আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

মিয়ানমার থেকে ভেসে এলো অজ্ঞাত মরদেহ

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোহাম্মদ ফারুক, কক্সবাজার

Image

কক্সবাজারের উখিয়ায় খালের ঝিরি দিয়ে মিয়ানমার থেকে অজ্ঞাত এক মরদেহ ভেসে এসেছে। রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার বালুখালী কাস্টমস এলাকায় মরদেহটি দেখতে পান স্থানীয়রা।

মরদেহের মাথায় জলপাই রংয়ের হেলমেট ও গায়ে পড়া পোশাক দেখে স্থানীয়রা ধারণা করছেন, মিয়ানমার বাহিনীর কোনো সদস্যের মরদেহ।

তারা বলছেন, মরদেহের মুখে কালি রয়েছে। মাথায় হেলমেট ও গায়ে খাকি পোশাক দেখে মনে হচ্ছে, এটা মিয়ানমার বাহিনীর কোনো সদস্যের মরদেহ। মরদেহটি খালের ঝিরির চলন্ত পানিতে মিয়ানমারের ঢেকিবুনিয়া থেকে ভেসে এসেছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামীম হোসেন বলেন, খালের ঝিরি দিয়ে মরদেহ ভেসে আসার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তারা ফিরে এলে এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



ইউক্রেনের পৃষ্ঠপোষকদের মধ্যে ভীতি এবং অস্বস্তি সৃষ্টি হচ্ছে : ইলন মাস্ক

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

মার্কিন ধনকুবের এবং সামাজিক মাধ্যম এক্স পেইজের মালিক ইলন মাস্ক বলেছেন, তিনি ব্যক্তিগতভাবে বিশ্বাস করেন যে, রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে ইউক্রেন হেরে গেছে। একই সাথে তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ শান্তি আলোচনার ব্যাপারে ইউক্রেন যে অবস্থান গ্রহণ করেছে তাতে দেশটি আরও দুর্বল হয়ে পড়ছে।

ইলন মাস্ক এক্স পেইজে দেয়া এক পোস্টে বলেন, আমেরিকায় ইউক্রেন যুদ্ধের পৃষ্ঠপোষকদের মধ্যে ভীতি এবং অস্বস্তি সৃষ্টি হচ্ছে। রিপাবলিকান দল এখন ইউক্রেনকে সামরিক সহায়তার দেয়ার বিরোধিতা করছে।

ইলন মাস্ক বলেন, এখন যুদ্ধবিরতি এবং রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে শান্তি আলোচনার সময় হয়েছে। ইউক্রেন এই যুদ্ধে হেরে গেছে এবং কোন কিছুতেই তা আর পরিবর্তন হবে না।

তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, এখন প্রশ্ন এসে দাঁড়িয়েছে, পরাজয় মেনে নেয়ার আগে ইউক্রেনের কত মানুষের মৃত্যু হয় সেটাই দেখার বিষয়।


আরও খবর



ছাত্রীদের যৌন হয়রানি : ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ রিমান্ডে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর শাখার গণিত শিক্ষক মুরাদ হোসেন সরকারকে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে শিক্ষক মুরাদকে আদালতে তোলে পুলিশ। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিচারকের কাছে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। পরিপ্রেক্ষিতে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন তিনি।

আরো পড়ুন :ছাত্রীদের যৌন হয়রানি : ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ সাময়িক বরখাস্ত

এর আগে সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় লালবাগ থানায় শিক্ষক মুরাদের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা করেন এক তরুণী। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ওই দিন রাতেই কলাবাগানের একটি বাসা থেকে শিক্ষক মুরাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই রাতে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে ভিকারুননিসার কর্তৃপক্ষ। এর আগে আজিমপুর ক্যাম্পাসের দিবা শাখা থেকে তাকে প্রত্যাহার করে অধ্যক্ষের কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়।

আরো পড়ুন :শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি : ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবি, অভিযুক্ত মুরাদ দীর্ঘদিন ধরে কোচিংয়ে পড়ানোর নামে ছাত্রীদের যৌন হয়রানি করে আসছিলেন।


আরও খবর
জজ কোর্ট চত্বরে ককটেল বিস্ফোরণ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রসংশা করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নয়াদিল্লিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এই প্রশংসা করেন।

সাক্ষাৎ শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছি। তিনি প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের ভূয়সী প্রসংশা করেছেন।

একই সঙ্গে টানা চতুর্থ এবং সবমিলিয়ে পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। নারী ক্ষমতায়নে বঙ্গবন্ধুকন্যা যে কাজ করছেন, সেটির সঙ্গেও সহমত পোষণ করেছেন দ্রৌপদী মুর্মু।

তিনি বলেন, ভারতের রাষ্ট্রপতি জানিয়েছেন বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতির সঙ্গে ভারত সবসময় ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথম দ্বিপাক্ষিক সফরে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ভারতের রাজধানীতে পৌঁছান ড. হাছান মাহমুদ। তিন দিনের এই সরকারি সফরের সমাপ্তি দিনে ভারতের ১৫তম রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আট ভারতীয় গুপ্তচরকে ছেড়ে দিলো কাতার

