আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

লাইভে বক্তব্য দেওয়ায় যুবলীগ নেতা আটক

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১০ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ফেসবুক লাইভে বক্তব্য দেওয়ায় ভোলার লালমোহনের ধলীগৌরনগর ইউনিয়ন উত্তর যুবলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি বাবুল হাওলাদারকে কুঞ্জের হাট তার এক আত্মীয়র বাসা থেকে পুলিশে তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেছেন তার স্ত্রী সাথী। গত ৬ মার্চ রাতে তিনি লাইভে বক্তব্য দেন বলে জানান স্ত্রী সাথী।

গণমাধ্যমের কাছে এমন অভিযোগ করেছেন তার স্ত্রী সাথী। এ সময় তাকে বেধড়ক মারধর করায় সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে বলেও উল্লেখ করেন তার স্ত্রী। পরবর্তীতে রাত ৩ টার পরে তাকে লালমোহন থানায় নেওয়া হয় এবং ৪টি মামলা দিয়ে কোর্টে প্রেরণ করা হয়।

বাবুল হাওলাদারের স্ত্রীর দাবি, দীর্ঘ দিন ধরে ধলীগৌরনগর ইউনিয়ন উত্তর যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করা বাবুল ভোলা জেলার আওয়ামী লীগ নেতাদের স্নেহভাজন এবং ধলীগৌরনগর ইউনিয়নসহ সমগ্র লালমোহন উপজেলায় তিনি জনপ্রিয়। স্থানীয় এমপি নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের সঙ্গে তার মতের অমিল হওয়ায় দূরত্ব সৃষ্টি হয়। ফলে যুবলীগ সভাপতির পদও তাকে হারাতে হয়।

প্রসঙ্গত, বাবুল হাওলাদার লাইভে আসেন ৬ মার্চ রাত ১১.৪৪ মিনিটে এবং তাকে গ্রেফতার করা হয় ১.৩০ মিনিটে। মাদকের মামলা দেওয়া হয় ৩.৩৫ মিনিটে। 

এদিকে লালমোহন থানার ওসি মাহাবুবুর রহমান বলেন, রোকেয়া বেগম নামের এক বৃদ্ধা মা তার সন্তান বাবুল হাওলাদারের বিরুদ্ধে ভরণ-পোষণ না দেওয়া এবং বিভিন্ন ধরণের নির্যাতনের অভিযোগে এজাহার দায়ের করেন। যার কারণে পুলিশ বাবুল হাওলাদারকে আটক করেছে।

এজহারের বিষয়ে বাবুল হাওলাদারের মা বলেন, আমাকে টাকার প্রলোবন দেখিয়ে আর ভরনপোষণ এর আশ্বাস প্রদান করে আমাকে দিয়ে জোর করে মামলা করানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি করলে বাবুল টিভিতে লাথি মেরে টিভি ভেঙে ফেলে। সেই ঘটনায় তৎকালীন সরকার তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহীতার মামলা করে এবং তিনি দীর্ঘ ২৩ মাস কারাবরণ করে। ২০০১ পরবর্তী সময়ে সারা দেশে যখন বিএনপি জামাতের নির্যাতনের শিকার হন বাবুল হাওলাদার। একাধিক বার হামলার শিকার হন। তখন ৭ মাস ১৩ দিন কারাবরণ করেন তিনি। 

নিউজ ট্যাগ: যুবলীগ নেতা আটক

আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভারতে তীর্থযাত্রী বোঝাই ট্রাক্টর উল্টে নিহত ২২

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে গঙ্গাস্নানে যাওয়ার পথে ট্রাক্টর-ট্রলি উল্টে অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১০ জন। স্থানীয় সময় আজ শনিবার সকালের দিকে এই ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। 

পুলিশের বরাত দিয়ে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ শনিবার সকালের দিকে একদল তীর্থযাত্রী গঙ্গাস্নানের উদ্দেশ্যে কেদারগঞ্জে যাচ্ছিলেন। কিন্তু পথিমধ্যে রাজ্যের কাশগঞ্জ জেলার একটি এলাকায় তাদের বহনকারী ট্রাক্টর-ট্রলি উল্টে একটি পুকুরে পড়ে যায়। 

আরও পড়ুন>> বাংলাদেশ সফরে আসছেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক

পুলিশ নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে, আহত ১০ জনকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আহত তীর্থযাত্রীদের যথাযথ চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে তাঁর কার্যালয়। নিহতদের পরিচয় এখনো প্রকাশ করা হয়নি। নিহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারীও আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এই দুর্ঘটনার পর যোগী আদিত্যনাথ শোক প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে একটি টুইট শেয়ার করেছেন এবং নিহতদের পরিবারকে ২ লাখ রুপি করে ও আহতদের পরিবারকে ৫০ হাজার করে অর্থ সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

