আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

জিরোনাকে বিধ্বস্ত করে শীর্ষস্থান মজবুত রিয়ালের

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

জিরোনাকে ৪-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান শক্ত করলো রিয়াল মাদ্রিদ।

শনিবার (১০ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুয়ে ভিনিসিয়ুস-বেলিংহাম-রদ্রিগো শোতে টেবিলের দ্বিতীয় দলকে হারিয়ে শীর্ষস্থান পাকাপোক্ত করে কার্লো আনচেলত্তির দল।

তিন মাসের বেশি সময় ধরে টেবিলের শীর্ষস্থান নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের ঘাড়ের ওপর নিশ্বাস ফেলছিল জিরোনা। তবে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় দেখায়ও ঠিকই মাদ্রিদের কাছে বিধ্বস্ত হলো মাদ্রিদ। গত সেপ্টেম্বরে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ৩-০ গোলে হেরেছিল জিরোনা। এই মৌসুমে এ নিয়ে মোট দুইবার হারের মুখ দেখলো তারা। যার দুটোই মাদ্রিদের বিপক্ষে।

মাঠে নেমে এদিন ৬ মিনিটেই এগিয়ে যায় মাদ্রিদ। বক্সের বাইরে থেকে কোনাকুনি দুর্দান্ত এক শটে গোল করে রিয়ালকে এগিয়ে দেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। ৩৫ মিনিটে দ্বিতীয় গোলেও ছিল ভিনিসিয়ুসের অবদান। এবার তার বাড়ানো বল থেকে গোল করেন বেলিংহাম।

দ্বিতীয়ার্ধে নেমেও চলতে থাকে ভিনিসিয়ুস-বেলিংহাম-রদ্রিগো শো। ৫৪ মিনিটে ফের ভিনিসিউসের অ্যাসিস্টে গোল করেন বেলিংহাম। এই গোল করেই বেলিংহাম স্বদেশি ডেভিড বেকহ্যামকে ছুঁয়ে ফেলেন। রিয়ালের জার্সিতে এখন দুজনেরই ২০টি করে গোল। বেকহ্যাম ২০টি গোল করতে ১৫৯টি ম্যাচ খেললেও মাত্র ২৮ ম্যাচেই ২০ গোল করলেন বেলিংহাম। ৬৪ মিনিটে অ্যাসিস্টের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ভিনিসিউস। তার বাড়ানো বল জালে পাঠান রদ্রিগো।

এই জয়ে লা লিগার শিরোপা লড়াইয়ে পাঁচ পয়েন্ট ব্যবধানে এগিয়ে গেল কার্লো আনচেলত্তির দল। ২৪ ম্যাচ শেষে রিয়ালের পয়েন্ট ৬১, জিরোনার ৫৬।


আরও খবর



সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

সিলেট নগরীর শাহজালাল উপশহর আবাসিক এলঅকা থেকে তালাবদ্ধ একটি বাসার দরজা ভেঙে এক গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধূর (২২) বাবার বাড়ি দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজার থানাধীন কুচাই গ্রামে। তার স্বামী ফ্রান্সপ্রবাসী বলে জানা গেছে। তার এমন মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় বাসার কেয়ারটেকারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ভোররাত ৪টার দিকে ই-ব্লকের ৭ নং রোডের ২৫ নং বাসা থেকে এই মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

আরও পড়ুন>> গাজীপুরে কারখানায় বিস্ফোরণে নিহত ১, আহত ৬

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত গৃহবধূ উপশহরের ই-ব্লকের ৭ নং রোডের ২৫ নং বাসার ৩ তলার একটি ইউনিট ভাড়া নিয়েছেন কিছুদিন আগে। ভাড়া নেওয়ার সময় তার স্বামী ফ্রান্স প্রবাসী বলে মালিককে জানিয়েছিলেন। তিনি বেশিরভাগ সময় একাই বাসায় থাকতেন। মাঝে-মধ্যে তার এক ছোট ভাই ও এক ছোট বোন তার সঙ্গে থাকতেন। কয়েকদিন ধরে তার ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পান প্রতিবেশিরা। মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে ঘর থেকে উৎকট দুর্গন্ধ বের হলে পুলিশে খবর দেওয়া হলে, পুলিশ এসে বুধবার ভোররাত ৪টার দিকে দরজা ভেঙে গলিত অবস্থায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে।

