আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

ইতিহাসে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনা সমার্থক হয়ে থাকবে: : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৩ জুন ২০২১ | ৫৫৪জন দেখেছেন
তাছনিম আদনান

Image
বাঙালির মুক্তির সনদ ছয় দফা ঘোষণা করে মানুষকে বুঝিয়েছেন ছয় দফা হচ্ছে আমাদের মুক্তি, আমাদের স্বাধীকার, আমাদের অধিকার আদায়ের ম্যাগনাকার্টা

ইতিহাসে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনা সমার্থক হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

বুধবার (২৩ জুন) সাভারের বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএলআরআই) প্রাঙ্গণে ইনস্টিটিউ আয়োজিত খামারি মাঠ দিবস ২০২১ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। বিএলআরআই-এর ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগলের জাত সংরক্ষণ ও উন্নয়ন গবেষণা প্রকল্পের আওতায় এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, যতদিন বাঙালি জাতি থাকবে, যতদিন এই ভূখণ্ডে লাল-সবুজের পতাকা উড়বে, ততদিন আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা চিরঞ্জীব হয়ে থাকবে। ক্রান্তিকালে বিপর্যস্ত আওয়ামী লীগের দায়িত্ব নিতে হয়েছিল বঙ্গবন্ধুকে। আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পাওয়ার পর বাংলার পথে-প্রান্তরে তিনি মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছেন। বাঙালির মুক্তির সনদ ছয় দফা ঘোষণা করে মানুষকে বুঝিয়েছেন ছয় দফা হচ্ছে আমাদের মুক্তি, আমাদের স্বাধীকার, আমাদের অধিকার আদায়ের ম্যাগনাকার্টা। অপরদিকে শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে বিপর্যস্ত আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করেছেন, পুনরুজ্জীবিত করেছেন। সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে সরিয়ে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে প্রতিষ্ঠা করেছেন।

স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য খাতকে সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়েছেন উল্লেখ করে মন্ত্রী যোগ করেন, এ খাতকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বঙ্গবন্ধু তখন পরিকল্পনা করেছিলেন। সে সময় যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনে তিনি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদের বিকাশের কথা বলেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর দূরদৃষ্টিই প্রমাণ করে দেশের উন্নয়নের স্বার্থ বিবেচনায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ গৌণ কোন খাত নয়।

প্রাণিসম্পদ খাতের খামারিদের উদ্দেশে এ সময় মন্ত্রী বলেন, দেশের প্রান্তিক অঞ্চলের অসহাযয় মানুষরা কেউই বিপন্ন অবস্থাযয় থাকবে না। নিজেদের কখনো ছোট ভাববেন না। আপনারা নিজ উদ্যোগে স্বাবলম্বী হোন। সরকার আপনাদের পাশে আছে। করোনায় বিপর্যস্ত খামারিদের ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে। আরো প্রণোদনা দেওয়া হবে। সহজশর্তে স্বল্পসুদে ঋণ দেওয়া হবে। দেশের উন্নয়নে আপনাদের অবদান কোন অংশে কম নয়।

প্রাণিসম্পদ খাতে টিকা সমস্যাসহ অন্য যেকোন সমস্যা থাকলে তা সমাধান করা হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো যোগ করেন, প্রাণিসম্পদের যে রোগের কারণে খামারিরা শঙ্কায় থাকে, মাংস বিদেশে রপ্তানি করা যায় না, সে রোগগুলো নির্মূল করা হবে। সে লক্ষ্যে প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্টরা কাজ করছে। প্রাণিসম্পদ খাতে গৃহিত প্রকল্প গ্রামীণ নারীসহ দরিদ্র মানুষকে স্বাবলম্বী করে তুলছে। তারা অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হচ্ছেন, বেকারত্ব দূর হচ্ছে এবং উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে। গ্রামীণ অর্থনীতি সচল হচ্ছে। দেশের উন্নয়নে প্রান্তিক মানুষ অবদান রাখছে। এভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অগ্রসরমান বাংলাদেশ নির্মাণে এগিয়ে চলেছেন।

বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিএলআরআই এর মহাপরিচালক ড. মোঃ আবদুল জলিলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ। সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শাহ্ মোঃ ইমদাদুল হক ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ শেখ আজিজুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএলআরআই-এর অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আজহারুল আমিন। মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, বিএলআরআই ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের প্রাক্তন ও বর্তমান কর্মকর্তা ও বিজ্ঞানীগণ, বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধি এবং প্রাণিসম্পদ খাতের খামারিগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: শ ম রেজাউল করিম

আরও খবর



এবারের ঈদ আনন্দযাত্রা যেন কান্নায় রূপ না নেয়

প্রকাশিত:বুধবার ২১ জুলাই 20২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ জুলাই 20২১ | ১৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিজেদের সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে রাখা এবং অন্যকে সতর্ক করা প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঈদের এ আনন্দ ভ্রমণ যেন কান্নায় রূপ না নেয়।

বুধবার (২১ জুলাই) সকালে সরকারি বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

দেশের জনগণ ও দলের নেতাকর্মীদের আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, উৎসবের বর্ণিলতা করোনা বদলে দিয়েছে। তবুও জীবন এগিয়ে যায় জীবনের নিয়মে।

তিনি বলেন, দুর্যোগ আর ঘোর অমানিশায় আস্থার আলোকবর্তিকা বঙ্গবন্ধু কন্যা। সবার অব্যাহত সহযোগিতা ও স্রষ্টার অসীম কৃপায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ আঁধার কেটে আশার আলোকিত ভোরে নোঙর করব ইনশাআল্লাহ।

কাদের আরও বলেন, অনেকেই আজ অসহায়, কর্মহীন, ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বেগ আকুল। করোনার এ সংকটকালে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে যারা করোনাপীড়িতদের সেবা করছেন, সেই সম্মুখ যোদ্ধাদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি। দলমত নির্বিশেষে অসহায় মানুষ, প্রতিবেশি এবং পিছিয়ে পড়া স্বজনদের সাথে ঈদ আনন্দ উপভোগ করার আহ্বান জানান তিনি।



আরও খবর



তুরস্কে বাস দুর্ঘটনায় বাংলাদেশিসহ নিহত ১২

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | ১১৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

তুরস্কে অভিবাসী বহনকারী বাস দুর্ঘটনায় ১২ জন নিহত এবং ২৬ জন আহত হয়েছে। রোববার তুরস্কের পূর্বাঞ্চলে আফগান, বাংলাদেশি এবং পাকিস্তানি অভিবাসী বহনকারী বাসটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বলে নিশ্চিত করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

দুই প্রত্যক্ষদর্শীর বরাতে এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানিয়েছে, তুরস্কের ভ্যান প্রদেশের মুরাদিয়া জেলার ইরানি সীমান্তবর্তী এলাকায় রাস্তার পাশে একটি খাদে পড়ে এ দুর্ঘটনার শিকার হয় বাসটি। বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে গেলে তাতে আগুন ধরে যায়।

দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বাসমালিককে আটক করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ইউরোপে প্রবেশের ক্ষেত্রে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অন্যতম ট্রানজিট হলো তুরস্ক। ইরান, আফগানিস্তান এবং পাকিস্তান থেকে ইউরোপে ঢোকার চেষ্টায় ইরানী সীমান্ত থেকে প্রায়ই পায়ে হেঁটে তুরস্কে যায় অভিবাসনপ্রত্যাশীরা। সেখান থেকে ফেরিতে করে ইস্তাম্বুল এবং আঙ্কারায় যায় এসব অবৈধ অভিবাসীরা।



আরও খবর
ভারতে আবারও বেড়েছে মৃত্যু

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




ময়মনসিংহ মেডিকেলে ঝরল ১৪ প্রাণ

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন করোনায় এবং ১২ জন উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. মহিউদ্দিন খান মুন।

তিনি বলেন, শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত ইউনিটটিতে করোনায় মারা গেছেন- ময়মনসিংহ সদরের নাজনিন আক্তার (৫৮) ও টাঙ্গাইলের সখিপুর উপজেলার জেসমিন আক্তার (৪৫)।

এ ছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন- ময়মনসিংহ সদরের ইলমা (২৪), নাসরিন আক্তার (৩৮), ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আবদুর রউফ (৫৫), রাবেয়া আক্তার (৭৪), নেত্রকোনা সদরের আজিজুন্নেসা (৯২), পূূর্বধলার আফাজ উদ্দিন (৮৫), খালিয়াজুড়ির নূর জাহান (৭৫), জামালপুর সদরের রত্না বেগম (৩২), বকশিগঞ্জের আবদুল মান্নাফ (৬০), টাঙ্গাইলের ম্রিনাল (৬০), রাজিয়া বেগম (৭০) ও গাজীপুর সদরের আবদুর রাজ্জাক (৭৫)।

