আজঃ বুধবার ২২ মে ২০২৪
শিরোনাম

ঝুঁকি নিয়েই নড়বড়ে বাঁশের সাঁকোয় পারাপার

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
সুজন কুমার মন্ডল, জয়পুরহাট

Image

জয়পুরহাটের তেঘরবিশার জুংলিপাড়া-আজাদপাড়া খালের ওপর তৈরি বাঁশের সাঁকোটি দীর্ঘদিন ধরে নড়বড়ে অবস্থায় রয়েছে। বাঁশ সরে গিয়ে মাঝেমধ্যেই ঘটছে ছোট বড় দুর্ঘটনা। ফলে ঝুঁকি নিয়েই প্রতিদিন এই সাঁকোটি দিয়ে যাতায়াত করছেন শিক্ষার্থীসহ দুই পাড়ের হাজারো বাসিন্দা।

সরেজমিনে দেখা যায়, জয়পুরহাট সদর উপজেলার মোহাম্মাদাবাদ ইউনিয়নের তেঘরবিশার জুংলীপাড়া-আজাদপাড়া গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করেন এই বাঁশের সাঁকো দিয়ে। যুগের পর যুগ সেতু নির্মাণ না হওয়ায় গ্রামবাসীরা নিজ উদ্যোগে এই সাঁকোটি নির্মাণ করেছেন। কিন্তু সাঁকোটি এখন নড়বড়ে অবস্থায় রয়েছে।

এছাড়া কিছু জায়গা ভেঙে যাওয়ায় সাঁকোটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। সাঁকোটি দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে না পারায় পায়ে হেটে একপাশ থেকে অন্যপাশে যেতে হয় সবাইকে। ফলে রোগী কিংবা মালামাল পারাপারে দুর্ভোগের শেষ থাকে না স্থানীয়দের। বাসিন্দাদের দাবি, এই সাঁকোটি ভেঙে যেন সেখানে দ্রুত একটি নতুন সেতু নির্মাণ করা হয়।

জুংলীপাড়ার বাসিন্দা শারমিন আক্তার বলেন, এই বাঁশের সাঁকোটির কারণে আমাদের অনেক সমস্যা হয়। সাঁকোটি দিয়ে যাতায়াতের সময় অনেকেই খালের ভেতর পড়ে গিয়ে হাত-পা ভেঙ্গেছেন। সরকার যদি এখানে একটি সেতু করে দেয় তাহলে আমাদের অনেক সুবিধা হবে।

আজাদপাড়া গ্রামের বাসিন্দা কামরুজ্জামান বলেন, দুই গ্রামের শতশত মানুষ প্রতিদিন এই বাঁশের সাঁকো দিয়ে চলাচল করেন। এখানে নতুন করে সেতু হওয়ার কথা আমরা দীর্ঘদিন ধরে শুনছি। চেয়ারম্যান, মেম্বার, ইঞ্জিনিয়ার এসে বারবার মাপা জোক করে নিয়ে যান। কিন্তু কাজ হয় না। আমাদের গ্রাম থেকে সরাসরি ভ্যান ও রিকশাসহ কোনো যানবাহন চলাচল করে না। এতে আমাদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

মোসলেম উদ্দীন বলেন, আমরা গ্রামবাসীদের কাছ থেকে বাঁশ নিয়ে নিজেরাই এই সাঁকোটি নির্মাণ করেছিলাম। কিন্তু কয়েক মাস যেতেই বাঁশগুলো ভেঙে যায়। এই সাঁকো দিয়ে কোনো পরিবহন যাতায়াত করতে পারে না। কেউ অসুস্থ হলে হাসপাতালে নেওয়ার সময় কাঁধে করে রোগীকে খালের অন্য পাড়ে নিয়ে যেতে হয়। কোনো মালামালও আনা যায় না সেতুর অভাবে। আমরা সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, এখানে যেন দ্রুত একটি সেতু নির্মাণ করা হয়।

মোহাম্মদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান জানান, জনদুর্ভোগের কথা ভেবে সেতু তৈরির ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

জয়পুরহাট সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সেতুটি নির্মাণের প্রস্তাব কর্তৃপক্ষকে পাঠানো হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: জয়পুরহাট

আরও খবর



আরও কমলো স্বর্ণের দাম

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ এপ্রিল ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে দেশে আবারও কমেছে স্বর্ণের দাম। ভরিতে ৩১৫ টাকা কমিয়ে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১২ হাজার ৬১৬ টাকা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)।

