আজঃ বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

খেলাপি ঋণ ১ লাখ কোটি টাকা ছাড়াল

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে দেখা গেছে, সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ১ হাজার ১৫০ কোটি টাকা। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে খেলাপি ঋণ ছিল ৮৮ হাজার ৭৩৪ কোটি টাকা। সে হিসাবে চলতি বছরের প্রথম নয় মাসে খেলাপি ঋণ ১২ হাজার ৪১৬ কোটি টাকা বেড়েছে। সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংক খাতে ঋণের স্থিতি দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ৪৫ হাজার ৩৯১ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। 

ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণের ৮ দশমিক ১২ শতাংশ খেলাপির খাতায় উঠেছে। ২০১৯ সালে দেশের ব্যাংক খাতের মোট খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ১০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, সেপ্টেম্বর শেষে রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণের স্থিতি ছিল ২ লাখ ১৯ হাজার ২৯২ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৪৪ হাজার ১৬ কোটি টাকাই খেলাপির খাতায় উঠেছে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণের ২০ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ বর্তমানে খেলাপি। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে এসব ব্যাংকের খেলাপি ঋণ ছিল ৪২ হাজার ২৭৩ কোটি টাকা। ওই সময় বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ছিল ২ লাখ ২ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা।

সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশের বেসরকারি ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণের স্থিতি ছিল ৯ লাখ ২৮ হাজার ৪৯৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৫০ হাজার ৭৪৩ কোটি টাকা ছিল খেলাপি, যা বিতরণকৃত ঋণের ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। গত ডিসেম্বরে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণের পরিমাণ ছিল ৪০ হাজার ৩৬১ কোটি টাকা। সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিদেশি  ব্যাংকের খেলাপি হয়েছে ২ হাজার ৬৯২ কোটি টাকার ঋণ, যা এসব ব্যাংকের বিতরণকৃত ঋণের ৪ দশমিক ১২ শতাংশ। বিদেশি ব্যাংকের বিতরণকৃত ঋণের স্থিতি দাঁড়িয়েছে ৬৫ হাজার ২৬২ কোটি টাকা। এছাড়া সরকারি বিশেষায়িত তিন ব্যাংকের খেলাপি ঋণ ৩ হাজার ৬৯৯ কোটি টাকায় পৌঁছেছে। বিশেষায়িত ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণের ১১ দশমিক ৪৪ শতাংশ বর্তমানে খেলাপি।

নিউজ ট্যাগ: খেলাপি ঋণ

আরও খবর
শেয়ারবাজারে মূল্যসূচকের বড় উত্থান

মঙ্গলবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে

সোমবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২১




ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে বগুড়ায় সবজি বিক্রেতা নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৬৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বগুড়ার শাজাহানপুর ইউনিয়নে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আজিজুল হক আজহার (৫২) নামে এক সবজি বিক্রেতা নিহত হয়েছেন।

সোমবার মধ্যরাতে উপজেলার হেলেঞ্চপাড়া দ্বিতীয় বাইপাস মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

সবজি বিক্রেতা আজিজুল হক আজাহার শাজাহানপুর উপজেলার মাদলা ইউনিয়নের নন্দগ্রামের মৃত আবদুল কাদেরের ছেলে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানান, আজিজুল হক বগুড়া পৌরসভার বনানী এলাকায় সুলতানগঞ্জ হাটে সবজি বিক্রি করে সোমবার মধ্য রাতে অটোভ্যানে বাড়ি ফিরছিলেন।

তিনি হেলেঞ্চাপাড়া এলাকায় দ্বিতীয় বাইপাস মহাসড়কে পৌঁছালে একটি মোটরসাইকেলে আসা তিন ছিনতাইকারী পথরোধ করে। চালক আবদুর রহমান ভ্যান থামাতে বাধ্য হন। তারা ধারালো অস্ত্রের মুখে কাছে থাকা সব কিছু দিতে বলে। ভ্যানচালক আবদুর রহমান কাছে থাকা দুই হাজার টাকা ছিনতাইকারীদের দেন। কিন্তু আজাহার ছিনতাইকারীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু করেন।

