আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

মডেলিং করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার অভিনয়শিল্পী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ২৩৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মডেলিংয়ের কথা বলে গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুরের হাতিমারা এলাকায় এক অভিনয় শিল্পীকে ডেকে নিয়ে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে ৫ জনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানায় ওই তরুণী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার পরে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম ও তার সহযোগী সুমন মিয়া, রাসেল তালুকদার, জহির উদ্দিন ও শাহাবুলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে গাজীপুরের আদালত গ্রেপ্তারকৃতদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবে খোদা জানান, গেলো ৩১ জানুয়ারি রাতে স্থানীয় জাহাঙ্গীর আলম ও তার সহযোগীরা ইউটিউব চ্যানেলে মডেলিংয়ের কথা বলে কাশিমপুর থানার সারদাগঞ্জ এলাকায় ডেকে নেন ওই অভিনয়শিল্পীকে।

পরে একটি ঘরে আটকে রেখে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন অভিযুক্তরা। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই নারী কাশিমপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করলে রাতেই পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: গণধর্ষণ মডেলিং
Share

আরও খবর



মালয়েশিয়ায় ফের লকডাউন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৯৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনার ৪র্থ ঢেউ মোকাবিলা করতে মালয়েশিয়ায় ফের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (এমসিও) ১৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধিতে তা বাড়িয়ে ৪ মার্চ পর্যন্ত করা হয়েছে।

চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে জাতীয় সুরক্ষা কাউন্সিল ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি বিন ইয়াকুব ।

মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

এ ছাড়া দেশটির সেলাঙ্গর, কুয়ালালামপুর, জহুর, পিনেং রাজ্যে মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (এমসিও) আগামী ৪ মার্চ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

বাকি রাজ্যগুলোতে কন্ডিশনাল মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (সিএমসিও) এবং রিকভারী মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (আরএমসিও) যথাযথ বহাল থাকবে।

পাশাপাশি দেশটির আন্তঃরাজ্য ভ্রমণের ওপর চলমান নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

চলমান মুভমেন্ট কন্ট্রোল ওয়ার্ডারের নির্দেশনাবলী অমান্য করলে এক হাজার রিঙ্গিত জরিমানা অথবা অমান্যকারীদের গ্রেফতারও করা হচ্ছে।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৬৯ হাজার ১৬৫ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৯৮৩ জন।

মঙ্গলবার দেশটিতে ৫ হাজার ৭১৮ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

Share

আরও খবর



চার লেন হচ্ছে নওগাঁর প্রধান সড়ক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ১৪১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বহুবছর ও বহু কাটখড় পোড়ানোর পর নওগাঁর মানুষের দীর্ঘদিনের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান সড়কটি দুই লেন করা হলেও তা মূল শহরের কিছু ব্যক্তি মালিকানার স্থাপনার কারণে দুই লেনের জন্য যে জায়গার প্রয়োজন তাও করা সম্ভব হয়নি

তিলোত্তমা শহর নওগাঁ, ছোট যমুনা নদী বিভক্ত করেছে এই নওগাঁ শহরকে। মূলত ছোট যমুনা নদীকে ঘিরেই গড়ে উঠেছে তিলোত্তমা এই শহর। আর শহরে চলাচলের জন্য একটি প্রধান সড়কই ভরসা। দিন যতই যাচ্ছে ততই নওগাঁ শহরে বসতি সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বৃদ্ধি পাচ্ছে ছোট ছোট যানবাহন কিন্তু সেই তুলনায় আধুনিকায়ন হচ্ছে না শহরের অভ্যন্তরের বড়-ছোট জনগুরুত্বপূর্ন সড়কগুলো। যার কারণে ছুটির দিন বাদে শহরের যে কোন রাস্তা কিংবা সড়কে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত যানজট লেগেই থাকে। শহরকে এই যানজট মুক্ত করার লক্ষ্যে শহরের প্রধান সড়ক প্রসস্থ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে নওগাঁ সড়ক ও জনপদ বিভাগ।

