আজঃ শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১
শিরোনাম

জুমআর দিন ক্ষমা ও মর্যাদার সহজ আমল

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ জানুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১২৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মানুষের প্রথম কাতারের সাওয়াব ও পুরস্কার সম্পর্কে জানা নেই। যদি প্রথম কাতারের সাওয়াব ও পুরস্কারের কথা জানতে পারতো তা হলে প্রথম সারির জন্য লটারির সাহায্য নেয়ার প্রয়োজন হতো

জুমআর নামাজের জন্য তাড়াতাড়ি মসজিদের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করাই এ দিনের প্রধান কাজ। এ দিন ক্ষমা মর্যাদা পাওয়ার সহজ আমল ঘোষণা করেছেন বিশ্বনবি। জুমআর দিনের মর্যাদাপূর্ণ এ আমলগুলো কী?

আজানের সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত মসিজদের দিকে যাওয়ার ব্যাপারে নির্দেশ দিয়েছে স্বয়ং আল্লাহ তাআলা। যারা এ নির্দেশ মেনে প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে গিয়ে প্রথম সারিতে অবস্থান নেবে তাদের জন্য তিন তিন বার মাগফেরাতের দোয়া করেছেন বিশ্বনবি। হাদিসে এসেছে-

হজরত ইরবাজ ইবনে সারিয়া রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রথম  কাতারের লোকদের জন্য তিনবার মাগফেরাতের (ক্ষমার) দোয়া করতেন। আর দ্বিতীয় সারির লোকদের জন্য একবার মাগফেরাতের দোয়া করতেন (ইবনে মাজাহ, নাসাঈ)

যারা প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে উপস্থিত হতে পারবেন তাদের দ্বারাই সম্ভব প্রথম সারিতে অবস্থান করা। আর তাতে মিলবে দুটি ফজিলত ও মর্যাদা। একটি হলো- প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে যাওয়ার কুরবানির সাওয়াব আর দ্বিতীয়টি হলো আল্লাহর কাছে ক্ষমা লাভ।

কেননা মুমিন মুসলমানের প্রতি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নসিহত ছিল যে, তারা জুমআর দিন প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে যাবে এবং প্রথম কাতারে অবস্থান করবে। আর তাতে মিলবে অসাধারণ সব নেয়ামত ও পুরস্কার। অন্য হাদিসে এসেছে-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণন করেন , রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি   জুমআর দিন অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে এমনভাবে গোসল করল যেমন পবিত্রতা অর্জনের জন্য গোসল করে। অর্থাৎ  অত্যন্ত   গুরুত্বের সঙ্গে সারা শরীর পানি ঢেলে খুব ভালোভাবে শরীর পরিস্কার করল তারপর প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে গিয়ে পৌঁছল। তাহলে সে যেনো একটি গরু কুরবানি করল। যে ব্যক্তি তারপর ২য় সময়ে গিয়ে পৌঁছল সে যেন একটি    শিংওয়ালা দুম্বা কুরবানি করল। তারপর যে ব্যক্তি ৪র্থ সময়ে গিয়ে পৌঁছল সে যেন আল্লাহর রস্তায় একটি ডিম দান   করল। তারপর খতিব বা ইমাম যখন খুতবা পড়ার জন্য বের হন; তখন ফেরেশতা মসজিদের দরজা ছেড়ে দিয়ে খুতবাহশোনেন ও নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে এসে বসেন। (বুখারি ও মুসলিম)

হাদিস দুটি প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে আসার এবং প্রথম সারিতে বসার ব্যাপারে যেমন গুরুত্ব দেয়া হয়েছে তেমনি এর চমৎকার মর্যাদাপূর্ণ ফজিলতও বর্ণনা করা হয়েছে।

শুধু তা-ই নয়, মানুষ যদি প্রথম কাতারের ফজিলত কত বেশি? তা জানত তবে প্রথম সারিতে বসার জন্য প্রতিযোগিতা ও লটারির সাহায্য নিতো। হাদিসে এসেছে-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, মানুষের প্রথম কাতারের সাওয়াব ও পুরস্কার সম্পর্কে জানা নেই। যদি  প্রথম কাতারের সাওয়াব ও পুরস্কারের কথা জানতে পারতো তা হলে প্রথম সারির জন্য লটারির সাহায্য নেয়ার প্রয়োজন হতো। (বুখারি ও মুসলিম)

