আজঃ রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

ইফতারের জন্য মিল্ক ডেজার্ট তৈরির রেসিপি

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

ইফতারে ভাজাপোড়া খাবারের বদলে রাখতে পারেন এমনকিছু, যা পেট ঠান্ডা রাখতে কাজ করে। এক্ষেত্রে ভালো হয় স্বাস্থ্যকর কোনো ডেজার্ট রাখতে পারলে। ইফতারের জন্য রাখতে পারেন সুস্বাদু মিল্ক ডেজার্ট। এটি খেতে যেমন সুস্বাদু, তেমনই স্বাস্থ্যকরও। এদিকে তৈরি করতেও সময় লাগে খুব কম। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক মিল্ক ডেজার্ট তৈরির রেসিপি-

তৈরি করতে যা লাগবে: গুঁড়া দুধ- আধা কাপ, চিনি- ১/৩ কাপ পরিমাণ, আগার আগার পাউডার- ২ চা চামচ, পানি- দেড় কাপ, বেদানা বা স্ট্রবেরি- পরিমাণমতো।

যেভাবে তৈরি করবেন: একটি প্যানে গুঁড়া দুধ, চিনি, আগার আগার ও পানি ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর চুলায় বসিয়ে মাঝারি আঁচে ঘন ঘন নাড়তে থাকুন। এভাবে ৪-৫ মিনিট জ্বাল দিন। এরপর দুধ গরম থাকা অবস্থায় একটি মোল্ডে ঢেলে নিন। এবার উপরে বেদানা বা স্ট্রবেরি ছড়িয়ে দিন। ডিপ ফ্রিজে ১৫-২০ মিনিট রেখে জমিয়ে ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন সুস্বাদু মিল্ক ডেজার্ট।

নিউজ ট্যাগ: মিল্ক ডেজার্ট

আরও খবর



কারো সঙ্গে আমরা যুদ্ধে জড়াতে চাই না : কাদের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের কোনো বিরোধ নেই। রোহিঙ্গা ইস্যুতে যে সমস্যা সেটা আন্তর্জাতিকভাবে সমাধানের চেষ্টা চলছে। তাদের সঙ্গে যুদ্ধের কোনো কারণ নেই। মিয়ানমার নয় শুধু, কারো সঙ্গে আমরা যুদ্ধে জড়াতে চাই না।

মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। এর আগে তিনি সংরক্ষিত আসনের মনোনয়ন ফরম বিক্রির বুথ পরিদর্শন করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা একে অন্যের সঙ্গে যুদ্ধে লিপ্ত না। তাদের ইন্টারনাল কনফ্লিক্ট এসে সীমান্তে গড়াচ্ছে। ছিটকে এসে পড়ছে আমাদের সীমান্তে। একজন নারী ও পুরুষ মারা গেছে। এসব ব্যাপারে আমাদের ফরেন মিনিস্ট্রি মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকেছে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, মিয়ানমারের সংঘাতের সঙ্গে সেন্টমার্টিন বা বঙ্গোপসাগরের ভূরাজনৈতিক কোনো সম্পর্ক আছে, সেটা আমি মনে করছি না। এই সংঘাত তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাদের ৫৪টির মতো এথনিক কমিউনিটি আছে। এই এথনিক কমিউনিটিগুলো ইতোমধ্যে বিভিন্ন জায়গা দখলে নিয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনীর সঙ্গে তাদের অভ্যন্তরীণ সংঘাত। আমাদের সঙ্গে তাদের কোনো বিরোধ নেই।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জানান, আগামী শনিবার আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেবেন দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের আমাদের দলের প্রার্থী বাছাই একটি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে হয়। এখন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ চলছে। সময় তিনদিন। কেউ চাইলে ফরমটি পূরণ করে সঙ্গে সঙ্গে জমা দিতে পারবেন। আমরা আশা করছি নির্বাচন কমিশন এর ভেতরেই দিন ঘোষণা করবে। তারপর আমরা আমাদের মনোনয়ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে প্রার্থিতা চূড়ান্ত করব।

উপজেলা নির্বাচনে নৌকার প্রতীক থাকবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সামনে উপজেলা ও সিটি করপোরেশন নির্বাচন রয়েছে। পৌরসভা নির্বাচনও আছে। এসব নির্বাচনে প্রতীক থাকছে কি থাকছে না এই ব্যাপারে আমাদের ওয়ার্কিং কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে। আমাদের বর্ধিত সভায় যারা থাকবে তাদের মতামতও গ্রহণ করা হবে। এটা মৌলিক একটি সিদ্ধান্ত। তাই এই ব্যাপারে সবার মতামত নিয়ে আমাদের নেত্রী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে চান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এস এম কামাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সৈয়দ আবদুল আউয়াল শামীম, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।