এক্সে শেয়ার করা পোস্টে যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, কাশগঞ্জ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা অত্যন্ত হৃদয়বিদারক। শোকাহত পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। আহতদের বিনা মূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



এবার চট্টগ্রামে ৭ মার্চের ‘জয় বাংলা কনসার্ট’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

ঐতিহাসিক ৭ মার্চের গুরুত্ব ও চেতনা নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে ব্যান্ডের শহর চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ৭ মার্চের জয় বাংলা কনসার্ট

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও সিএমপির তত্ত্বাবধানে সেন্টার অব রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) ঢাকার পক্ষ থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চ দিবসের ভাষণ যুবসমাজের মধ্যে অনুপ্রেরণার উদ্যোগ হিসেবে প্রথমবারের মত এই জমকালো কনসার্ট অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রাম এম.এ আজিজ স্টেডিয়ামে।

উক্ত আয়োজনের সার্বিক পরিস্থিতি ও প্রস্তুতি পরিদর্শনে মঙ্গলবার বিকালে এম.এ আজিজ স্টেডিয়ামে আসেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান। ইতোমধ্যেই সম্পূর্ণ আয়োজন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি নিয়মিত মনিটরিং করছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। উক্ত কনসার্ট স্টেজ কাপাতে আসছেন আর্টসেল, নেমেসিস, চিরকুটসহ আরো অন্যন্য ব্যান্ড ও শিল্পীগণ।

প্রতিবছর ঢাকা আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হলেও এবারই প্রথমবারের মতো এম.এ আজিজ স্টেডিয়ামে এই কনসার্টের আয়োজন চলছে।

তিনি বলেন, জয় বাংলা মন্ত্রে তরুণদের একতাবদ্ধ করতে আগামী ৭ মার্চ আয়োজন করা হয়েছে জয় বাংলা কনসার্ট। আমাদের সব ধরণের প্রস্তুতির কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আশা করছি, চট্টগ্রামবাসীকে আমরা তাদের কাঙ্খিত কনর্সাট উপহার দিতে পারব।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্বের শ্রেষ্ঠ শত ভাষণের একটি। আর একাত্তরে মুক্তিকামী মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করেছিল জয় বাংলা স্লোগান


আরও খবর



প্রথম ইনিংসে সাড়ে ৪’শ ছোঁয়া রান ভারতের

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

রাজকোট টেস্টে সেঞ্চুরি করেছেন রোহিত শর্মা ও রবীন্দ্র জাদেজা। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে আলো কেড়েছেন অভিষিক্ত সরফরাজ খান। ভালো ব্যাটিং করেছেন আরেক অভিষিক্ত উইকেটরক্ষক ব্যাটার ধ্রুব জুরেল। তাদের ব্যাটে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৪৪৫ রান তুলেছে ভারত।

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে স্বাগতিকরা ৩৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায়। চতুর্থ উইকেটে রবীন্দ্র জাদেজার সঙ্গে ২০৪ রানের জুটি গড়ে ওই বিপদ সামলান অধিনায়ক রোহিত শর্মা। স্লিপে শুরুতে জীবন পাওয়া রোহিত ১৩১ রানের দারুণ ইনিংস খেলে ফেরেন।

এরপর উইকেটে এসে সরফরাজ সাবলীল খেলতে শুরু করেন। সময়ের সঙ্গে ক্ষুরধার ব্যাটিংয়ে ২৫ বছরের তরুণ ব্যাটার হার্টলি, রেহান, রুটদের স্পিনে সুযোগ পেলেই চড়াও হন। ৪৮ বলে হাফ সেঞ্চুরি করা সরফরাজের ইনিংসের ইতি পড়ে জাদেজার ভুলে ৬২ রানে রান আউটে।

তখন ৯৯ রানে ক্রিজে রবীন্দ্র জাদেজা। শেষ পর্যন্ত তিনি ১১২ রান করে দ্বিতীয় দিন আউট হন। পরে ধ্রুব জুরেল ১০৪ বলে ৪৬ এবং অশ্বিন ৮৯ বলে ৩৭ রান করেন। জাসপ্রিত বুমরাহর ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। ইংল্যান্ডের হয়ে মার্ক উড ৪ উইকেট নিয়েছেন। ২ উইকেট পেয়েছেন রেহান আহমেদ।