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, জুমআর দিনকে গুরুত্ব দেয়া। আগে পবিত্রতা অর্জন করে মসজিদে যাওয়া। প্রথম ওয়াক্তের দিকে লক্ষ্য রাখা এবং মসজিদের প্রথম কাতারে অবস্থান করা।

মনে রাখা জরুরি

প্রথম কাতারে বা সারিতে অবস্থানকারীর মাগফেরাতের জন্য প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিন বার দোয়া করেছেন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে জুমআর দিন তার নির্দেশ ও বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘোষত ফজিলত ও মর্যাদা লাভে প্রথম ওয়াক্তে মসজিদে গিয়ে প্রথক সারিতে অবস্থান করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Share

ভালোবাসা সম্পর্কে ইসলামের আইন

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

আজ সরস্বতী পূজা

মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১

স্বচ্ছ লেনদেন খাঁটি মুমিনের পরিচয়

রবিবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১




জন্মলগ্ন থেকেই ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে আসছে বিএনপি : সেতুমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | ৫৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, কর্মীদের রোষানল থেকে বাঁচতে এবং পদ-পদবি ধরে রাখতে বিএনপির কিছু কিছু ফরমায়েশি নেতা ধান ভানতে শিবের গীত গেয়ে যাচ্ছেন।

সেতুমন্ত্রী আজ শনিবার সকালে তাঁর সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

দিনক্ষণ ঠিক করে সরকার পতনের ঘোষণা দেওয়া বিএনপির নতুন কোনো দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের অংশ কি না, সে জন্য জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সরকার পতনের সাইরেন বেজে গেছে বিএনপির নেতাদের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আন্দোলন ও নির্বাচনে ব্যর্থতার গ্লানি ঢাকতে বিএনপি নেতাদের এটি আত্মতুষ্টি লাভের অপচেষ্টা মাত্র। জনবিরোধী কর্মসূচির কারণে জনগণ বিএনপিকে অনেক আগেই লালকার্ড দেখিয়েছে বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের শেকড় মাটির অনেক গভীরে এবং বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার প্রতি জনমানুষের আস্থা ইস্পাত কঠিন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনা সরকার ঠুনকো কোনো জিনিস নয় যে, ধাক্কা লাগলেই পড়ে যাবে।

বিএনপির রাজনীতি বৈপরীত্যে ভরা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের কোনো কোনো নেতার মস্তিষ্ক অপপ্রচার আর গুজব তৈরির উর্বর কারখানা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকারের সবকিছুতেই অন্ধ সমালোচনা আর নেতিবাচকতা বিএনপির রাজনীতি। এ রাজনীতি থেকে বেরিয়ে না এলে জনগণই বিএনপিকে বিদায়ের সাইরেন বাজিয়ে দিবে।

নিউজ ট্যাগ: ওবায়দুল কাদের
Share



করোনা বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ লাখ ৮৪ হাজার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে ৫ লাখ ১২ হাজার ৫৯০ জন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ কোটি ২২ লাখ ৫৬ হাজার ১৮৮ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ লাখ ৮৪ হাজার ৮৬২ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৮ কোটি ৭৭ লাখ ৭৭ হাজার ৪৮৮ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে এই তথ্য জানা যায়।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে ৫ লাখ ১২ হাজার ৫৯০ জন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এই পর্যন্ত ২ কোটি ৮৮ লাখ ২৬ হাজার ৩০৭ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ১ লাখ ৯৭ হাজার ৫৩১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৪৭ হাজার ২৭৬ জনের। তবে মৃত্যু বিবেচনায় মেক্সিকোর অবস্থান তৃতীয়। আক্রান্তের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় আছে চতুর্থ অবস্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ১০ লাখ ১৫ হাজার ৮৬৩ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৬ হাজার ৪৯৮ জনের।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ১৮৮টি দেশে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস
Share

পশ্চিমবঙ্গে ভোট শুরু ২৭ মার্চ, হবে ৮ দফায়

শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১

সৌদি বাদশাহর সঙ্গে যে কথা হল বাইডেনের

শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১




মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পেজ বন্ধ করল ফেসবুক

প্রকাশিত:রবিবার ২১ ফেব্রুয়ারী 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ ফেব্রুয়ারী 20২১ | ৭৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সহিংসতা উসকে দেয়ার অভিযোগে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর একটি ফেসবুক পেজ বন্ধ করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। গালফ নিউজের খবরে বলা হয়, রবিবার কর্তৃপক্ষ ট্রু নিউজ নামে ওই পেজটি বন্ধ করে দেয়।