১৮৭৭ সালে নওগাঁ মহকুমা গঠিত হয়। এরপর প্রায় ১০৭ বছর পর ১১টি উপজেলা নিয়ে ১৯৮৪ সালের ১মার্চ নওগাঁ জেলায় রুপান্তর হয়। নওগাঁ শহর থেকে ৫কিলোমিটার দূরে সান্তাহার রেল জংশন স্থাপন হলে তা মূলত ছিলো নওগাঁর জন সাধারণের চলাচলকে কেন্দ্র করে। সান্তাহারে রেল চলাচল শুরু হলে নওগাঁর গুরুত্ব আরো বেড়ে যায়। প্রয়োজন দেখা দেয় পাকা সড়কের। তখন রাজশাহী জেলা বোর্ডের উদ্যোগে সান্তাহার থেকে একটি প্রসস্থ সড়ক নির্মান করা হয় মহাদেবপুর পর্যন্ত। সড়কটি ছিল প্রথম দিকে সুরকী বিছানো সড়ক। অনেক পরে সড়কটি সান্তাহার থেকে নওগাঁর কাজীর মোড় পর্যন্ত কনক্রিট করা হয়। বিভিন্ন সময় ধীরে ধীরে সড়কটি তার রুপ পাল্টাতে থাকে। এরপর বর্তমান অবস্থায় এসে পৌঁছে। কিন্তু ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা ও যান চলাচল বৃদ্ধি পাওয়ায় এই সড়কটি এখন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

নিনিত্যদিন অসহনীয় যানজট আর ফুটপাত বিহীন সড়কটি নওগাঁ শহরবাসীর জন্য আগে ছিল বিড়ম্বনার এখন তা হয়ে উঠেছে গলার কাটা। শত শত সিএনজি চালিত থ্রি হুইলার, ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক, বউ সোহাগী, রিক্সা, মটর সাইকেল, বাস, ট্রাকসহ নানান যানবাহনের জটে শহরটি যেনো দিন দিন মরণ ফাঁদে পরিণত হচ্ছে। ছোট বড় দূর্ঘটনা এখন প্রতিদিনের বিষয়। স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থী ও পথচারীরা হয়ে পড়েছে ওই যানজটের অন্যতম শিকার। এই দূর্ভোগ থেকে উত্তরনের একমাত্র উপায় হচ্ছে সড়ক প্রসস্থকরন।

বহুবছর ও বহু কাটখড় পোড়ানোর পর নওগাঁর মানুষের দীর্ঘদিনের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান সড়কটি দুই লেন করা হলেও তা মূল শহরের কিছু ব্যক্তি মালিকানার স্থাপনার কারণে দুই লেনের জন্য যে জায়গার প্রয়োজন তাও করা সম্ভব হয়নি। এবার নওগাঁবাসীর জন্য সুখবর বয়ে আনছে নওগাঁ সড়ক ও জনপদ বিভাগ। নওগাঁর ঢাকা রোডের মোড় থেকে চৌমাশিয়ার (নওহাটা) মোড় পর্যন্ত সাড়ে ১৬ কিলোমিটার সড়কটি ৪লেনে উন্নীত করার পরিকল্পনার গ্রহন করেছে নওগাঁ সড়ক ও জনপদ বিভাগ। সড়কের প্রয়োজনে নির্মাণ করা হবে, ব্রীজ, কালর্ভাট, ড্রেন, ফুটপাত ও রোড ডিভাইডারসহ নানান অবকাঠামো। মোট ১০০ ফুট প্রসস্থ হবে বর্তমান সড়কটি। আগামী ১মাসের মধ্যে এ সংক্রান্ত ডিপিপি সাবমিট করা হবে বলে সওজ অফিস সূত্রে জনা গেছে।

