আজঃ মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ | ৭০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শুভ বড়দিন আজ। খ্রিস্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিস্ট এই দিনে (২৫ ডিসেম্বর) বেথলেহেমে জন্মগ্রহণ করেন বলেই তার অনুসারী খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীরা দিনটিকে শুভ বড়দিন হিসেবে উদযাপন করে থাকেন।

খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষরা বিশ্বাস করেন, সৃষ্টিকর্তার মহিমা প্রচারের মাধ্যমে মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতেই প্রভু যিশুর পৃথিবীতে আগমন ঘটেছিল।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশের খ্রিস্টধর্মানুসারীরাও যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য্য ও আচারাদি, আনন্দ-উৎসব এবং প্রার্থনার মধ্যদিয়ে শুভ বড়দিন উদযাপন করবেন।

এ উপলক্ষে রাজধানীসহ সারাদেশে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান গির্জাগুলোকে নতুন আঙ্গিকে সাজানো হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যা থেকে বিভিন্ন গির্জা এবং তারকা-হোটেলগুলোতে আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এদিকে, বড়দিন উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খ্রিস্টধর্মাবলম্বীসহ সবার শান্তি ও কল্যাণ কামনা করে পৃথক বাণী দিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে খ্রিস্টধর্মাবলম্বীসহ সবার জন্য অশেষ আনন্দ ও কল্যাণ কামনা করে বলেন, সবার জীবন সুখ ও সমৃদ্ধিতে ভরে উঠুক

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে সব ধর্ম ও বর্ণের মানুষের সমান অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদাত্ত আহ্বানে সাড়া দিয়ে সবাই মিলে যুদ্ধ করে আমরা বাংলাদেশ স্বাধীন করেছি। এই দেশ আমাদের সবার। বাংলাদেশ ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষের নিরাপদ আবাসভূমি।

অন্যদিকে দিনটি উপলক্ষে অনেক খ্রিস্টান পরিবারে কেক তৈরি করা হবে, থাকবে বিশেষ খাবারের আয়োজন। এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেশের অনেক অঞ্চলে আয়োজন করা হযেছে কীর্তনের পাশাপাশি ধর্মীয় গানের আসর। খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের অনেকেই আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার জন্য বড়দিনকে বেছে নেন।

রাজধানীর তেজগাঁও ক্যাথলিক গির্জায় (পবিত্র জপমালার গির্জা) বড়দিনের বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়েছে। জরি লাগিয়ে গির্জার ভেতর রঙিন করা হয়েছে। ভেতরে সাজানো হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি।

রাজধানীর তারকা হোটেলগুলোতে আলোকসজ্জার পাশাপাশি হোটেলের ভেতরে কৃত্রিমভাবে স্থাপন করা হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি ও শান্তাক্লজ। বড়দিনের প্রাক্কালে শুত্রবার রাতে বিভিন্ন গির্জায় বিশেষ প্রার্থনাও অনুষ্ঠিত হয়। আজ সকাল থেকে শুরু হয়েছে বড়দিনের প্রার্থনা।

 

নিউজ ট্যাগ: শুভ বড়দিন

আরও খবর
রোজা শুরু হতে পারে যে তারিখ থেকে

বৃহস্পতিবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২১




মৃত্যুর আগ মুহূর্তে সাবেক স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৯০০জন দেখেছেন

Image

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে সবার অজান্তে মৃত্যুর আগ মুহূর্তে রবিন্দ্রনাথ সরকার নামের এক অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্যের  সৃষ্টি হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের খামার হাসনাবাদ সেনপাড়া এলাকায়। এ ঘটনায় সোমবার (৩ জানুয়ারি) নাগেশ্বরী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন মৃতের পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী।

