আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

কাকে বিয়ে করছেন দর্শনা বণিক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

টলিউডে আরও একবার বাজছে বিয়ের সানাই। এবার সাত পাকে বাঁধা পড়ছেন ওপার বাংলার অভিনেতা সৌরভ দাস ও অভিনেত্রী দর্শনা বণিক। পশ্চিমবঙ্গের একাধিক গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এই দুই তারকার ঘনিষ্ঠজনেরা। 

সংবাদ প্রতিদিনের খবর অনুসারে, আগামী ১৫ ডিসেম্বর তারা বিয়ে করতে চলেছেন। খবরটি প্রকাশ্যে এনেছেন সৌরভ ও দর্শনার ঘনিষ্ঠজন, নির্মাতা সৌম্যজিৎ আদক। যার পরিচালনায় অল্প হলেও সত্যি সিনেমায় প্রথমবার একসঙ্গে কাজ করেছিলেন এই জুটি।

অনেকদিন ধরেই সৌরভ-দর্শনার প্রেমের জোর গুঞ্জন ছিল টলিউডে। যদিও তারা পরস্পরকে ভাল বন্ধুর আখ্যা দিয়েছিলেন। তবে সেই বন্ধুত্বই এবার পরিণতি পাচ্ছে। বেশ আয়োজন করেই বিয়ে করতে চলেছে এই জুটি।

সামাজিক মাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে নির্মাতা সৌম্যজিৎ বলেছেন, আমার ভালোবাসার মানুষেরা, সারা জীবন একসাথে থাকার আর একে অপরকে আগলে রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আজ খুব খুশির দিন আমার জন্য। এই দুজন মানুষ আমার জীবনের, নিজ ও কর্ম দুই ক্ষেত্রেই সারাক্ষণ মনের জোর দেয়। অনেক ভালোবাসা দুজনকে। পাশে ছিলাম, আছি ও থাকবো। এটা অল্প না, অনেকটা সত্যি।

সৌম্যজিতের সেই পোস্টে নির্মাতার প্রতি ভালোবাসা জানিয়েছেন দর্শনা। এমনকি পোস্টটি নিজের ফেসবুক স্টোরিতেও শেয়ার করেছেন তিনি। যেখানে ভক্তরা নতুন এই জুটিকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

নিউজ ট্যাগ: দর্শনা বণিক

আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিরসরাইয়ে স্কোয়াশ চাষে সফল কৃষক মুসলিম

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ফিরোজ মাহমুদ, মিরসরাই (চট্টগ্রাম)

Image

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে স্কোয়াশ চাষে সফল হয়েছেন কৃষক মুসলিম উদ্দিন। উপজেলার কাটাছড়া ইউনিয়নে বাড়ির পাশে প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলক ১০ শতক জমিতে স্কোয়াশ চাষ করেছেন তিনি। দুএকদিন পর পর জমি থেকে ফলন তুলে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করছেন। অনেকে এসে জমি থেকে কিনে নিয়ে যাচ্ছেন।

মুসলিম উদ্দিন মিরসরাই উপজেলার কাটাছড়া ইউনিয়নের পূর্ব কাটাছড়া গ্রামের মরহুম মৌলভী মাঈন উদ্দিনের ছেলে। এইচএসসি পাস করার পর তিনি কৃষিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন।

সরেজমিনে জানা গেছে, ১০ শতক জমিতে আবাদকৃত স্কোয়াশ গাছে ফলন এসেছে। প্রতি পিস ফলনের ওজন ৫০০ গ্রাম থেকে দেড় কেজি পর্যন্ত। দুজন শ্রমিক নিয়ে জমিতে পরিচর্যা করছেন তিনি। পাশের জমিতে চাষ করেছেন টমেটো, কাঁচা মরিচ, ফুলকপি, বাঁধাকপি ও বেগুনসহ নানা ধরনের শীতকালীন সবজি।

কৃষক মুসলিম উদ্দিন জানান, ৬ বছর ধরে কৃষি কাজ করছি। কৃষিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছি। এবার প্রথমবারের মতো ১০ শতক জমিতে পরীক্ষামূলক স্কোয়াশ চাষ করেছি। মিঠাছড়া বাজার থেকে ১৮০ পিস বীজ নিয়ে বপন করেছি। প্রথমবারই সফল হয়েছি। জমিতে আগে থেকে মালচিং করা ছিল। তাই তেমন খরচ হয়নি। মাত্র ৩ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এরই মধ্যে ২৫ হাজার টাকা বিক্রি করেছি। আরও ৪০ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারবো।