গত ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থান ঘটিয়ে ক্ষমতা দখল করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এর পরই ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে মিয়ানমারের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। ২ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটির রাজধানী নেপিদো, প্রধান শহর ইয়াঙ্গুনসহ বিভিন্ন শহরে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ চলছে।

মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী ধীরে ধীরে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে সহিংস আচরণ করতে শুরু করেছে। সামরিক অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে দেশটিতে এখন পর্যন্ত এক তরুণীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। শনিবার ম্যান্ডেলাই শহরে পুলিশের গুলিতে দুজন নিহত হয়।

অং সান সুচিকে তার রাজনৈতি দল ন্যাশনাল লীগ ফল ডেমোক্রেসির (এনএলডি) অন্তত ২৪ জন নেতার সঙ্গে কাস্টডিতে নেয়া হয়েছে। সেনা সরকার সুচির বিরুদ্ধে অবৈধ ওয়াকিটকি রাখা ও পরিবেশ বিপর্যয় আইনে দুটি চার্জশীট গঠন করেছে। গত নভেম্বরে ভোট কারচুপির অভিযোগে অভ্যুত্থান করা হয়েছে বলে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা গ্রহণ বৈধ করার চেষ্টা করছে।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর পেজ বন্ধের বিষয়ে গালফ নিউজের খবরে বলা হয়, ওই ফেসবুক পেজে গত নভেম্বরে সুচি ভোট জালিয়াতি করে জয় পেয়েছে দাবি করা হয়। এছাড়া পেজটিতে বিক্ষোভকারীদের ভয় দেখানো হয়।

ফেসবুকের একজন মুখপাত্র বলেন, ট্রু নিউজ ইনফরমেশনটি টিম পেজটি কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড লঙ্ঘন করার জন্য ডাউন করা হয়েছে। পেজটির মাধ্যমে সহিংসতা উসকে দেয়া হচ্ছিল বলেও জানান তিনি।

সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট সাম্প্রতিক বছরে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সম্পৃক্ত শত শত পেজ নিষিদ্ধ করে। ওইসব পেজে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী নিয়ে বিদ্বেষমূলক পোস্ট করা হচ্ছিল। ২০১৭ সালে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী রেহিঙ্গাদের ওপর হত্যাযজ্ঞ চালায়। বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত জনগোষ্ঠী প্রায় ১০ রাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

জাতিসংঘ রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনা তদন্ত করে। সংস্থাটির তদন্তে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী গণহত্যা সংগঠিত করেছে উঠে আসে এবং তাদের বিচারের মুখোমুখী করার সুপারিশ করা হয়। এরপর ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মিয়ামনারের সেনাবাহিনী প্রধান মিন অং হ্লাইং এবং শীর্ষ কিছু সেনা কর্মকর্তাকে ফেসবুক প্লাটফর্ম থেকে বিতাড়িত করে। এছাড়া ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহরত সশস্ত্রগোষ্ঠী এবং কট্টরপন্থি বৌদ্ধ যারা মুসলিম সংখ্যালঘুদের ওপর সহিংসতা উসকে দিচ্ছিল তাদেরও নিষিদ্ধ করে।

Share

পশ্চিমবঙ্গে ভোট শুরু ২৭ মার্চ, হবে ৮ দফায়

শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১

সৌদি বাদশাহর সঙ্গে যে কথা হল বাইডেনের

শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১




ডিভোর্স নিয়ে ভুল তথ্য দিয়ে রাকিব ভাইয়াকে ফাঁসানো হচ্ছে : সুবাহ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১২০জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগের স্বামীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে দাবি করেছেন ক্রিকেটার নাসির হোসেনের স্ত্রী তামিমা তাম্মি। বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) নাসিরের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনের এসে এমনটাই দাবি করেন তিনি।

তামিমা বলেন, আমি তালাকের জন্য আবেদন করি ২০১৬ সালে। তা অনুমোদন হয় ২০১৭-তে। সম্পূর্ণ আইনিভাবে সবকিছু মেনে ডিভোর্সটা হয়। উনার (রাকিব) পরিবার এবং তিনি এই সম্পর্কে জানতেন। উনি এখন যা করছেন তা কেন করছেন এটা হয়তো আপনাদের সবারই বুঝা হয়ে গেছে।

