আজঃ মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

মেক্সিকোতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ১০ জন নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

উত্তর মেক্সিকোতে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত দশ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের চার কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, উত্তর মেক্সিকোর নুয়েভো লিওন এবং তামাউলিপাস রাজ্যের মধ্যে একটি মহাসড়কের পাশে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রে মেমোরিয়াল ডে’র অনুষ্ঠানে গুলি, নিহত ১৬

নুয়েভো লিওন পাবলিক সিকিউরিটি সেক্রেটারি জেরার্ডো প্যালাসিওস ফেসবুকে লিখেছেন, তিনটি সাঁজোয়া ট্রাকে ভ্রমণকারী ব্যক্তিরা বেসামরিক বাহিনীর সদস্যদের ওপর গুলি চালায়। এতে দশজন সন্দেহভাজন অপরাধী নিহত এবং চারজন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

আরও পড়ুন: জম্মু-কাশ্মিরে বাস খাদে পড়ে নিহত ১০

এই অঞ্চল সহিংসতার জন্য পরিচিত। দুই রাজ্যের মধ্যবর্তী রাস্তাগুলোতে প্রায়ই অপহরণ, গুম এবং ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ২০০৬ সালে সরকারের বিতর্কিত মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকে মেক্সিকোতে তিন লাখ ৪০ হাজারের বেশি হত্যার ঘটনা ঘটেছে। নিখোঁজ রয়েছে লক্ষাধিক। তবে এসব সংঘর্ষের ঘটনার জন্য অপরাধী চক্রকে দায়ী করা হয়।


আরও খবর
আজ নেলসন ম্যান্ডেলার জন্মদিন!

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




অতিরিক্ত সময়ে গড়ালো আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়ার ফাইনাল

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

প্রথমার্ধের মতো বিরতির পরও কোপা আমেরিকার ফাইনালে গোল হয়নি। আর্জেন্টিনা বনাম কলম্বিয়ার মধ্যকার ফাইনালের দুই অর্ধে উত্তেজনা ছড়ালেও কোনো দল গোল করতে পারেনি। খেলা অতিরিক্ত সময়ে গড়িয়েছে।

আজ সোমবার ফ্লোরিডার মায়ামি গার্ডেন্সের হার্ড রক স্টেডিয়ামে দর্শক বিশৃঙ্খলায় প্রায় দেড় ঘণ্টা পর কোপা আমেরিকার ফাইনাল শুরু হয়েছে। যেখানে খেলার প্রথমার্ধ অবশ্য কলম্বিয়ার আধিপত্য ছিল। বল দখলের লড়াইয়ে কিছুটা এগিয়ে থাকা নেস্তর লরেন্সোর দল প্রথমার্ধে গোলের জন্য নেয় আটটি শট, এর চারটি ছিল লক্ষ্যে। আর আর্জেন্টিনার তিনটি শটের কেবল একটি ছিল লক্ষ্যে।

যদিও আর্জেন্টিনাই শুরুটা ভালো করেছিল। প্রথম মিনিটে গনসালো মন্তিয়েলের ক্রসে ডি-বক্সের মাঝে বল পেয়ে যান হুলিয়ান আলভারেস। কিন্তু তার ডান পায়ের শট বাম পাশ দিয়ে চলে যায় বাইরে।

কিন্তু এরপরর শুরু হয় কলম্বিয়ার দাপট। পঞ্চম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাম পায়ের শট নেন লুইস দিয়াস। তেমন গতি না থাকায় ঠেকাতে সমস্যা হয়নি এমিলিয়ানো মার্তিনেসের। এক মিনিট পর ডি-বক্সের ভেতর থেকে হন কর্দোবার শট দূরের পোস্টে লেগে বাইরে চলে যায়। এরপর আরও দুই দফা আর্জেন্টিনার রক্ষণে হানা দেয় কলম্বিয়া। তবে লিসান্দ্রো মার্তিনেস, নিকোলাস তাগলিয়াফিকোদের রক্ষণ ভাঙতে পারেনি তারা।

