আজঃ বুধবার ২১ এপ্রিল 20২১
শিরোনাম

জনপদের সংবাদ | ফেনীতে বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০১ ডিসেম্বর ২০২০ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ২২১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

জনপদের সংবাদ


আরও খবর



ফ্রান্সে এক মাসের কঠোর লকডাউন ঘোষণা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ফ্রান্সে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে সাপ্তাহিক গড় সংক্রমণের হার প্রায় ৩৭৫ ছুঁয়েছে। দিনে ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। ফলে দেশের অনেক হাসপাতাল আর রোগী নিতে পারছে না

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ফ্রান্সে এক মাসের জন্য কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক টেলিভিশন ভাষণে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ এ ঘোষণা দেন। দেশের কিছু অংশে বিচ্ছিন্নভাবে যেসব কঠোর বিধিনিষেধ চালু ছিল, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গোটা দেশের জন্য সেগুলো প্রয়োগের সিদ্ধান্তের কথা জানান ম্যাক্রোঁ।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বলেন, মহামারির প্রত্যেকটি পর্যায়ে হয়তো ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে প্রতিবারই ভুল শুধরে নেওয়া হয়েছে। তার মতে, এখনই পদক্ষেপ না নিলে পরিস্থিতি আর নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থাকবে না।

দেশের বিপর্যস্ত অর্থনীতির স্বার্থে ম্যাক্রোঁ এতোদিন পর্যন্ত তৃতীয় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধান্বিত ছিলেন। নতুন বিধিনিষেধের আওতায় আগামী সপ্তাহান্ত থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর দোকান ছাড়া বাকি সব দোকানপাট বন্ধ রাখা হবে। সন্ধ্যা ৭টা থেকে কারফিউ চালু হবে। মানুষ নিজের বাসা থেকে ১০ কিলোমিটারের বেশি দূরে যেতে পারবেন না। অর্থাৎ দেশের মধ্যে মানুষের যাতায়াত কার্যত বন্ধ রাখা হচ্ছে। সারা দেশে তিন সপ্তাহের জন্য স্কুল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।

ফ্রান্সে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে সাপ্তাহিক গড় সংক্রমণের হার প্রায় ৩৭৫ ছুঁয়েছে। দিনে ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। ফলে দেশের অনেক হাসপাতাল আর রোগী নিতে পারছে না। বিশেষ করে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটগুলো প্রায় ক্ষমতার সীমারেখায় পৌঁছে যাচ্ছে। ফলে এখনই ব্যবস্থা না নিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে। প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ অবশ্য হাসপাতালের সক্ষমতা বাড়ানোর ঘোষণা করেছেন। করোনা মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এক লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্য দেশগুলোর মতো ফ্রান্সেও করোনার টিকাদান কর্মসূচি ধীর গতিতে এগোচ্ছে। যথেষ্ট সংখ্যায় টিকার সরবরাহে ঘাটতির পাশাপাশি আমলাতান্ত্রিক জটিলতাকেও এই সংকটের জন্য দায়ী করা হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে মাত্র ১২ শতাংশ মানুষ টিকা পেয়েছেন। ম্যাক্রোঁ টিকাদান কর্মসূচিতে গতি আনার প্রয়োজনীয়তার কথাও উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে ৬০-এর বেশি বয়সের মানুষ এবং এর এক মাস পর ৫০-এর বেশি বয়সের মানুষ টিকা পাবেন। কড়া লকডাউন এবং দ্রুত টিকাদানের ফলে মে মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে ধাপে ধাপে কড়াকড়ি শিথিল করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।


আরও খবর



রাজশাহীতে ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রীসহ নিহত ৩

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | ১১১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহীতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক দম্পতিসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। আজ বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়কের পবা উপজেলার মুরারিপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার ঘাসিয়ালপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সাত্তার (৫৫), তাঁর স্ত্রী ফেরদৌসি বেগম (৪৭) এবং গোমস্তাপুর উপজেলার বাগডাস গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক আনসার আলী (৪৫)।

দামকুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব হোসেন জানান, আব্দুস সাত্তার তাঁর অসুস্থ স্ত্রীকে নিয়ে গোমস্তাপুর থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। পথে রাজশাহীর গোদাগাড়ী থেকে ওই অটোরিকশায় রায়হান শুভ নামের আরেক যুবক উঠেন। সিএনজি অটোরিকশাটি পবা উপজেলার মুরারিপুর এলাকায় আসার পর চাঁপাইনাবগঞ্জগামী একটি খালি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ফেরদৌসি বেগম ও সিএনজির চালক আনসার আলী নিহত হন। আহত হন দুজন। স্থানীয়রা আহত আব্দুস সাত্তার ও রায়হান শুভকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুস সাত্তার মারা যান। আহত শুভর অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

ওসি আরও জানান, দুর্ঘটনার পর ট্রাকের চালক-হেলপার পালিয়েছেন। ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া সিএনজিচালিত অটোরিকশাটিও উদ্ধার করা হয়েছে।


আরও খবর
গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৪

শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১




দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) নেপিয়ারে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ দলে পেসার সাইফুদ্দিন ও শরিফুল ও মুস্তাফিজের পরিবর্তে জায়গা পেয়েছেন তাসকিন আহমেদ ও রুবেল হোসেন। নিউজিল্যান্ড একাদশেও একটি পরিবর্তন। লকি ফারগুসনের জায়গায় খেলছেন অ্যাডাম মিলনে।

