আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

কি করে বুঝবেন আপনার কল রেকর্ড হচ্ছে

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ২১৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জরুরি তথ্য সেভ করে রাখার জন্য আপনার কল রেকর্ড করতে পারেন যে কেউ। এই রেকর্ড করার জন্য স্মার্টফোনে ইনবিল্ট ভয়েস কল রেকর্ডিং ফিচার দেয়  অনেক প্রতিষ্ঠান।

যে সব অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে এই ফিচার নেই তারা গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করে পেতে পারেন ভয়েস কল রেকর্ডিং করার সুবিধা দেয়।

তবে কল রেকর্ড করার সময় অবশ্যই উভয়পক্ষের সম্মতি থাকা প্রয়োজন। তাই কল করার সময় খেয়াল রাখা উচিত যে আপনার কল রেকর্ড হচ্ছে না তো!

যদি আপনার ভয়েস কল করার সময় মনে হয়ে যে, কয়েক সেকেন্ড বা মিনিটের জন্য একটি বিপ এর মত শব্দ শুনতে পাচ্ছেন তবে আপনাকে বুঝতে হবে যে আপনার কল রেকর্ড করা হচ্ছে।

ভয়েস কলের শুরুতে বা মাঝে-মাঝে বিপের মত শব্দ হয় তখন সবসময় কল রেকর্ডিংয়ের সম্ভাবনা থাকে।

কোনও কল রেকর্ড করা হচ্ছে কিনা তা জানার আরেকটি উপায় হল আপনি যদি কাউকে কল করে থাকেন এবং সে আপনার কলটি স্পিকারে রেখে দেয় তবে ধারণা করতে পারেন আপনার কলটি রেকর্ড করা হচ্ছে।

পাশাপাশি আপনি যদি কাউকে কল করে থাকেন এবং সেই সময় আপনি যদি অন্যরকম শব্দ পেয়ে থাকেন, তবেও আপনার কল রেকর্ড হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এই অবস্থায় অনেক সময় আপনি মাঝে মাঝে অপ্রত্যাশিত শব্দ পেতে পারেন। তাই কল করার সময় ছোট ছোট বিষয়গুলোতে মনোযোগ দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

তবে অনলাইন কিছু এমন অ্যাপ রয়েছে, যেখানে বিপ শব্দ ছাড়াও কল রেকর্ড করা যায়।

নিউজ ট্যাগ: কল রেকর্ড

আরও খবর



অস্বাভাবিক পর্যায়ে পৌঁছেছে পণ্যের দাম

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | ৪৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সরবরাহ ও মজুত পর্যাপ্ত থাকার পরও প্রতিবছরই ভোক্তার পকেট কেটে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে যাচ্ছে অসাধুরা ।

গত কয়েক বছর ধরেই নিত্যপণ্যের বাজারে থেমে থেমে একরকম অস্থিরতা থাকছেই। একটু একটু করে প্রতি বছরেই বাড়ানো হয়েছে দাম।

বিশেষ করে গত পাঁচ বছরে প্রায় সব পণ্যের দাম বেড়ে অস্বাভাবিক পর্যায়ে পৌঁছেছে, যা এই মুহূর্তে মধ্য ও নিম্নবিত্তের মানুষের জন্য যেন লাগামহীন- এমন মন্তব্য সংশ্লিষ্টদের।

তাদের মতে, কখনো আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধি, আবার কখনো সরবরাহ সংকটের অজুহাত দেখিয়ে প্রতিবছরই এসব পণ্যের দাম বাড়িয়েছে মিল ও মোকাম মালিক এবং আমদানিকারকরা।

এর নেপথ্যে সক্রিয় থাকছে অসাধু ব্যবসায়ীদের সেই প্রভাবশালী সিন্ডিকেট সদস্যরা। যারা সবসময়েই থাকেন অধরা। ফলে প্রতিবছরই তারা ভোক্তার পকেট কেটে নিয়ে যাচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা।

বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বাজারে নিত্যপণ্য কিনতে এসে বাড়তি দামে রীতিমতো হাঁসফাঁস করতে হয় ক্রেতাদের।

গত পাঁচ বছরের (২০১৬ অক্টোবর-২০২১ অক্টোবর) পণ্যমূল্যের দাম পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, রাজধানীর খুচরা বাজারে পাঁচ লিটারের বোতলজাত সয়াবিনের দাম বেড়েছে ২৩৫ টাকা।

কেজিতে গরুর মাংস ও রুই মাছ যথাক্রমে ১৫০ ও ১৩০ টাকা বেড়েছে। কেজিপ্রতি চালে ১৭-২০ টাকা, ডাল ৩০ টাকা, চিনি ২০ টাকা ও দেশি পেঁয়াজের দাম কেজিতে ৪০ টাকা বেড়েছে।

পাশাপাশি এই পাঁচ বছরে ব্রয়লার মুরগি কেজিতে ৬৫ টাকা বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে। প্রতি ডজন ডিমের (১২ পিস) দাম বেড়েছে ২৫ টাকা। তাছাড়া সবজির দাম গত পাঁচ বছরে অনেক বেড়েছে।

সব মিলে ক্রেতা সাধারণের এসব পণ্য কিনতে সুনির্দিষ্ট কারণ ছাড়াই বাড়তি টাকা ব্যয় করতে হচ্ছে। এতে সবচাইতে বেশি ভোগান্তিতে পড়ছে নিম্ন আয় ও খেটে খাওয়া মানুষ।

গত ১৬ জুন জীবনযাত্রার ব্যয় ও ভোক্তাস্বার্থ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়ের ওপর প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)।

সেখানে বলা হয়, ২০২০ সালে জীবনযাত্রার ব্যয় ৬ দশমিক ৮৮ শতাংশ এবং পণ্য ও সেবা-সার্ভিসের মূল্য ৬ দশমিক ৩১ শতাংশ বেড়েছে, যা গত তিন বছরে সর্বোচ্চ।

কারণ ২০১৯ সালে এই হার ছিল যথাক্রমে ৬ দশমিক ৫০ শতাংশ এবং ৬ দশমিক ০৮ শতাংশ। এছাড়া ২০১৮ সালে জীবনযাত্রার ব্যয় এবং মূল্যবৃদ্ধি ছিল যথাক্রমে ৬ দশমিক শূন্য শতাংশ এবং ৫ দশমিক ১৯ শতাংশ।

প্রতিবেদনে রাজধানী ঢাকায় ১৫টি খুচরা বাজার ও বিভিন্ন সেবা সার্ভিসের মধ্যে থেকে ১১৪টি খাদ্যপণ্য, ২২টি নিত্যব্যবহার্য সামগ্রী এবং ১৪টি সেবা-সার্ভিসের সংগৃহীত তথ্য-উপাত্ত বিবেচনায় নেওয়া হয়।

জানতে চাইলে ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, সর্বশেষ বিগত তিন বছর হিসাব করলে রাজধানীসহ দেশের প্রত্যেকটি অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে।

প্রতিকেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা, তা এখন ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ভালোমানের মসুর ডাল (ছোট দানা) সর্বোচ্চ ১২০ টাকায় বিক্রি করছি, যা পাঁচ বছর আগে ৯০ টাকায় বিক্রি করেছি।

পাশাপাশি এক ডজন ফার্মের ডিম ১২০-১১৫ টাকা, যা পাঁচ বছর আগে ৮৫-৯০ টাকায় বিক্রি হতো। আর প্রতি কেজি দেশি পেঁযাজ ৩৫ টাকায় বিক্রি করেছি, যা এখন ৭৫ টাকা কেজি বিক্রি করতে হচ্ছে।

অন্যদিকে এই পাঁচ বছরে মাছ মাংসের দামও বেড়েছে। যেখানে বর্তমানে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, পাঁচ বছর আগে ১১০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

আবার সরবরাহ বেশি থাকলে ১০০ টাকায় পাওয়া গেছে। পাশাপাশি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৬০০ টাকা।

যা পাঁচ বছর আগে ৪৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। পাশাপাশি পাঁচ বছর আগে প্রতি কেজি রুই মাছ ২২০ টাকায় বিক্রি হলেও এখানে বিক্রি হচ্ছে ৩৫০ টাকা কেজি।

 


আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১

নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




রিয়া চক্রবর্তীর ক্যারিয়ারে সাফল্যের নতুন অধ্যায় শুরু

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউড অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর ক্যারিয়ারে সাফল্য নেই বললেই চলে। তিনি পরিচিতি পেয়েছেন মূলত অকাল প্রয়াত তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে প্রেমের সুবাদে। সুশান্তের রহস্যজনক মৃত্যুর পর অভিযোগের তীর যায় রিয়ার দিকেই। এরপর মাদক মামলায় জেলও খেটেছেন।

এসব কারণে রিয়াকে ঘিরে মানুষের মনে এখন বেশ আগ্রহ। তাই নতুন নতুন বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজের প্রস্তাব পাচ্ছেন। সম্প্রতি তাকে জনপ্রিয় টিভি রিয়্যালিটি শো বিগ বসের জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে তাকে যে পরিমাণ পারিশ্রমিক দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে, তা রীতিমতো  এক ধরনের চমক ।

জানা গেছে, বিগ বস থেকে প্রতি সপ্তাহে ৩৫ লাখ রুপি দেওয়া হবে রিয়াকে। সম্প্রতি তিনি বিগ বসের সেট থেকেও নাকি ঘুরে এসেছেন। যদিও তিনি এখনো বিষয়টি নিয়ে কিছুই বলেননি। তবে সকলের ধারণা, এমন লোভনীয় প্রস্তাব কোনোভাবেই ফেরাবেন না রিয়া। তাই এবারের বিগ বসে তাকে দেখা যাবে, এটা প্রায় নিশ্চিত।

যাদের ঘিরে জনমনে চর্চা রয়েছে, বিগ বসে বিতর্কিত এমন তারকাদের অংশ নেয়ার জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়। রিয়ার আগে সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডেকেও প্রস্তাব দিয়েছিল বিগ বস কর্তৃপক্ষ। তার অংশগ্রহণ নিয়েও গুঞ্জন ছড়ায়। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে সেই গুঞ্জনের ইতি টানেন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: রিয়া চক্রবর্তী

আরও খবর



আজ বিশ্বজয়ের মঞ্চে নামবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পুরো দুনিয়ার চোখ থাকবে ওমানে। ক্রিকেট মানচিত্রে নিজেদেরকে অবস্থান জানান দেওয়ার এর থেকে ভালো সুযোগ আর কিই-বা হতে পারে? এই ওমানে বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের ৬টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। যার ৩টি ম্যাচ খেলবে ধীরে ধীরে ক্রিকেটের পরাশক্তি বনে যাওয়া বাংলাদেশ দল। রক পাহাড়’ আর ইমরাতের’ দেশে ক্রিকেটের এমন মহাযজ্ঞ, খোদ ওমানও ভেবেছিল কি কোনদিন?

ওমানের রাজধানী মাসকটে অবস্থিত নয়নাভিরাম আল আমরাত স্টেডিয়াম। শুধু রাজধানীই নয়, গোটা দেশজুড়েই ক্রিকেট স্টেডিয়াম আছে এই একটিই। সেখানেই এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। যদিও টাইগার শিবির এই বিশ্বকাপ আর দু-চারটে বিশ্বকাপের মতো দেখতে নারাজ।

বাংলাদেশ দলের নির্বাচকরা যেমন ১৫ সদস্যের দল ঘোষণার পর বলেছেন, নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা দলটি নিয়েই এই বিশ্বজয়ের মঞ্চে নামবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। প্রায় একই সুরে’ ছন্দ মিলিয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তার সতীর্থরা। সবচেয়ে বড় কথা, এযাবৎ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভালো কোন সুখস্মৃতি নেই বাংলাদেশ দলের। ২০০৭ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একমাত্র জয় একপাশে রাখলে টেস্ট খেলুড়ে কোন দলের বিপক্ষে জয়ের স্বাদ পায়নি টাইগাররা।