আর্জেন্টিনা ২০তম মিনিটে বড় সুযোগ পায়। জায়গা বদলে বাম পাশে চলে আসেন আনহেল দি মারিয়া। তার ঠাণ্ডা মাথার ক্রস ডি-বক্সে পেয়ে বাম পায়ের শট করেন লিওনেল মেসি। কিন্তু আলভারেসের পায়ে লেগে গতি হারায় বল। ফলে সহজেই ঠেকিয়ে দেন কলম্বিয়া গোলরক্ষক কামিলো ভার্গাস।

খেলার ৩৩তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে আচমকা দূরপাল্লার শট নেন লের্মা। ডান দিকে ঝাঁপিয়ে আঙুল ছুঁয়ে দুর্দান্ত সেভ দেন এমিলিয়ানো।

এদিকে দুই মিনিট পর ডি-বক্সের মুখে বল পেয়ে কলম্বিয়ার একজনের চ্যালেঞ্জের মুখে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাইলাইনের কাছে পড়ে যান মেসি। চোট পান ডান পায়ে। বেশ কিছুক্ষণ ধরে মাঠেই শুশ্রূষা নিয়ে নিজ পায়ে দাঁড়ান আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। বিরতির আগের বাকি সময়টায় তাকে খুড়াতে দেখা যায়।

এর আগে টিকেটবিহীন দর্শকদের বিশৃঙ্খলায় দুই দফা পেছানোর পর বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে সাতটায় ফাইনাল শুরু হয়। অতি উৎসাহী দর্শকরা নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে ওঠায় নির্ধারিত সময়ে শুরু করা যায়নি।

আজ সোমবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টায় আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ার শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচটি শুরু হওয়ার কথা ছিল। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে প্রাথমিকভাবে ৩০ মিনিট পিছিয়ে দেওয়ার কথা জানায় আয়োজকরা। তবে এরপর প্রায় দেড় ঘণ্টা পর খেলা মাঠে গড়ায়।

ফ্লোরিডার মায়ামি গার্ডেন্সের হার্ড রক স্টেডিয়ামে টিকেটবিহীন দর্শকরা দল বেধে স্টেডিয়ামের গেট দিয়ে মাঠে ঢোকার চেষ্টা করলে এক পর্যায়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তাকর্মীরা। তাই সেসব দর্শককে বের করে শৃঙ্খলা ফেরানোর জন্য নেওয়া হয়েছে বাড়তি সময়।


আরও খবর



খাবারে ঘুমের ঔষুধ মিশিয়ে একাধিক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ানুল হক মিলন, ঠাকুরগাঁও

Image

ঠাকুরগাঁওয়ের জুসের সঙ্গে চেতনানাশক ঔষুধ খাইয়ে এক মাদরাসা সভাপতির বিরুদ্ধে একাধিক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে এলাকাবাসীর মধ্যে।

সোমবার (৮ জুলাই) রাতে জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার ধর্মগড় ইউনিয়নের ভরনিয়া গ্রামে ভরনিয়া দারুল হাদীস ওয়াদ দাওয়াহ্ আস-সালাফিয়্যা মাদরাসায় এ ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনার পর থেকে প্রতিষ্ঠানটির সভাপতির আব্দুল করিম মুঠোফোনের সুইচ অফ করে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন। তিনি দীর্ঘ দিন থেকেই প্রতিষ্ঠানটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