এতে জানা যায় গতকাল রোববার ওই ব্যাক্তি অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনরা তার শারিরীক সেবা যত্ন করার সময় দেখতে পায় তার ২ হাতের বৃদ্ধাঙুলিতে কালির ছাপ লাগানো। এ বিষয়ে পরিবারের লোকজন নাগেশ্বরী থানায় অভিযোগ করতে গেলে সন্ধ্যায় খবর পান তার মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ওই বাড়িতে ভিড় জমায়।

পরিবারের অভিযোগ একটি কুচক্রি মহল তাদের ক্ষয়ক্ষতি এবং সম্পদ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে এই কান্ড ঘটিয়েছে। আর যে কারণে তার এই মৃত্যু হয়েছে। তাই এর সুষ্ঠু তদন্তসহ বিচার দাবি করেছেন পরিবারের লোকজন। অব. স্কুল শিক্ষক মৃত রবিন্দ্রনাথ রায়ের কৃষ্ণা চন্দ্র (৪৬) ও রত্না সেন (৪০) নামের ২ মেয়ে রয়েছে এবং রঞ্জু কুমার সরকার নামের এক ছেলে ছিলেন। তিনি এক বছর আগে মারা যান। তার স্ত্রী অঞ্জনা রানী শ্বশুর শাশুড়ির সংসারে ২ মেয়েকে নিয়ে থাকেন।

মৃত রবিন্দ্রনাথ সরকারের স্ত্রী ললিতা সরকার (৬৫) জানায়, রোববার তার স্বামী অসুস্থ থাকাবস্থায় নাগেশ্বরী পৌরসভার চামটারপাড় সুখাতি এলাকার জোগেন মোক্তার নামের এক ব্যাক্তি তাকে দেখতে আসেন। তখন তাদের ঘরে কেউ ছিলো না। পরে বের হওয়ার সময় দেখেন তিনি ঘর থেকে বের হয়ে যাচ্ছেন। এ সময় বাড়ির পূত্রবধূর কাছ থেকে পান সুপাড়ি চাইলে তিনি তা খেয়ে চলে যান। পরে তার পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী তার শ্বশুরের হাতে পায়ে তেল মালিশ করতে গিয়ে দেখেন ২ হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলিতে কালির ছাপ। এটি দেখে হতবাক হয়ে যান তিনি। পরে ওই জোগেন মোক্তারকে ডাকলে তিনি বিষয়টি অস্বিকার করেন।

পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী বলেন, আমি বাবার শরিরে পরিচর্যার জন্য তেল মালিশ করতে গিয়ে দেখি তার আঙ্গুলে কালির ছাপ। কে বা কারা এটি করেছে আমাদের জানা নেই। তবে যেই করুক আমাদের ক্ষতি করার জন্য কিংবা সম্পদ হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে করেছে।

পরে বিষয়টি অভিযোগের জন্য থানায় গেলে সন্ধ্যায় খবর পাই বাবা মারা গেছে। এ খবর পেয়ে তৎক্ষনাৎ বাড়ি ফিরে আসি। যাতে ভবিষ্যতে আমাদের কোনো ক্ষতি না হয় এ জন্য আমি প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

এ ব্যাপারে হাসনাবাদ ইউনিয়নেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান সরকার বলেন, আমি খবর পাওয়ার পর সরেজমিনে গিয়ে দেখি ঠিকই তার হাতের আঙুলে ছাপ। তাই পরিবারের লোকজনকে নিয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে।

নাগেশ্বরী থানার ওসি (তদন্ত) পলাশ চন্দ্র জানান, এ ব্যাপারে একটি জিডি করেছেন ওই ব্যাক্তির পুত্রবধূ। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: কুড়িগ্রাম

আরও খবর



বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ কর্মচারী ইউনিয়নের শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | ২৫০জন দেখেছেন

Image

মারুফ মালেক

গোপালগঞ্জের  টুঙ্গিপাড়ায়  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান এর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ  কর্মচারী ইউনিয়ন (সিবিএ) এর  নবনির্বাচিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. দে‌লোয়ার হো‌সেনসহ অন‌্যান‌্যরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের নির্মম বুলেটে শাহাদতবরণকারী সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার পরিবারের শাহাদতবরণকারী সদস্যেদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

