আজঃ বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

মাটির ভাঁড়ে চা খেলে কী হয়?

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | ৫৬৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভাঁড়ে চা খেলে কী হয়, সে কথা না জেনেও অনেকে এতে চা খেতে পছন্দ করেন। তার কারণ পোড়া মাটির ছোট পাত্রটিতে গরম চা ঢাললে এক ধরনের সুবাস বেরোতে থাকে। কাচ বা চিনেমাটির পাত্রে তা হয় না। এই গন্ধই চা পানের আনন্দ আরও বাড়িয়ে দেয়।

কিন্তু শুধুই কি গন্ধ? না কি আরও কিছু হয় ভাঁড়ে চা ঢাললে? বিজ্ঞানীরা বলছেন, পোড়া মাটির পাত্রে চা ঢাললে, তাতে কিছু সামান্য রাসায়নিক বদল হয়। তবে এর কোনওটিই মানুষের শরীরের জন্য ক্ষতিকারক নয়। বরং উল্টোটাই। ভাঁড়ে চা খেলে কিছু কিছু সুবিধাও হতে পারে।

পুষ্টিবিদদের মতে, পোড়া মাটির পাত্রে চায়ের মতো উষ্ণ পানীয় ঢাললে, তার পুষ্টিগুণ সম্পূর্ণ রূপে বজায় থাকে। কাগজ বা প্লাস্টিকের কাপে তা হয় না। শুধু তাই নয়, চা খেলে অনেকেরই অ্যাসিডিটির সমস্যা হয়। বিশেষ করে দুধ মেশানো চা খেলে অনেকেই অম্বলে ভোগেন। মাটির ভাঁড়ে চা খেলে এই সমস্যা অনেক কমে যায়। তার প্রধান কারণ, পোড়া মাটি চায়ের অম্লতার পরিমাণ কমিয়ে দেয়।

কাগজ বা প্লাস্টিকের কাপে চা খাওয়া সবচেয়ে বিপজ্জনক। এমনই মত বিজ্ঞানীদের। কারণ এতে হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হতে পারে। কিন্তু এ সব দিক থেকে মাটির ভাঁড় একেবারে নিরাপদ।

নিউজ ট্যাগ: মাটির ভাঁড়ে চা

আরও খবর
করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মঙ্গলবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২১




আজ মওলানা ভাসানীর ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আওয়ামী মুসলিম লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ১৭ নভেম্বর। ১৯৭৬ সালের এই দিনে ঢাকার তৎকালীন পিজি হাসপাতালে (বর্তমান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। পরে টাঙ্গাইলের সন্তোষে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়। টাঙ্গাইলের সন্তোষে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

১৮৮০ সালের ১২ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন মওলানা হামিদ খান ভাসানী। তবে তিনি বেড়ে উঠেছেন টাঙ্গাইলের সন্তোষে। তিনি কৈশোর থেকেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি তৎকালীন বাংলা-আসাম প্রদেশ মুসলিম লীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি ১৯৫৪ সালের নির্বাচনে যুক্তফ্রন্ট গঠনকারী প্রধান নেতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তিনি প্রবাসী সরকারের উপদেষ্টা ছিলেন।

৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা ও টাঙ্গাইলের সন্তোষে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

বুধবার সকালে সন্তোষে ভাসানীর মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ এবং মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ডক্টর এ আর এম সোলাইমান।

এরপর আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা-শিক্ষার্থী, মওলানা ভাসানীর পরিবার, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও মওলানা ভাসানীর ভক্ত অনুসারীরা মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ এবং মোনাজাত করেন।

দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন সংগঠন দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি নিয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আলোচনা সভা, বাউল গান পরিবেশন, মিলাদ, দোয়া মাহফিল, ওরশ, দুঃস্থদের মাঝে খাবার বিতরণসহ আরও বিভিন্ন আয়োজন।


আরও খবর



চাকরি দেওয়ার কথা বলে বন্ধুকে ডেকে নিয়ে হত্যা!