জানা গেছে, স্থানীয়দের আর্থিক সহযোগিতায় রাণীশংকৈল উপজেলার ভরনিয়া গ্রামে ভরনিয়া দারুল হাদীস ওয়াদ দাওয়াহ্ আস-সালাফিয়্যা মাদরাসাটি ২০১১ সালে গড়ে উঠে। মাদরাসাটির দুইটি শাখা রয়েছে। একটি ছাত্রীদের জন্য আবাসিক এবং অপরটি ছাত্রদের জন্য অনাবাসিক। আবাসিকে ১৫-১৬ জন কিশোরী রাতযাপন করে। মাদরাসার সভাপতি আব্দুল করিম রাতের বেলা প্রায় সময় আবাসিকে যাতায়াত করতেন এবং মেয়েদের জুস খাওয়াতেন। জুসে মেশানো থাকতো চেতনানাশক ওষুধ। আর সেই ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ছাত্রীদের ধর্ষণ করতেন তিনি। ৪ জুলাই সব ছাত্রীদের ছুটি দেওয়া হলেও তিনজন ছাত্রীকে সভাপতির নির্দেশে ছুটি দেওয়া হয়নি। মাদরাসার সভাপতি আব্দুল করিম ওই রাতে গিয়ে ওই তিন কিশোরীকে ঘুমের ওষুধ মেশানো জুস খাওয়ান। কিশোরীরা ঘুমিয়ে গেলে গভীর রাতে মাদরাসার ভেতরে প্রবেশ করে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি পরদিন জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদ জানান এবং আব্দুল করিমের বাড়ি ঘেরাও করেন।

ওই মাদরাসার শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রতি বৃহস্পতিবার অনেক ছাত্রী বাড়ি চলে গেলেও ৪/৫ জন ছাত্রী মাদরাসায় রাত্রিযাপন করেন। আর এই সুযোগে ছাত্রীদের জন্য ফল, জুসসহ অন্যান্য খাবার নিয়ে আসতেন সভাপতি। কৌশলে তাদের খাওয়াতেন তিনি। খাবারে চেতনানাশক ঔষুধ মেশানো থাকায় থাকায় শিক্ষার্থীরা গভীর ঘুমে পড়েন। এ সুযোগে একরুম থেকে অন্যরুমে মই দিয়ে চলে যেতেন ছাত্রীদের রুমে। এরপর অচেতন ছাত্রীদের সঙ্গে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত হন তিনি।

পরিচয় গোপন রাখার শর্তে এক ছাত্রী বলেন, সেদিন রাতে আমার গলায় ব্যথা থাকায় জুস খায়নি। আমি স্বাভাবিক ভাবে ঘুমিয়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু গভীর রাতে ওয়াশরুমে যাওয়ার জন্য লাইট জ্বালাতেই দেখি সভাপতি আব্দুল করিম বিবস্ত্র অবস্থায় রুমে ভিতরে অবস্থান করছেন। এরপরে তিনি আমাকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে বলে এ কথা কাউকে যেন না বলি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মইন উদ্দীন কাবুল বলেন, বিষয়টি জানাজানি হলে আমরা এক শিক্ষককে ঘটনাটি তদন্তে ছাত্রী ও অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলতে বলি। তাদের সঙ্গে কথা বললে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। তারা সভাপতির বিচার চেয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে মাদরাসার সভাপতি আব্দুল করিমের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এবিষয়ে ধর্মগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জানান, খবর পেয়ে আমি মাদরাসা পরিদর্শন করি। সেখানে গিয়ে জানতে পারি মাদ্রাসার সভাপতি আব্দুর করিম ফলের রসের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে একজন ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছেন। তিনি এর আগেও এ রকম ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে জানা গেছে। ওই ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ লোকজন মাদ্রাসায় তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন।

মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মানান বলেন, তাৎক্ষণিক গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাই। এ ঘটনার পর থেকে সভাপতি উধাও হয়ে গেছেন।

রাণীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রকিবুল হাসান বলেন, মাদরাসার সভাপতি আব্দুল করিমের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ওসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

রাণীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়ন্ত কুমার সাহা বলেন, এ ঘটনায় এক ছাত্রীর অভিভাবক থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



