আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

মধ্যযুগীয় কায়দায় হাত-পা বেঁধে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন (ভিডিও)

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | ৩০৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

মধ্যযুগীয় কায়দায় হাত-পা বেঁধে আল-আমীন (৩১) নামে এক কাঠ ব্যবায়ীকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে স্থানীয় বখাটেরা। ঘটনাটি ঘটেছে পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানী থানার পত্তাশী গ্রামে। নির্যাতনের পরও খ্যান্ত হননি তারা। এ ঘটনা জানজানি হলে উপয়ন্ত না দেখে, ঘটনা ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করার জন্য ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটা মামলা দায়ের করে।

অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদর চেয়ারম্যান এর সাথে পূর্ব শত্রুতা এবং চলমান ইউপি নির্বাচনে তার বিরোধীতা করায় পরিকল্পিত ভাবে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন করা হয়। রবিবার রাতে এ বর্বরাচিত হামলার ঘটনায় ব্যবসায়ী মামলা করার কথা জানালে ইন্দুরকানী থানা পুলিশ তা আমলে নেয়নি।

বর্তমান পুলিশ প্রহরায় হ্যান্ডকাফ পরা অবস্থায় পিরাজপুর জেলা হাসপাতাল নির্যাতিত আল আমীনর চিকিৎসা চলছে। নির্যাতিত আল আমীন ওই গ্রামর মাঃ আলী আকবার এর ছেলে।

হাসপাতাল চিকিৎসাধীন আলী আমীন জানায়, রবিবার রাত স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় মাহফিল শুনে স্থানীয় এক যুবকের সাথ বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় পত্তাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোয়াজ্জম হোসেন হাওলাদারর সমর্থিত ১০-১২ জন যুবক তার উপর অতর্কিত হামলা করে। এরপর তাদের সাথে আরও ১৫-২০ জন যোগ দেয় । এসময় সন্ত্রাসীরা তাক মাটিতে ফেলে হাত পা পিঠমোড়া দিয়ে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে। এ সময় ওই ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় গ্রাম পুলিশ মাঃ রিয়াজ উপস্থিত থাকলেও, সবাই নিরব ভূমিকা পালন করে।

আল আমীনর অভিযাগ ইউপি চেয়ারম্যান মায়াজ্জম এর সমর্থক থাকলেও, বর্তমান তার সাথে দূরত্ব রয়েছে । এজন্যই তার উপর ক্ষিপ্ত এই ইউপি চেয়ারম্যান। তার নির্দেশে বর্বরাচিত নির্যাতন করা হয়। নির্যাতনর এক পর্যায় অজ্ঞান হয় পড়ে। খবর পেয়ে ইদুরকানী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয় যায়। এরপর সেখান থেকে তাকে পুলিশ প্রহরায় পিরাজপুর জলা হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। আল-আমীন অভিযোগ করেন, মারধারর ঘটনা ধামাচাপা দেওয়া এবং তাকে ফাঁসানার জন্য এ মামলা দেয়া হয়।

গ্রামপুলিশ রিয়াজ জানান, আল আমীনকে ব্যাপকভাবে মারধার করা হয় ।

এ বিষয় ইউপি চয়ারম্যান মোয়াজ্জেম জানান,আল আমীনক মারধারর খবর শুনে স্থানীয় চকিদার রিয়াজকে ঘটনাস্থেল পাঠিয়ে উদ্ধার করে। এরপর বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাব ইদুরকানী থানায় জানানা হয়। তবে এ ঘটনায় নিজেকে জড়িত থাকার কথা অম্বীকার করে বলেন, যারা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপার ইদুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাঃ হুমায়ুন কবির জানান, একটি মেয়েকে শ্লীলতাহানির অভিযাগে আল আমীনক আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ইদুরকানী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এরআগে তাকে মারধার করা হয়। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। অপরাধিদের আইনের আওতায় আনা হবে।