এ সময় ছিনতাইকারীরা তার বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা সবজি বিক্রেতা আজাহারকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শাজাহানপুর থানার ওসি আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে সবজি বিক্রেতা আজিজুল হক ওরফে আজাহার খুন হয়েছেন। তার মরদেহ উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। পুলিশের একাধিক টিম মাঠে রয়েছে। হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর
বগুড়ায় শক্তিশালী ৭ বিস্ফোরক উদ্ধার

শুক্রবার ১৯ নভেম্বর ২০২১




‘আইন পর্যালোচনা করে মেয়র জাহাঙ্গীরের বিষয়ে সিদ্ধান্ত’

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

শনিবার (২০ নভেম্বর) হোটেল সোনারগাঁওয়ে খসড়া বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনা-ড্যাপ (২০১৬-২০৩৫) চূড়ান্তকরণের লক্ষ্যে আয়োজিত জাতীয় সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, গাজীপুর সিটি মেয়রকে দলীয় সিদ্ধান্তের ওপর ভিত্তি করে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তিনি মেয়র পদে থাকবেন কি না সেটা আইন পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তি করার দায়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। পাশাপাশি আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্যপদ থেকেও তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) বিকেল ৪টায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

একই সঙ্গে বৈঠকে মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



টাঙ্গাইলের হাসান ইমামের এমপি পদ বাতিল চেয়ে রিট

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে টাঙ্গাইল-৪ আসনের মো. হাসান ইমাম খানের সংসদ সদস্য পদ বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মোখলেসুর রহমান হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ আবেদন করেন। রিট আবেদনের বিষয়ে মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি মামনুন রহমানের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে শুনানি হতে পারে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত জানান, শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে তথ্য গোপন করার অভিযোগে হাসান ইমাম খানের এমপি পদ বাতিল চেয়ে রিট আবেদন করেছেন স্থানীয় ভোটার মো. মোখলেছুর রহমান।

তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে ২৫ জুলাই স্পিকার বরাবর চিঠি দেন মোখলেছুর রহমান। বিতর্কের বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য নির্বাচন কমিশনে পাঠানোর অনুরোধ করেন। কিন্তু সেটি না হওয়ায় তিনি ওই চিঠি নিষ্পত্তিতে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন।

হাসান ইমাম খান টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের সংসদ সদস্য। এ আসনের সাবেক সদস্য আবদুল লতিফ সিদ্দিকী হজ ও তাবলিগ জামাত নিয়ে কটূক্তি করায় ২০১৪ সালে মন্ত্রিসভা থেকে অপসারিত হন ও দল থেকে বহিষ্কৃত হন। তিনি সংসদ থেকে পদত্যাগ করার পর উপনির্বাচনে হাসান ইমাম খান নির্বাচিত হন। পরে ২০১৮ সালে একাদশ সংসদ নির্বাচনেও দলীয় মনোনয়ন পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো তিনি নির্বাচিত হন।



আরও খবর
চট্টগ্রামে পাট গুদামে ভয়াবহ আগুন

বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

আজ নেত্রকোনা ট্র্যাজেডি দিবস

বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১




টানা ১৫ দিন ইন্টারনেট না থাকলে বিল দিতে হবে না

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৯৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টানা ১৫ দিন ইন্টারনেট সেবা বন্ধ থাকলে গ্রাহককে ওই মাসে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানকে কোনো বিল দিতে হবে না। বৃহস্পতিবার আগের নিয়ম সংশোধন করে নতুন এ নির্দেশনা দেয় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

এর আগে গত ৫ অক্টোবর বিটিআরসি জানিয়েছিল, টানা ৩ দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে ওই মাসের কোনো মাসিক বিল গ্রাহকের কাছ থেকে নেওয়া যাবে না।

নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, টানা পাঁচ দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ৫০ ভাগ নিতে পারবে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। আর টানা ১০ দিন ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ২৫ ভাগ নেওয়া যাবে। আর ১৫ দিন ইন্টারনেট না থাকলে সে মাসে কোনো বিলই নেওয়া যাবে না।

ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবির সভাপতি আমিনুল হাকিম জানান, আমরা বৃহস্পতিবার বিটিআরসির চিঠি পেয়েছি। আমাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসি এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। এতে করে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে এক দেশ এক রেট বাস্তবায়ন আরও সহজ হবে।

এর আগে বিটিআরসি গত পাঁচ অক্টোবর গণমাধ্যমগুলোতে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, এক দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ৫০ ভাগ নিতে পারবে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। দুই দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ২৫ ভাগ নেওয়া যাবে। আর টানা তিন দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে ওই মাসের কোনো মাসিক বিল গ্রাহকের কাছ থেকে নেওয়া যাবে না।



আরও খবর
বিজয়ের মাসেই ফাইভ-জি

বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১




শরীরে লম্বা লেজ নিয়ে জন্ম হল শিশুর!

প্রকাশিত:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | ৯০৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ব্রাজিলে ১২ সেন্টিমিটার লম্বা একটি লেজসহ জন্ম হয়েছে এক মানবশিশুর। সম্প্রতি পেডিয়াট্রিক কেস রিপোর্টস নামে একটি জার্নালের মাধ্যমে বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে। ওই জার্নালে শিশুটির কোনো পরিচয় উল্লেখ করা হয়নি। এতে বলা হয়েছে, শিশুটি অপরিণত অবস্থায় জন্ম নেয়। তবে এর জন্য শিশুটির শরীরে আর  কোনো জটিলতা ছিল না। 

শিশুটির শরীরে বাঁ পাশে মাজার নিচ থেকে একদম লেজের মতো কিছু একটা নেমে গেছে যেটা লম্বায় ১২ সেন্টিমিটার। আর ওই অংশটির সাথে জোড়া লাগানো আছে গোলাকার আরেকটি অংশ, যার সর্বোচ্চ ব্যাস ৪ সেন্টিমিটার। আলট্রাসাউন্ড পরীক্ষা করে শিশুটির শরীরে অন্য কোনো সমস্যা বা ব্যতিক্রমী কিছু আর পাওয়া যায়নি।

মানবশরীরে কখনও যদি লেজের মতো কোনো অঙ্গ দেখা যায়, তবে সেটিকে দুভাবে সংজ্ঞায়িত করা হয়। এর একটিকে বলা হয় ট্রু টেল আর অন্যটি হলো সিউডো টেল।


এরমধ্যে সিউডো টেলটা হলো মূলত শরীরের একটি বর্ধিত অংশ যেটা মূলত অ্যাডিপোজ ও কার্টিলাগিনাউস টিস্যু দিয়ে তৈরি, আর এ ধরনের লেজে হাড়ের কিছু উপাদান বিদ্যমান থাকে। আর ট্রু হিউম্যান টেল যেটাকে বলা হয়, সেটা একেবারেই বিরল, এখন পর্যন্ত ৪০টি শিশুর ক্ষেত্রে হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। 

এই সত্যিকারের লেজ বলতে আসলে ভ্রুণের লেজের কথা বলা হয়, স্বাভাবিক অবস্থায় যেটা শিশুর জন্মের আগ পর্যন্ত থাকে। সাধারণত ভ্রুণের বয়স যখন চার সপ্তাহ হয়, তখন ভ্রুণে ছোট্ট একটি লেজ তৈরি হয়। তবে ভ্রুণের বয়স যখন ১২ সপ্তাহ মতো হয় তখন শ্বেত রক্ত কণিকায এই লেজটা শোষিত হয়।

বিরল কিছু ক্ষেত্রে, এ শিশুটার ক্ষেত্রে যেমন হয়েছে, শ্বেত রক্ত কণিকায় লেজটার কিছু হয় না এবং ভ্রুণ পরিণত হতে থাকলেও লেজটা তার সঙ্গে থেকেই যায়। তবে চিকিৎসকরা দ্কেনো জটিলতা ছাড়াই অস্ত্রপাচারের মাধ্যমে শিশুটির শরীর থেকে লেজটি ফেলে দিয়েছেন। এর পরে পুরোপুরি সুস্থ আছে শিশুটি।  


আরও খবর
এক কাঁকড়ার দাম ৩৭ লাখ টাকারও বেশি

মঙ্গলবার ০৯ নভেম্বর ২০২১