আজঃ বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত জাহাঙ্গীর আলম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত গাজীপুরের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে প্রেস ব্রিফিংয়ে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে বেশকিছু অভিযোগ মন্ত্রণালয়ে দাখিল হয়েছিল। সেগুলোকে পর্যালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে তদন্তের জন্য গ্রহণ করা হয়েছে। যেহেতু আইন অনুযায়ী কোনো নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি বিশেষ করে মেয়রের বিরুদ্ধে যদি কোনো অভিযোগ আসে এবং তা যদি তদন্তের মাধ্যমে নিষ্পত্তির জন্য আমলে নেওয়া হয় তাহলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সে কারণে মেয়র জাহাঙ্গীরকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯ এর ১২ (১) ধারা অনুযায়ী, জাহাঙ্গীর আলমকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী।

মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো কি জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ আছে। বেশ কয়েকটি অভিযোগ আছে। সেসব যেহেতু তদন্ত হবে তখন আপনারা জানতে পারবেন। অভিযোগ যেমন কোথাও অবৈধভাবে জায়গা দখল করা, জনগণের স্বার্থপরিপন্থি কাজ করা। কেউ কেউ অভিযোগ করেছেন, সেখানে অনেক অবকাঠামো ক্ষতিপূরণ না দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে, জোর-জবরদস্তি করা, এ ধরনের কিছু অভিযোগ এসেছে।

স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তির কোনো অভিযোগ এসেছে কি না জানতে চাইলে তাজুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বাংলাদেশের কোনো নাগরিক সে যেই হোক না কেন, কথা বলা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ও ধৃষ্টতাপূর্ণ আচরণ। এটাকে একজন নাগরিক হিসেবে আমি ঘৃণা করি। স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে যিনি বাংলাদেশকে স্বীকার করেন, তাহলে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা না করার কোনো কারণ নেই। যারা বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা করবেন না, সে তো বাংলাদেশকেই স্বীকার করে না। সেই কারণে আমরা সবাই জানি, আপনারাও জানেন, সেই অভিযোগটা দলের কাছে দিয়েছে এবং দলের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।’

‘আইন অনুযায়ী আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হয়। মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ প্রতিষ্ঠান সিটি করপোরেশনসহ অন্যান্য স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান আছে। সেই প্রতিষ্ঠানে দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তি দায়িত্বপালনে যদি গর্হিত কাজ করে সেসব ক্ষেত্রে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতা আমাদের দেওয়া আছে। সেই ক্ষমতাই আমরা প্রয়োগ করছি। আইনে আমাদের যেসব অপশন দেওয়া আছে সে অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি।’

গাজীপুরে তিন সদস্যের মেয়র প্যানেল গঠন করা হয়েছে জানিয়ে তাজুল ইসলাম বলেন, যিনি জ্যেষ্ঠতার বিচারে এক নম্বরে আছেন, তিনি মেয়র হিসেবে দায়িত্বপালন করবেন। তাকেই দায়িত্ব হস্তান্তর করা হবে।’

তদন্ত শেষ হবে কবে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আমরা আমলে নিয়েছি। এখন তদন্ত শুরু হবে অনতিবিলম্বে। তদন্ত করতে মাঠপর্যায়ে কতদিন লাগবে সেটা এখনই বলা যাবে না। হয়তো বেশি সময় লাগতে পারে। আরও নতুন বিষয়ও যোগ হতে পারে।’

জাহাঙ্গীর আলম আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাবেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার বিরুদ্ধে যে চার্জগুলো গঠন করা হবে, আমরা তদন্ত করে যেগুলো পাবো, সেসব বিষয়ে তাকে শোকজ করা হবে। প্রত্যেক নাগরিকের আত্মপক্ষ সমর্থনের সাংবিধানিকভাবে অধিকার আছে। সেই অধিকার তিনিও ভোগ করতে পারবেন।’

মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুস্তাকিম বিল্লাহ ফারুকীর নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে অপসারণ করা হবে।’

‘আজ আমরা বহিষ্কারাদেশ জারি করছি। পত্রপ্রাপ্তির তিনদিনের মধ্যে নতুন ভারপ্রাপ্ত মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এর মধ্যেই ক্ষমতা হস্তান্তরের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে’ বলেন তাজুল ইসলাম।

