আজঃ শনিবার ০২ মার্চ 2০২4
শিরোনাম

কানায় কানায় পূর্ণ বিশ্ব ইজতেমা ময়দান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব আগামীকাল শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) বাদ ফজর থেকে শুরু হচ্ছে। ইতোমধ্যে ইজতেমা ময়দানে জড়ো হয়েছেন বিভিন্ন জেলা থেকে আসা কয়েক লাখ মুসল্লি। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে পুরো ইজতেমা ময়দান। ময়দানে জায়গা না পেয়ে অনেকেই আশপাশের সড়ক, ফুটপাত ও টয়লেটের ছাদে অবস্থান নিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) ইজতেমা ময়দান ঘুরে এসব চিত্র দেখা গেছে। তবে মুসল্লিরা বলছেন, কষ্ট মেনেই আল্লাহকে রাজি-খুশি করানোর জন্য তারা ইজতেমায় এসেছেন।

ময়দানের উত্তর পাশের ১০ নম্বর টয়লেট ভবনের ছাদে অবস্থান নিয়েছেন বগুড়া থেকে ইজতেমায় আসা মুসল্লি দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, বুধবার ইজতেমা ময়দানে এসে জেলা খিত্তায় জায়গা না পেয়ে ময়দানের ১০ নম্বর টয়লেট ভবনের ছাদ পলিথিন ও ত্রিপল টানিয়ে অবস্থান করছি।

একই কথা জানালেন নাটোরের চলনবিল থেকে আসা আরেক মুসল্লি জহির উদ্দিন। তিনি ২৮ জন মুসল্লি নিয়ে ইজতেমা ময়দানে এসেছেন। কিন্তু ইজতেমা ময়দানের মূল মাঠে সামিয়ানার নিচে স্থান না পেয়ে তিনিও ১০ নম্বর টয়লেট ভবনের ছাদে অবস্থান নিয়েছেন। একই এলাকার মুকুল হোসেন ২২ জন মুসল্লি নিয়ে সেখানে অবস্থান নিয়েছেন। তারা সবাই গতকাল বুধবার দুপুরে ময়দানে এসেছেন।

সুনামগঞ্জ থেকে ২১ জন সাথী নিয়ে ইজতেমায় এসেছেন আফির উদ্দিন। তিনি বলেন, জেলা খিত্তায় জায়গা না পেয়ে কামারপাড়া-স্টেশনরোড সড়কের ফুটপাতে বসেছি। সেখান থেকেই ইজতেমা ময়দানের মুরব্বিদের বয়ান শুনছি। বৃষ্টিতে কষ্ট হলেও আল্লাহকে রাজি খুশি করানোর জন্য কষ্ট মেনে নিয়েছেন বলে তিনি জানান।

এদিকে দিনভর আকাশ মেঘলা থাকলেও সন্ধ্যার আগ পর্যন্ত সেভাবে বৃষ্টি হয়নি। কয়েক দফায় সামান্য গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হয়েছিল। তবে মাগরিবের নামাজের পর থেকে বৃষ্টি নামা শুরু হয়েছে। এতে বেশ ভোগান্তিতে পড়েছেন মুসল্লিরা।

বৃহস্পতিবার বাদ ফজর থেকে ইজতেমা ময়দানে দেশি-বিদেশি মুরব্বিরা বয়ান করছেন। মূল ময়দানে কোথাও বসার স্থান নেই। মুসল্লিরা মে যেখানে স্থান পেয়েছেন সেখানে বসেই মনোযোগ দিয়ে ঈমান ও আমলের বয়ান শুনছেন।

শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে জুবায়েরপন্থি তাবলিগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হচ্ছে। শুক্রবার ইজতেমা ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে দেশের বৃহত্তম জুমার নামাজ। রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ইজতেমার প্রথম পর্ব।

এরপর চার দিন বিরতি দিয়ে ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে আবার শুরু হবে মাওলানা সাদপন্থিদের ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। ১১ ফেব্রুয়ারি তাদের আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমার আসর।

নিউজ ট্যাগ: বিশ্ব ইজতেমা

আরও খবর
শবে বরাত সম্পর্কে হাদিসে যা বলা হয়েছে

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




গ্রিসে বৈধতা পেলেন ৩ হাজার ৪০৫ বাংলাদেশি

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

গ্রিসে বৈধভাবে বসবাসে অনুমতি পেলেন ৩ হাজার ৪০৫ জন বাংলাদেশি। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুই দেশের মধ্যে সই হওয়া একটি সমঝোতা চুক্তির আওতায় এই অনুমতি দিল গ্রিস।

ইউরোপের দেশটিতে বসবাসের অনুমতির জন্য আবেদন করেছিল ১০ হাজার ৩৩৭ জন বাংলাদেশি। জাচাইবাছাইয়ের পর ১ হাজার ৯ জনের আবেদন শেনজেন ভিসা রিপোর্টের ভিত্তিতে বাতিল হয়ে যায়। বাকি ৫ হাজার ৯০০ জনের আবেদন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে গ্রিসের অভিবাসন ও অ্যাসাইলেম মন্ত্রণালয়। 