শাহপরান থানার ওসি মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশটি পঁচে-গলে গেছে। শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন আছে কি না স্বাভাবিকভাবে দেখার উপায় নেই। ময়না তদন্ত শেষে বলা যাবে, কীভাবে মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাসার কেয়ারটেকারকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনার বিস্তারিত জানতে কাজ করছে পুলিশ।


আরও খবর



রাবিতে ভর্তি হতে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন ৪৭ পরীক্ষার্থী

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আসিক আদনান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

Image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার চূড়ান্ত আবেদনের সময়সীমা শেষ হয়েছে। এতে মোট আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৮৫ হাজার ৬৮০টি। এবার মোট আসন রয়েছে ৩ হাজার ৯০৪টি। প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন ৪৭ জন ভর্তিচ্ছু।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে।

তিনি বলেন, রাবির ভর্তি পরীক্ষার চূড়ান্ত আবেদনের সময়সীমা শেষ হয়েছে। গত ২৬ জানুয়ারি থেকে ২৯ জানুয়ারি প্রথম দফার আবেদন পূর্ণ না হওয়া সাপেক্ষে দ্বিতীয় দফায় ১ থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি, তৃতীয় দফায় ৬ থেকে ৭ ফেব্রুয়ারি এবং চতুর্থ দফায় ১০ ও ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ পান ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীরা।

আবেদন জমা হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, তিনটি ইউনিটে সর্বমোট আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৮৫ হাজার ৬৮০টি। ইউনিটে (মানবিক বিভাগ) চূড়ান্ত আবেদন জমা পড়েছে ৭৪ হাজার ৭৮৫টি, বি ইউনিটে (বাণিজ্য বিভাগ) ৩৪ হাজার ৫৪১টি ও সি ইউনিটে (বিজ্ঞান বিভাগ) ৭৬ হাজার ৩৫৪টি।

যেহেতু বি ইউনিটে চূড়ান্ত আবেদনকারীর সংখ্যা খুবই কম, তাই বি ইউনিটে আবেদনের আর কোনো সুযোগ রাখা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, সাধারণত বি ইউনিটে চূড়ান্ত আবেদনকারীর সংখ্যা একটু কমই হয়। আবেদনের জন্য সময় বেশি দেওয়া হলেও আবেদনকারীর সংখ্যা খুব একটা বাড়বে না। তাই আমরা আর অতিরিক্ত সময় দেবো না।

আগামী ৫ মার্চ সি ইউনিট, ৬ মার্চ ইউনিট এবং ৭ মার্চ বি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছরের মতো এ বছরও দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ থাকছে। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় গত বছরের মতো ৮০টি বহুনির্বাচনি প্রশ্নের মান হবে ১০০ নম্বর। ১ ঘণ্টা সময়সীমায় অনুষ্ঠিত প্রতিটি বহুনির্বাচনি প্রশ্নের মান হবে ১.২৫। ভর্তি পরীক্ষা তিনটি ইউনিটে অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর
জাবির ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




পোস্তগোলা সেতু সংস্কারের তৃতীয় দিনে যান চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সংস্কার কাজ শুরু হওয়ার তৃতীয় দিনের মতো রাজধানীর পোস্তগোলা সেতুর ওপর দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। রাজধানীতে প্রবেশে ও বের হওয়ার জন্য পদ্মা সেতু হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলায় যাওয়ার অন্যতম মাধ্যম পোস্তগোলা সেতু।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সেতু দিয়ে যান চলাচলের ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা দিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ। যদিও গত বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া সংস্কার কাজ শুরুর সময়ে হালকা যান চলাচলের অনুমতি ছিল।

আগামী ৮ মার্চ পর্যন্ত এই ১৬ দিন সেতু দিয়ে চলাচলকারী যানবাহনগুলোকে বিকল্প পথ ব্যবহার করতে অনুরোধ করেছে সংস্থাটি। একই অনুরোধ জানিয়ে বিকল্প রুটের নির্দেশনাও দিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগ।

এ বিষয়ে সওজের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. সবুজ উদ্দিন খান সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে আগামী ৮ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান (এন-৮ ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে) মহাসড়কের তৃতীয় কিলোমিটারে অবস্থিত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী বুড়িগঙ্গা সেতু-১ এর (পোস্তগোলা সেতু) দুটি গার্ডারের মেরামত ও রেট্রোফিটিং কাজ করা হবে। 

এজন্য ভারী যানবাহন (ট্রাক-পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান, কনটেইনারবাহী লরি) ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত এবং হালকা যানবাহন (বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি, অটোরিকশা ইত্যাদি) ২৪ ও ২৬ এবং ১, ৪ ও ৮ মার্চ- এই পাঁচদিন বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে ।

আর যাত্রাবাড়ী থেকে ছেড়ে আসা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কগামী যানবাহন ধোলাইপাড় বাসস্ট্যান্ড ও বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন হয়ে মহাসড়কে প্রবেশ করবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়ক হতে যাত্রাবাড়ীগামী যানবাহন তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন-বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে ধোলাইপাড় হয়ে যাত্রাবাড়ী প্রবেশ করবে। গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণ অঞ্চলগামী যানবাহন পাটুরিয়া দৌলতদিয়া ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে। দেশের পূর্বাঞ্চলদক্ষিণ পূর্বাঞ্চল হতে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলদক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলগামী যানবাহন চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে। দেশের উত্তরাঞ্চল হতে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহন বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে যাতায়াত করবে।

হালকা যানবাহনের জন্য বিকল্প সড়ক:

পদ্মা সেতু হতে নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামমুখী যানবাহন শ্রীনগর-মুন্সীগঞ্জ- মুক্তারপুর সেতু- তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু- মদনপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। সিলেট, চট্টগ্রাম হতে পদ্মা সেতুমুখী যানবাহন মদনপুর হতে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু- মুক্তারপুর সেতু মুন্সীগঞ্জ- শ্রীনগর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। পদ্মা সেতু হতে ঢাকাগামী যানবাহন শ্রীনগর দোহার- নবাবগঞ্জ- কেরানীগঞ্জ (আর-৮২০) সড়ক, তুরাগ-রোহিতপুর (জেড-৫০৬৯), আব্দুল্লাহপুর- রাজাবাড়ী বাজার-কোনা খোলা মোড়-বছিলা সেতু- মোহাম্মদপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। 


আরও খবর



দু'দলের সঙ্গে পিটিআইয়ের জোট, সরকার গঠনে ইমরানের নতুন নির্দেশনা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানে ধর্মভিত্তিক দল মজলিস ওয়াহদাত-ই-মুসলিমিন (এমডব্লিউএম)-এর সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে কেন্দ্র ও পাঞ্জাবে সরকার গঠন করবে দেশটির কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রতিষ্ঠিত পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। সেই সঙ্গে, জামায়াত-ই-ইসলামির সঙ্গে খাইবার পাখতুনখোয়াতে প্রাদেশিক আইনসভায় সরকার গঠন করবে দলটি।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ইসলামাবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির মুখপাত্র রাউফ হাসান জানিয়েছেন, ইমরান খানের নির্দেশে সরকার গঠনে এগিয়ে যাবেন তারা। রাউফ হাসান আরও বলেন, জামায়াত-ই-ইসলামির সঙ্গে খাইবার পাখতুনখোয়াতে প্রাদেশিক পরিষদে সরকার গঠন করবে পিটিআই।

এখন পর্যন্ত পাকিস্তানের ১৬তম জাতীয় নির্বাচনের ফলে এগিয়ে রয়েছেন পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে নওয়াজ শরিফ এবং বিলাওয়াল ভুট্টোর দলের প্রার্থীরা। এছাড়া প্রাদেশিক পরিষদ পাঞ্জাব ও খাইবার পাখতুনখাওয়াতেও জয় পেয়েছে পিটিআইয়ের সমর্থিত প্রার্থীরা। দেশটিতে চরম নাটকীয়তা ও অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে সাধারণ নির্বাচন।

তিনি বলেন, মজলিস ওয়াহদাত-ই-মুসলিমিন (এমডব্লিউএম)-এর সঙ্গে কেন্দ্র ও পাঞ্জাবে জোটবদ্ধ হয়ে সরকার গঠন করবেন তারা। ইমরান খান এমন জোট গঠনে নির্দেশ দিয়েছেন।

তবে এক প্রশ্নের জবাবে রউফ স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, নওয়াজ শরিফ, বিলাওয়াল ভুট্টো এবং এমকিউএম-পাকিস্তানের সঙ্গে কোন অবস্থায় জোটবদ্ধ হবে না পিটিআই।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, সরকার গঠন প্রসঙ্গে ইমরান খানের স্পষ্ট বার্তা হচ্ছে, যারা নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন তাদের সরকার গঠনের অধিকার রয়েছে।


আরও খবর



‘সার সরবরাহের জন্য বরাদ্দ ১৭ হাজার কোটি টাকা’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কৃষিমন্ত্রী উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ বলেছেন, কৃষককে যাতে আমদানিমূল্যে সার ক্রয় করতে না হয়, সে লক্ষ্যে চলতি অর্থবছরে ১৭ হাজার কোটি টাকা উন্নয়ন সহায়তা বাবদ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে প্রশ্ন উত্তর পর্বে তিনি কৃষক পর্যায়ে সাশ্রয়ীমূল্যে সার সরবরাহ অব্যাহত থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন।

বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মুজিবুল হক চুন্নুর লিখিত প্রশ্নের জবাবে কৃষি মন্ত্রী জানান, আমদানিকৃত সার কৃষক পর্যায়ে সরকার নির্ধারিত ভর্তুকিমূল্যে টিএসপি প্রতি কেজি ২৭ টাকা, এমওপি প্রতি কেজি ২০ টাকা এবং ডিএপি প্রতি কেজি ২১ টাকায় বিক্রয় করছে। ২০০৯ সালের পূর্বে প্রতি কেজি টিএসপি, এমওপি এবং ডিএপি সারের বিক্রয়মূল্য যথাক্রমে ৮০, ৭০ ও ৯০ টাকা ছিল। 

আরও পড়ুন>> অনলাইন গণমাধ্যমের জন্য বিজ্ঞাপন নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে : আরাফাত

মন্ত্রী আব্দুস শহীদ জানান, কৃষি উৎপাদন ব্যয় যাতে ব্যাহত না হয়, সে লক্ষ্যে সরকার সার ও কৃষি যন্ত্রপাতিতে উন্নয়ন সহায়তা প্রদান করছে। সেচ ও ভালো মানের বীজ সাশ্রয়ী মূল্যে সরবরাহ করছে। বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার সমন্বিত কৃষি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ শীর্ষক মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে হাওর ও উপকূলীয় এলাকায় ৭০ শতাংশ এবং অন্যান্য এলাকায় ৫০ শতাংশ উন্নয়ন সহায়তায় মাধ্যমে কৃষকদের মাঝে আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ করা হচ্ছে।

কৃষি মন্ত্রী বলেন, নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনের ও পরিবেশ সুরক্ষার লক্ষ্যে কীটনাশকের ব্যবহার কমানোর প্রক্রিয়া চলছে। জৈব কৃষি ও জৈব বালাইনাশকের ব্যবহারসহ সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ফসলের রোগ ও পোকামাকড় দমন ব্যবস্থাকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। ফলে কীটনাশকের ব্যবহার প্রতিনিয়ত হ্রাস পাচ্ছে।

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য এম আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে কৃষিমন্ত্রী জানান, সমগ্র দেশের প্রান্তিক কৃষকদের এবং কৃষি উন্নয়নের লক্ষ্যে ৫০টি প্রকল্প ধারণাপত্র (পিসিপি) যাচাই করা হচ্ছে, যা থেকে নতুন প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। কৃষক ও কৃষির উন্নয়নে নতুন পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে- দুই কোটি ২৭ লক্ষ কৃষককে স্মার্ট কার্ড দেওয়া, ১০ লাখ কৃষককে উত্তম কৃষি চর্চার প্রশিক্ষণ দেওয়া, ৫০ লাখ কৃষককে সম্প্রসারণ সহায়তা, উন্নয়ন সহায়তা ও ঋণ সহায়তা দেওয়া, ২০ হাজার কৃষি উদ্যোক্তা সৃষ্টি, ১০টি অ্যাক্রেডিটেশন ল্যাব স্থাপন, ১০ লাখ হেক্টর জমিতে সেচ উন্নয়ন, দুই লাখ হেক্টর জমিতে উচ্চ ফলনশীল জাতের অ্যাডাপটেশন, ক্লাইমেট স্মার্ট ও কৃষির প্রবর্তন।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