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ৬৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি:

গত ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পরে শিবচরের মাদবরচর ইউনিয়নের কালাইহাজীর কান্দি গ্রামে একটি পরিত্যক্ত টিনশেডের ঘর থেকে অর্ধগলিত এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। 

ওইদিন বিকেলে ঘরের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। বিকেলে খেলতে থাকা ছোট ছেলেরা ঘরে উঁকি দিয়ে একটি মরদেহ দেখলে স্থানীয়দের জানায়। পরে পুলিশে খবর দিলে তারা এসে মরদেহটি উদ্ধার করে। মৃতদেহটির মুখমণ্ডল দাহ্য কোন পদার্থ দ্বারা ঝলসানো ছিল।

অজ্ঞাতনামা হিসেবে মরদেহটি মাদারীপুর মর্গে পাঠানো হলে খবর পেয়ে পরের দিন বগুড়া থেকে নিহতের স্বজনরা মরদেহটি রেজাউলের বলে শনাক্ত করে।

সেসময় নিহতের স্বজনেরা জানান, রেজাউল করিম বগুড়া থেকে শিবচরে তার এক বন্ধুর বাড়িতে বেড়াতে আসে। সবশেষ শিমুলিয়া থেকে লঞ্চে ওঠার পর ফোনে কথা হয় তার সঙ্গে। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিল সে। ওই ঘটনায় নিহতের ভাই আজিজুল হক শিবচর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

দীর্ঘ ১ মাস ২৬ দিন পর সোমবার (১৫ নভেম্বর) ওই হত্যাকাণ্ডে জড়িত এমদাদুল মুন্সী (২৩) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে শিবচর থানা পুলিশ। রেজাউল করিম হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে চাঞ্চল্যকর তথ্য দেন তিনি। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে মাদারীপুর আদালতে পাঠানো হয়। গ্রেফতার এমদাদুল মুন্সী শিবচরের মাদবচর ইউনিয়নের কালাইহাজীর কা‌ন্দি গ্রা‌মের তোতা মুন্সীর ছে‌লে।

গ্রেফতার এমদাদুলের দেওয়া তথ্যমতে শিবচর থানা পুলিশ জানায়, বগুড়ার সদর উপজেলার চকসূত্রাপুর গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে মো. রেজাউল করিম (৪০) ও কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার চর আমলা গ্রামের সরোয়ার হোসেনের ছেলে রোলাস মালিথা রনি (৪০) কর্মসূত্রে কয়েক বছর আগে নেপাল ছিল। সেখান থেকে তাদের দুইজনের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। আড়াই বছর আগে দেশে আসার পরও তাদের মধ্যে যোগাযোগ ছিল। ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে রেজাউলকে পদ্মা সেতুর প্রকল্পে কাজ দেওয়ার কথা বলে রনি শিবচরের মাদবরচরে তার শ্বশুরবাড়িতে আসতে বলে। গত ১০ সেপ্টেম্বর রেজাউল ৩ হাজার টাকা নিয়ে শিবচরের মাদবরচর আসে। তখন রনি তার সহযোগী এমদাদ মুন্সীকে (২৩) প্রকল্পের কর্মকর্তা সাজিয়ে রেজাউলকে নিয়ে রাতে শিবচরের মাদবরচরের কালাই হাজীকান্দি একটি নির্জন এলাকার পরিত্যক্ত ঘরের কাছে নিয়ে যায়। রাত গভীর হলে মোবাইলে কথা বলার অভিনয় করে সরে গিয়ে রেজাউলকে পেছন থেকে গলায় ফাঁস দেয়। রেজাউল বাঁচার জন্য ছুটতে চাইলে দুইজনে মিলে তার মৃত্যু নিশ্চিত করে। এরপর এমদাদ রেজাউলের ছবি তুলে তার পরিবারের কাছে পাঠিয়ে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। কিন্তু দরিদ্র পরিবারটি টাকা দিতে ব্যর্থ হয়। পরে পরিচয় গোপন করতে মরদেহটির মুখ পুড়িয়ে পালিয়ে যায় দুই ঘাতক।

পরে শিবচর থানা পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় নিহতের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে হত্যার রহস্য উদঘাটনে নামে। শিবচর থানার উপ-পরিদর্শক সঞ্জীব জোয়াদ্দারের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল সোমবার (১৫ নভেম্বর) ঢাকার কেরানীগঞ্জের কবুতরপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে এমদাদুল হক মুন্সিকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার এমদাদুল পুলিশের কাছে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। 