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

কাতারে ইসরায়েলের হয়ে গুপ্তচরগিরির দায়ে গত বছরের অক্টোবরে ভারতীয় নৌবাহিনীর সাবেক আট কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। গত বছরের শেষ দিকে তাদের সাজার মেয়াদ কমানো হয়। তবে ব্যাপক কূটনৈতিক তৎপরতায় অবশেষে ছাড়া পেয়েছেন তারা। খবর এনডিটিভির।

ভারতীয় নৌবাহিনীর সাবেক আট কর্মকর্তার মধ্যে সাতজন ইতিমধ্যে দেশে ফিরে এসেছেন। তারা দীর্ঘ ১৮ মাস কাতারের কারাগারে বন্দি ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, কাতারে বন্দি আট ভারতীয়র ফিরে আসার বিষয়টিকে স্বাগত জানাচ্ছে ভারত সরকার। তারা দাহরা গ্লোবাল কোম্পানির হয়ে কাজ করতেন। আটজনের মধ্যে সাতজন ইতিমধ্যে ফিরে এসেছেন। এই ভারতীয়দের মুক্তি দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত কাতারের আমির নিয়েছেন। আমরা সেটিকে স্বাগত জানাই।

অভিযোগ রয়েছে, দাহরা গ্লোবালের হয়ে কাজ করার সময় ভারতীয় নৌবাহিনীর এই কর্মকর্তারা ইসরায়েলের কাছে গোপন তথ্য পাচার করেছিলেন। এরপর তাদের মৃত্যুদণ্ড দেয় কাতার সরকার। ২০২২ সালের আগস্টে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তখন থেকেই কারাগারে বন্দি ছিলেন তারা।

মুক্তি পাওয়া নৌবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তারা হলেন ক্যাপ্টেন নভতেজ সিং গিল, ক্যাপ্টেন সৌরভ বশিষ্ট, কমান্ডার পূর্ণেন্দু তিওয়ারি, ক্যাপ্টেন বীরেন্দ্র কুমার ভার্মা, কমান্ডার সুগুনাকর পাকালা, কমান্ডার সঞ্জীব গুপ্ত, কমান্ডার অমিত নাগপাল এবং নাবিক রাগেশ।

২০২৩ সালের অক্টোবরে কাতারের আদালত তাদের মৃত্যুদণ্ড দেন। এরপর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের ছাড়িয়ে নিতে কূটনৈতিক তৎপরতা শুরু করে ভারত। এরই প্রেক্ষিতে গত বছরের ডিসেম্বরে মৃত্যুদণ্ডের সাজা স্থগিত করে তাদের অন্য সাজা দেওয়া হয়।


আরও খবর



ওয়ালটনের ‘ড্রিমার্স ক্যানভাস’ প্রজেক্ট উদ্বোধন

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Image

গ্রাহকের পছন্দমত রঙ ও ডিজাইনে ফ্রিজ তৈরি করে দেয়ার লক্ষ্যে ড্রিমার্স ক্যানভাস প্রজেক্ট চালু করলো দেশের সুপারব্র্যান্ড ওয়ালটন। বাংলাদেশে ওয়ালটনই প্রথম কাস্টমাইজড ফ্রিজের এই সুবিধা দিচ্ছে।

এখন থেকে স্বপ্নবাজ গ্রাহকেরা নিজের পছন্দমত রঙ ও ডিজাইন দিয়ে ঘরে বসেই ওয়ালটন ফ্রিজ অর্ডার করতে পারবেন। গ্রাহকের দেয়া কাঙ্খিত ডিজাইনের ফ্রিজ অল্প সময়ের মধ্যে তৈরি করে তাদের ঘরে পৌঁছে দিবে ওয়ালটন।

রাজধানীতে ওয়ালটন কর্পোরেট অফিসে ড্রিমার্স ক্যানভাস প্রজেক্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে ড্রিমার্স ক্যানভাস প্রজেক্টের লোগো এবং ওয়েব সাইট (canvas.waltonbd.com) উদ্বোধন করেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির পরিচালক এবং ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন প্লাজার ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ রায়হান, ওয়ালটন হাই-টেকের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর এস এম শোয়েব হোসেন নোবেল ও নজরুল ইসলাম সরকার, চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার জিয়াউল আলম, এফসিএ, ওয়ালটন ফ্রিজের চিফ বিজনেস অফিসার (সিবিও) তোফায়েল আহমেদ, ডেপুটি সিবিও আনিসুর রহমান মল্লিক, ওয়ালটন রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন (আরএন্ডআই) সেন্টারের প্রধান তাপস কুমার মজুমদার, ফ্রিজ আরএন্ডআই বিভাগের প্রধান আজমল ফেরদৌস প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন হাই-টেকের পরিচালক এস এম রেজাউল আলম বলেন, ড্রিমার্স ক্যানভাস প্রজেক্টের মাধ্যমে ওয়ালটন বরাবরের মতোই বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্যে নতুন কিছু নিয়ে এসেছে। এর মাধ্যমে ডিজিটাল প্লাটফর্মে গ্রাহকদের কাছে রেফ্রিজারেটরকে নতুন ভাবে পরিচয় করিয়ে দিবে ওয়ালটন।


আরও খবর