উল্লখ্য, এর আগ গত বছরর ৪ নভম্বর একটি কর্মী সভায় ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার এর সমালাচনা করায় রঞ্জন কুমার মজুমদার নাম ওয়ার্ড আওয়ামী লীগর এক সাধারণ সম্পাদকক পিটিয় পা ভেংগে দেয় তার সমর্থকরা। আসন ইউপি নির্বাচনক কেদ্র করে প্রতিদ্বন্ধীদের দমনের জন্য বিভিন্ন ভাবে নির্যাতনের অভিযাগ রয়েছে এই ইউপি চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে।


আরও খবর



পিরোজপুরে অটোরিকশার ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | ২৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পিরোজপুরে অটোরিকশারর ধাক্কায় এনামুল হক নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৪ মে) বিকালে পৌর এলাকার পাড়েরহাট সড়কের ম্যালেরিয়া পুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  নিহত এনামুল হক (৬৭) পৌরসভার বৌদ্ধপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

নিহতের জামাতা হাসানুল কবির শেখ লীন জানান, বিকালে আমার ছেলে সাইকেল নিয়ে পড়ে গিয়ে আহত হয়। সেই খবর পেয়ে আমার ছেলেকে দেখার জন্য বিকেলেই আমার শ্বশুর ও শাশুরি বাড়িতে আসে। এসময় বাসার সামনের রাস্তা পার হবার সময় একটি অটোরিকশা এসে শ্বশুরকে ধাক্কা দিলে সে পড়ে যায়। পরে বিপরিত দিক থেকে আসা আরও একটি অটোরিকশা এসে তাকে ধাক্কা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে সেখানের চিকিৎসক তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ. জা. মাসুদুজ্জামান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ঘাতক অটো আর ড্রাইভারকে আটক করা সম্ভব হয়নি। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনও লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৪ জন শনাক্ত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহামারী করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৪ জন শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৭৪৭ জন।  শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ১৮ শতাংশ। এছাড়া এ সময়ে করোও মৃত্যু হয়নি। ফলে মৃত্যুর সংখ্যাও ২৯ হাজার ১২৭ জনে অপরিবর্তিত থাকল।

বৃহস্পতিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ২১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে দেশের ৬৪ জেলায় ৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে তিনজন ঢাকার একজন কক্সবাজারের বাসিন্দা। গত একদিনে ভাইরাসটি থেকে ২৫৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ১৮ লাখ ৯৬ হাজার ৭৮৮ জন।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেই বছর সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছিল ৬৪ জনের।

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় গত বছর জুন থেকে রোগীর সংখ্যা হু-হু করে বাড়তে থাকে। ২৮ জুলাই একদিনে সর্বোচ্চ ১৬ হাজার ২৩০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

২০২১ সালের ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৫ ও ১০ আগস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যু হয়, যা মহামারির মধ্যে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এরপর বেশকিছু দিন ২ শতাধিক মৃত্যু হয়।

এরপর গত ১৩ আগস্ট মৃত্যুর সংখ্যা ২০০ এর নিচে নামা শুরু করে। দীর্ঘদিন শতাধিক থাকার পর গত ২৮ আগস্ট মৃত্যু ১০০ এর নিচে নেমে আসে।


আরও খবর



স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নেবে না জাপা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | ২৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আর কোনো স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলগতভাবে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। এর অংশ হিসেবে আসন্ন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে কোনো প্রার্থী দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে দলটি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর জাতীয় সংসদের উপনির্বাচন ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে নানা কৌশলের মাধ্যমে এই নীতিই ধরে রেখেছে দলটি। কখনো প্রার্থী না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, কখনো প্রার্থী নিজেই নির্বাচনের মাঠ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। সর্বোপরি জাপার সমর্থন অদৃশ্য সুতোর টানে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর দিকেই গেছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে স্থানীয় নির্বাচনে জাপার এই আচরণ রাজনৈতিক কৌশল বলেও অনেকে মনে করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় পার্টি এখন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং দলের সাংগঠনিক ভিত্তিকে আরও শক্তিশালী করতে মনযোগ দিয়েছে। যেসব জেলা বা মহানগরে সাংগঠনিক দুর্বলতা রয়েছে সেখানে কীভাবে দলকে

