আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

মামুনুলের চুক্তিভিত্তিক বিয়ের কোনো ভিত্তি নেই ইসলামে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21 | ৬৪৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মানবিক বিয়ের গল্প বানালেও পরের দুই নারীকে বিয়েই করেননি হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক। শুধু স্ত্রীর মতো আচরণ করার জন্য চুক্তি করেছিলেন তিনি। এরজন্য দেওয়া হত ভরণপোষণ। গোয়েন্দা পুলিশের জিজ্ঞাবাদে এমন কথা বলেছেন মামুনুল হক। ইসলামি চিন্তাবিদরা বলছেন, এ ধরনের বিয়ের কোনো ভিত্তি নেই ইসলামে।

গত ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে একটি রিসোর্টে নারীসহ ধরা পড়েন মামুনুল হক। তখন তিনি দাবি করেন, ওই নারী তার বিবাহিতা দ্বিতীয় স্ত্রী। পরে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে ফোনালাপ ফাঁস হয় মামুনুল হকের। যেখানে বলা হয়, ওই নারী হাফেজ শহীদুলের বউ। জনরোষ থেকে বাঁচতেই দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে সেদিন পরিচয় দিয়েছিলেন তিনি।

মামুনুল হকের এমন মানবিক বিয়ে নিয়ে যখন আলোচনা চলছে তখন দৃশ্যপটে হাজির আরেক নারীর ভাই। তার দাবি, তিনি তার বোন জান্নাতুল ফেরদৌস লিপিকে খুঁজে পাচ্ছেন না। এজন্য মামুনুলের বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় একটি জিডিও করেছেন। যার তদন্ত করছে পুলিশ।

নাশকতার মামলায় মামুনুল এখন পুলিশি রিমান্ডে রয়েছেন। সেখানে গোয়েন্দা পুলিশের কাছে তিনি স্বীকার করেছেন-পরের দুই নারীকে বিয়ে না করার কথা। মামুনুল হক গোয়েন্দাদের আরও জানান, স্ত্রীর মর্যাদা না দিলেও ভরণপোষণ দেয়া হত তাদের। এর বিনিময়ে চুক্তি ছিল তাদের সঙ্গে স্ত্রীর মতো আচরণ করবেন তিনি। লিখিত এমন চুক্তির কপি গোয়েন্দাদের হাতে রয়েছে। এ বিষয়ে খবর বেরিয়েছে জাতীয় দৈনিকেও।

ইসলামী চিন্তাবিদরা বলছেন, ইসলামী শরিয়ত এবং দেশীয় আইনেও এমন চুক্তি অবৈধ।

ইসলামী চিন্তাবিদ ড. আহমদ আবুল কালাম আজাদ বলেন, এটা ইসলামের দৃষ্টিতে সাধারণ কোনো বিয়েও না বা নিকাহ মুতা যেটি আহলে সুন্নাতের জামাতের মধ্যে হারাম, শীরাহসহ কিছু সংখ্যক মুসলিমদের মতে, নিকাহ মুতা বৈধ, এই যে তথ্য আমরা পেয়েছি তা কিন্তু নিকাহের মধ্যেও পড়ে না।    

ইসলামী চিন্তাবিদরা আরও বলছেন, ইসলামী শরিয়তেও মুতা বিয়ে নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন মত রয়েছে। কারো কারো মতে নির্দিষ্ট সময় এবং দেনমোহর পরিশোধ করে মুতা বিয়ে করা যায়। কিন্তু মামুনুলের এমন চুক্তি এ বিয়ের শর্তপূরণ করে না।