এদিন নিজের সিদ্ধান্তের প্রতি জোড়ালো সমর্থন প্রকাশ করেন নাসিরও। তিনি বলেন, এখানে লুকানোর কিছু নাই। নাটক করার কিছু নাই। আমি সব জেনেশুনেই বিয়ে করেছি।

এদিকে  তার বিয়েকে কেন্দ্র করে সোশাল মিডিয়ায় চলছে বিতর্ক। কারণ নাসিরের স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মি আগে বিবাহিত ছিলেন। তামিমা আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দাবি করেন রাকিব হাসান নামে এক ব্যক্তি। এই অভিযোগ উত্তরা পশ্চিম থানায় সাধারণ ডায়েরিও করেন তিনি। 

এই ঘটনায় নতুন মাত্রা দিয়ে যাচ্ছেন নাসিরের সাবেক প্রেমিকা শাহ হুমায়রা সুবাহ। নাসিরের সংবাদ সম্মেলনের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন সুবাহ। সংবাদ সম্মেলনে নাসির হোসেন উপস্থাপন করেন তামিমা ও রাকিবের বিয়ে বিচ্ছেদ হয়েছে ২০১৭ সালে। ২০১৬ সালে বিয়ে বিচ্ছেদের আবেদন করেছিলেন তারা। কিন্তু সুবাহ হাজির হন তামিমার পাসপোর্টের কপি নিয়ে। ২০১৮ সালের এই পাসপোর্ট কপিতে দেখা যায় তামিমার স্বামীর নামের পাশে রাকিব লেখা একই সাথে জরুরি প্রয়োজনে যোগাযোগ নম্বরও রাকিবের।

সুবাহ'র এই পোস্টে তিনি লিখেছেন, 'কিছু প্রমাণ দিলাম। জানিনা ঘটনা আসল কি। যাচাই করুন রাকিব ভাইয়াকে ফাঁসানো হচ্ছে এবং হবে। তামিমার পাসপোর্ট ২০১৮ সালের স্বামীর নাম দেয়া রাকিব হাসান।  তাহলে ১৬ সালের জাল তালাক নামা আবার কিসের?'

নাসির হোসেন সম্প্রতি তামিমাকে বিয়ে করার পর একের পর এক লাইভে এসে এ নিয়ে নানা কথা বলছেন সুবাহ। সেগুলো আসছে আলোচনায়ও।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে তাম্মি বলেন, 'রাকিবের সঙ্গে তালাকের জন্য ২০১৬ সালে তালাকের আবেদন করি এবং ২০১৭ সালে সেই তালাক সম্পন্ন হয়েছে। ফেসবুকে আমার নামে কিছু অ্যাকাউন্ট থেকে নানারকম বার্তা ছড়াচ্ছে। সত্য হলো আমার কোনো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই। এমনকী নাসিরেরও এখন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই। ওর একটি পেইজ আছে।

Share

ট্রাম্পকে ব্লক করলো টুইটার-ফেসবুক

বৃহস্পতিবার ০৭ জানুয়ারী ২০২১




মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে বাবার যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর হাজারীবাগ থানাধীন এলাকায় সাত বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় শিশুটির বাবাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। এর পাশাপাশি তাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৫ এর বিচারক সামছুন্নাহার এ রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। রায়ের পর সাজা পরোয়ানা দিয়ে তাকে আবার কারাগারে পাঠানো হয়।

নিজ কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে ২০১৮ সালের ৩ মে হাজারীবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করেন শিশুটির মা।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, বাদী এবং আসামি স্বামী-স্ত্রী। ২০১৮ সালের ১৪ এপ্রিল রাতে শবে মেরাজের নামাজ পড়ার জন্য মেয়েকে বাসায় রেখে পাশে বোনের বাসায় নামাজ আদায় করতে যান মা। নামাজ শেষে ভোর ৫টার দিকে বাসায় এসে দেখেন, মেয়ে কান্নাকাটি করছে। বাবা মেয়ের উরু মুছে দিচ্ছে। বাদীকে দেখে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়। ভিকটিম মাকে জানায়, তার বাবা তাকে ধর্ষণ করেছে। পরে আসামি দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেয়।

মামলাটি তদন্ত করে ২০১৮ সালের ১৪ নভেম্বর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা শাহ মিরাজ উদ্দিন। পরের বছর ৩ এপ্রিল আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত নয়জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

Share