তিনি আরো বলেন, একটি গাছে ১০-২০ কেজি পর্যন্ত ফলন হয়। ঢাকার কয়েকটি সুপার শপের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তারা আগামীতে আমার কাছ থেকে স্কোয়াশ কিনে নেবেন। তাই আগামীতে সিদ্ধান্ত নিয়েছি চাষের পরিধি আরও বাড়াবো। এছাড়া ৬ বছর ধরে আগাম সবজি চাষ করে যাচ্ছি। প্রথমে ৫ শতক জায়গায় আগাম টমেটো চাষ শুরু করি। এখন ৮৫ শতক জমিতে টমেটো চাষ করেছি। এ বছর প্রায় ২ লাখ টাকার টমেটো বিক্রি করেছি। আরও ৩০ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারবো।

মিরসরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা প্রতাপ চন্দ্র রায় বলেন, উপজেলার কাটাছড়া ইউনিয়নের মুসলিম খুবই পরিশ্রমী একজন কৃষক। তিনি সব সময় আগাম সবজি চাষ করে ভালো লাভবান হয়ে থাকেন। এবার স্কোয়াশ চাষ করে সফল হয়েছেন। তাকে সব সময় কৃষি অফিস থেকে পরামর্শসহ বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: স্কোয়াশ চাষ

আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




গাজায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১৭ ফিলিস্তিনি নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় ইসরাইলের হামলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১৭ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে চারমাসেরও বেশি সময় ধরে চলা এই সংঘাতে গাজায় নিহতের সংখ্যা ২৮ হাজার ছাড়ালো। খবর রয়টার্সের।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গেল বছরের  ৭ অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত ইসরাইলের হামলায় গাজায় ২৮ হাজার ৬৪ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আর আহত হয়েছেন ৬৭ হাজার ৬১১ জন।

চারমাসেরও বেশি সময় ধরে হামাসের হামলার পাল্টা জবাবে গাজায় হামলা চালাচ্ছে দখলদার ইসরাইলি সেনারা। এ সময়ে ৭০ শতাংশেরও বেশি বাড়িঘর ধ্বংস করেছে তারা। আর তাদের হামলার ভয়ে উপত্যকাটির ২৩ লাখ বাসিন্দার মধ্যে ৮৫ শতাংশ বাসিন্দাই বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

বর্তমানে ১০ লাখের বেশি ফিলিস্তিনি সীমান্তবর্তী শহর রাফাহতে আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু সেখানেও রেহাই নেই তাদের। গাজা ধ্বংস করার পর এখন রাফাহতেও হামলা জোরদার করেছে ইসরাইল। রাফাহতে রমজান মাস শুরুর আগে অভিযান শেষ করার তাগিদ দিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) যুদ্ধকালীন মন্ত্রীসভার বৈঠকে নেতানিয়াহু এমন কথা বলেন।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর দফতর একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। এতে বলা হয়, রাফাহ থেকে সব বেসামরিক ফিলিস্তিনিকে সরিয়ে নিতে সেনাবাহিনীকে পরিকল্পনা প্রণয়নের নির্দেশ দিয়েছেন নেতানিয়াহু। নেতানিয়াহু হুমকি দিয়েছেন, রাফাহতে শিগগিরই প্রবেশ করবে সেনারা। তাদের দাবি, সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের সর্বশেষ ব্যাটালিয়নটি এখন রাফাহতে অবস্থান করছে।


আরও খবর



বশেফমুবিপ্রবিতে অংশীজন সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জামালপুর প্রতিনিধি

Image

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেফমুবিপ্রবি) জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপাচার্যের সভাকক্ষে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির (এপিএ) কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে শুদ্ধাচার ও নৈতিকতা কমিটির উদ্যোগে এ সভা হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. কামরুল আলম খান ।

এপিএ ফোকাল পয়েন্ট সহকারী রেজিস্ট্রার মো. আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রেজিস্ট্রার সৈয়দ ফারুক হোসেন, প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) এস.এম. ইউসুফ আলী, ফিশারিজ বিভাগের প্রভাষক রুনা আক্তার জ্যোতি, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি এসএম মোদাব্বির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. সাব্বির হোসেন, কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মো. আব্দুল মান্নান, সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান, সাংবাদিক প্রতিনিধি মো. আল ফাহাদ ও মিরাজুল ইসলাম, অভিভাবক প্রতিনিধি মো. নুরুল আমিন, শান্তা, লায়লা জান্নাত নাহিন, ছাত্র প্রতিনিধি কাওচার আহমেদ স্বাধীন, তাইফুল ইসলাম পলাশ প্রমুখ ।

অংশীজন সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ/দপ্তরের সেবার মান উন্নয়নকল্পে আলোচনা হয়।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রামের জীবনী পড়ানো হবে ভারতের মাদ্রাসায়