এগিয়ে নেওয়া যায় সেই কর্মকৌশল নিয়েই এগোচ্ছেন নীতিনির্ধারকরা। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কীভাবে সব আসনে প্রার্থী দেওয়া যায় তার কৌশল নিয়েও কাজ শুরু করেছেন তারা। এমন প্রেক্ষাপটে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রার্থী দিয়ে আর সময় ব্যয় করতে চায় না হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ প্রতিষ্ঠিত দলটি।

জাপার নেতৃবৃন্দ জানান, রাজনৈতিক কৌশলের অংশ হিসেবে সিরাজগঞ্জ-৬, কুমিল্লা-৫, সিলেট-৩ ও ঢাকা-১৪ উপনির্বাচনে দলের গঠনতন্ত্র মেনে মনোনয়ন দেয় জাতীয় পার্টির মনোনয়ন বোর্ড। পরবর্তীকালে প্রার্থীরা নিজেদের সিদ্ধান্তেই প্রার্থিতা থেকে সরে যান। এ নিয়ে পরবর্তী সময় দলীয় তদন্ত কমিটি হতে দেখা গেছে। আবার তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে দলকে না জানিয়ে প্রার্থিতা থেকে সরে যাওয়ায় সংশ্লিষ্টদের বহিষ্কারেরও ঘটনা ঘটেছে জাপায়।

কুসিক নির্বাচনে জাতীয় পার্টি প্রার্থী দেবে কিনা জানতে চাইলে পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের এক শব্দে বলেন, না। দলের একজন অতিরিক্ত মহাসচিব বলেন, প্রার্থী দিয়েই বা লাভ কী। নির্বাচন তো আর সুষ্ঠু হবে না। হয়তো জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে দুই বা আড়াই হাজার ভোট দেবে। এতে তো দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির রাজনীতিহীনতা জাতীয় পার্টিকে জনপ্রিয়তার দিকে নিয়ে যাচ্ছে; যা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু হলে প্রমাণ হবে। তাই দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আর কোনো স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলগতভাবে জাতীয় পার্টি প্রার্থী দেবে না।

দলটির আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, প্রার্থিতা থেকে সরে যাওয়া, এটি কেন্দ্রেরই সিদ্ধান্ত। তবে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে গিয়ে কোথাও কোথাও প্রার্থীরা সরকারদলীয় প্রার্থীর কাছ থেকে টাকা খসিয়ে নিয়েছে। কখনো কখনো টাকা খসিয়েছেন জাপার কেন্দ্রীয় নেতারাও। আর বহিষ্কার করার বিষয়টা আইওয়াশ মাত্র; এটা রাজনৈতিক কৌশলও।

জাপার প্রার্থিতা থেকে সরে যাওয়ার কৌশল শুরু হয়েছিল ২০১৮ সালে। অভিযোগ আছে, ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর-২ আসনে টাকার বিনিময়ে নির্বাচনী মাঠ থেকে সরে যান মহাজোট থেকে মনোনয়ন পাওয়া জাপার প্রার্থী মোহাম্মদ নোমান। ওই সময় তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদ ইসলাম পাপুলের কাছ থেকে ১২ কোটি টাকা নিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠে। পরে নোমানকে দল থেকে বহিষ্কার করে জাপা। ওই নির্বাচনে পাপুল এমপি হন। বর্তমানে তিনি কুয়েতে মানব ও অর্থপাচারের দায়ে দন্ডিত হয়ে জেল খাটছেন। তার সংসদ সদস্যপদও বাতিল হয়েছে। পাপুলের শূন্য আসনে জয়ী হন আওয়ামী লীগের প্রার্থী নূর উদ্দিন চৌধুরী। সেখানে জাপার প্রার্থী ছিলেন শেখ মোহাম্মদ ফায়িজ উল্ল্যাহ। অভিযোগ আছে, এই উপনির্বাচনেও জাপার প্রার্থীকে সরিয়ে নিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চেষ্টা করেন। তবে জাপার প্রার্থী তার প্রস্তাবে রাজি হননি।