রোববার (২৮ এপ্রিল) এক বিজ্ঞপ্তিতে বাজুস এ তথ্য জানায়। আজ বিকেল ৪টা থেকে নতুন দাম কার্যকর হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্থানীয় বাজারে তেজাবি স্বর্ণের (পিওর গোল্ড) মূল্য কমেছে। ফলে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বর্ণের নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে।


আরও খবর



ভোটারের ভোট নিজে দিয়ে দেয়ায় পোলিং অফিসারকে প্রত্যাহার

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জামালপুর প্রতিনিধি

Image

জামালপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে এক ভোটারের ভোট নিজে দিয়ে দেয়ায় পোলিং অফিসার মো: জাহিদুল ইসলামকে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করেছেন কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার।

বুধবার বেলা ১১ টার দিকে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২ নং কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

পরে সাংবাদিকের প্রশ্নের মুখে কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার কোরবান আলী সঙ্গে সঙ্গে সেই পোলিং অফিসারকে প্রত্যাহার করেন।

প্রত্যাহার হওয়া পোলিং অফিসার মো: জাহিদুল ইসলাম নান্দিনা পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

ভোটারদের অভিযোগ, যে প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার কথা সে প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন নি তারা। পরবর্তীতে পোলিং অফিসার নিজে গোপন কক্ষে বুথের দুইটি বাটন চাপতে বলেন। সেই বাটন চাপলে ভোট অন্য জায়গায় পড়ার অভিযোগ তুলেন তারা।

এসময় প্রিজাইডিং অফিসারের সাথে তর্কে জড়িয়ে পরেন ভোটাররা। শেখ ফকরুল হুদা নামের এক ভোটার প্রশ্ন করেন, আমার ভোটের কি হবে। এই উত্তর দিতে পারেনি প্রিজাইডিং অফিসার।

কেন্দ্রটির প্রিজাইডিং অফিসার কোরবান আলী বলেন, আমরা ঘটনাটি শুনেছি কোনো বিশৃঙ্খলা হওয়ার আগেই দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রিজাইডিং অফিসারকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।


আরও খবর



এএফআইপি ভবন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঢাকা সেনানিবাসে নবনির্মিত আর্মড ফোর্সেস ইনস্টিটিউট অব প্যাথলজি (এএফআইপি) ভবন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার (৫ মে) সকাল সোয়া ১০টার দিকে ভবনটির উদ্বোধন করেন তিনি।

উদ্বোধন শেষে প্যাথলজি ঘুরে ঘুরে দেখেন। এর পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আর্মি সেন্ট্রাল অডিটোরিয়াম সেনা প্রাঙ্গণ’ ভবনের উদ্বোধন করেন তিনি।


আরও খবর



১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৩ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সাধারণ রোগীদের মতো ১০ টাকার টিকিট কেটে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে নিজের চোখ পরীক্ষা করিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (৩ মে) সকালে ওই হাসপাতালে যান প্রধানমন্ত্রী। তারপর লাইনে দাঁড়িয়ে নিজেই টিকিট সংগ্রহ করেন।

এরপর প্রধানমন্ত্রী সাধারণ রোগীদের মতোই নিজের চোখ পরীক্ষা করান। সরকারি হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ ঘটনা দেখে উপস্থিত অনেকেই উচ্ছ্বাস ও আনন্দ প্রকাশ করেন।


আরও খবর



গরম কমলে বড় আকারে আন্দোলনে নামবো: মান্না

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১০ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, গরম কমে গেলে আমরা আরও বড় আকারে আন্দোলনে নামব। দেশের মানুষের জন্য আমাদের লড়াই করতে হবে।

শুক্রবার (১০ মে) প্রেস ক্লাবের সামনে এক অবস্থান কর্মসূচিতে তিনি এ কথা বলেন।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, এই আন্দোলন আওয়ামী লীগকে সরিয়ে বিএনপিকে ক্ষমতায় আনার আন্দোলন নয়। এ আন্দোলন হবে জিনিসপত্রের দাম কমানোর, ঋণের বোঝা কমানোর এবং বিদ্যুতের দাবি আদায়ের আন্দোলন।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারকে মানি না এবং মানবোও না। শেখ হাসিনা সরকারের সঙ্গে কোনো আপস নেই। তারা দেশের মানুষকে অসুস্থ করে নিজেদের চেহারা ভালো করেছে।

গণতন্ত্র মঞ্চের শীর্ষ এই নেতা বলেন, আগামী ৩ মাস বিদেশ থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আমদানি করার টাকাও এই সরকারের কাছে নেই। রপ্তানি বাড়ানোর সুযোগও নেই। শুধুমাত্র বিদেশিরা ডলার দিলে এদেশ বাঁচতে পারে।

কর্মসূচিতে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মুয়াজ্জেব হোসেন আলাল, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর