আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

কালবৈশাখীর তান্ডবে হবিগঞ্জে শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হবিগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ে শতাধিক বাড়িঘরসহ গাছপালা বিধ্বস্ত হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) রাতে সোয়া ঘণ্টার ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে বৈদ্যুতিক খুঁটিও। জেলা সদরসহ আশপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়। ঝড় চলে রাত সোয়া ১০টা পর্যন্ত। সোয়া ঘণ্টার ঝড়ে শহরতলীর ছোট বহুলা ও এর আশপাশের এলাকায় শতাধিক কাঁচা ও আধাপাকা বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া তেঘরিয়া ও শিয়ালদাড়িয়া গ্রামেও বেশ কয়েকটি বাড়িঘর ভেঙে পড়েছে। ভেঙে গেছে বিপুল পরিমাণ গাছপালা ও বৈদ্যুতিক খুঁটি।

শহরের পুরাতন হাসপাতাল সড়ক, সার্কিট হাউজ সড়ক, শায়েস্তানগর সড়কে বেশ কয়েকটি গাছ ও বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে পড়েছে। ঝড় শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিদ্যুৎ চলে যায়। অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে জেলা শহরসহ আশপাশের এলাকাগুলো।

ঝড়ে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আলতাফ হোসেন ছুটিতে আছেন বলে জানান। এ অফিসের দায়িত্বরত অফিস সহকারী নূর উদ্দিন জানান, ঝড়ে বেশ বাড়িঘর, গাছপালা বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

নিউজ ট্যাগ: কালবৈশাখী ঝড়

আরও খবর



স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছেন ব্রিটেনের রানি

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | ১০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছেন ব্রিটেনের রানি এলিজাবেথ। লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রোববার (২১ মার্চ) রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে লেখা চিঠিতে বাংলাদেশের জনগণকে শুভেচ্ছা জানিয়ে দেশটির আরও উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন রানি এলিজাবেথ।

ব্রিটেন কুইন বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি ও বিশেষ উৎসবে আপনাকে (প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ) খুশির সঙ্গে আমার অভিনন্দন ও বাংলাদেশের জনগণকে আমার শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

ওই বার্তায় রানি আরও বলেন, দুই দেশের মধ্যে যে বন্ধুত্ব ও সহমর্মিতা রয়েছে সেটি আমাদের সম্পের্কের ভিত্তি। এটি এখন যেমন গুরুত্বপূর্ণ ঠিক তেমনই ৫০ বছর আগেও গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

গতবছর একটি সমস্যা সংকুল বছর গেছে জানিয়ে ব্রিটেনের রানি বলেন, আশা করি আমরা বৈশ্বিক স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে সক্ষম হবো এবং ভবিষ্যতে আরও ভালো সময় আসবে।

নিউজ ট্যাগ: রানি এলিজাবেথ

আরও খবর



মসজিদে নামাজ আদায়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | ১৩৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহামারি আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবজনিত কারণে সারা দেশে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশে এক সপ্তাহের লকডাউন শুরু হয়েছে।

স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক মসজিদসমূহে সর্বসাধারণের জামায়াতে নামাজ আদায় করার জন্য সোমবার (৫ এপ্রিল) ধর্ম মন্ত্রণালয় একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিম্নবর্ণিত শর্তসাপেক্ষে মসজিদসমূহে জামায়াত নামাযের জন্য আবশ্যিকভাবে নিম্নবর্ণিত শর্তসমূহ পালনের জন্য অনুরোধ করা হলো:

মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোঁয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে এবং আগত মুসল্লিকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে।

প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে, সুন্নাত নামাজ ঘরে আদায় করে মসজিদে আসতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পূর্বে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দ্বারা পরিষ্কার করতে হবে, মুসল্লিগণ প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসতে হবে।

কাতারে নামাজে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে।

শিশু, বয়বৃদ্ধ, যে কোনো অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি জামায়াতে অংশগ্রহণ করা হতে বিরত থাকবে।

সংক্রমণ রোধ নিশ্চিতকল্পে মসজিদের ওজুখানায় সাবান/হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না।

সর্বসাধারণের সুরক্ষা নিশ্চিত কল্পে, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্থানীয় প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনীর নির্দেশনা অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে।

মসজিদে ইফতার ও সেহরির আয়োজন করা যাবে না।

করোনা ভাইরাস মহামারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য নামাজ শেষে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে খতিব ও ইমামগণ দোয়া করবেন এবং খতিব, ইমাম এবং মসজিদ পরিচালনা কমিটি বিষয়গুলো বাস্তবায়ন নিশ্চিত করবেন।  


আরও খবর
শুরু হলো সিয়াম সাধনার মাস

বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১

রোজা শুরু কবে জানা যাবে সন্ধ্যায়

মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১




শরীর ভালো রাখতে লেবু চা নাকি গ্রিন টি ?

প্রকাশিত:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | ৮১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সকালে ঘুম থেকে উঠে কিছুক্ষণ শরীরচর্চা করে কেউ পান করেন গ্রিন টি আর কেউ আবার পান করেন লেবু চা। এই লেবুজলে অনেকেরই গরমকালের মূল পানীয়। কাজের মাঝেও মনকে চাঙ্গা করতে এক কাপ লেবু চা যথেষ্ট। আবার খুব রোদে রোদে ঘুরে কাজ করলেও এই লেবু চা এনে দেয় আলাদা এনার্জি ও ফ্রেশনেস। কিন্তু শরীর ভালো রাখতে কোনটা বেশি কার্যকর লেবু চা পান নাকি গ্রিন টি?