সাময়িক বরখাস্ত করে প্রজ্ঞাপন জারি

পরে জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করে প্রজ্ঞাপন জারি করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। এতে বলা হয়, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে ভুয়া টেন্ডার, আরএফকিউ, বিভিন্ন পদে অযৌক্তিক লোকবল নিয়োগ, বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে ভুয়া বিল ভাউচারের মাধ্যমে ও একই কাজ বিভিন্ন প্রকল্পে দেখিয়ে অর্থ আত্মসাৎ এবং প্রতি বছর হাট বাজার ইজারার অর্থ যথাযথভাবে নির্ধারিত খাতে জমা না রাখাসহ নানাবিধ অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে। এছাড়া ভূমি দখল ও ক্ষতিপূরণ ছাড়া রাস্তা প্রশস্তকরণ সংক্রান্ত প্রাপ্ত অভিযোগটির বিষয়ে সিটি করপোরেশনের মতামত জানতে চাওয়া হলে অদ্যাবধি কোনো মতামত প্রদান করা হয়নি।’

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, এই অভিযোগসমূহ- ক্ষমতার অপব্যবহার, বিধিনিষেধ পরিপন্থী কার্যকলাপ, দুর্নীতি ও ইচ্ছাকৃত অপশাসনের শামিল যা করপোরেশন আইনের ধারা ১৩ (১) (ঘ) অনুযায়ী অপসারণযোগ্য অপরাধ। এসব অভিযোগের তদন্ত কার্যক্রম শুরুর মাধ্যমে ২০০৯ সালের সিটি করপোরেশন আইনের ধারা ১৩ ধারা মতে অপসারণের কার্যক্রম আরম্ভ করা হয়েছে। তাই সিটি করপোরেশন আইনের ধারা ১২ (১) অনুযায়ী, সুষ্ঠু তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনার স্বার্থে জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়রের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।’

সিটি করপোরেশন আইনের ধারা ১২ (২) অনুযায়ী এই আদেশ প্রাপ্তির তিনদিনের মধ্যে সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র ক্রমানুসারে মেয়র প্যানেলের জ্যেষ্ঠ সদস্যদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করবেন বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

তিন সদস্যের মেয়র প্যানেল

অপর আদেশে তিন সদস্যের মেয়র প্যানেল গঠন করে অফিস আদেশ জারি করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯’ এর ধারা ২০ (২) এর বিধান অনুযায়ী গাজীপুর সিটি করপোরেশনের তিন কাউন্সিলরের সমন্বয়ে এই প্যানেল গঠন করা হয়।

মেয়র প্যানেলে মনোনীত হয়েছেন- ৪৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসাদুর রহমান কিরন, ৫২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আব্দুল আলীম মোল্লা ও ১০ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোসা. আয়েশা আক্তার।


আরও খবর



বিএনপি নেতারা এখন ডাক্তার হয়ে গেছেন : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি নেতাদের বক্তব্য শুনে মনে হচ্ছে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব, রিজভী সাহেব, খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ অনেক নেতা এখন ডাক্তার হয়ে গেছেন। আ স ম রউফ সাহেব একজন বড় ডাক্তার, মান্না সাহেবও ডাক্তার। তারা এখন ডাক্তারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার জীবন সংকটাপন্ন। এভারকেয়ার হাসপাতাল থেকে তো কেউ কিছু বলেননি। মাঝে-মধ্যে বিএনপির চিকিৎসকরা যারা রাজনীতি করেন তারা কিছু কিছু কথা বলেন।

সোমবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সাথে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া আগেও অসুস্থ ছিলেন, আমাদের দেশে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন। খালেদা জিয়াকে বিদেশে না পাঠালে বাঁচানো যাবে না। বাস্তবতা হচ্ছে তখনও দেশের চিকিৎসা নিয়ে ভালো হয়ে বাড়িতে ফিরে গিয়েছিলেন। তখনকার মতো এবারও একই ধোঁয়া তুলছেন। আসলে খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিয়ে যাওয়ার দাবিটা তার স্বাস্থ্যগত কারণ নয় এটা একটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত দাবি বলে জানান তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে রাজনীতি করছেন তারা। তাকে নিয়ে রাজনীতি করা অনভিপ্রেত। আসলে উনারা হয়তো চান না খালেদা জিয়া সুস্থ হোক। কারণ সুস্থ হলে স্বাস্থ্য নিয়ে যে রাজনীতি এটি করা বন্ধ হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, বিএনপির এ পুরো দাবিটাই হচ্ছে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে বিদেশে পাঠানোর উদ্দেশ্য যে রাজনৈতিক দাবি সরকার সে দাবি মানতে পারে না। কারণ তিনি একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামি। অবশ্যই খালেদা জিয়া যেন সুচিকিৎসা পান সেটা নিশ্চিত করতে সরকার বদ্ধ পরিকর।

সংসদ সদস্যদের (এমপি) পদত্যাগের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, তাদের সব মিলিয়ে ছয়জন এমপি রয়েছেন। তারা খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে পদত্যাগ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের বক্তব্যে আমার মনে হচ্ছে, দেশের আর কোনো সমস্যা নিয়ে তারা চিন্তিত না। তাদের কথায় মনে হচ্ছে, দেশে আর কোনো সমস্যা নেয়, একমাত্র খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যটাই সমস্যা। এনিয়ে শুধু তারা ব্যস্ত রয়েছেন। এতে বোঝা যায় এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত।


আরও খবর



রাজধানীতে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি: বিপাকে নগরবাসী

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ | ২৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদর প্রভাবে সকাল থেকেই রাজধানীতে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ছে। ফলে রাজধানীবাসী পড়েছে দারুণ বিপাকে। বৃষ্টির কারণে অফিসগামী থেকে শুরু করে সাধারণ যাত্রীরা যাতায়াতে ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) রাজধানীতে বাসের তুলনায় রিকশায় বেশি মানুষ যাতায়াত করতে দেখা গেছে। বৃষ্টির ভোগান্তি এড়াতে রিকশাই ভরসা।

আর এই সুযোগটি কাজে লাগাচ্ছে রিকশাচালকরা। বৃষ্টি বলে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া আদায় করছেন প্রায় প্রতিটি রিকশাচালক। আর যাত্রীরাও নিরুপায়, ভাড়া বেশি যাচ্ছে গন্তব্যে।

সকাল থেকে রাজধানীর মিরপুর, টেকনিক্যাল, শ্যামলী, আগারগাঁও, ধানমন্ডি এলাকায় খুব অল্প সংখ্যক যানবাহন দেখা গেছে। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কিছুটা বেড়েছে। আর গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে রাস্তায় যানজট সৃষ্টি হওয়ায় সাধারণ মানুষের ভোগান্তিও হয়েছে বেশ।

মিরপুর থেকে নিউমার্কেট যাবেন আসলাম হোসেন। তিনি বলেন, বৃষ্টির কারণে রাস্তায় বের হতে পারছিলাম না। কিন্তু জরুরি যেতে হবে বিধায় বের হলাম। বাসের জন্য অপেক্ষা করতে গিয়ে বৃষ্টিতে ভিজে গেছি প্রায়। বাধ্য হয়ে রিকশায় বেশি ভাড়া দিয়ে যেতে হচ্ছে।

ইলিয়াস মোল্লা নামের এক যাত্রী বলেন, বৃষ্টি মাথায় নিয়েই অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে আছি বাসের জন্য। হেঁটে অনেকটা পথও এসেছি। একটা বাসও পেলাম না। বুঝতেছি না কী করবো।

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপ আকারে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও উত্তর দিকে অগ্রসর ও ক্রমান্বয়ে দুর্বল হতে পারে। তবে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদর প্রভাব থাকবে আগামী ৭ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) পর্যন্ত। এই দুই দিন দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হতে পারে।


আরও খবর



বাংলাদেশ বিমানের ৫০ বছর পূর্তির লোগো উন্মোচন আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মুজিববর্ষ উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় উড়োজাহাজ সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস আয়োজন করছে আলোচনা সভা এবং বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শিরোনামে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শনিবার (২০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বিমানের প্রধান কার্যালয় বলাকার সবুজ চত্বরে আয়োজনটি অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় আগামী ৪ জানুয়ারি, ২০২২ বিমানের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনকে সামনে রেখে ৫০ বছর পূর্তির লোগো উন্মোচন করা হবে।