ডা. মহিউদ্দিন খান মুন জানান, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৪২৬ জন রোগী ভর্তি আছেন। এর মধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ২২ জন রোগী। নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬৬ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৭ জন।

এদিকে ময়মনসিংহ জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৮৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ৯০ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম।



আরও খবর



৪৫০০ টাকা ভাড়ায় আধুনিক ফ্ল্যাট পেল বস্তির তিনশ পরিবার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর মিরপুরে বস্তিবাসীদের জন্য ১৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে বহুতল ভবনে ৫৩৩টি আধুনিক ফ্ল্যাট নির্মাণ করেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার।

এর মধ্যে প্রথম দফায় ৩০০টি ফ্ল্যাট হস্তান্তর করা হয়েছে।

বস্তির ঝুপড়ি ঘরের সমান বা তার চেয়েও কম ভাড়ায় এসব আধুনিক ফ্ল্যাট পাচ্ছেন বস্তিবাসীরা।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের স্ব-অর্থায়নে বস্তিবাসীদের জন্য মিরপুরে নির্মিত ভাড়াভিত্তিক ৩০০টি ফ্ল্যাট হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দ্বিতীয় দফায় বাকি ২৩৩টি ফ্ল্যাট হস্তান্তর করা হবে।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে নির্বাচিত ৩ জন উপকারভোগী বস্তিবাসীর হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে বরাদ্দপত্র তুলে দেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ।

এ সময় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

বিভিন্ন সময় বস্তি পরিদর্শনের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিভিন্ন সময় বস্তিতে ঘুরার সময় দেখেছি তাদের মানবেতর জীবন। 

তিনি বলেন, বস্তিতেও তাদের ভাড়া দিয়ে থাকতে হয়। সেখানে রান্নার আলাদা ব্যবস্থা থাকে না, বাথরুমের জন্য লাইন ধরতে হয়, নোংরা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। এসব ফ্ল্যাট স্বাস্থ্য সম্মত, উন্নত-আধুনিক সুবিধা সম্বলিত। আজকে ফ্ল্যাট পেয়ে বস্তির এ মানুষগুলো সুন্দর জীবন পাবে এটা ভালো লাগছে।

পর্যায়ক্রমে বস্তিবাসীদের জন্য আরও ভাড়াভিত্তিক ফ্ল্যাট করার পরিকল্পনার কথা জানান প্রধানমন্ত্রী।

দেশের সবার জন্য আবাসন নিশ্চিত করতে সরকারের কার্যক্রমের কথা তুলে ধরে টানা তিনবারের সরকার প্রধান বলেন, বাংলাদেশে কেউ গৃহহীন থাকবে না।

একই অনুষ্ঠান থেকে প্রধানমন্ত্রী মুজিববর্ষ উপলক্ষে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় কর্তৃক সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ঢাকায় নির্মিত ২৪৭৪টি ফ্ল্যাট সংবলিত ৫টি আবাসন প্রকল্প এবং মাদারীপুরে নির্মিত সমন্বিত অফিস ভবন উদ্বোধন করেন।

এ সময় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার।

জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের নিজস্ব অর্থায়নে মিরপুরের ১১ নম্বর সেকশনের বাউনিয়া বেড়িবাঁধ এলাকায় ছয় বিঘা জমির ওপর ১৪তলার পাঁচটি ভবনে ৫৩৩টি আধুনিক সুবিধাসম্পন্ন ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হয়েছে।

প্রতিটি ভবনে রয়েছে কমিউনিটি হল, দুটি লিফট ও প্রশস্ত সিঁড়ি, অগ্নিনির্বাপণ ও সৌর বিদ্যুতের ব্যবস্থা, ৪০ কেভিএ জেনারেটর ও ২৫০ কেভিএ সাব-স্টেশন, প্রশস্ত ওয়াকওয়ে ও সৌন্দর্যবর্ধনের লাইটিংসহ আধুনিক সুবিধা।