লেবু চা: লেবু আমাদের শরীরের অভ্যন্তরীণ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে তোলে। আবার শরীরের যে টক্সিন, সেই বিষগুলিকে লেবুই শরীর থেকে বের করে দিতে পারে বলে লেবু বডি ডিটক্সের জন্য খুব জরুরি। লেবুর রস দিয়ে যেটাই খাবেন সেটাই একটি লো-ক্যালোরি ফুডে পরিণত হবে যা ওজন কমাতে সহায়তা করবে।

যারা ডায়াবেটিস রোগে ভুগছেন তাদের জন্যও লেবু চা খুব উপকারী, যা ইনসুলিনের উৎপাদন বাড়ায়। লেবু চা নিয়মিত পান করলে আমাদের কার্ডিও-ভাসকুলার রোগে ভোগার ঝুঁকি কমে যায় অনেকটা প্রাকৃতিকভাবেই। অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমণ এবং ভাইরাস সংক্রমণ থেকে মুক্তি পেতে পারেন নিয়মিত লেবু চা পানে।

গ্রিন টি: এই সবুজ চায়ে রয়েছে নানা পুষ্টি উপাদান যেমন ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ছাড়াও বিভিন্ন খনিজ উপাদান যা প্রতিটি মানুষের শরীরেই শক্তি বৃদ্ধি করতে ও সারাদিনের কাজ করতে প্রয়োজন। শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে এই চা পান করলে। আবার শরীরকে বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার থেকে রক্ষা করতে পারে এই পানীয়।

দুটো পানীয়ই স্বাস্থ্যের জন্যে ভালো কিন্তু যেহেতু লেবুতে এসিটিক এসিড রয়েছে তাই সকালবেলা তা পানে অ্যাসিডিটি এবং গ্যাসের সমস্যা হতে পারে অনেকের।


আরও খবর
যেভাবে বানাবেন শসার স্মুদি

সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১




রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | ১৩৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। দুই ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তবে ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

সোমবার (২২ মার্চ) বিকেল তিনটার দিকে বালুখালী ক্যাম্পে এ আগুনের সূত্রপাত হয়।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের উখিয়া স্টেশন, রামু স্টেশন ও কক্সবাজার স্টেশনের চারটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে বলে নিশ্চিত করেছেন ক্যাম্প ইনচার্জ মোহাম্মদ তানজীম।

এদিকে অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. সামছু-দ্দৌজা বলেন, উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুপুরে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আগুন এখনও জ্বলছে। তবে আগুন নেভানোর জন্য ফায়ার সার্ভিস, উখিয়া পুলিশ, এপিবিএন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সবাইকে জানানো হয়েছে।

দ্রুত আগুন নেভানোর জন্য সবাই একযোগে কাজ করছে। এখনও পর্যন্ত কি পরিমাণ রোহিঙ্গাদের বসতি ক্ষতি হয়েছে তা জানা যায়নি।


আরও খবর



সবচেয়ে বড় বন্যার মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
দ্রুত বয়ে যাওয়া বন্যার পানি বাড়ি-ঘর বিচ্ছিন্ন করে যানবাহন ও বিভিন্ন খামারের পশু ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। জানা গেছে, নিচু এলাকা থেকে ইতোমধ্যে দুই হাজারের বেশি মানুষ সরিয়ে নেওয়া

গত ৬০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় বন্যার মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া। বন্যা আক্রান্ত সিডনির পশ্চিম শহরতলি এলাকা থেকে কয়েক হাজার মানুষকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। সোমবার (২২ মার্চ) এ খবর দিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। জানা গেছে, ইতোমধ্যে অন্তত দুই হাজার মানুষকে নিচু এলাকা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, গত তিনদিনের অবিরাম বৃষ্টিতে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের নদীগুলো ফেঁপে উঠেছে। দেশটির এই রাজ্যেটিই সবচেয়ে বেশি জনবহুল। স্থানীয় জরুরি সেবা বিভাগ এক টুইটে বলেছে, ১৯৬১ সালের পর এটিই অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় বন্যা হতে চলেছে।

টেলিভিশন এবং সোশ্যাল মিডিয়ার ফুটেজে দেখা গেছে, দ্রুত বয়ে যাওয়া বন্যার পানি বাড়ি-ঘর বিচ্ছিন্ন করে যানবাহন ও বিভিন্ন খামারের পশু ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। জানা গেছে, নিচু এলাকা থেকে ইতোমধ্যে দুই হাজারের বেশি মানুষ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এর আগে, শনিবার স্থানীয় সময় বিকালের দিকে সিডনির অন্যতম পানি সরবরাহকেন্দ্র ওয়ারাগাম্বা বাঁধ থেকে পানি উপচে পড়া শুরু হয়; এই পানি বৃষ্টির কারণে স্ফীত নদীর সঙ্গে মিশে যেতে পারে বলে কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে। ছোট একটি টর্নেডোও শহরটির পশ্চিম অংশের ৩০টিরও বেশি বাড়ির ক্ষতি করে; অনেক গাছ উপড়ে ফেলার পাশাপাশি বিদ্যুতের সংযোগও বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে বলে জানিয়েছিলেন জরুরি বিভাগের কর্মকর্তারা।

নিউজ ট্যাগ: অস্ট্রেলিয়া

আরও খবর