অপরদিকে শহরের মধ্যে ছোট যমুনা নদীর উপরের লিটন সেতুটি ২লেনের। বর্তমান লিটন সেতুটি ব্যাপক সংস্কারের আওতায় আনা হবে। এই সেতুর আদলে পাশে আরেকটি নতুন সেতু নির্মাণ করা হবে। একই ভাবে শহরের অপর তুলশী গঙ্গা নদীর উপর ২লেনের যে সেতুটি আছে তার পাশে আরো একটি ২লেনের সেতু নির্মান করা হবে। সড়কটি চার লেনে উন্নীত করতে গিয়ে সড়কের দু’ধারে ব্যক্তি মালিকানাধীন যে জমি ও অবকাঠামো অধিগ্রহন করা হবে তারা জমির মূল্যবাবদ ৩গুণ ও অবকাঠামোর জন্য ২গুন অর্থ পাবেন।

নওগাঁ সওজ সূত্রে জনা গেছে, নওগাঁ সদর আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দীন জলিল জন ও নওগাঁ-৪ (মহাদেবপুর-বদলগাছী) আসনের সংসদ সদস্য ছলিম উদ্দীন তরফদার সেলিম নওগাঁ সড়ক বিভাগকে গত বছর নভেম্বর মাসের দিকে সড়ক প্রসস্থকরণ বিষয়ে একটি ডিও লেটার দেন। এই বিষয়ে একই মতামত ব্যক্ত করেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি। এরপর সড়ক বিভাগ ডিপিপি প্রস্তুতির কাজে হাত দেয়। ডিপিপির কাজ শেষ হয়েছে এবং আগামী ১মাসের মধ্যে তা সাবমিট করা হবে। এতে প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৯শ কেটি টাকা।

নওগাঁ সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান সাজিদ জানান, এই বিষয়ে সাংসদ মহোদয়গনের কাছ থেকে ডিও লেটার পাওয়ার পর একটি প্রাথমিক পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে। নওগাঁর পশ্চিম ঢাকা রোড (বাইপাস মোড়) থেকে মহাদেবপুর উপজেলার চৌমাশিয়া মোড় পর্যন্ত সাড়ে ১৬কিলোমিটার সড়কটি ৪ লেনে উন্নীত করার প্রাথমিক পরিকল্পনার কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। আগামী ১মাসের মধ্যে সরকারের সড়ক বিভাগের দপ্তরে ডিপিপি সাবমিট করা হবে। সড়ক প্রসস্থ করতে গিয়ে আর যা যা করার প্রয়োজন তার সব কিছুই করা হবে।

নিউজ ট্যাগ: নওগাঁ
Share

আরও খবর
সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নওগাঁয়

শনিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২১




অভিজিৎ হত্যার রায় আজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিজ্ঞান লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা আজ মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি)। দুপক্ষের যুক্ততর্ক শুনানি শেষে গত বৃহস্পতিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার এ দিন ধার্য করেন।

গত বুধবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর গোলাম ছারোয়ার খান জাকির যুক্তিতর্ক শেষ করেন। ওইদিন আসামিপক্ষ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করলেও তা শেষ হয়নি। তাই গত বৃহস্পতিবার অসমাপ্ত যুক্তিতর্কের জন্য দিন রেখেছিলেন আদালত। যুক্ততর্ক শুনানি শেষে আজ মঙ্গলবার রায় ঘোষণা করবেন আদালত।

এ মামলার আসামিরা হলেন- বরখাস্ত হওয়া মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে শাহাব, মোজাম্মেল হোসেন ওরফে সাইমুম, আরাফাত রহমান ওরফে সিয়াম, শফিউর রহমান ফারাবী, আকরাম হোসেন ওরফে আবির ওরফে আদনান। এদের মধ্যে মেজর জিয়া ও আকরাম পলাতক। তাই তারা আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য রাখতে পারেননি।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায়কে ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি এলাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে জখম করে। আহতাবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ২৭ ফেব্রুয়ারি অভিজিতের বাবা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অজয় রায় শাহবাগ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