জানা গেছে, ঢাকা-১৪, কুমিল্লা-৫, সিলেট-৩ ও সিরাজগঞ্জ-৬ আসনে প্রার্থিতা থেকে সরে যাওয়া কৌশল ছিল জাতীয় পার্টির। কারণ সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তারা স্থানীয় বা জাতীয় প্রোগ্রামে দলীয় কর্মসূচিতে এখনো আসা-যাওয়া করেন। কুমিল্লা সিটি নির্বাচন ১৫ জুন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষদিন ২৬ মে। জাতীয় পার্টি থেকে এখন পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম বিক্রির উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। কেউ দলীয়ভাবে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছেন এমন কোনো খবর এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।


আরও খবর



জয়পুরহাটে চোলাই মদ ও ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন

Image

জয়পুরহাট প্রতিনিধি:

জয়পুরহাটে র‌্যাবের মাদক বিরোধী অভিযানে ২ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব। জয়পুরহাট র‌্যাব কোম্পানির অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার মাসুদ রানা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার (৯ মে ) সকালে পৌর এলাকার কাশিয়াবাড়ী কালিমন্দির সামনে হইতে ১০৫ লিটার চোলাই মদসহ মাদক ব্যবসায়ী কাজী মাসুদ (৫৮) কে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী জয়পুরহাট পৌর এলাকার বিশ্বাসপাড়া মহল্লার মৃতঃ মোকলেছার কাজীর ছেলে।

একই দিনে অপর এক অভিযানে কালাই পৌরসভার কলেজ পাড়া হতে ৩৮৬ টি ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী মোফাজ্জল হোসেন (৪৩) কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী কালাই থানার হারুঞ্জা গ্রামের মৃত তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।

র‌্যাব আরোও জানান, আসামীদ্বয় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে যে তারা দীর্ঘদিন যাবৎ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য চোলাই মদ ও ইয়াবা অবৈধভাবে সংগ্রহ করে জয়পুরহাট জেলার বিভিন্ন স্থানে মাদকসেবী ও মাদক কারবারীদের নিকট সরবরাহ করে আসছিল।

পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে জয়পুরহাট সদর থানা ও কালাই থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুসারে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: জয়পুরহাট মাদক

আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে পুকুরে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ মে 2০২2 | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার (১ মে) দিনগত রাতে রূপগঞ্জ থানার পুলিশ পরির্দশক হুমায়ুন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মৃত দুই বোন হলো, বয়সী চাঁদনী আক্তার (১৩) ও সায়মা আক্তারের (১১) বাড়ি রূপগঞ্জের তালাসপুরে। তারা পরিবারের সঙ্গে বড়ালু এলাকায় ভাড়া থাকত।

রূপগঞ্জ থানার পুলিশ পরির্দশক হুমায়ুন কবির জানান, বিকেলে স্থানীয় গনি মিয়ার পুকুরে গোসল করতে যায় দুই বোন। তাদের মধ্যে প্রথমে একজন পানিতে পড়ে গেলে তাকে উদ্ধার করতে যায় আরেক বোন। তারা কেউ সাঁতার জানত না। ফলে দুজনই পানিতে তলিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক দুই বোনকেই মৃত্যু ঘোষণা করেন।

সেখান থেকে তাদের মরদেহ নিয়ে বাড়িতে চলে যায় পরিবারের সদস্যরা। এ কারণে ঘটনা সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ পায়নি। পরে এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে সন্ধ্যায় পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে পরিবারের সদস্যরা জানায়, দুই বোনের মৃত্যুর ঘটনায় পরিবারের মধ্যে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ একটি অপমৃত্যু মামলা করে তাদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

তিনি আরও জানান, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর