আজঃ মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

করোনার নতুন ধরন ‘ডেলটাক্রন’ শনাক্ত

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | ১০৮৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডেলটা ও ওমিক্রনের সংমিশ্রণে কোভিড-১৯-এর নতুন একটি ধরন সাইপ্রাসে পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির একজন শীর্ষস্থানীয় অধ্যাপক।

সাইপ্রাস বিশ্ববিদ্যালয়ের জীব বিজ্ঞানের অধ্যাপক এবং বায়োটেকনোলজি ও মলিকুলার ভাইরোলজি ল্যাবরেটরির প্রধান লিওনডিওস কোস্ট্রাইকিস বলেছেন, বর্তমানে ওমিক্রন ও ডেলটা ভ্যারিয়্যান্টের সংক্রমণ অব্যাহত রয়েছে। এবং এর মধ্যেই আমরা একটি স্ট্রেইনটি খুঁজে পেয়েছি, যা এ দুটির সংমিশ্রণে গঠিত। 

কোস্ট্রাইকিস গত শুক্রবার সিগমা টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে বলেন, ডেলটা জিনোমের মধ্যে ওমিক্রন-সদৃশ জেনেটিক তথ্য শনাক্ত হওয়ার কারণে নতুন ধরনটির নাম রাখা হয়েছে ডেলটাক্রন

কোস্ট্রাইকিস এবং তাঁর দল ডেলটাক্রন ধরনে সংক্রমণের ২৫টি ঘটনা শনাক্ত করেছে। এবং পরিসংখ্যানগত বিশ্লেষণ দেখা গেছে, কোভিডে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর মধ্যে ডেলটাক্রনে সংক্রমণের সংখ্যা হাসপাতাল ভর্তি না হওয়া রোগীর তুলনায় বেশি। ডেল্টাক্রনে আক্রান্তদের জিনগত তথ্য আন্তর্জাতিক তথ্যভাণ্ডার জিআইএসএআইডির কাছে পাঠানো হয়েছে। জিআইএসএআইডি করোনাভাইরাসের বিভিন্ন ধরন ট্র্যাক করে থাকে।

অধ্যাপক লিওনডিওস কোস্ট্রাইকিস বলেন, নতুন এ ধরনটি আরও ক্ষতিকর বা আরও সংক্রামক কি না কিংবা এটি ডেলটা ও ওমিক্রনের জায়গা দখল করে কি না, তা আমরা অদূর ভবিষ্যতেই জানতে পারব।

তবে, অধ্যাপক লিওনডিওসের ব্যক্তিগত ধারণা হলোনতুন স্ট্রেইনটি অতিসংক্রামক ওমিক্রন ধরনকে ছাপিয়ে যেতে পারবে না।

নিউজ ট্যাগ: ডেলটাক্রন

আরও খবর
করোনায় ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৮২৮

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রমে ফিরতে মার্চ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ ডিসেম্বর ২০২১ | ৫১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য আমাদের তৈরি হতে হবে। তথ্য-প্রযুক্তিতে দক্ষ হতে হবে। আগের তিনটি বিপ্লবও আমরা ধরতে পারিনি

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, ওমিক্রন সংক্রমণ বাড়ছে। সেজন্য সারাদেশে শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম বিস্তৃত করা হচ্ছে। সবাইকে টিকার আওতায় আনা হবে। স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রমের দিকে যেতে আরও সময় লাগবে।

তিনি বলেন, আমাদের দুই বছরের অভিজ্ঞতা বলছে, মার্চ মাসের দিকে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। তাই আগামী বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।

রোববার রাজধানীর দনিয়া কলেজ আয়োজিত বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব জন্মশতবর্ষ উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

দীপু মনি বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে আমাদের আরও অনেক কিছু করার রয়েছে। মুখস্থ, পরীক্ষা-নির্ভর ও সার্টিফিকেট সর্বস্ব শিক্ষা নয়- আমরা এমন শিক্ষাব্যবস্থা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি, যেখানে জ্ঞানার্জনের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা দক্ষতা অর্জন করবে।

তিনি বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য আমাদের তৈরি হতে হবে। তথ্য-প্রযুক্তিতে দক্ষ হতে হবে। আগের তিনটি বিপ্লবও আমরা ধরতে পারিনি। আইসিটিতে দক্ষ না হলে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব আমাদের পেছনে ফেলে চলে যাবে।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, আমাদের শৈশব থেকে বিজ্ঞানমনস্ক ও প্রযুক্তিবান্ধব হতে হবে। একইসঙ্গে মানবিক মানুষ হতে হবে। আশা করি, তোমরা দক্ষ, যোগ্য ও সুনাগরিক হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা রাজনীতির নামে মানুষ পুড়িয়ে মারা ও ষড়যন্ত্র করতে দেখেছি। বাংলাদেশকে পাকিস্তানের হাতে তুলে দিতে দেখেছি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করতে দেখেছি। এটা কীভাবে রাজনীতি হয়? এটা হত্যা, রাজনীতি নয়। যে রাজনীতি দিয়ে শিক্ষাব্যবস্থায় ইতিবাচক পরিবর্তন আসে, তরুণদের কর্মসংস্থান হয়, দেশের কৃষ্টি লালন-পালন হয়; সেই রাজনীতির নেতৃত্ব দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

দনিয়া কলেজের অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান বলেন, আমাদের বড় চাওয়া তোমাদের দক্ষ নাগরিক হতে হবে। বিজ্ঞান ও সাহিত্যের চর্চা করতে হবে। দেশমাতৃকা যাতে কষ্ট না পায়, তার জন্য তোমাদের অতন্দ্র প্রহরী হতে হবে।

কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি কে এম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফি, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সভাপতি কামরুল হাসান রিপন প্রমুখ।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ

চ্যাম্পিয়ন না হতে পারলে কিছু করার থাকবে না : সাকিব

প্রকাশিত:শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২ | ২২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পর্দা উঠছে শুক্রবার। দেশের সর্বোচ্চ ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট লিগের অষ্টম আসরে ট্রফির লড়াইয়ে নামবে ৬ দল। বাংলাদেশের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবার খেলবেন ফরচুন বরিশালের হয়ে।

বৃহস্পতিবার অনুশীলনের আগে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন সাকিব। শিরোপা নিয়ে কোনো চাপ আছে কি না প্রশ্নে বরিশালের অধিনায়কের জবাব, ওরকম কোনো চাপ আমার কখনোই লাগেনি। এখনো চাপ মনে হচ্ছে না। যেটা বলছিলাম, ৬ দলই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য খেলতে চায়। আমরাও তার ব্যতিক্রম নই, যদি হতে পারি ভালো। কিন্তু না হতে পারলেও তেমন কিছু করার থাকবে না। তবে আমরা যেটা করতে পারি, তা হচ্ছে মাঠে আমাদের শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করা। একটা দল হিসেবে খেলতে হবে, সাফল্য আনার জন্য যা যা করা দরকার সেটাই করতে হবে।


আরও খবর
মাঠে ফিরছেন মাশরাফি, বোলিংয়ে ঢাকা

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি চলছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি পুরোদমে চলছে। বাংলা একাডেমির গ্রন্থমেলার সদস্য সচিব মো. জালাল আহমেদ বলেন, একাডেমির কার্যক্রম অনুযায়ী পহেলা ফেব্রুয়ারি মেলা উদ্বোধন করা যাবে, সেই লক্ষ্যেই প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত গ্রন্থমেলা সঠিক সময়ে শুরু হবে বলেই আশা করছি। পরবর্তী সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত এর প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। সরকার যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে, সেই নির্দেশনা মোতাবেক কার্যক্রম চলবে। পাশাপাশি সরকারের  নির্দেশনায় যে স্বাস্থ্যবিধি দেওয়া হবে, সেসব নির্দেশনা মেনেই এবারের গ্রন্থমেলা হবে।

গ্রন্থমেলা প্রাথমিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যোনে  প্রায় সাড়ে ছয়শ স্টলের অবকাঠামো তৈরির কাজ চলছে বলে তিনি জানান। 

এদিকে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে এক চিঠিতে অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে উল্লেখ করে জালাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, এখন পর্যন্ত কাজের যে অগ্রগতি তাতে ধারণা করা হচ্ছে, আগামী পহেলা ফেব্রুয়ারিতে গ্রন্থমেলা শুরু করা সম্ভব হবে।