নিউজিল্যান্ডে ব্যর্থতা যেন পিছু ছাড়ছে না বাংলাদেশ দলের। ওয়ানডে সিরিজে ব্যর্থতার পর হার দিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৬৬ রানের বিশাল ব্যবধানে জয় পায় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড।

এর আগে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। ওই ম্যাচে কিউইদের হয়ে অধিনায়কত্ব করেন পেসার টিম সাউদি। বাংলাদেশকে ২১১ রানের টার্গেট দেয় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। ৩ উইকেট হারিয়ে এই বিশাল রান করে নিউজিল্যান্ড।

অপরদিকে ২১১ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে কিউই বোলারদের তোপের মুখে পড়ে টাইগাররা। উইকেটে আসা-যাওয়ার মিছিলে মাত্র ৫৯ রানে ৬ উইকেট হারায় মাহমুদউল্লাহ বাহিনী। দলীয় ২০ রানে ফিরে যায় ওপেনার লিটন দাস।

এরপর মোহাম্মদ নাঈমও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ফিরে যান ২৭ রান করে। সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন এবং অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও থিতু হতে পারেননি উইকেটে। টপ অর্ডারের ব্যর্থতায় মহাবিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ।

পরাজয় নিশ্চিত। তবে ব্যবধান কমানোটাই লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় তখন টাইগারদের। হাল ধরেন আফিফ হোসেন এবং মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। এই দুজনের দৃঢ়তায় শেষ পর্যন্ত ১৪৪ রান তুলতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের একাদশ:

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), লিটন দাস, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান, নাসুম আহমেদ,

নিউজিল্যান্ড একাদশ:

টিম সাউদি (অধিনায়ক), মার্টিন গাপটিল, ফিন অ্যালেন, ডেভন কনওয়ে, উইল ইয়াং, গ্লেন ফিলিপস, মার্ক চাপম্যান, ড্যারিল মিচেল, ইশ সোধি, হামিশ বেনেট, অ্যাডাম মিলেন।

নিউজ ট্যাগ: বাংলাদেশ দল

আরও খবর
টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

বুধবার ২১ এপ্রিল 20২১




অতিরিক্ত টমেটো খাওয়ার ক্ষতিকর দিক

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৬ মার্চ ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খাবারও, যতো পুষ্টিগুণে ভরপুরই হোক না কেনো তা অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে স্বাস্থ্যের অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে। ঠিক টমেটোও তাই। সবজি, সুপ বা সালাদ সর্বত্র মানানসই এই টমেটো। আর এ কারণেই হয়তো একটু বেশিই খাওয়া হয়ে থাকে টমেটো। নিয়মিত টমেটো খাওয়ার যেমন উপকার রয়েছে আবার অতিরিক্ত খাওয়ার ক্ষতিকর দিকও রয়েছে। এবার তাহলে ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

পেটের সমস্যা : টমেটো হজম প্রক্রিয়া ঠিক রাখে। তবে বেশি পরিমাণে খাওয়া হলে বিপরীতও হতে পারে। অতিরিক্ত টমেটো খাওয়ার ফলে পেট ফাঁপার সমস্যা হয়ে থাকে এবং অনেক সময় ডায়রিয়া পর্যন্ত হয়।

অ্যাসিড রিফ্লেক্স : প্রাকৃতিক এই সবজিতে প্রচুর পরিমাণ অ্যাসিড রয়েছে। কারো যদি অ্যাসিডের রিফ্লেক্স থাকে তাহলে টমেটো খুবই কম পরিমাণে খাওয়া উচিত। বেশি টমেটো খেলে পেটে অ্যাসিড হতে পারে।

কিডনিতে পাথরের সমস্যা : পটাসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার কিডনিজনিত সমস্যার শিকার রোগীদের কম খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা। টমেটোয় থাকা অক্সালেট কিডনিতে পাথর তৈরির কাজ করে থাকে। কিডনিজনিত সমস্যা থাকলে টমেটো খাওয়ার ব্যাপারে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন।

রক্তচাপজনিত সমস্যা : কাঁচা টমেটোয় সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকে। কিন্তু টমেটো দিয়ে সুপ তৈরির সময় যে সকল ধাতুজনিত উপকরণ ব্যবহার করা হয় তা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সোডিয়ামের পরিমাণ শরীরে বেশি হলে রক্তচাপ বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকে।

অ্যালার্জির সমস্যা : অতিরিক্ত টমেটো খাওয়ার ফলে অ্যালার্জি হতে পারে। একজিমা, ফুসকুড়ি, চুলকানি, গলা ব্যথা এবং মুখ ফোলাভাব হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এ কারণে যাদের অ্যালার্জিজনিত সমস্যা রয়েছে তাদের টমেটো না খাওয়াই ভালো।


আরও খবর



৮-৪ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে কাঁচাবাজার,শপিং মল বন্ধ

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | ১৩৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। আগামী ৫ এপ্রিল থেকে ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত এ লকডাউন কার্যকর করতে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে  মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। রবিবার (৪ এপ্রিল) এই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এতে বলা হয়, কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে। বাজার কর্তৃপক্ষ অথবা স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করবে। শপিং মলসহ অন্যান্য দোকানসমূহ বন্ধ থাকবে। তবে দোকানসমূহ পাইকারি ও খুচরা পণ্য অনলাইন-এর মাধ্যমে ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবে। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: শপিং মল বন্ধ

আরও খবর