বিমান সূত্র জানিয়েছে, ১৯৭২ সালের ৪ জানুয়ারি পথচলা শুরু করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। আগামী বছর ৪ জানুয়ারি ৫০ বছরে পদার্পণ করবে রাষ্ট্রীয় এই উড়োজাহাজ সংস্থাটি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ও সার্বিক সহযোগিতায় এয়ারলাইনসটির পথচলা শুরু হয়। এ পথচলার ৫০টি বছর অতিবাহিত হতে চলেছে। এই দীর্ঘ যাত্রাপথে অসংখ্য মানুষের সান্নিধ্যে ও ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছে বিমান। একটি ডিসি-৩ উড়োজাহাজ নিয়ে যাত্রা শুরু করা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বহরে এখন ২১টি উড়োজাহাজ রয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে এবং তা বাস্তবায়ন করছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিমানের নিজস্ব ১৬টি উড়োজাহাজে মুজিববর্ষের লোগো ছাপানো হয়েছে। উড়োজাহাজের অভ্যন্তরে ইন-ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্ট-এর প্রতিটি সিটের এলইডি মনিটরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কিত তিন মিনিটের ভিডিও, লোগো ও ছবি (মনিটর অন করার পর বাধ্যতামূলক) আইএফইতে প্রদর্শনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে যা মুজিববর্ষব্যাপী চলমান থাকবে। বিমানের প্রতিটি টিকিট ফোল্ডার, ক্যালেন্ডার, নোটবুক এবং ডায়েরিতে মুজিববর্ষের লোগো ছাপানো ও বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। যাত্রীদের মুজিববর্ষের লোগো সংবলিত কোটপিন উপহার দেওয়া হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রস্তুতকৃত পাঁচ হাজারটি বিশেষ বুকলেট সংগ্রহ করে তা যাত্রীদের মাঝে সরবরাহ করা হয়েছে।

আজকের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। বিশেষ অতিথি থাকবেন বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল।

নিউজ ট্যাগ: বাংলাদেশ বিমান

আরও খবর



দৈনিক আজকের দর্পণ চট্রগ্রাম ব্যুরো অফিস শুভ উদ্বোধন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ নভেম্বর ২০২১ | ১০২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
জেনারেল ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম বলেন, মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম.রেজাউল করিম এমপি মহোদয়ের প্রতিষ্ঠিত পত্রিকা হলো আজকের দর্পণ

জাহেদুল ইসলাম আরিফ, রাঙ্গুনিয়া

চট্টগ্রামে নতুন আঙ্গিকে ও বর্ধিত কলেবরে শুভ উদ্বোধন হলো সত্যের খোঁজে প্রতিদিন জাতীয় দৈনিক আজকেত দর্পণের চট্রগ্রাম ব্যুরো অফিস। বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় চট্রগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমি অডিটোরিয়াম হল রুমে এক আলোচনা সভা ও সংবর্ধনার মধ্যদিয়ে ব্যুরো অফিসের শুভ উদ্বেধন ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে জাতীয় দৈনিক আজকের দর্পণের বিজনেস ডেভেলপমেন্টের জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে -আজকের দর্পণের চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান নুরউদ্দীন খান সাগরের সঞ্চালনায় উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক এম মহিউদ্দিন চৌধুরী, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মুহাম্মদ মুসলিম,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম মহানগর ১৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক মোঃ আবুল হাসেম শাহ।

