপাদন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৬ মিলিয়ন ঘনফুটে।

এ বিষয়ে গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি লিমিটেডের (এসজিএফসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মিজানুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে কূপ-২ থেকে গ্যাস উত্তোলন বন্ধ ছিল। ওয়ার্কওভারের মাধ্যমে উৎপাদন উপযোগী করা হয়েছে। ওই কূপ থেকে ৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে।

ওয়ার্কওভারের মাধ্যমে এ পরিমাণে গ্যাস পাওয়ার নজির খুবই কম উল্লেখ করে মিজানুর রহমান আরও বলেন, ৯ নম্বর কূপটি নতুন, সেখানে পাইপলাইন না থাকায় গ্যাস উত্তোলন করা যাচ্ছিল না।

এর আগে মন্ত্রী রোববার দুপুরে সিলেট থেকে রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডে আসেন। রশিদপুর ২ নম্বর কূপের ওয়ার্ক ওভার পরিদর্শন ও রশিদপুর ৯ নম্বর কূপের গ্যাস গ্যাদারিং পাইপলাইন প্রকল্প কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে রশিদপুর তিন হাজার বিপিডি সিআরইউ প্ল্যান্ট পরিদর্শন করেন।

পরে মন্ত্রী নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জের করিমপুরে অবস্থিত বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্রে যান। সেখানে শেভরনের ওপর ওরিয়েন্টশন ও উপস্থাপনা, শেভরনের কন্ট্রোল রুম বুস্টার কম্প্রেসর এবং টার্বো এক্সপেন্ডার পরিদর্শন উপস্থাপনা (টিইএক্স, বিসি, প্ল্যান্ট ওভারভিউ, রিগ অপারেশন এবং পাইপলাইন প্রেসার অপ্টিমাইজেশন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জানুয়ারিতে রেমিট্যান্স এল ২১০ কোটি ডলার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

চলতি বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে ২১০ কোটি ডলারের সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা দেশে এসেছে, যা গত ডিসেম্বর বা জানুয়ারির তুলনায় বেশি। গত বছরের ডিসেম্বরে ১৯৯ কোটি এবং জানুয়ারিতে ১৯৬ কোটি ডলার রেমিট্যান্স দেশে আসে।

রেমিট্যান্স কেনার ঘোষিত দর ১০৯ টাকা ৫০ পয়সা হলেও ১২২ টাকা পর্যন্ত দরে রেমিট্যান্স কেনা যাচ্ছে। এ কারণে রেমিট্যান্স বেড়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

এক মাস হিসেবে জানুয়ারিতে আসা রেমিট্যান্স গত ৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ।

রেমিট্যান্স বাড়লেও রিজার্ভ কমে ২০ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমেছে। বৃহস্পতিবার দিন শেষে রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ১৯ দশমিক ৯৪ বিলিয়ন ডলার। এর আগের দিন বুধবার শেষে রিজার্ভ ছিল ২০ বিলিয়ন ডলারের ওপরে।

এর আগে ২০২১ সালের আগস্টে রিজার্ভ রেকর্ড ৪৮ বিলিয়নের ওপর উঠেছিল। এরপর থেকে ধারাবাহিকভাবে রিজার্ভ কমেছে।

তবে দেশের বাইরে শ্রমিক যাওয়ার তুলনায় রেমিট্যান্স বেড়েছে কম। ২০২৩ সালে রেকর্ড ১৩ লাখের বেশি শ্রমিক দেশের বাইরে যান। গত বছর ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স এসেছে ২ হাজার ১৯২ কোটি ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় মাত্র ৬৩ কোটি ডলার বা ২ দশমিক ৮৮ শতাংশ বেশি।

রেমিট্যান্সের এ পরিমাণ অবশ্য ২০২১ সালের তুলনায় কম। মূলত হুন্ডিতে ব্যাপক চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ব্যাংকিং চ্যানেলে আশানুরূপ হারে রেমিট্যান্স বাড়ছে না।


আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মমতাকে মিমির ‘ইস্তফা’ পত্র, ছেড়ে দিতে চান রাজনীতিও

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী তার নিজ নির্বাচনী আসন যাদবপুরের সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে গিয়ে তিনি সাংসদ পদ ছাড়ার কথা জানান। বিধানসভা থেকে বেরিয়ে নিজেই তা ঘোষণা করেছেন। মিমি জানান, তিনি লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে চান না।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিধানসভায় মমতা যখন বক্তৃতা করছেন, তখনই তার ঘরে ঢুকে গিয়েছিলেন মিমি। কিছু ক্ষণ পর ওই ঘরে ঢোকেন তৃণমূলের দুই তারকা বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী এবং জুন মালিয়া। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতা শেষ হলে তিনি নিজের ঘরে যান। তার পর মিমি এবং বাকিদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক হয়।

সেখান থেকে বেরিয়ে মিমি জানান, তিনি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। তবে মুখ্যমন্ত্রী এখনও সেই ইস্তফা গ্রহণ করেননি। মিমি এ-ও জানান, মুখ্যমন্ত্রী ইস্তফা গ্রহণ করলে তিনি লোকসভার স্পিকারের কাছে গিয়ে ইস্তফাপত্র দিয়ে আসবেন।

সম্প্রতি সংসদের দুটি স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন মিমি। সংসদের শিল্পবিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য ছিলেন তিনি। ছিলেন কেন্দ্রীয় শক্তি মন্ত্রণালয় এবং নবীন ও পুনর্নবীকরণযোগ্য বিদ্যুৎ মন্ত্রকের যৌথ কমিটির সদস্যও। এই দুটি পদ থেকেই তিনি ইস্তফা দেন। এর পর জানা যায়, যাদবপুর লোকসভার অধীন নলমুড়ি এবং জিরানগাছা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারপার্সন পদও মিমি ছেড়ে দিয়েছেন। তার পর থেকেই তার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ ঘিরে জল্পনা শুরু হয়েছে।

প্রশ্ন উঠেছে, ২০২৪ সালে যাদবপুর থেকে আর কি প্রার্থী হবেন মিমি? নিজের ধারাবাহিক পদত্যাগ প্রসঙ্গে অবশ্য এর আগে তিনি মুখ খোলেননি। বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিলেন, আর সাংসদ থাকতেই চান না তিনি। মিমি বলেন, আমার যা বলার ছিল, দিদিকে বলেছি। অনেকে বলছিলেন, আমি পরবর্তী টিকিট পাকা করার জন্য এটা করছি। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি, রাজনীতি আমার জন্য নয়।


আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