গ্রন্থমেলা সম্পর্কে রিদম প্রকাশনীর প্রকাশক মো. গফুর হোসেন বলেন, গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি দেখে এখন পর্যন্ত এই মেলা হবে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তবে যে হারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে সামনের দিনগুলোতে সরকারের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে। বাংলা একাডেমি ও প্রকাশক সমিতি এই অমর একুশে গ্রন্থমেলা হোক তা চাইছে।

তিনি বলেন, গতবছর নানা সংকটের মধ্য দিয়ে গ্রন্থমেলা শুরু হয়েছিল। স্টল ভাড়া বাবদ সরকারের কাছ থেকে যে প্রণোদনা পেয়েছিলাম, তাতে প্রকাশকরা লাভবান হয়নি। এছাড়া ফেব্রুয়ারির বইমেলা শুরু হয়েছিল মার্চ মাসে। পাঠক ও দর্শনার্থীদের মধ্যে ছিল করোনাভাইরাস আতঙ্ক।  লকডাউন শুরু হওয়াসহ সীমিত সময়ের বইমেলা দর্শকশূণ্য হয়ে পড়েছিল। গতবছরের মতো প্রকাশকদের প্রণোদনা দেওয়া হোক, আমরা এ দাবি জানাচ্ছি।


আরও খবর



১৭ কেজি গাঁজাসহ সিরাজগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম গোল চত্বর এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ১৭ কেজি গাঁজাসহ আহছান উল্লাহ (২৭) নামে এক মাদককারবারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা।

গ্রেফতারকৃত আহছান উল্লাহ লক্ষ্মীপুর জেলার বশিকপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। আজ মঙ্গলবার সকালে র‌্যাব-১২র সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া অফিসার) মো. মোস্তাফিজুর রহমান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ ভোর রাতে র‌্যাবের একটি চৌকস আভিযানিক দল বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার গোল চত্বরের পুলিশ বক্সের সামনে এক মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ১৭ কেজি গাঁজাসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার নিকট থেকে মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের কাজে ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন এবং নগদ ৫২০ টাকা জব্দ করা হয়।


আরও খবর



সর্বনিম্ন তাপমাত্রায় কাঁপছে দিনাজপুরবাসী

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা দিনাজপুর। শীতকালে রেকর্ড বৃষ্টিপাতের পর উত্তরাঞ্চলে আবার শীত জেঁকে বসেছে। মাঘের শুরুতেই শৈত্যপ্রবাহের কবলে পড়েছে দিনাজপুর। মৃদু শৈত্যপ্রবাহটি দিনাজপুর ছাড়াও পঞ্চগড়, কুড়িগ্রামসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় বিরাজ করছে। হিমেল বাতাসের সঙ্গে ঘন কুয়াশার কারণে দিনের বেলায়ও যানবাহনকে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল ৬টায় জেলায় সর্ব‌নিম্ন তাপমাত্রা ৯ দশ‌মিক ৭ ডিগ্রি সেল‌সিয়াস রেকর্ড করা হ‌য়ে‌ছে। এ সময় বাতা‌সে আর্দ্রতা ৯৯ শতাংশ ও গতিবেগ ঘণ্টায় ৮ থেকে ১০ কিলোমিটার ছিল।

জেলার চিরিরবন্দর উপলোর বড় গ্রামের ইট ভাটার শ্রমিক আব্দুর রহমান বলেন, দুই দিন ধরি ভাটায় যাইনি। শীতল বাতাস আর ঘন কুয়াশার কারণে বাসায় বসে আছি। এই ঠান্ডায় হাত-পা কোকড়া নাগি যাছে।

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেন বলেন, আজ সকাল ৬টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দিনাজপুরে ৯.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। শীতের প্রকোপ কয়েক দিন অব্যাহত থাকবে। তবে অতিরিক্ত কুয়াশা ও উত্তর-পশ্চিম অঞ্চল থেকে আসা হিমালয়ের শীতল বায়ু প্রবাহের কারণে শীত বেশি অনুভূত হচ্ছে। জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে দিনাজপুরে আবারও বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: দিনাজপুর

আরও খবর