২০১৯ সালের ১৩ মার্চ আদালতে এ মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। এরপর একই বছর ১ আগস্ট অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর নির্দেশ দেন আদালত। এরপর থেকে রাষ্ট্রপক্ষে ৩৪ সাক্ষীর মধ্যে মোট ২৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

Share

আরও খবর



মুক্তিযুদ্ধে জিয়ার ভূমিকা ছিল পাকিস্তানের পক্ষে: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
যারা মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানের হয়ে কাজ করেছেন তাদের বড় বড় পদে বসিয়েছেন জিয়া। তার বড় প্রমাণ তিনি শাহ আজিজুর রহমানকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছিলেন

জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব চূড়ান্তভাবে বাতিল হয়নি জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় জিয়াউর রহমান পাকিস্তানের হয়ে কাজ করেছেন। যুদ্ধে জিয়ার ভূমিকা ছিল মূলত পাকিস্তানের পক্ষে।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর শের ই বাংলা নগরের জাতীয় বেতার ভবনে বিশ্ব বেতার দিবস-২০২১ উপলক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন। 

তিনি বলেন, যারা মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানের হয়ে কাজ করেছেন তাদের বড় বড় পদে বসিয়েছেন জিয়া। তার বড় প্রমাণ তিনি শাহ আজিজুর রহমানকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছিলেন। যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। তিনি মূলত মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানের সহযোগী হয়ে কাজ করেছেন। 

বিশ্ব বেতার দিবস প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, বেতারের গুরুত্ব এখনো কমেনি। পাহাড় ও বঙ্গোপসাগরে মাঝিদের কাছে বেতার এখনো জনপ্রিয়। কম খরচে এ মাধ্যম থেকে তথ্য পাওয়া যায়। আগামীতে বেতার নিয়ে নানা পরিকল্পনা রয়েছে। দেশ পাল্টাচ্ছে, বাংলাদেশ ডিজিটাল হয়েছে। দেশ ও যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ বেতারের উন্নয়ন করা হচ্ছে। মানুষের হাতে হাতে মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে বেতার পৌঁছে যাবে সেজন্য কাজ করা হচ্ছে। বাংলাদেশ বেতার এখন সারা বিশ্বে। 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, তথ্য সচিব খাজা মিয়া, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক আহম্মদ কামরুজ্জামানসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

Share

আরও খবর



স্বামীকে দোষী করে সুইসাইড নোট লিখে স্ত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বামীর বিরুদ্ধে সুইসাইড নোট লিখে আত্মহত্যা করেছেন ফারহানা ফেরদৌস (৩২) নামে এক নারী। তিনি কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা ভূমি অফিসের নারী কর্মচারী ছিলেন। আত্মহত্যা করার পূর্বে ফারহানা তার স্বামীকে দোষী করে সুইসাইড নোট লিখে যান।

ওই নারী সুইসাইড নোটে লিখেছেন, মৃত্যুর পর লাশ যেন তার স্বামী মহিউদ্দিন সরকারকে দেখানো না হয়। লাশ নিয়ে আইনি কোনো ঝামেলা না করার কথাও লেখেন তিনি।

চান্দিনা ধানসিঁড়ি আবাসিক এলাকার ভাড়া বাসা থেকে ভূমি অফিসের নারী কর্মচারীর মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন চান্দিনা থানার ওসি শামসউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াছ। গত ৪ মার্চ রাতে আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটে।

 নিহত ফারহানা ফেরদৌস কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা সদরের সাহাপাড়া এলাকার মো. ফেরদৌস মিয়ার মেয়ে এবং একই এলাকার মো. মহিউদ্দিন সরকারের স্ত্রী। তিনি চান্দিনা ভূমি অফিসের প্রধান সহকারী (নাজির)।

চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ সেবন করায় তার মৃত্যু ঘটেছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যুর একটি মামলা করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পেলে পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Share

আরও খবর