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিরাজ হোসেন বলেন, আমরা বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় খুনের রহস্য উদঘাটন করি এবং খুনের সঙ্গে জড়িত এমদাদুলকে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করি। এমদাদুলের স্বীকারোক্তি মোতাবেক ঘটনাস্থলের পাশের একটি পাটক্ষেত থেকে নিহত রেজাউলের ব্যাগ ও জামাকাপড় উদ্ধার করা হয়। রেজাউল করিম হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে গ্রেফতার এমদাদুল সরাসরি জড়িত ছিল বলে স্বীকার করেছে। অপর আসামি রোলাস মালিথা রনিকে ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর



টিভিতে আজকের খেলা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ক্রিকেট, ফুটবল, টেনিস লাইভ সম্প্রচার, খেলার সময়সূচী সহ কোন কোন টিভিতে কখন সম্প্রচারিত হবে

এক নজরে দেখে নিন কোন কোন টিভি চ্যানেলে আজ কোন কোন খেলা কখন সম্প্রচার করবে। ক্রিকেট, ফুটবল, টেনিস লাইভ সম্প্রচার, খেলার সময়সূচী সহ কোন কোন টিভিতে কখন সম্প্রচারিত হবে।

ক্রিকেট

জাতীয় ক্রিকেট লিগ 

ঢাকা বিভাগ-রংপুর, ইউটিউব/বিসিবি লাইভ, সকাল ৯-৩০ মি.

খুলনা-সিলেট, ইউটিউব/বিসিবি লাইভ, সকাল ৯-৩০ মি.

ঢাকা মহানগর-বরিশাল,ইউটিউব/বিসিবি লাইভ, সকাল ৯-৩০ মি.

চট্টগ্রাম-রাজশাহী, ইউটিউব/বিসিবি লাইভ, সকাল ৯-৩০ মি.

 

সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফি   

মহারাষ্ট্র-বিদর্ভ, স্টার স্পোর্টস ১, সকাল ৯টা

কর্ণাটক-সৌরাষ্ট্র, স্টার স্পোর্টস ১বেলা ১-৩০ মি.

 

ফুটবল

আন্তর্জাতিক প্রীতি

কাজাখস্তান-তাজিকিস্তান, সনি টেন ২, সন্ধ্যা ৭টা

বেলারুশ-জর্ডান, সনি টেন ২, রাত ১১টা

 

বিশ্বকাপ বাছাই

এশিয়া

চীন-অস্ট্রেলিয়া, টি স্পোর্টস, রাত ৯টা

ইউরোপ

ফিনল্যান্ড-ফ্রান্স, সনি টেন ১, রাত ১-৪৫ মি

ওয়েলস-বেলজিয়াম, টি স্পোর্টস ও সনি টেন ২, রাত ১-৪৫ মি

নেদারল্যান্ডস-নরওয়ে, সনি টেন ৩, রাত ১-৪৫ মি

বসনিয়া-ইউক্রেন, সনি সিক্স, রাত ১-৪৫ মি


আফ্রিকা

মিসর-গ্যাবন, ইউটিউব/ফিফাটিভি, সন্ধ্যা ৭টা

লিবিয়া-অ্যাঙ্গোলা, ইউটিউব/ফিফাটিভি, সন্ধ্যা ৭টা

মোজাম্বিক-মালাউয়ি, ইউটিউব/ফিফাটিভি, সন্ধ্যা ৭টা

আলজেরিয়া-বুরকিনা ফাসো, ইউটিউব/ফিফাটিভি, রাত ১০টা

লাইবেরিয়া-সেন্ট্রাল আফ্রিকান, ইউটিউব/ফিফাটিভি, রাত ১০টা

নাইজেরিয়া-কেপভার্দে, ইউটিউব/ফিফাটিভি, রাত ১০টা

ক্যামেরুন-আইভরিকোস্ট, ইউটিউব/ফিফাটিভি, রাত ১টা

মরক্কো-গিনি, ইউটিউব/ফিফাটিভি, রাত ১টা

তিউনিসিয়া-জাম্বিয়া, ইউটিউব/ফিফাটিভিরাত ১টা

নিউজ ট্যাগ: আজকের খেলা

আরও খবর
মেসির সামনেই রেকর্ড ভেঙে দিলেন এমবাপে

বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১




ব্যাংকের ৫ কর্মকর্তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৪১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সাউথবাংলা অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের (এসবিএসি) সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেনসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক

পাঁচ ব্যাংক কর্মকর্তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট। অর্থ আত্মসাতের মামলায় তাদের ওপর এমন নির্দেশনা দেন আদালত। আগাম জামিন আবেদন করে হাজির না হওয়ায় সোমবার (২৯ নভেম্বর) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী হুমায়ন কবির। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

গত ২১ অক্টোবর অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সাউথবাংলা অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের (এসবিএসি) সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেনসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

মামলার এজাহার অনুসারে আসামিরা ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভুয়া ভিজিট প্রতিবেদন ও ভুয়া স্টক লট প্রস্তুত করে এস এম আমজাদ হোসেনের মালিকানাধীন খুলনা বিল্ডার্স লিমিটেডর নামে ঋণ পাইয়ে দিতে সহযোগিতা করেন। এতে ২০ কোটি ৬০ লাখ টাকা ঋণ তুলে ওই টাকা পাচারের জন্য বিভিন্ন কোম্পানি ও ব্যক্তির হিসাবে স্থানান্তর ও রূপান্তর করেন আসামিরা।

পাঁচ আসামি হলেন- সাউথবাংলা ব্যাংকের ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহা. মঞ্জুরুল আলম, এক্সিকিউটিভ অফিসার ও ক্রেডিট ইনচার্জ মো. নজরুল ইসলাম, ব্যাংকটির খুলনার শাখার সাবেক এমটিও এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার তপু কুমার সাহা, সিনিয়র অফিসার বিদ্যুৎ কুমার মন্ডল ও মারিয়া খাতুন।

পরে এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক জানান, দুর্নীতি মামলায় এ আসামিরা জামিন আবেদন করেন। পর আবেদনটি শুনানির জন্য তালিকায় এলে তারা হাজির হননি। এর আগেও একদিন তালিকায় ছিল সেদিনও আসেননি। এরপর আজকে তারা নট প্রেস (উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ) চেয়েছেন। পরে আদালত আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে তারা যাতে বিদেশে পালিয়ে যেতে না পারেন সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের আইজিপি, ইমিগ্রেশন ও দুদককে নির্দেশ দেন।

নিউজ ট্যাগ: হাইকোর্ট

আরও খবর
আবরার হত্যায় ২০ আসামির মৃত্যুদণ্ড

বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১




সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে আরও ৫ জন নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ নভেম্বর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফ্রিকার দেশ সুদানে চলমান অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে আরও পাঁচজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। চিকিৎসকদের কেন্দ্রীয় সংগঠন সেন্ট্রাল কমিটি অব সুদানিজ ডক্টরস এ তথ্য জানিয়েছে।

শনিবার দেশটির ওই চিকিৎসকদের সংগঠন জানিয়েছে, বিক্ষোভ চলাকালে গুলিতে আহত হয়ে চারজন বিক্ষোভকারী নিহত হন। এছাড়া আরেক জনের মৃত্যু হয়, নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের সময় কাঁদানে গ্যাসের ধোঁয়ায় দম বন্ধ হয়ে।

সম্প্রতি সেনা অভ্যুত্থানের পর সুদানজুড়ে গণবিক্ষোভ শুরু হয়। দেশটির হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করেন এই অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে।

এদিকে সরাসরি গুলিতে আহত হওয়ার কথা অস্বীকার করেছে দেশটির পুলিশ প্রশাসন। সুদানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের প্রতিবেদনে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে ৩৯ পুলিশ সদস্যের গুরুতর আহত হওয়ার কথা জানানো হয়েছে। অভ্যুত্থানের পর সুদানে সামরিক বাহিনীর নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন নতুন জাতীয় পরিষদ গঠনের ঘোষণা আসার পর প্রাণঘাতী এই সহিংসতার ঘটনা ঘটল।

বৃহস্পতিবারের এই ঘোষণায় নতুন পরিষদের প্রধান হয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহান। ইতিমধ্যে দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ভেঙে দিয়ে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন তিনি। একই সঙ্গে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী আবদাল্লাহ হামদকসহ মন্ত্রিসভার প্রায় সব সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত ২৫ অক্টোবর সুদানে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। তখন থেকে দেশটিতে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। এর নিন্দা জানাচ্ছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।


আরও খবর