সংবর্ধিত অতিথিবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনছুর আলম পাপপি, মিরসরাই মায়ানী ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ ইয়াছিন উল্লাহ, চট্রগ্রাম আকবরশাহ এর উদ্যোক্তা ও  ব্যাবসায়ী নুর মোহাম্মদ সহ চট্রগ্রাম জেলার সিনিয়র সাংবাদিক ও উপজেলার আজকের দর্পনে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে উদ্বোধক তার বক্তব্যে বলেন,একটি পত্রিকা হচ্ছে সমাজের দর্পণ। একমাত্র গণমাধ্যমই পারে সরকারের সহযোগী হয়ে উন্নয়নের সহযাত্রী হতে।বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন এবং ইতিবাচক সমালোচনার মাধ্যমে গণমাধ্যম সরকারের ভুল ত্রুটি চিহ্নিত করে,সংশোধনের সুযোগ করে দিতে পারে। আশা করি দৈনিক আজকের দর্পণ সরকারের উন্নয়নের সহযাত্রী হয়ে কাজ করবে এবং পত্রিকাটি হবে গণমানুষের কণ্ঠস্বর।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিঃডিআইজি মুহাম্মদ মুসলিম বলেন,সাহসী ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদের মাধ্যমে এগিয়ে যাবে আজকের দর্পণ,আশাকরি "সত্যের খোঁজে প্রতিদিন" যেমন স্লোগান তেমনি ভাবে সত্যের পক্ষে থেকে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশিত হবে।

সভাপতি বক্তব্যে জেনারেল ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম বলেন, মৎস প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম.রেজাউল করিম এমপি মহোদয়ের প্রতিষ্ঠিত পত্রিকা হলো আজকের দর্পণ। আর আমাদের স্লোগানের মধ্যদিয়ে সারাদেশে সঠিক ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে আজকের দর্পণ সুনাম কুড়িয়েছে। সেহেতু আজকের দর্পণে কর্মরত জেলা ও উপজেলায় সকল সাংবাদিকদের প্রতি আহবান থাকবে যেনো সত্যের পক্ষে থেকে সকল সংবাদ প্রেরণ করা হয়। যাতে কোন অন্যায় অনিয়ম সমাজে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে।এবং সকল সাংবাদিকদের জন্য রইল শুভ কামনা। এ সময় প্রতিনিধিদের মধ্যে বক্তব্য দেন,নিজস্ব প্রতিবেদক নওজুম খানম প্রিয়তা,মিরসরাই প্রেস ক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক ও উপজেলা প্রতিনিধি ফিরুজ মাহমুদ,রাঙ্গুনিয়া উপজেলা প্রতিনিধি জাহেদুল ইসলাম আরিফ,সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম চাকলাদার,আবদুর রহমান সবুজ,শিমুল আশ্চার্য,তাজ মোহাম্মদ রোকন প্রমুখ।


আরও খবর
ডিআরইউ’র সভাপতি মিঠু, সম্পাদক হাসিব

মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১




শারীরিক অবস্থার অবনতি, আবারও আইসিইউতে রওশন এরশাদ

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে আবারও আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। শনিবার (২৭ নভেম্বর) থাইল্যান্ডে অবস্থানরত ছেলে সাদ এরশাদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, অক্সিজেন সেচুরেশন কমে যাওয়ার কারণে গত ২৫ নভেম্বর তাকে কেবিন থেকে দ্বিতীয় দফায় আইসিইউতে নেওয়া হয়। উনার কফ জমে গিয়েছিল। তবে আগের মতোই আছে অবস্থা। খুব বেশি যে সিরিয়াস তা নয়। কিন্তু আইসিইউ মানেই তো ভয়ের ব্যাপার।

গত ৫ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা ২৫ মিনিটে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে তাকে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নেয়া হয়।গত ১৪ আগস্ট থেকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন রওশন এরশাদ।

রওশন এরশাদ জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্ত্রী। তিনি ময়মনসিংহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এবং গত দুই মেয়াদে বিরোধীদলীয় নেতা। এরশাদের মৃত্যুর পর ছেলে রাহগির আল মাহি সাদ উপনির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ রাষ্ট্রপতি থাকাকালে রওশন এরশাদ সমাজ কল্যাণ ও নারী-শিশুর অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সচেষ্ট ছিলেন। তিনি 'বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা সংস্থা'-এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। ১৯৭৫ সালে তিনি 'সেনা পরিবার কল্যাণ সমিতি' প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট নিযুক্ত হন। তিনি ১৯৮৪ এবং ১৯৮৫ সালে হজ পালন করেন।


নিউজ ট্যাগ: রওশন এরশাদ

আরও খবর