মাহমুদউল্লাহরা এবার সেই ব্যরিয়ার’ বা দেওয়াল ভাঙার’ চ্যালেঞ্জে নেমেছেন। যদিও সে অবধি পৌঁছাতে গেলে আগে পার করতে হবে প্রথম পর্বের বাধা। ওমান থেকে যোগ্যতা প্রমাণের ছাড়পত্র’ পেলে তবেই সংযুক্ত আরব আমিরাতে সে মিশনে নামতে পারবে বাংলাদেশ দল। বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের বাধা টপকাতে বাংলাদেশ দলের প্রথম প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। দুই দলের ম্যাচটি শুরু হবে স্থানীয় সময় ৬টায়, বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়।

কুড়ি ওভারের ফরম্যাটে এর আগে একবারই মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-স্কটল্যান্ড। ২০১২ সালে। সে ম্যাচে ৩৪ রানের বড় হার টাইগারদের। লাল-সবুজের এখনকার দলটা অবশ্য বেশ পরিণত। বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া-নিউনিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জিতে বিশ্বকাপে গেছে। তবে আনুষ্ঠানিক দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের কাছে হার কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে টাইগার শিবিরে।

এ সব ফলাফল অবশ্য খুব একটা আমলে নিচ্ছেন না অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ, আমরা দুটি প্র্যাকটিস ম্যাচ হেরেছি। আমার মনে হয় এর কোনো প্রভাব পড়বে না। আমরা কালকের ম্যাচের জন্য প্রস্তুত আছি। দলের আত্মবিশ্বাস আগের মতই আছে। আমরা সেরা ক্রিকেটটাই খেলতে পারব।

ঘরের মাঠে মন্থর উইকেটে ফায়দা নিয়ে স্পিন শক্তিতে প্রতিপক্ষ ঘায়েল করলেও স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে স্পিনার একজন কম নিয়েই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ইঙ্গিত দিলেন দলপতি, বেশি স্পিনার নিয়ে খেলব না।’ নিজেদের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে মাহমুদউল্লাহ বললেন, প্রস্তুতি ভালো যাচ্ছে। ভ্রমণের একটু ক্লান্তি ছিল। কিন্তু ঠিক আছে। আমরা তাড়াতাড়ি চলে এসেছিলাম, কিছু দিন ওমানে অনুশীলন করেছি। আমার জন্য এটা দারুণ সুযোগ।

মরু আর কংক্রিটের দেশ ওমানে খুব বেশি সবুজের ছোঁয়া নেই। তবে আল আমেরাত স্টেডিয়ামের গালিচা সেজেছে সবুজের সমারোহে। উইকেট ম্যাচের আগের দিনও ছিল সবুজ ঘাসে ভরা। যদিও ম্যাচের দিন ছেঁটে ফেলা হয় ঘাস। পরিসংখ্যান বলছে এই মাঠে বাইশ গজ আদর্শ হয়ে উঠবে ব্যাটসম্যানদের জন্য। কিন্তু ব্যাটিংটাই যে বাংলাদেশ দলের বড় দুর্ভাবনার জায়গা।

প্রথম পর্বে বাংলাদেশের অবস্থান করা বি’ গ্রুপের অন্য দুই দল স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউ গিনি। সাধারণ চোখে তাই বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন হয়ে গ্রুপ পর্ব না পার হতে পারার কোনও কারণ নেই। তবে মাঠের লড়াই পরিসংখ্যানের বাঁধ-বিচার করে না। সে হিসেবে দেওয়াল ভাঙার’ মিশনে প্রথম পরীক্ষা মোটেও সহজ নয় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের জন্য।

এক নজরে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ-

সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান (উইকেটরক্ষক), শেখ মাহেদী হাসান, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, শরিফুল ইসলাম ও মুস্তাফিজুর রহমান।