আরও খবর



বিশ্বে একদিনে আরও ১৪ হাজার মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৩ কোটি ৯৬ লাখ ৭০ হাজার ৮১৪ জন। গত একদিনে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১৪ হাজার মানুষের। ফলে এ মহামারিতে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৯ লাখ ৯৯ হাজার ২৪৬ জনের। এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস সৃষ্ট মহামারি কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়েছেন ১১ কোটি ৮৭ লাখ ১৯ হাজার ৫৬ জন।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সকাল ৯টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৭৮ হাজার ৯৯৩ জনের প্রাণ নিয়েছে এই মহামারি। এছাড়া করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ কোটি ২২ লাখ ২৪ হাজার ১৩৯ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৪৭ লাখ ৭০ হাজার ৯৮০ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ভারত। এশিয়ার মধ্যে করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত অবস্থা দেশটির। ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ কোটি ৪২ লাখ ৮৭ হাজার ৭৪০ জন। মারা গেছেন ১ লাখ ৭৪ হাজার ৩৩৫ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২৫ লাখ ৪৩ হাজার ৯৭৮ জন।

তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৩৭ লাখ ৫৮ হাজার ৯৩ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৩ লাখ ৬৫ হাজার ৯৫৪ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২২ লাখ ৩৬ হাজার ২৯৫ জন।

করোনাভাইরাস শনাক্তের তালিকায় চারে ইউরোপের দেশ ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫১ লাখ ৮৭ হাজার ৮৭৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ১ লাখ ৭৩ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৮ হাজার ৩৫ জন।

তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম। এখন পর্যন্ত দেশে ৭ লাখ ৭ হাজার ৩৬২ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৮১ জনের। সেরে উঠেছেন ৫ লাখ ৯৭ হাজার ২১৪ জন।


আরও খবর



ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে আটকা কয়েকশ বাংলাদেশি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | ১১৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সব ধরনের সীমান্ত যোগাযোগ ১৪ দিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়ায় বেনাপোল স্থলবন্দরের ওপারে ভারতের পেট্রাপোলে আটকা পড়েছেন প্রায় তিন শতাধিক বাংলাদেশি। এর মধ্যে বেশিরভাগই চিকিৎসা নিতে ভারত গিয়েছিলেন। আর কয়েকজন রয়েছেন শিক্ষার্থীও।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) রাতে ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

হাইকমিশন সূত্রে জানা যায়, যারা আটকা পড়েছেন তারা সোমবার সকাল থেকে স্থলবন্দর দিয়ে দেশে আসার জন্য সেখানে অবস্থান করেন। তবে এখনও তারা পেট্রোপোলে অবস্থান করছেন কিনা এ বিষয়ে কোনো তথ্য জানা যায়নি।

ভারতের হাইকমিশন থেকে পাঠানো কয়েকটি ভিডিওতে দেখা যায়, আটকেপড়া এক বাংলাদেশি বলেন, আমরা সরকারের কাছে অনুরোধ করছি যেন আমাদের বাংলাদেশে ফিরিয়ে নেয়। কারণ আমরা এখানে শুধু চিকিৎসার জন্য এসেছিলাম। এখন আমাদের হাতে টাকা-পয়সা নেই। আমরা এখানে কি করে থাকব!

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, আটকাপড়া তিন শতাধিক বাংলাদেশি দেশে ফেরার জন্য আবেদন করেছে। পর্যায়ক্রমে এসে বাংলাদেশিসহ যাদের ভিসার মেয়াদ ১৫ দিন বা তার চেয়ে কম তাদের দেশে ফেরত আনা হবে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. হাবিবুর রহমান জানান, গতকাল সর্বশেষ ভারত থেকে ৫৭০ জন বাংলাদেশি ফিরেছেন। এসব যাত্রীর মধ্যে ৩ জন করোনা পজিটিভ ছিল। এরা ভারতে গিয়েই করোনা আক্রান্ত হন। আক্রান্তদের যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আর করোনা নেগেটিভ সনদবিহীন ১১ জনকে বেনাপোল রজনীগন্ধা প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ভারত বেনাপোল

আরও খবর



আজও বাড়ি ফেরা মানুষের চাপ পাটুরিয়া ফেরিঘাটে

প্রকাশিত:সোমবার ১০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ মে ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে যাত্রীদের চাপ রয়েছে। সোমবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে দুটি অ্যাম্বুলেন্স, কয়েকটি ছোট গাড়ি এবং যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। সকাল পৌনে নয়টার দিকে শাপলা শালুক নামে যাত্রী বোঝাই করে অনুরূপভাবে আরও একটি ফেরি ছেড়ে যায়। দৌলতদিয়া থেকেও দুটি ফেরি পাটুরিয়া ঘাটে আসতে দেখা গেছে।

শিবালয় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ ফিরোজ কবীর বলেন, ফেরি চলাচল বন্ধ থাকলেও নির্দেশনা অনুযায়ী মরদেহ ও রোগী বহনকারী গাড়ি পার করা হচ্ছে। পাশাপাশি যাত্রী ও ছোটগাড়িও পার হচ্ছে।


আরও খবর



ভারতে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২১ এপ্রিল 20২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ এপ্রিল 20২১ | ১১১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলমান মহামারি করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে ভারতে। এই সময়ে দেশটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৯৪ হাজার ২৯০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২০ জনের। দেশটিতে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যায় এটি সর্বোচ্চ রেকর্ড।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার (২১ এপ্রিল) আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৫৬ লাখ ৯ হাজার ৪ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৮২ হাজার ৫৭০ জন।

এরই মধ্যে দেশটির বেশ কয়েকটি রাজ্য ফের কড়াকড়ি জারি করা হয়েছে। লকডাউন করা হয়েছে রাজধানী দিল্লিকে। চার ও পাঁচ তারকা মানের হোটেলগুলোকে রোগীর চাপ সামলাতে করোনা হাসপাতালে রূপান্তর করা হচ্ছে।

এ ছাড়া বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩০ লাখ ৫৭ হাজার এবং আক্রান্ত হয়েছে ১৪ কোটি ৩৫ লাখেরও বেশি মানুষ। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বব্যাপী সর্বোচ্চ ৮ লাখ ২৪ হাজার ৯৭৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া মারা গেছেন আরও ১৩ হাজার ৯০৫ জন।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বুধবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ১৩ হাজার ৯০৫ জন এবং নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ২৪ হাজার ৯৭৫ জন। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩০ লাখ ৫৭ হাজার ৫৪১ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ কোটি ৩৫ লাখ ৪২ হাজার ৫৫০ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২ কোটি ১৮ লাখ ৯৬ হাজার ১৫৭ জন।


আরও খবর



সাংবাদিকদের দুই কোটি টাকা সহায়তা দেয়া হবে : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ এপ্রিল ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
করোনার এই চলমান দ্বিতীয় ঢেউয়ের লকডাউনের মধ্যে সাংবাদিকদের সহায়তার বিষয়ে সভা করলাম। আপাতত দুই হাজার সাংবাদিককে ১০ হাজার টাকা করে মোট দুই কোটি টাকা সহায়তা দেয়া হবে

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, মহামারি করোনাভাইরাসের এই সঙ্কটের সময় আরও দুই হাজার সাংবাদিককে দুই কোটি টাকা সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে সহায়তা দেয়া হবে। আজ রোববার (২৫ এপ্রিল) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের বৈঠক শেষে এ তথ্য জানান তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, করোনার এই চলমান দ্বিতীয় ঢেউয়ের লকডাউনের মধ্যে সাংবাদিকদের সহায়তার বিষয়ে সভা করলাম। আপাতত দুই হাজার সাংবাদিককে ১০ হাজার টাকা করে মোট দুই কোটি টাকা সহায়তা দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, এই অর্থবছরে আরও ২০০ সাংবাদিককে ৫০ হাজার টাকা থেকে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত অর্থ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে ৪০ জনকে সহায়তা দেয়া হয়েছে। এর বাইরেও কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে আরও সাংবাদিককে এই অর্থবছরে সহায়তা দেয়া হবে।


আরও খবর