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারতের উত্তরাখণ্ডের কিছু মাদ্রাসায় আগামী মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া নতুন শিক্ষাবর্ষে শ্রী রামের জীবনী পড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। উত্তরাখণ্ড ওয়াকফ বোর্ড সোমবার (২৯ জানুয়ারি) এ কথা জানিয়েছে।

ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারপারসন মুহাম্মদ শাদাব শামস জানান, আমাদের অধীনে থাকা মাদ্রাসাগুলো আধুনিক করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তারই অংশ হিসেবে মাদ্রাসায় ন্যাশনাল কাউন্সিল অব এডুকেশনাল রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের কারিকুলাম চালু করা হচ্ছে। পড়ানো হবে শ্রী রামের গল্প ও তার গুরুত্ব।

প্রাথমিকভাবে উত্তরাখণ্ডের দেরাদুন, হরিদ্বার, উধম সিং নগর এবং নৈনিতালের একটি করে মোট চারটি মাদ্রাসায় রামের জীবনী পড়ানো হবে। পরবর্তীতে অন্য মাদ্রাসায়ও পড়ানো হবে।

২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত উত্তরাখণ্ড ওয়াকফ বোর্ড রাজ্যটির শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত হয়। রাজ্যটির মোট ৪১৫টি মাদ্রাসার মধ্যে ওয়াকফ বোর্ডের অধীনে রয়েছে ১১৭টি।

মুহাম্মদ শাদাব শামস উত্তরাখণ্ডের বিজেপির সাবেক মুখপাত্র। ২০২২ সালে তিনি ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারপারসন নির্বাচিত হন। দায়িত্ব গ্রহণ করে ওয়াকফ বোর্ডের মাদ্রাসাগুলোয় আরবি ও ইংরেজির পাশাপাশি সংস্কৃতও পড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন শামস।

শামসের সিদ্ধান্ত মতে, এসব মাদ্রাসায় সকাল সাড়ে ৬টা থেকে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত ধর্মীয় শিক্ষা দেওয়া হবে। পরবর্তীতে সাধারণ কারিকুলাম পড়ানো হবে।

মাদ্রাসায় শ্রী রামের জীবনী পড়ানোর বিষয়ে শামস বলেন, অযোধ্যায় শ্রী রামের মন্দির সম্প্রতি জাঁকজমকভাবে উদ্বোধ করা হয়েছে। যেভাবে তা করা হয়েছে তাতে করে আমাদের মনে হয়েছে চারটি আধুনিক মাদ্রাসায় শ্রী রাম শিক্ষা দেওয়া উচিত। মার্চ থেকে এসব কারিকুলাম শুরু হবে।

বিজেপির সাবেক এ মুখপাত্র বলেন, আল্লামা ইকবাল পর্যন্ত রামকে ভারতের নেতা বলে উল্লেখ করেছেন। তাই ভারতের মুসলমানদের শ্রী রামকে অনুসরণ করা আমরা কর্বত্য মনে করি। কারণ আমরা আরব নই। আমরা ধর্মান্তরিত মুসলমান। মুসলমান হওয়ার পর আমাদের প্রার্থনার পদ্ধতি বদলে গেছে। তাই বলে আমরা আমাদের পূর্বপুরুষদের পরিবর্তন করতে পারি না।

নিউজ ট্যাগ: শ্রী রাম

আরও খবর



ঝিলপাড় বস্তিতে আগুনে পুড়লো আড়াই শতাধিক ঘর

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর মিরপুর-১২ নম্বরের ঝিলপাড় বস্তিতে আগুনে পুড়ে গেছে আড়াই শতাধিক ঘর। ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিটের এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। দুপুর একটার দিকে আগুন লাগে বস্তিতে। বাসিন্দারা নিরাপদে সরে গেলেও রক্ষা করতে পারেননি সহায়-সম্বল।

ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. তানহারুল ইসলাম জানিয়েছেন, আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি। তদন্তের পর জানা যাবে। হতাহতের কোনো খবরও পাননি তারা।

এদিকে, থাকার জায়গা, বিছানা, তোশক, রান্নার হাড়ি পাতিলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় প্রায় সবকিছুই আগুনে পুড়ে যাওয়ায় ভুক্তভোগীদের চোখে এখন অন্ধকার। পুড়েছে শিক্ষার্থীদের বই-খাতা।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর পুড়ে যাওয়া ধ্বংসাবশেষ থেকে আধাপোড়া নিত্য ব্যবহার্য কিছু জিনিসপত্র খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন বস্তির বাসিন্দারা। বলছেন, আগুনে পুড়ে ছাই তাদের মাথা গোঁজার শেষ সম্বল।


আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