আরও খবর



সেরা ব্র্যান্ডের স্বীকৃতি পেল বসুন্ধরা গ্রুপ

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গুণগত মানসম্পন্ন পণ্য সরবরাহ ও সেবার মাধ্যমে বসুন্ধরা গ্রুপ দেশের ভোক্তাদের যে আস্থা অর্জন করেছে, তা সর্বজনবিদিত। সম্প্রতি ব্র্যান্ড অনুসরণযোগ্যতা, ভোক্তাদের পছন্দ, অনন্যতা, উদ্ভাবন এবং ভোক্তা আস্থার মতো উল্লেখযোগ্য সব মানদণ্ডের ভিত্তিতে বসুন্ধরা গ্রুপ পেল দ্য ইকোনমিক টাইমস বেস্ট ব্র্যান্ডস ২০২১-এর স্বীকৃতি।

ভারতীয় গণমাধ্যম ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ অংশে করা একটি গবেষণার মধ্য দিয়ে জনপ্রিয় ব্র্যান্ড বসুন্ধরাকে এই স্বীকৃতি দেয়। গত ৩০ সেপ্টেম্বর এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এই স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

দ্য ইকোনমিক টাইমস বিভিন্ন সময় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর ব্যাবসায়িক ব্র্যান্ডগুলো নিয়ে কাজ করে। প্রতিষ্ঠানটি এর আগে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে জরিপ চালিয়ে বিভিন্ন ব্র্যান্ডকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্প গ্রুপ বসুন্ধরাকে এই স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

ইকোনমিক টাইমসের মূল্যায়নে বলা হয়, বাংলাদেশে ব্র্যান্ড মূল্যে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ। এ প্রতিষ্ঠানের পণ্য ভোক্তাদের পছন্দ। এর যেমন অনন্যতা রয়েছে, তেমনি নিত্যনতুন উদ্ভাবনেও এগিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে বসুন্ধরা গ্রুপের পণ্য এখন ভোক্তাদের আস্থার প্রতীক।

নিউজ ট্যাগ: বসুন্ধরা গ্রুপ

আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১

নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




এবার গেইলের রেকর্ডও ভাঙলেন বাবর আজম

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | ৪৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সময়টা দুর্দান্ত যাচ্ছে পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে দুই কিংবদন্তি বিরাট কোহলি ও গেইলকে ছাড়িয়ে গেলেন তিনি।

পাকিস্তানের জাতীয় টি-টোয়েন্টি কাপে বৃহস্পতিবার সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ভারতের অধিনায়ককে পেছনে ফেলেছেন বাবর। টি-টোয়েন্টিতে ৩১৫ ম্যাচে অংশ নিয়ে কোহলির সেঞ্চুরি ৫টি। তার চেয়ে ১২১ ম্যাচ কম খেলে একটি সেঞ্চুরি বেশি করলেন বাবর।

সেই রেকর্ডের তিন দিনের মাথায় টি-টোয়েন্টির 'বস' ক্রিস গেইলের রেকর্ডও ভাঙলেন বাবর। সবচেয়ে কম ইনিংস খেলে টি-টোয়েন্টিতে সাত হাজার রানের রেকর্ড গড়লেন পাকিস্তানের অধিনায়ক।  

টি-টোয়েন্টি সংস্করণে ১৯২ ইনিংস খেলে ৭ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁয়েছিলেন গেইল। আর তার থেকে ৫ ইনিংস কম খেলে এই মাইলফলক স্পর্শ করলেন বাবর। সেই অর্থে ক্যারিবীয় জায়ান্টকে ছাড়িয়ে ৭ হাজারে দ্রুততম এখন বাবর আজম।

২১২ ইনিংসে ৭ হাজার করেন কোহলি, এ মাইলফলক ছুঁতে ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নারের লেগেছে যথাক্রমে ২২২ ও ২২৩ ইনিংস।

 

নিউজ ট্যাগ: বাবর আজম

আরও খবর