২০২২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত গ্রিসে দুই বছর ধরে অবস্থান করা যেকোনো বাংলাদেশি আবেদনকারীর পাসপোর্টে ২ বছরের মেয়াদ থাকলে এই আবেদন করার ক্ষেত্রে যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছেন। তবে এই আবেদন করার আগে অ্যাথেন্সের বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে নাম রেজিস্ট্রেশন করতে হয়েছে আবেদনকারীদের। গত বছরের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত এই রেজিস্ট্রেশন চলেছে। এই বছরও একই প্রক্রিয়ায় এখন পর্যন্ত ১১৩ বাংলাদেশি গ্রিসে বসবাসের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছেন।

গ্রিসের অভিবাসন ও অ্যাসাইলেম মন্ত্রী দিমিত্রিস কেইরিদিস এই বছরের শুরুতে বলেছিলেন ২০২৪ সাল হবে বৈধ অভিবাসনের বছর। এই লক্ষে অভিবাসন ব্যবস্থার আধুনিকায়ন শুরু করেছে দেশটি। গ্রিসের লক্ষ্য ২০২৬ সালের জুনের মধ্যে ৮ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসন আবেদন নিষ্পন্ন করা।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নববধূকে হত্যা করে পালানোর সময় স্বামী আটক

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ রাসেল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় বিয়ের ৪ দিন পর স্ত্রী হত্যাকান্ডের ঘটনায় ঘাতক স্বামী আব্দুল হামিদ (২৮) কে আটক করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের হীরাপুর বড় মুড়া সীমান্ত দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে তাকে আটক করে ২৫ বিজিবির সদস্যরা।

পরে তাকে আখাউড়া থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। মূলত মোবাইল দেখা নিয়ে মনোমালিন্যের জেরে সে তার স্ত্রী তাছলিমা আক্তারকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। এরআগে মঙ্গলবার দুপুরে তাছলিমা আক্তারকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায় স্বামী আব্দুল হামিদ।

জানা যায়, ৭/৮ মাস আগে হীরাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফ মিয়ার প্রবাসী পুত্র আব্দুল হামিদের সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের বাসুদেব গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জামের মেয়ে তাছলিমা আক্তারের বিয়ে হয় মোবাইল ফোনে। সম্প্রতি হামিদ দেশে ফিরে এসে গত শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠান করে স্ত্রী তাছলিমাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে পরিবারিক কলহ দেখা দেয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার দুপুরে ধারালো ছুরি দিয়ে তাছলিমাকে গলা কেটে হত্যা করে হামিদুল। এ সময় হামিদুলের বড় ভাই হানিফ বাধা দিলে তাকেও হামিদুল ছুরিকাঘাত করে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় ওই রাতেই নিহতের বড় ভাই আব্দুল কুদ্দুছ বাদী হয়ে আব্দুল হামিদকে আসামী করে থানায় মামলা করেন। মামলায় কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা দেখানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ২৫ বিজিবি (সরাইল) ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আরমান আরিফ (পিএসসি) বলেন, সীমান্ত এলাকা অতিক্রম করার সময় টহলরত বিজিবি সদস্যরা আসামীকে আটক করেছে। পরে তাকে থানায় সোপর্দ করা হয়।

আখাউড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুল হামিদ স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে তার স্ত্রী মোবাইলে টিকটক দেখতো ও ছেলের সাথে চ্যাটিং করতো বলে সন্দেহ ছিল। হামিদ তার স্ত্রীর মোবাইল দেখতে চাইলে তাকে তার স্ত্রী মোবাইল ধরতে বারণ করে। এনিয়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয়। ঘটনার দিন সকালে তাছলিমা বাবার বাড়িতে যেতে চাইলে হামিদ যেতে দেয়নি। এরপর স্বামী আব্দুল হামিদ বাজার থেকে ৩০০ টাকা দিয়ে ছুরি কিনে বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করে।

নিউজ ট্যাগ: ব্রাহ্মণবাড়িয়া

আরও খবর



আগেও বিয়ে হয়েছিল অনুপমের হবু স্ত্রী প্রশ্মিতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

আবারও বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন তুমি অন্য কারও সঙ্গে বেঁধ ঘর গানের শিল্পী অনুপম রায়। ২ মার্চ গায়িকা প্রশ্মিতা পালকে বিয়ে করছেন তিনি। তার হবু স্ত্রীর আগেও একবার বিয়ে হয়েছিল।

প্রশ্মিতা পাল টলিউডের অতি চেনা মুখ। একাধিক ছবিতে একাধিক গান গেয়েছেন তিনি। তিনি কলকাতারই মেয়ে। লরেটো কলেজ থেকে পড়াশোনা করেছেন তিনি। খ্যাতি পান বোঝে না সে বোঝে না ছবিটির সাজনা গানটি গেয়ে। তার হবু স্বামী অনুপমের পরিচালনাতেও গেয়েছেন গান। হাইওয়ে ছবির তোমায় নিয়ে গল্প হোক গানটি প্রশ্মিতারই গাওয়া।