আরও খবর



কুষ্টিয়ায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী মা-ছেলে নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

Image

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী মা ও ছেলে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও একজন গুরুতর আহত হয়েছেন। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সোয়া ৭ টার দিকে উপজেলার বাধবাজার এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কুমারখালীর পাইকপাড়া এলাকার সেনা সদস্য রহমত আলীর স্ত্রী সালমা খাতুন (৩০) ও তার ১১ বছর বয়সী ছেলে স্বরণ হোসেন। দুর্ঘটনায় ওই সেনা সদস্য গুরুতর আহত হন।

জানা গেছে, সেনা সদস্য রহমত আলী তার স্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে কুষ্টিয়া শহরে যাচ্ছিলেন। পথে একটি দ্রুতগামী ড্রাম ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় ট্রাকের চাপায় ঘটনাস্থলেই মা ও ছেলে নিহত হয়। তবে মোটরসাইকেল থেকে লাফিয়ে পড়ে প্রাণে বেচে যান রহমত হোসেন।

এ বিষয়ে কুমারখালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকিবুল ইসলাম বলেন, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে, মা-ছেলের মৃত্যুতে হাসপাতালে পরিবারটির আত্মীয়-স্বজনদের শোকের মাতম চলছে।


আরও খবর



কাল মুক্তি পাচ্ছেন সাবেক থাই প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

স্বেচ্ছানির্বাসন শেষে দেশে ফিরে জেলে যাওয়া থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা মুক্তি পাচ্ছেন আগামীকাল রোববার। দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শ্রেত্থা থাভিসিন আজ শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর এএফপির।

বিতর্কিত ধনকুবের ও থাইল্যান্ডের দুবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা ২০০৬ সালে এক সামরিক অভ্যত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হন। ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির দায়ে পরে তার আট বছরের জেলও হয়। তবে ১৫ বছর স্বেচ্ছানির্বাসনে থেকে গত বছরের আগস্ট মাসে দেশে ফেরার পর গ্রেপ্তার হন তিনি। নেওয়া হয় জেলে। এর পরপরই থাইল্যান্ডের রাজা মাহা ভাজিরালঙ্কর্ন তার শাস্তি কমিয়ে এক বছরে নামিয়ে আনেন।

এ বিষয়ে আজ শনিবার থাই প্রধানমন্ত্রী শ্রেত্থা থাভিসিন বলেন, আইনের ধারা মেনে আগামীকাল (১৮ ফেব্রুয়ারি) মুক্তি পেতে যাচ্ছেন সিনাওয়াত্রা।

এর আগে থাইল্যান্ডের বিচারমন্ত্রী বলেছিলেন, ৭৪ বছর বয়সী থাকসিন সিনাওয়াত্রার নামসহ শাস্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে মুক্তি পেতে যাওয়া ৯৩০ জন বন্দির তালিকায় রয়েছে। তিনি জানিয়েছিলেন, স্বাস্থ্যগত জটিলতার কারণে ৭০ বছরের ঊর্ধ্বের যে গ্রুপটিকে মুক্ত করা হচ্ছে, তার মধ্যে সিনাওয়াত্রা রয়েছেন। 

আরও পড়ুন>> নিউইয়র্কে ট্রাম্পের ব্যবসা বন্ধ, সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার জরিমানা

থাইল্যান্ডের গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, থাকসিন সিনাওয়াত্রাকে আগামীকাল ভোরে মুক্ত করা হবে। তবে শ্রেত্থা থাভিসিন বলেছেন, এ বিষয়ে বিস্তারিত জানেন না তিনি।

থাকসিন সিনাওয়াত্রা দেশে ফেরার পর কাকতালীয়ভাবে তার পিউ থাই পার্টি সামরিক ধারার সমর্থক দলগুলোর সঙ্গে মোর্চা গঠনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসে। তবে থাকসিনকে গ্রেপ্তারের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই খারাপ স্বাস্থ্যের জন্য কারা কর্তৃপক্ষ তাকে পুলিশ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। আর এর মাধ্যমে সিনাওয়াত্রার সঙ্গে শাসকদলের সমঝোতার গুজব ছড়িয়ে পড়ে দেশটিতে।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, হাসপাতালে ভর্তির সময় উচ্চ রক্তচাপ ও বুকের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। তার পরিবার জানায়, পরের মাসগুলোতে তার দুটি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে।

থাকসিন সিনাওয়াত্রার মুক্তির বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি গণমাধ্যমগুলো। তবে মুক্তি পেলেও তিনি সার্বক্ষণিক নজরদারিতে থাকবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পিউ থাই পার্টির প্রধান ও থাকসিনের মেয়ে পায়েতংতার্ন সিনাওয়াত্রা মুক্তির এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এটি তার (থাকসিন) বাকি জীবন বিশ্রাম নিয়ে সুখে কাটানোর সময়।