ছাড়াও ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে শাহাদতবরণকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা বাংলার স্বাধিকার আন্দোলনে শাহাদতবরণকারী শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে সময় দোয়া করা হয়।


আরও খবর



দিনাজপুরে সড়ক বিভাগের

আঞ্চলিক সড়ক পরিদর্শন করলেন প্রধান প্রকৌশলী আবদুস সবুর

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দিনাজপুর থেকে মনজিদ আলম শিমুল

দিনাজপুরে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আবদুস সবুর সড়ক বিভাগের উন্নয়ন ও রক্ষনাবেক্ষণ কাজের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় অংশগ্রহন, বঙ্গবন্ধু কর্ণারের উদ্বোধন, দিনাজপুর সড়ক ভবনের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কার্যক্রমের উদ্বোধন, অসহায় ও দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, বৃক্ষরোপন ও ফুলবাড়ী-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহা সড়কের নির্মান কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন।

সড়ক ভবনের সম্মেলন কক্ষে দিনাজপুর সড়ক বিভাগের উন্নয়ন ও রক্ষনাবেক্ষণ কাজের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আবদুস সবুর বলেন, যুগের সাথে তাল মিলিয়ে রাস্তার গুনগত মান বজায় রেখে কাজ করতে হবে। সড়ক নির্মানে কোনো রকমের খাম খেয়ালী বা গরিমসি বরদাস্ত করা হবে না। মেটিরিয়ালসের মান যাচাই করে কাজ করতে হবে। সবসময় কাজের পরিবেশ ভালো রাখতে হবে। অনুষ্ঠানে দিনাজপুর সড়ক সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ মাহবুবুল আলম খানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন রংপুর জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মনিরুজ্জামান।

 বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা, ঠাকুরগাঁও এর নির্বাহী প্রকৌশলী মনসুরুল আজিজ তারেক সহ রংপুর জোনের সড়ক বিভাগের বিভিন্ন জেলার নির্বাহী প্রকৌশলীবৃন্দ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সড়ক বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ কামরুল হাসান সরকার, প্রকৌশলী সমীর কুমার বণিক, সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

নিউজ ট্যাগ: দিনাজপুর

আরও খবর



আত্মঘাতী বাহিনী গড়ে তোলার পরিকল্পনা করছে তালিবান সরকার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফগান সেনাবাহিনীতে বিশেষ আত্মঘাতী দল গড়ে তোলার তোলার পরিকল্পনা করছে তালিবান সরকার। আফগান সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, তালিবানের মুখপাত্র জবিউল্লা মুজাহিদ সম্প্রতি এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, সেনার স্পেশাল ফোর্স বা বিশেষ দল হিসাবে আত্মঘাতী বাহিনী গড়ে তোলা হবে। তাজিকিস্তান সীমান্তে ইতিমধ্যে আত্মঘাতী তালিবান যোদ্ধাদের নিয়োগ করা হয়েছে বলে সংবাদমাধ্যমের একাংশের দাবি। তবে এ বিষয়ে কিছু জানায়নি তালিবান প্রশাসন। তালিবান মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রয়োজনে মহিলাদেরও সেনাবাহিনীতে নিয়োগ করা হবে। যদিও মহিলাদের শিক্ষা, চাকরি বা অন্যান্য অধিকার নিয়ে এখনও সে ভাবে মুখ খোলেননি জবিউল্লা।