আরও খবর
৪ বছরের জন্য ফুটবলে নিষিদ্ধ বিশ্বকাপজয়ী পগবা

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বেইলি রোডে আগুন : দুইজনের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর বেইলি রোডে যে ভবনটিতে আগুন লেগেছে সেখান থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া অচেতন অবস্থায় কয়েকজন শিশু ও নারীকে উদ্ধার করা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে ১২ জনকে। জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে অন্তত ৬০ জনকে। ভবনটিতে আরও অনেকে আটকা পড়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

বেইলি রোডের ওই ভবনের কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুনের সূত্রপাত। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট কাজ করছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাত আনুমানিক পৌনে ১০টার দিকে আগুনের সূত্রপাত বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিস মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা তালহা বিন জসিম আগুনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ৯টা ৫০ মিনিটে আগুন লাগার খবর পাওয়া যায়। ৯টা ৫৬ মিনিটে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। এখন ১২টি ইউনিট কাজ করছে। গুরুতর আহত ৯ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে অন্তত ৬০ জনকে। ভবনে আটকা পড়েছেন অনেকে। তাদের মধ্যে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আহমেদ কামরুজ্জামান পরিবারসহ আটকে আছেন বলে সামাজিকমাধ্যমে পোস্ট করা হয়েছে। জাহিদুর রহমান নামে একজনের ওই পোস্টে বলা হয়েছে, কামরুজ্জামান তাকে ফোন করে জানিয়েছেন তিনিসহ অন্তত একশজন ওই ভবনে আটকা পড়েছেন।  

ঘটনাস্থলে আছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। পুলিশ সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিস সদস্যদের সহায়তা করছেন।

উদ্ধার কার্যক্রমে আনসার মোতায়েন : রেস্টুরেন্টে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩ প্লাটুন সাধারণ আনসার ও এক প্লাটুন আনসার গার্ড ব্যাটালিয়ন (এজিবি) সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে তারা আগুন নিয়ন্ত্রণ ও আটকে পড়া ব্যক্তিদের উদ্ধার করতে কাজ করছে।


আরও খবর
বেইলি রোডে আগুনে নিহত বেড়ে ৪৫

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




ছেলের সঙ্গে ক্যান্টিনে বসে খাওয়ার অপরাধে স্কুল থেকেই গ্রেফতার অভিভাবক

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

নিয়ম মেনে স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সঙ্গে পড়ুয়াদের অভিভাবকদের আলোচনা হয় মাঝেমধ্যেই। সেই উদ্দেশ্যেই ছেলের স্কুলে গিয়েছিলেন এক অভিভাবক। আর শেখানেই ঘটে বিপত্তি, খিদে পেলে ছেলের সঙ্গে বসে স্কুলের ক্যান্টিনে খেতে যান তিনি। তার পরেই গ্রেফতার হতে হয় তাকে। বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) এই ঘটনাটি আমেরিকার পিট্সবার্গ এলাকার কাছে ওয়াশিংটন কাউন্টির একটি স্কুলে ঘটেছে।

স্থানীয় সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা যায়, বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় ১০টা ৪৫ মিনিটে স্কুলের ক্যান্টিন থেকে গ্রেফতার করা হয় অভিভাবককে। স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি, স্কুলের ক্যান্টিনে বসে তার ছেলের সঙ্গে খাওয়াদাওয়া করছিলেন ওই অভিভাবক। স্কুল চত্বরের ভিতর অনধিকার প্রবেশ নিষেধ বলে জানান কর্তৃপক্ষ। স্কুলের নিয়ম ভেঙে ক্যান্টিনে প্রবেশ করেছিলেন বলে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিভাবককে। স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি, এই ঘটনার ফলে স্কুলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা লঙ্ঘন করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্যান্টিনের ভিতর থেকে অভিভাবককে হাতকড়া পরিয়ে বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যদিও পুলিশ এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি। তবে ঘটনাটি নিয়ে নেটমাধ্যমে আলোচনা শুরু হলে স্কুল কর্তৃপক্ষের নিন্দা করেন নেট ব্যবহারকারীরা। কেউ বলেন, পড়ুয়াদের অভিভাবকেরা অচেনা নন। তাঁরা ক্যান্টিনে প্রবেশ করলে কী-ই বা ক্ষতি হবে?

অন্য এক নেট ব্যবহারকারীর মন্তব্য, এমন অদ্ভুত নিয়ম কিসের? উনি তো ছেলের সঙ্গে বসে খাচ্ছিলেন। গ্রেফতার করার খুব প্রয়োজন ছিল কি?


আরও খবর