৬২০ থেকে ৭১৯ বর্গফুট আয়তনের প্রতিটি ফ্ল্যাটে রয়েছে দুটি করে বেডরুম, একটি বারান্দা, একটি ড্রয়িং রুম, বেসিন, রান্নাঘর ও দুটি বাথরুম। ফ্ল্যাটের দুই পাশে ফাঁকা জায়গা। ফ্ল্যাটগুলো টাইলস করা।

প্রাথমিক পরিকল্পনা অনুযায়ী আধুনিক এসব ফ্ল্যাটের ভাড়া সাড়ে ৭ হাজার টাকা রাখার পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে, এ ভাড়া আরও কমতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

রাজধানীর বিভিন্ন বস্তিতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সাধারণত বস্তিতে টিনের ঝুপড়ি ঘরে এ আকারের একেকটি রুমের ভাড়া ৩ থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা। বস্তিতে অনেকগুলো পরিবারকে অত্যন্ত নিম্নমানের একই টয়লেট, রান্নাঘর ও গোসলখানা ব্যবহার করতে হয়। আধুনিক সুবিধা বলতে কিছুই থাকে বস্তিতে।

তুলনা করলে অর্থের পরিমাণের দিক থেকে বহুতল ভবনে নির্মিত এসব ফ্ল্যাটের ভাড়া বস্তির ঝুপড়ি ঘরের সমান বা কম।

আধুনিক ফ্ল্যাটগুলোর ভাড়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে প্রকল্প পরিচালক ও জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. মোস্তফা কামাল বলেন, ফ্ল্যাটগুলোর ভাড়া আমাদের ডিপিপিতে সাড়ে সাত হাজার টাকা আছে। এখন এটা হয়তো পুর্নবিবেচনা করবে। কমাতে পারে, এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

তিনি বলেন, স্বাভাবিকভাবে বস্তিতে ভাড়া যে রকম সে রকমই নেওয়া হবে। ওখানে আশপাশে বস্তিতে যারা থাকেন, সেখানে তারা একটা রুম ৩ হাজার থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা ভাড়া দিয়ে থাকেন।

৫৩৩টি ফ্ল্যাটের মধ্যে প্রথম দফায় ৩০০টি হস্তান্তরের পর বাকিগুলো কবে নাগাদ হস্তান্তর করা হবে জানতে চাইলে মোস্তফা কামাল বলেন, ডিসেম্বরে প্রকল্পের মেয়াদ শেষের মধ্যে বাকি ২৩৩টি ফ্ল্যাট হস্তান্তর করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগামীতে বস্তিবাসীর জন্য এ রকম আরও ফ্ল্যাট নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

মঙ্গলবার বস্তিবাসীর মধ্যে ভাড়াভিত্তিক এসব ফ্ল্যাট হস্তান্তর ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য রাজধানীর মতিঝিল, আজিমপুর, মিরপুর, মালিবাগ ও তেজগাঁও এলাকায় পাঁচটি আবাসন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন।


আরও খবর



নাক কাটলেন সারা আলী!

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১ | ৩৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডের তরুণ অভিনেত্রী সারা আলী খানের নাক কেটে গেছে। রক্ত ঝরার কারণে ব্যান্ডেজও করতে হয়েছে। ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিওতে খবরটি নিজেই জানিয়েছেন সারা।

ভিডিওর ক্যাপশনে বাবা-মায়ের কাছে ক্ষমা চেয়ে সারা লিখেছেন- 'সরি মা-বাবা, আমি নাক কেটে ফেলেছি।'

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে- নাকের উপর ব্যান্ডেজ লাগিয়ে রেখেছেন এই অভিনেত্রী। ব্যান্ডেজটি ওঠাতেই দেখা গেলো তার নাকের উপর রক্ত লেগে আছে।

তবে কীভাবে নাক কেটেছেন সে বিষয়ে কিছুই জানাননি সারা। নেটাগরিকদের অনেকেই ভাবছেন, হয়তো শুটিংয়ের সময় এমনটা হয়েছে অথবা মজার ছলেই এমন সাজ নিয়েছেন তিনি। তবে ভক্তরা প্রিয় অভিনেত্রীর সুস্থতা কামনা করেছেন।


আরও খবর
পরীমনির বাসায় শত শত মদের বোতল

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১

নায়িকা পরীমণি আটক

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১