থাইল্যান্ডের টেলিকম টাইকুন হিসেবে পরিচিত সিনাওয়াত্রাকে আধুনিক থাই ইতিহাসের অন্যতম প্রভাবশালী ব্যক্তি হিসেবে মনে করা হয়। তবে, তার বিরুদ্ধে বিভাজন সৃষ্টির অভিযোগও রয়েছে।


আরও খবর



অসুস্থ হয়ে আবারও হাসপাতালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিনকে আবারও হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগনের এক মুখপাত্র এ তথ্য জানিয়েছেন। সম্ভাব্য মূত্রাশয়সংক্রান্ত সমস্যার উপসর্গ দেখা দেওয়ায় এবার অস্টিনকে হাসপাতালে নেওয়া হলো। সপ্তাহ কয়েক আগেই অস্টিনকে হাসপাতালে থাকতে হয়েছিল। তবে তখন তিনি তার হাসপাতালে থাকার বিষয়টি বিতর্কিতভাবে গোপন রেখেছিলেন।

প্রোস্টেট ক্যানসারের চিকিৎসার জন্য গত ডিসেম্বরের পর জানুয়ারিতেও জনসাধারণের দৃষ্টি থেকে কার্যকরভাবে অদৃশ্য হয়ে গিয়েছিলেন অস্টিন। অস্টিন প্রাথমিকভাবে তার রোগ শনাক্ত ও চিকিৎসা উভয় বিষয় প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ সরকারের বাকিদের কাছ থেকে গোপন রেখেছিলেন।

৭০ বছর বয়সি অস্টিনকে গতকাল রোববার বিকালে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এবার তাকে হাসপাতালে পাঠানোর প্রায় দুই ঘণ্টা পর বিষয়টি জনসাধারণকে জানানো হয়। 

আরও পড়ুন>> জাতিসংঘ থেকে ইসরায়েলকে বহিষ্কার করার দাবি জানালেন রায়িসি

মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তরের প্রেস সেক্রেটারি প্যাট রাইডার এক বিবৃতিতে বলেন, সামরিক বাহিনী, হোয়াইট হাউস ও কংগ্রেসের কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে। অস্টিনকে ওয়াল্টার রিড ন্যাশনাল মিলিটারি মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়েছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, বিষয়টি প্রতিরক্ষা উপমন্ত্রী ও মার্কিন সামরিক বাহিনীর জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যানকে জানানো হয়েছে। এ ছাড়া হোয়াইট হাউস ও কংগ্রেসকে তা অবহিত করা হয়েছে। অস্টিনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে কিনা কিংবা ভর্তি করা হলে তিনি কত দিন সেখানে থাকবেন, তা তাৎক্ষণিকভাবে স্পষ্ট করা হয়নি।

তবে রাইডার তার বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন যে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী শ্রেণিবদ্ধ (গোপনীয়) যোগাযোগব্যবস্থা তার সঙ্গে নিয়ে এসেছেন। তিনি তার দাপ্তরিক কাজ ও দায়িত্ব পালন করে যাবেন। আগের বার হাসপাতালে থাকার তথ্য গোপন রাখায় ব্যাপক রাজনৈতিক সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন অস্টিন। এ জন্য চলতি মাসের শুরুর দিকে তিনি ক্ষমা চান ‍।


আরও খবর



উত্তর রাখাইনে সেনা প্রত্যাহার করছে জান্তা, দাবি আরাকান আর্মির

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

রাখাইনের উত্তর অঞ্চল থেকে জান্তা সৈন্য প্রত্যাহার করছে এবং রাজ্যের দক্ষিণে বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে আক্রমণ বাড়িয়েছে বলে জানিয়েছে আরাকান আর্মি (এএ) । বিদ্রোহী গ্রুপটি বলছে, কারণ তারা জানে যে মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্যে যুদ্ধে হেরে যাচ্ছে।’

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাখাইন রাজ্যের মায়বন টাউনশিপের দুটি পাহাড়ের চূড়া থেকে জান্তা তাদের সৈন্যদের বিমান দিয়ে সরিয়ে নিরাপত্তার জন্য দক্ষিণে পাঠানোর পর আরাকান আর্মি (এএ) বিবৃতি দেয়। খবর ইরাবতির।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জান্তার সামরিক বাহিনী নিশ্চিতভাবে হেরে যাবে যদি তারা আমাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যুদ্ধ করে। তাই আমরা যে শহরগুলো দখল করার চেষ্টা করছি সেখানে সামরিক ফাঁড়ি এবং পাহাড়ের চূড়া [ঘাঁটি] পুড়িয়ে দিয়ে তারা সেনা প্রত্যাহার করছে।

এএ জানিয়েছে, শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে মায়বনের পয়েন্ট ৪০২ এবং ৪০৮ পাহাড়ের চূড়ায় জান্তা সেনারা ফাঁড়ির ভেতরে অস্ত্র, গোলাবারুদ এবং কামান ধ্বংস করে।

হিন খা কাঁচা গ্রামের প্রায় ৩ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত ফাঁড়িগুলি থেকে তারা কেবলমাত্র অস্ত্রগুলি নিয়ে গেছে, যা তারা সঙ্গে বহন করতে পারে।

উত্তর রাখাইনের দুটি ফাঁড়ি থেকে সৈন্যদের দক্ষিণ রাখাইনের অ্যান টাউনশিপে জান্তার ওয়েস্টার্ন কমান্ডে নিয়ে যাওয়ার জন্য হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হয়। এএ বলেছে, জান্তা সৈন্যদের দুটি ঘাঁটি থেকে নিরাপদে নিয়ে যেতে চারটি ট্রিপ লেগেছে।

শাসক সেনারা রাখাইনের দক্ষিণে রামরিতে বোমাবর্ষণ চালিয়ে যাচ্ছে। স্থল, সমুদ্র এবং আকাশ থেকে জনপদে আঘাত হানছে।

শনিবার জান্তার গোলাবর্ষণ এবং বিমান হামলায় ৪ নং কিং টেই ওয়ার্ডের অন্তত ১৫০টি বাড়ি পুড়ে গেছে। থিম তাউং প্যাগোডা পাহাড়ে অবস্থানরত জান্তা সেনারাও রবিবার রামরি টাউনে আর্টিলারি শেল নিক্ষেপ করে। সপ্তাহান্তে রাজ্যের অন্যান্য শহরে সংঘর্ষ চলতে থাকে, তবে সেগুলি গত সপ্তাহের মতো ভারী ছিল না। এএ রাজ্যের সব জান্তা ঘাঁটি এবং আউটপোস্টগুলোতে আক্রমণ চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, যতক্ষণ না ভিতরে যারা রয়েছে তারা আত্মসমর্পণ করে।

আরাকান আর্মি রবিবারের দেওয়া বিবৃতিতে বলেছে, জান্তার সামরিক বাহিনী এখনও রাখাইন রাজ্যে তার ব্যর্থতার বাস্তবতাকে মেনে নিতে পারে না এবং এটি বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে ফ্যাসিবাদী সন্ত্রাস করার এবং পরিবহন, তথ্য ও পণ্যের প্রবেশাধিকার বন্ধ করে পশ্চিম রাজ্যকে বিচ্ছিন্ন করার অভিযোগ করেছে।

ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্স বেসামরিক নাগরিকদের রাখাইন রাজ্যে ল্যান্ডমাইনের ক্রমবর্ধমান বিপদ সম্পর্কে সতর্ক করে বলেছে, জান্তার সামরিক বাহিনী সেখানে তাদের ফাঁড়ি এবং ঘাঁটির চারপাশে ল্যান্ডমাইন স্থাপন করছে।

রাজ্যের বাসিন্দারা জান্তার সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিদিন মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুরছে।

১৭ ফেব্রুয়ারি জান্তার সৈন্যরা কিয়াউকফিউ শহরে চারজন বেসামরিক নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছিল, যখন তারা মিন তাত তাউং গ্রামে তাদের বাড়িতে ফিরে যাচ্ছিল। তাদের মুখ ঢেকে একটি সামরিক ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এএ হল ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের তিনটি জাতিগত সেনাবাহিনীর মধ্যে একটি, যেটি গত বছরের ২৭ অক্টোবর উত্তরাঞ্চলীয় শান রাজ্যে অপারেশন ১০২৭ চালু করেছিল।

১৩ নভেম্বর এএ উত্তর রাখাইন রাজ্যজুড়ে এবং প্রতিবেশী চিন রাজ্যের পালেতওয়া টাউনশিপে শাসকদের লক্ষ্যবস্তুর বিরুদ্ধে একটি বড় আকারের আক্রমণ শুরু করে।

উত্তরাঞ্চলীয় শান রাজ্যে জান্তার সামরিক বাহিনীকে অপমানিত করার পর এএ রাখাইন রাজ্যে একই কাজ করেছে। তারা ১৩ নভেম্বর থেকে ১৭০টিরও বেশি জান্তা ঘাঁটি এবং ফাঁড়ি দখল করেছে। সেইসঙ্গে রাখাইন রাজ্যের ছয়টি শহর- পাউকতাও, কিউকতাও, মিনবিয়া, ম্রাউক-উ, তাংপিওলেটওয়ে ও মাইবোন এবং চিন রাজ্যের একটি পালেতোয়া দখল করে।


আরও খবর