হজ চলাকালীন মারা গেছেন কমপক্ষে ১৩০১ জন: সৌদি আরব

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

চলতি বছর হজে গিয়ে তাপপ্রবাহ ও অসহনীয় গরমে এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে এক হাজার ৩০১ জন হজযাত্রীর। মারা যাওয়া এসব মানুষের বেশিরভাগই ছিলেন অননুমোদিত হজযাত্রী। সোমবার (২৪ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরে হজের সময় কমপক্ষে ১৩০১ জন মারা গেছেন বলে সৌদি আরব জানিয়েছে। মৃতদের বেশিরভাগই ছিলেন অননুমোদিত হজযাত্রী যারা তীব্র গরমে দীর্ঘ পথ পায়ে হেঁটেছিলেন।

মূলত তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যেই এবারের হজ অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং এসময় মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে তাপমাত্রা কখনো কখনো ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে গিয়েছিল।

সৌদির সরকারি বার্তাসংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, যারা মারা গেছে তাদের তিন-চতুর্থাংশেরও সেখানে থাকার আনুষ্ঠানিক অনুমতি ছিল না এবং তারা পর্যাপ্ত আশ্রয় ও উপকরণ ছাড়াই সরাসরি সূর্যের তাপের মধ্যে হেঁটেছেন।

এছাড়া যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে কয়েকজন বয়স্ক বা দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থ ব্যক্তি ছিলেন বলেও বার্তাসংস্থাটি জানিয়েছে।

সৌদি আরবের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহাদ আল-জালাজেল বলেছেন, তীব্র তাপপ্রবাহের বিপদ এবং তাপ সম্পর্কিত চাপ হজযাত্রীরা কীভাবে প্রশমিত করতে পারেন সে সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর প্রচেষ্টা চালানো হয়েছিল।

তিনি বলেন, হজের সময় হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য অবকাঠামোগুলোতে প্রায় ৫ লাখ হজযাত্রীর চিকিৎসা করা হয়েছে, যার মধ্যে ১ লাখ ৪০ হাজারেরও বেশি হজযাত্রী রয়েছেন যাদের হজ করার পারমিট ছিল না। এমনকি অসুস্থ হয়ে পড়াদের কেউ কেউ এখনো তাপ ক্লান্তির জন্য হাসপাতালে রয়েছেন।

ফাহাদ আল-জালাজেল বলেন, আল্লাহ ক্ষমা করুন এবং মৃতদের প্রতি রহম করুন। তাদের পরিবারের প্রতি আমাদের আন্তরিক সমবেদনা জানাই।

বিবিসি বলছে, সৌদি আরব হজকে নিরাপদ করতে আরও পদক্ষেপ না নেওয়ার জন্য সমালোচিত হয়েছে, বিশেষ করে অনিবন্ধিত হজযাত্রীদের জন্য যাদের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত তাঁবু এবং অফিসিয়াল হজ পরিবহনের মতো সুবিধা ব্যবহারের সুযোগ নেই।

সৌদি আরবের জাতীয় আবহাওয়া কেন্দ্রের তথ্য অনুসারে, হজের সময় মক্কায় তাপমাত্রা ৫১.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বেড়েছিল। এর মধ্যেই বিশ্বজুড়ে বহু দেশ তাদের নাগরিকদের মৃতের সংখ্যা সম্পর্কে আপডেট দিয়েছে, তবে সৌদি আরব রোববারের আগপর্যন্ত মৃত্যুর বিষয়ে প্রকাশ্যে মন্তব্য করেনি বা মৃত্যুর সংখ্যা সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো সংখ্যা প্রদান করেনি।

বার্তাসংস্থা এএফপি একজন আরব কূটনীতিকের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে, এবারের হজে ৬৫৮ জন মিসরীয় মারা গেছেন। ইন্দোনেশিয়া বলেছে, তাদেরও ২০০ জনেরও বেশি নাগরিক প্রাণ হারিয়েছেন এবং ভারতও তাদের ৯৮ জন হাজির মৃত্যুর কথা জানিয়েছে।

এছাড়া পাকিস্তান, মালয়েশিয়া, জর্ডান, ইরান, সেনেগাল, সুদান এবং ইরাকের স্বায়ত্তশাসিত কুর্দিস্তান অঞ্চলও তাদের হাজিদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।


আরও খবর
আজ নেলসন ম্যান্ডেলার জন্মদিন!