শৌনক নামক এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেছিলেন প্রশ্মিতা। শৌনক পেশায় চিকিৎসক ছিলেন। কিন্তু বিয়ে করার কয়েক মাসের মধ্যেই তাদের সেই ঘর ভাঙে।

বর্তমানে অতীতের সেই স্মৃতি ভুলে নতুন স্বপ্নে বিভোর গায়িকা। অনুপমের হাত ধরে শুরু করছেন জীবনের নতুন অধ্যায়। বিয়ে প্রসঙ্গে প্রশ্মিতা বলেন, আমরা যেহেতু একই পেশায় আছি, তাই ওকে (অনুপম রায়) বহু বছর ধরে চিনি। গত এক বছর ধরে আমরা সম্পর্কে আছি। তবে আমরা কখনোই চাইনি এটা নিয়ে আলোচনা হোক। এখন মনে হয়েছে- আমরা পরবর্তী ধাপে যেতে পারি। তাই বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের আশেপাশের সবাই ভালো থাকলে আমরাও ভালো থাকব।

পিয়া চক্রবর্তী ও পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় যেমন ২৭ নভেম্বর ঘরোয়া পরিবেশে আইনি বিয়ে সেরেছেন, তেমন ভাবেই আগামী ২ মার্চ অনুপম ও প্রশ্মিতা আইনি বিয়ে সারবেন। উপস্থিত থাকবেন তাদের পরিবার এবং কাছের বন্ধুরা।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রাজধানীর ওয়ারীতে রেস্টুরেন্টে আগুন

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর ওয়ারীতে একটি রেস্টুরেন্টে আগুন লেগেছে। শুক্রবার (১ মার্চ) রাতে ওয়ারীর একটি ভবনের দোতলার রেস্টুরেন্টটিতে আগুন দেখে ফায়ার সার্ভিসে ফোন দেন স্থানীয়রা।

ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া কর্মকর্তা মো. আনোয়ারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রাত সোয়া ১০ টায় আগুনের সংবাদ পেয়ে রেস্টুরেন্টটিতে যায় ফায়ার সার্ভিস। ১৬ মিনিটের মাথায় রেস্টুরেন্টে পৌঁছে ফায়ার এক্সটিংগুইশার ব্যবহার করে আগুন নেভানো হয়েছে।

রেস্টুরেন্টটির কিচেনে আগুন লেগেছিল। এপর্যন্ত হতাহতের কোন সংবাদ পাওয়া যায়নি। প্রাথমিকভাবে রেস্টুরেন্টের নাম জানা যায়নি।


আরও খবর



আদভানিকে ‘ভারতরত্ন’ প্রদান আমার জন্য খুবই আবেগপূর্ণ মুহূর্ত: মোদি

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক ভারতরত্ন সম্মাননা পাচ্ছেন। শনিবার সকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্স হ্যান্ডেলে অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে এ ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

তিনি লিখেছেন, আদভানিকে ভারতের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার ভারতরত্ন দেওয়া হবে। এই সম্মান প্রদানের কথা জানাতে সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী আদভানির সঙ্গে কথাও বলেছি। এই সম্মানে ভূষিত হওয়ার জন্য তাঁকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছি।


নরেন্দ্র মোদি লিখেছেন, তাঁকে (লালকৃষ্ণ আদভানি) ভারতরত্ন পদক প্রদান আমার জন্য খুবই আবেগপূর্ণ মুহূর্ত। নরেন্দ্র মোদি আদভানির সঙ্গে দুটি ছবিও ট্যাগ করেছেন পোস্টে।

ভারতীয় জনতা পার্টির ৯৭ বছর বয়সী প্রবীণ রাজনীতিবিদ আদভানির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী আরও লিখেছেন, তিনি আমাদের সময়ের সবচেয়ে সম্মানিত রাষ্ট্রনায়কদের একজন। ভারতের উন্নয়নে তাঁর অবদান স্মরণীয়। তাঁর এমন একটি জীবন যিনি তৃণমূলে কাজ করা থেকে শুরু করে দেশের উপ-প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জাতির সেবা করেছেন।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, তিনি আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং আইএন্ডবি মন্ত্রী হিসেবেও নিজেকে আলাদা হিসেবে প্রমাণ করেছেন। তাঁর সংসদীয় ভূমিকা সবসময়ই অনুকরণীয়, তিনি অন্তর্দৃষ্টিতে পূর্ণ সমৃদ্ধ।

তিনি বলেছেন, জনজীবনে আদভানি স্বচ্ছতা ও সততার প্রতি অটল ছিলেন যা রাজনৈতিক নীতিশাস্ত্রে একটি অনুকরণীয় মান স্থাপন করেছে। জাতীয় ঐক্য ও সাংস্কৃতিক পুনরুত্থানের জন্য তিনি অতুলনীয় চেষ্টা চালিয়ে গেছেন। তাঁকে ভারতরত্ন প্রদান আমার জন্য খুবই আবেগঘন মুহূর্ত। আমি সবসময় এটিকে আমার বিশেষত্ব হিসেবে বিবেচনা করব যে, আমি তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করার এবং তাঁর কাছ থেকে শেখার অগণিত সুযোগ পেয়েছি।


আরও খবর