আজঃ শনিবার ০২ মার্চ 2০২4
শিরোনাম

কাল সর্বোচ্চ পদ নিয়ে আসছে ৪৬তম বিসিএস বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

নতুন একটি বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। এই বিসিএস হবে ৪৬তম সাধারণ বিসিএস। এতে ক্যাডার ও ননক্যাডার পদ নির্দিষ্ট করা হয়েছে।

গত ১০টি বিসিএসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্যাডার পদ রেখে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) ৪৬তম বিসিএসের চাহিদাপত্র পাঠিয়েছে। এই বিসিএসের পদ নির্দিষ্ট করার বিষয়টি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ শাখা থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

পিএসসি সূত্রে জানা যায়, মন্ত্রণালয় যেসব পদ পাঠিয়েছে, সেখান থেকে ক্যাডারের ৩ হাজার ১০০ পদ ও ননক্যাডারে ৩০০ পদ নির্দিষ্ট করা হচ্ছে, যা বৃহস্পতিবার বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশিত হবে। পিএসসি বলছে, ক্যাডারে ও ননক্যাডারে এই পদ মানেই চূড়ান্ত নয়, এটি সরকার বাড়াতে পারে। তাই ক্যাডার ও ননক্যাডারের পদ এটাই চূড়ান্ত নয়।

সূত্রে আরও জানা যায়, ৪৬তম বিসিএসে আবেদনের বয়স গণনা হবে ১ নভেম্বর থেকে। বিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের শেষ তারিখ উল্লেখ করা হবে। তবে কোন ক্যাডারে কতজন নেওয়া হবে, সেটি নির্দিষ্ট করে না বললেও স্বাস্থ্য ক্যাডারে উল্লেখযোগ্য পদে আবেদনের সুযোগ রাখা হবে বলে জানা গেছে।

পিএসসি সূত্রে আরও জানা যায়, সর্বশেষ ৪৫তম বিসিএস ছিল গত পাঁচ বিসিএসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পদ। এবার ৪৬তম বিসিএসে রেকর্ড হচ্ছে। এটি গত ছয় বিসিএসকে ছাড়িয়ে যাবে। ৪৫তম বিসিএসে প্রথম ক্যাডারের পাশাপাশি নন-ক্যাডারের পদও উল্লেখ রেখে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

জেনে নিন কোন বিসিএসে কত পদ-

৩৪তম বিসিএসে ২ হাজার ১৫৯ জন, ৩৫তম বিসিএসে ১ হাজার ৮০৩, ৩৬তম বিসিএসে ২ হাজার ১৮০, ৩৭তম বিসিএসে ১ হাজার ২২৬, ৩৮তম বিসিএসে ২ হাজার ২৪, ৪০তম বিসিএসে ১ হাজার ৯২৯ ও ৪১তম বিসিএসে ২ হাজার ৫২০ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ দেওয়া হয়।

এ ছাড়া ৪৩তম বিসিএসের বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন, ৪৪তম থেকে ১ হাজার ৭১০ ও সর্বশেষ ৪৫তম থেকে ২ হাজার ৩০৯ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে। ৩৯তম ও ৪২তম বিসিএস দুটি ছিল চিকিৎসকদের জন্য বিশেষ বিসিএস।


আরও খবর
সিটি গ্রুপে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিভিল বিভাগে চাকরি সুযোগ

বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

Image

জেলা কারাগারে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় দণ্ড প্রাপ্ত এক কয়েদির মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) তিনি মারা যান।

তিনি ঝিনাইদহ জেলা শহরের পরবহাটি গ্রামের আতিয়ার লস্করের ছেলে মিলন লস্কর।

খবরটি নিশ্চিত করেছেন জেলা কারাগারের জেলার মহিউদ্দিন হায়দার।

তিনি জানান, কারাগারেরর চিত্রা ৩নং ওয়ার্ডের কয়েদি ছিলেন মিলন। ফজরের নামাজ আদায় শেষে সকাল ৬টা ৪০ মিনিটের সময় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েনি তিনি। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গত ২ জানুয়ারি মিলনকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত। সেই থেকে কারাগারের চিত্রা ৩নং ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিলো মিলন লস্করকে। হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


আরও খবর



নারকেল দুধে রান্না পোলাওয়ের সঙ্গে দুই পদ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

পিঠাপুলি তৈরির সময় যেহেতু এখনো ফুরিয়ে যায়নি, তাই বাড়িতে দু-একটা নারকেল থাকতেই পারে। নারকেলের দুধ দিয়ে রেঁধে ফেলতে পারেন ভিন্ন স্বাদের পোলাও। সঙ্গে থাকতে পারে চিংড়ি ভুনা কিংবা চিকেন রোস্ট। রেসিপি দিয়েছেন সিম্পল কুকিং বাই নাতাশার স্বত্বাধিকারী এবং টনি খান হোটেল ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড স্কিল ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের জ্যেষ্ঠ প্রশিক্ষক নাদিয়া নাতাশা।

নারকেল দুধে পোলাও

উপকরণ

পোলাওয়ের চাল ২ কাপ, নারকেল দুধ ২ কাপ, ঘি আধা কাপ, বেরেস্তা আধা কাপ, ২ টেবিল চামচ গরমমসলা গুঁড়া, তেজপাতা ২টি, লবণ প্রয়োজনমতো ।

প্রণালি

পোলাওয়ের চাল ১০ মিনিট ভিজিয়ে ছেঁকে রাখতে হবে। নারকেল কুরিয়ে ২ কাপ গরম পানি দিয়ে কচলিয়ে দুধ বের করে নিন। ননস্টিক হাঁড়িতে নারকেলের দুধ, গরম মসলা ও লবণ দিয়ে ফুটিয়ে চাল দিয়ে নেড়েচেড়ে ঢেকে দিন। চাল ও পানি যখন সমান হবে তখন ঘি দিয়ে তাওয়ার ওপর দমে বসাতে হবে। চাল ফুটে গেলে বেরেস্তা ছিটিয়ে ১০ মিনিট দমে রাখুন। এবার নামিয়ে গরম-গরম পরিবেশন করুন।

চিংড়ি ভুনা 

উপকরণ

মাঝারি চিংড়ি ১৫টি, কাঁচামরিচ ৬টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, পেঁয়াজ বাটা ২ চাচামচ, আদারসুন বাটা ১ চাচামচ, মরিচ গুঁড়া দেড় চাচামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চাচামচ, জিরা গুঁড়া ১ চাচামচ, তেল আধা কাপ, লবণ ১ চাচামচ, পানি আধা কাপ।

প্রণালি

চিংড়ি মাছ হলুদ ও লবণ মাখিয়ে আগেই একটু তেলে ভেজে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। এরপর সব মসলা দিয়ে কষান। মসলা কষানো হলে মাছগুলো দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে পানি দিয়ে দিন। তেল উঠলে নামিয়ে নিন।

চিকেন রোস্ট

উপকরণ

মুরগির লেগ পিস বা রান ৬ থেকে ৮টি, টক দই আধা কাপ, পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ বাটা ১ চাচামচ, আদা ২ চাচামচ, রসুন দেড় চাচামচ, ধনে গুঁড়া আধা চাচামচ, জিরা গুঁড়া ১ চাচামচ, বেরেস্তার জন্য কাটা পেঁয়াজ ১ কাপ, কাঁচা মরিচ ৫ থেকে ৬টি, বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, গোল মরিচ গুঁড়া সামান্য, আলু বোখারা ২টা, জায়ফল ও জয়ত্রী সামান্য, দারুচিনি ২ থেকে ৩ টুকরা, সাদা এলাচি ৪টা, জর্দার রং সামান্য, লবণ পরিমাণ মতো, চিনি ১ চাচামচ, ঘি ১ কাপ, মাওয়া ১ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ চাচামচ, কিশমিশ অল্প।

প্রণালি

প্রথমে মুরগির পিসগুলো ভালোভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করে পানি ঝরিয়ে রেখে দিতে হবে। এরপর ধুয়ে রাখা মুরগির পিসগুলোর সঙ্গে টক দই, আদা, রসুন, ধনে, জিরা, লেবুর রস ও লবণ দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে ঘণ্টা খানিক ঢেকে রেখে দিতে হবে। এবার একটি পাত্রে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ দিয়ে বেরেস্তা করে তুলে রেখে দিতে হবে। অন্য একটি পাত্রে ঘি গরম করে তাতে মুরগির পিসগুলো মাখানো মসলা থেকে ঝেড়ে তুলে মাঝারি আঁচে অল্প ভেজে নিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে এর সঙ্গে পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ বাটা, বাটিতে থাকা মাখানো মসলাগুলো দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে ঢেকে দিতে হবে। এবার পেঁয়াজ বেরেস্তা, চিনি, আলুবোখারা, কিশমিশ, মাওয়া ও কাঁচা মরিচ বাদে বাকি সব মসলা দিয়ে নেড়ে নিয়ে অল্প আঁচে রান্না করতে হবে। প্রয়োজনে ১ কাপ গরম পানি দিতে হবে। মাংস সেদ্ধ হয়ে আসলে বেরেস্তা, চিনি, আলু বোখারা, কিশমিশ ও আস্ত কাঁচা মরিচ দিয়ে আরও ২০ মিনিট অল্প আঁচে দমে রাখুন। রোস্টের পানি শুকিয়ে তেল ওপরে উঠে এলে মাওয়া দিয়ে নেড়েচেড়ে নামিয়ে ফেলুন।


আরও খবর
২৯ ফেব্রুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দেবে না সরকার: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দেবে না সরকার। তবে আন্দোলনের সহিংসতার উপাদান যুক্ত হলে বাধা আসবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাধা দেওয়ার মত সহিংস তৎপরতা, সন্ত্রাস, অগ্নিসন্ত্রাস- এসব উপাদান যদি আন্দোলনে যুক্ত হয়, তাহলে বাধা আসবে। তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিলে আমরা বাধা দিব কেন?

বিএনপির বর্তমান রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিরোধী দলের যে রাজনীতি, মুল ইস্যুই হচ্ছে যত দোষ নন্দ ঘোষ সরকার। সরকারই সব অপরাধে অপরাধী। তারা নালিশ করতে যায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। বিএনপি নেতা মঈন খান মার্কিন দূতাবাসে গিয়ে নালিশ করেছেন দেশে মানবাধিকার নেই, গণতন্ত্র নেই। এ হচ্ছে বিএনপির অবস্থা। 

আরও পড়ুন>> আমদানির খবরে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

তিনি বলেন, বিএনপি নেতাদের কাছে জানতে চাই, ৫৪ দলের সরকার, বিরোধী যে ঐক্য জোট, এ জোটের শরিকরা কোথায়? সেই ঐক্য কোথায়? জগাখিচুড়ি ঐক্যজোট কোথায়? এখন সরকারের ওপর দোষ দিয়ে পার পাওয়া যাবে?

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ হেরেছে, বিএনপি জিতেছে- বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সবাই জানে নির্বাচনে কারা জিতেছে। নির্বাচনে অংশ না নিয়েই বিএনপি জিতে গেল? এটা পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কি?

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যবস্থা হচ্ছে, নতুন করে চিন্তাভাবনা করছি। দলে সিদ্ধান্ত হয়েছে, এসব ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে যত কঠোর হওয়া দরকার হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।


আরও খবর



চার মাসে পশ্চিম তীরে গ্রেপ্তার প্রায় ৭ হাজার ফিলিস্তিনি

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ফিলিস্তিনের অধিকৃত পশ্চিম তীরে গত চার মাসে প্রায় ৭ হাজার ফিলিস্তিনিকে গ্রেপ্তার করেছে ইসরায়েল। মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ফিলিস্তিনি প্রিজনার্স ক্লাবের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে আলজাজিরা।

ফিলিস্তিনি প্রিজনার্স ক্লাব জানিয়েছে, গত মাসে ৩০ নারী ও ৭৩ শিশুসহ অধিকৃত পশ্চিম তীরে এক হাজার ২৩৬ ফিলিস্তিনিকে গ্রেপ্তার করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এ নিয়ে গত ৭ অক্টোবর থেকে অধিকৃত এই অঞ্চলে বন্দির সংখ্যা ৬ হাজার ৮৭০ জনে দাঁড়িয়েছে।

গাজা যুদ্ধ শুরুর বেশ আগে থেকেই অধিকৃত পশ্চিম তীরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। গত অক্টোবরে গাজায় ইসরায়েলি বাহিনী হামলা শুরু করলে এই উত্তেজনা আরও বেড়ে যায়। প্রায় প্রতি দিনই সেখানে ইসরায়েলি বাহিনী ও অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। 

আরও পড়ুন>> মিয়ানমারের সংঘাত: সীমান্তে এক দিনে ৫ বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ

জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, ৭ অক্টোবরের পর গত প্রায় চার মাসে পশ্চিম তীরে ৩৭০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এসব হত্যাকাণ্ডের জন্য ইসরায়েলের নিরাপত্তা বাহিনী এবং অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের দায়ী করা হয়।

১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে পশ্চিম তীর দখল করে রেখেছে ইসরায়েল। গাজা ছাড়াও এই পশ্চিম তীর নিয়ে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গড়ার স্বপ্ন দেখেন ফিলিস্তিনিরা।

গাজা ও পশ্চিম তীরে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর নীতি নিয়ে পশ্চিমা মিত্রদের মধ্যে অসন্তোষ বাড়ছে। গত বৃহস্পিতিবার পশ্চিম তীরে সহিংসতায় জড়িত চার ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীর ওপর প্রথমবারের মতো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এ ছাড়া উগ্র ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টি বিবেচনা করে দেখছে কানাডা।


আরও খবর



ফের বন্ধ মেট্রোরেল

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আবারও বন্ধ হয়ে আছে মেট্রোরেল চলাচল। সম্প্রতি বেশ কয়েকবার এ ঘটনা ঘটেছে। এতে ভোগান্তির সঙ্গে সঙ্গে বিরক্ত যাত্রীরা।

সূত্র জানায়, দুপুর ২টা ২০ মিনিট থেকে বন্ধ হয়ে আছে মেট্রোরেল।

কর্তৃপক্ষ বলছে, যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে সামিয়িক বন্ধ আছে মেট্রোরেল চলাচল।

অমিতাভ নামের এক যাত্রী জানিয়েছেন, তিনি ২৭ মিনিট ধরে মিরপুর ১০ স্টেশনে দাঁড়িয়ে আছেন। তবে এখনও মেট্রোরেল আসেনি।

বায়জিদ ইসলাম নামের একজন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, শাহবাগ স্টেশন এ প্রায় এক ঘণ্টা ধরে দাঁড়িয়ে আছি।

সুষ্পিতা চৌধুরী নামের এক যাত্রী জানিয়েছেন, তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশনে মেট্রোর অপেক্ষায় ৩০ মিনিট ধরে দাঁড়িয়ে আছেন।

এর আগে সবশেষ বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দেড়টার দিকে মেট্রো চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। সেবার ইলেকট্রিক তারের ওপর ঘুড়িটি পড়ায় সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছিল বলে জানায় ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড।


আরও খবর