তালিবান প্রশাসনের প্রতিরক্ষা বিভাগ সূত্রের খবর, ১ লক্ষ সেনার একটি বিশেষ শক্তিশালী দল গড়ার পরিকল্পনা করেছে তারা। বদরি নামে তালিবান সেনার একটি বিশেষ বাহিনী ইতিমধ্যেই রয়েছে। গত বছর অগস্টে কাবুল দখলের পর এই যোদ্ধাদেরই শহরে দাপিয়ে বেড়াতে দেখা গিয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে দমন-পীড়নের বহু অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়। তাতে তালিবান যোদ্ধাদের প্রাক্তন জমানার এক সেনা কমান্ডারকে নির্যাতন করতে দেখা যায়। তালিবানে আর এক মুখপাত্র মহম্মদ নঈম অবশ্য এ নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলেছেন। টুইট করে যোদ্ধাদের দমন-পীড়ন বন্ধ রাখার আর্জি জানিয়েছেন। আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তালিবান প্রশাসনের একাংশ বার্তা দিয়েছে যে তারা শান্তিপূর্ণ ভাবে সকলকে নিয়ে সরকার চালাতে চায়।

এমনকি প্রাক্তন জমানার সেনাকর্মী বা সরকারি আধিকারিকদের দেশ না-ছাড়ার আর্জি জানিয়েছে তারা। তবে বাস্তবে তা প্রতিফলিত হয়নি। বরং খুঁজে খুঁজে প্রাক্তন সরকারি বা সেনাকর্মীদের হত্যা করার একাধিক ঘটনা সামনে এসেছে। শুধু ঘরে নয় তালিবানের বিশেষ সেনার কাজকর্মে উত্তাপ বেড়েছে বাইরেও।

তাজিকিস্তান ও পাকিস্তান সীমান্তে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি পাক সীমান্তে কাঁটাতার দেওয়া নিয়ে দুতরফের মধ্যে বচসা বাধে। পাকিস্তানের অভিযোগ, আন্তর্জাতিক সীমান্তে কাঁটাতার লাগানোয় বাধা দিয়েছে তালিবান সেনা। অন্য দিকে, আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর তাজিকিস্তানের বেশ কয়েকটি চেকপোস্ট তালিবান বাহিনী দখল করেছে বলে অভিযোগ। ফলে নতুন আত্মঘাতী বাহিনী তৈরির খবরে উদ্বেগ বাড়ছে আফগানিস্তানের পড়শি দেশগুলিতে।


আরও খবর
সৌদি আরবে প্রতি ঘণ্টায় ৭ ডিভোর্স

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




পাথরঘাটায় ১২ মণ নিষিদ্ধ হাঙ্গর জব্দ

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বরগুনার পাথরঘাটায় ১২ মণ নিষিদ্ধ হাঙ্গর জব্দ করেছে কোষ্টগার্ড। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে দুজন জেলেকে করা হয়েছে অর্থদণ্ড।শনিবার (১ জানুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, আজ শনিবার সকালে বঙ্গোপসাগরের পাথরঘাটা অঞ্চলে নিষিদ্ধ হাঙ্গর শিকার করে তীরে ফিরছে এমন খবর পায় কোস্ট গার্ড। তারা গোপনে হাঙ্গর বহন করা ট্রলারটিকে অনুসরণ করে। এরপর ট্রলারটি পাথরঘাটার শুটকি-পল্লীতে এলে উপজেলা প্রশাসন ও কোস্টগার্ড যৌথ অভিযান চালায়। এ সময় ট্রলারে থাকা দুজন জেলেকে আটক করে এবং বিপুল পরিমাণে ছোট-বড় ১২ মণ হাঙ্গর জব্দ করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দুজন জেলেকে ৩ হাজার টাকা করে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, গোপন সংবাদের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমাণে হাঙ্গর জব্দ করে কোস্টগার্ড। পরে বিষয়টি আমাদের জানালে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাই। আটক হওয়া দুই জেলেকে তিন হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়। বাকি জেলেরা পালিয়ে যায়। জব্দ হওয়া এসব হাঙ্গর নষ্ট করা হবে।

নিউজ ট্যাগ: হাঙ্গর জব্দ

আরও খবর
সৈকতে ভেসে এলো মৃত ইরাবতী ডলফিন

রবিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২২

সৈকতে ভেসে এলো মৃত ইরাবতী ডলফিন

রবিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২২