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




অভিযানের আগেই সরানো হয় সাদিক অ্যাগ্রোর গরু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ছাগলকাণ্ডের জন্য আলোচিত মোহাম্মদপুর এলাকার সাদিক অ্যাগ্রো ফার্ম’–এ উচ্ছেদ অভিযান চালাবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) কর্তৃপক্ষ। সংস্থাটি বলছে, সাদিক অ্যাগ্রো লিমিটেড অবৈধভাবে খাল ও সড়কের জায়গা দখল করে আছে।

এদিকে অভিযানের খবরে সাদিক অ্যাগ্রো থেকে আগেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছে গরু। গত রাত থেকেই গরু সরিয়ে নেওয়া শুরু করেন খামারের মালিক। 

আজ সকাল ১০টার দিক থেকে সাদিক অ্যাগ্রোর সামনে গিয়ে দেখা গেছে, রাস্তায় এবং খালের জায়গায় থাকা বেশ কিছু স্থাপনা ইতিমধ্যেই সরিয়ে নিয়েছে তারা। এসব জায়গায় রাখা বেশ কিছু গরু-ছাগল সেখানে নেই। গত রাতেই এসব পশুকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয় বাসিন্দা রকিবুল ইসলাম জানান, অভিযান হবে এই খবর শোনার পর থেকেই সাদিক অ্যাগ্রোর বেশ কিছু গরু-ছাগল গত রাতে সরিয়ে নিতে দেখেছি।

এ ছাড়া রাস্তার ওপরে তাদের প্যান্ডেল করা ছিল, অস্থায়ী স্থাপনা ছিল, সেগুলো তারা সরিয়ে নিয়েছে।

স্থানীয় আরেক বাসিন্দা মাসুদ রানা জানান, এখানে যে একটা খাল ছিল; অবৈধ দখলের কারণে এটি আর দেখা যায় না। এটি অনেকটা ভরাট হয়ে গেছে। অভিযান চলবে এমন খবরে সাদিক অ্যাগ্রোসহ আশপাশের অস্থায়ী অন্যান্য স্থাপনাও নিজেরা কিছুটা সরিয়ে নেওয়ার কাজ করছে।

গত কোরবানির ঈদের আগ থেকে সাদিক অ্যাগ্রো কর্তৃপক্ষ রাস্তাসহ আশপাশে গরু বিক্রির প্যান্ডেলসহ অস্থায়ী স্থাপনা গড়ে তুলেছিল। সেগুলো তারা সরিয়ে নিচ্ছে।

গরু, স্থাপনা সরিয়ে নেওয়া বা দখলকৃত জায়গায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উচ্ছেদ অভিযানের বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি সাদিক অ্যাগ্রোর কেউ।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, সাদিক অ্যাগ্রো খালের জায়গা দখল করে খামার গড়ে তুলেছে। এর আগে তাদের কয়েকবার নোটিশ দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



যৌতুকের আগুন: অর্থের অভাবে চিকিৎসা থেমে গেছে গৃহবধূর

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ানুল হক মিলন, ঠাকুরগাঁও

Image

যৌতুকের জন্য স্বামীর দেওয়া ডিজেলের আগুনে পুড়ে তিনদিন ধরে ঠাকুরগাঁও জেনারেল হাসপাতালে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন গৃহবধূ লতা বেগম (২৫)। তাঁর শরীরের প্রায় অর্ধেক অংশেই পুড়ে গেছে। চিকিৎসকরা বলেছেন, তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। মেয়ের চিকিৎসার খরচ জোগাতে হিমশিম খাচ্ছেন দরিদ্র মা-বাবা।

তিন সন্তানের জননী দরিদ্র পরিবারে জন্ম নেয়া ওই নারীর উন্নত চিকিৎসা আটকে আছে আর্থিক সংকটে। এ অবস্থায় হাসপাতালের শয্যায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন লতা।

গত সোমবার (১ জুলাই) সকালে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার সাকোয়া এলাকার বারোঘড়িয়া গ্রামে এঘটনা ঘটে। স্বামী মহব্বর আলী ওই গ্রামের শামসুল হকের ছেলে। তবে শ্বশুর-শাশুড়ির সামনেই লতা বেগমের শরীরে ডিজেল ঢেলে দেয় মহব্বত আলী। এগিয়ে আসেনি কেউ। এতে দগ্ধ হয়ে শরীরের বেশকিছু অঙ্গ পুড়ে যায়। এ ঘটনার পর মহব্বতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, আট বছর আগে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার সাকোয়া এলাকার বারোঘড়িয়া গ্রামের শামসুল হকের ছেলে মহব্বর আলীর সাথে বিয়ে হয় লতা বেগমের। এই দম্পতির এক পুত্র ও দুই কণ্যা সন্তান রয়েছে। লতা বেগমকে না জানিয়ে চার মাস আগে মহব্বত আলী দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এরপর যৌতুক ও তালাকের জন্য নিয়মিতই লতার উপর চলতো নির্মম নির্যাতন। গেল সোমবার সকালে মহব্বর যৌতুকের মারধর শুরু করেন। একপর্যায়ে ঘরে থাকা ডিজেল স্ত্রী লতার শরীরে ঢেলে প্রকাশ্যে আগুন ধরিয়ে দেয় পাষন্ড স্বামী মহব্বর আলী। এসময় বাড়িয়ে থাকা পাশে থাকা মহব্বরের মা-বাবা এগিয়ে আসেনি। পরে স্থানীয়রা ঠাকুরগাঁও জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

স্বজনদের অভিযোগ তিন সন্তান ও স্ত্রীকে রেখে মহব্বত দ্বিতীয় বিয়ে করায় প্রায়ই নির্যাতন চালাতো। তার এমন কর্মকাণ্ডের কঠিন শাস্তির দাবি করেন স্বজন ও স্থানীয়রা।

হাসপাতালে গৃহবধূ লতার চোখ দিয়ে কেবলই পানি ঝরছিল। তীব্র যন্ত্রণায় কাতরাতে কাতরাতে লতা জানায়, অনুমতি না নিয়ে ১২ বছর আগে বিয়ে হওয়া এক নারীকে বিয়ে করে আমার স্বামী। তারপর আমাকে যৌতুক ও তালাক দিতে নানা ভাবে নির্যাতন করে। শেষ পর্যায়ে এসে ডিজেল ঢেলে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। তবে বেঁচে লাভ কি সন্তানদের কে দেখবে। আমার বাবা মায়ের কিছু নেই। অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছিনা। যদি কারো দয়া হয় সহযোগিতা করবেন। আমি আমার স্বামী ও ওই নারীর বিচার চাই।

ঠাকুরগাঁও জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মোঃ রকিবুল আলম জানান, শরীর পুড়ে যাওয়া নারীকে হাসপাতাল থেকে সকল সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। তবে তার উন্নত চিকিৎসা দরকার। অর্থের অভাবে করাতে পারছেনা।

এ বিষয়ে বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মোজাম্মেল হক মুঠোফোনে জানান, যৌতুক ও দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে কথাকাটি হতো তাদের মধ্যে। মহব্বত এসব বিষয়ে প্রায় নির্যাতনও করতো বলে অভিযোগ রয়েছে। শরীরে তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়ার ঘটনায় মহব্বত আলীসহ কয়েকজনের নামে একটি মামলা করেছে ভুক্তভোগী পরিবার। পরে স্বামী মহব্বত আলীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর