আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

মনটাকে জাগিয়ে রাখা কঠিন মনে হচ্ছে আজকাল: জয়া আহসান

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ১১৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। ভারতে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন তিনি। কলকাতায় তার সহকর্মীদের কথা ভেবে মন খারাপও হচ্ছে এ অভিনেত্রীর। শনিবার (০১ মে) নিজের ফেসুবকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে এ কথা জানিয়েছেন তিনি।

জয়া লিখেছেন, মনটাকে জাগিয়ে রাখা কী যে কঠিন মনে হচ্ছে আজকাল। এত ক্ষয়, এত মৃত্যু, এত হাহাকার! চারদিকে যেন শুধু একটাই চিহ্ন, বিয়োগের। আমাদের কত না আপনজন উষ্ণ হাতের মুঠো ছেড়ে বিদায় নিচ্ছেন। যারা আমাদের আনন্দের সময়ের বন্ধু, বেদনার সময়ের আশ্রয়, বিপদের সময়ের ভরসা, তারা চলে যাচ্ছেন একে একে। চলে গেলেন সৌমিত্র কাকুর মতো মেঘসমান উঁচু একজন মানুষ, চলে গেলেন আরও কত কত কবি, লেখক, শিল্পী। ঢাকায়, কলকাতায় একই অন্ধকার ছবি। সমস্ত ভারতেই করোনার ভয়ংকর থাবায় মানুষ বড় নিঃসহায়।

জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী আরও লেখেন, মন খারাপ করা নিউজ ফিডের সোশ্যাল মিডিয়া যেন মৃত্যুর প্রান্তর। খবরের কাগজ হাতে নেওয়ার আগেই বুক ধক করে ওঠে, আজ জানি আবার কে! কলকাতায় আমার বন্ধু সহকর্মীদের কথা ভাবি। কতদিন দেখা হয়নি। অসম্ভব কষ্টের একটা সময় পার করছে তারা। একটা করে মন্দ খবর শুনি, আর আমার মনটা নিভে আসে একটু একটু করে।

আলো ফিরে আসুক সবার জীবনে উল্লেখ করে জয়া আহসান লিখেছেন, যাদের সঙ্গে এতদিন ধরে কাজ করছি কলকাতায়, পরিচালকশিল্পীকুশলীসহযোগী, শুনি তাদের কষ্ট, অসুস্থতা আর বিদায়ের খবর। আমার আলো কমে যায়। আমার কেবলই মঙ্গল কামনা। আলো ফিরে আসুক সবার জীবনে। হতাশার এই অন্ধকারে মন যেন পথ না হারায়। তোমার মুক্তি আর আমার মুক্তি আলোয় আলোয়, এই আঁধারে।

নিউজ ট্যাগ: জয়া আহসান

আরও খবর



গঙ্গা তীরে ভেসে এল ৪০টি মৃতদেহ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতে গঙ্গা নদীতে ভেসে অন্তত ৪০টি মৃতদেহ পৌঁছেছে বিহার ও উত্তরপ্রদেশের সীমানায়। স্থানীয় কর্মকর্কাদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, এই মানুষগুলোর ‍মৃত্যু কীভাবে হয়েছে, তা স্পষ্ট নয়।তবে কোভিডে তাদের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে।

কোনো কোনো সংবাদমাধ্যমে শতাধিক মরদেহ পাওয়ার কথাও বলা হচ্ছে। দেখে বোঝা যায়, লাশগুলো বেশ কয়েক দিন ধরে নদীতে আছে।

স্থানীয় কর্মকর্তা অশোক কুমার বিবিসিকে বলেছেন, মৃতদেহগুলো উত্তরপ্রদেশ থেকে এসেছে বলে স্থানীয়দের ধারণা। এখন সেগুলোর সৎকারের ব্যবস্থা করবেন তারা।

এনডিটিভি লিখেছে, লাশগুলো দেখে ফোলা ও আংশিকভাবে পোড়া বলে মনে হয়েছে। উত্তর প্রদেশে গঙ্গার তীরে করোনাভাইরাসে মৃতদের দাহ করা হয়। সেখান থেকে লাশগুলো ভেসে এসে থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও সাংবাদিকরা বিবিসি হিন্দিকে বলেছেন, দাহ করার জন্য কাঠের ঘাটতি ও সার্বিক ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় অনেক পরিবারই কুলাতে পারছে না। করোনাভাইরাসে মৃত স্বজনের লাশ অনেকে সরাসরি নদীতে ফেলে দিচ্ছে।

উত্তরপ্রদেশের গড়মুক্তেশ্বরে গঙ্গার তীরে করোনাভাইরাসে মৃত রাম রাস্তোগির মরদেহ দাহ করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তার মেয়ে খুশি রাস্তোগি। ছবি: রয়টার্সউত্তরপ্রদেশের গড়মুক্তেশ্বরে গঙ্গার তীরে করোনাভাইরাসে মৃত রাম রাস্তোগির মরদেহ দাহ করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তার মেয়ে খুশি রাস্তোগি। রয়টার্সচন্দ্র মোহন নামে স্থানীয় একজন বলেন, বেসরকারি হাসপাতালগুলো মানুষকে লুট করছে। তারপর আর পুরোহিতকে দেওয়া বা শ্মশানে খরচ করার মত পয়সা থাকে না। শুধু অ্যাম্বুলেন্সে করে লাশ বের করে আনার জন্যই ২ হাজার রুপি চাওয়া হচ্ছে। নদীই এখন দরিদ্র মানুষের শেষ অবলম্বন। তাই তারা সেখানেই মরদেহ ভাসিয়ে দিচ্ছেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারতের বিভিন্ন রাজ্য। দেশটি এখন বিশ্বব্যাপী মহামারীর কেন্দ্রস্থল। আর উত্তর প্রদেশ দেশটির সর্বাধিক জনবহুল রাজ্য।

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ভারতে করোনাভাইরাসে মৃত্যু বেড়েছে রেকর্ড সংখ্যায়; দেশের বেশিরভাগ শ্মশান কুলিয়ে উঠতে পারছে না। সরকারি হিসাবে মহামারী শুরুর পর থেকে ভারতে ২ কোটি ২৬ লাখ কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে, মারা গেছেন ২ লাখ ৪৬ হাজার ১১৬ জন। তবে অনেক ঘটনাই সরকারের হিসাবে আসছে না বলে প্রকৃত সংখ্যা আরও অনেক বেশি বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।


আরও খবর



মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী’র বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে পিরোজপুরে বিক্ষোভ

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | ৫৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
পিরোজপুর-১ আসনে গত দুই বছরের উন্নয়ন দেখে একটি বিশেষ মহল ইর্ষান্বিত হয়ে পিরোজপুর-১ আসনের এমপি এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করছে। তারা মুসলিম নারীকে শাখা-সিঁদুর পড়িয়ে হিন্দু বানিয়ে

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল এমপির বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার এবং পিরোজপুরে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও বঙ্গবন্ধু যুব পরিষদের নেতা-কর্মীদের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে পিরোজপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বুধবার বিকেলে শহরের গোপাল কৃষ্ণ টাউন ক্লাবের স্বাধীনতা চত্বর থেকে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলুর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ব্যানারে একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিলাশ চত্বরে এসে শেষ হয়।

এখানে অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক শফিউল হক মিঠু, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর কাউন্সিলর জাহিদ হোসেন পিরু, জেলা যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আহসান, জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবুল হালদার, জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোপাল বসু, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর কাউন্সিলর আলমগীর হোসেন, যুবলীগ নেতা আব্দুল আলিম, সাবেক ভিপি সৈয়দ ইমরান হোসেন, সাবেক ভিপি শামীম সিকদার, বঙ্গবন্ধু যুব পরিষদের জেলার সাধারণ সম্পাদক রাসেল সিকদার প্রমুখ।

সভায় বক্তরা বলেন, পিরোজপুর-১ আসনে গত দুই বছরের উন্নয়ন দেখে একটি বিশেষ মহল ইর্ষান্বিত হয়ে পিরোজপুর-১ আসনের এমপি এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করছে। তারা মুসলিম নারীকে শাখা-সিঁদুর পড়িয়ে হিন্দু বানিয়ে এবং মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে একটি তথাকথিত ভিডিও তৈরী করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে হেয় প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা করেছে। এছাড়া ঐ মহলটি আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীদের উপর একর পর এক সন্ত্রাসী হামলা করে পিরোজপুরে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাচ্ছে।


আরও খবর



হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতা জুনায়েদ কাশেমী গ্রেফতার

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হেফাজতের কেন্দ্রীয় আরেক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তাঁর নাম জুনায়েদ কাশেমী।

আজ শনিবার দুপুরে সিআইডি সদর দপ্তরের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) জিসানুল হক গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা দাবি করেন, সম্প্রতি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব চালানোর অন্যতম হোতা হচ্ছেন জুনায়েদ কাশেমী। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরসহ চার থানায় হওয়া নাশকতার একাধিক মামলার আসামি তিনি।

হেফাজতের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটিতে জুনায়েদ কাশেমীর পদ কী ছিল, তা জানাতে পারেননি সিআইডির এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



ভারতকে রেমডেসিভির দিচ্ছে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩০ এপ্রিল ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা মহামারি মোকাবিলায় ভারতে জরুরি ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রীর অংশ হিসেবে রেমডিসিভিরও পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ। এদিকে বাংলাদেশের ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানোর ঘোষণায় ধন্যবাদ জানিয়েছে ভারত।

সূত্র জানায়, ভারতে করোনার পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হওয়ায় বাংলাদেশ সরকার সে দেশের মানুষের জন্য জরুরি ভিত্তিতে ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে। যার মধ্যে রেমডেসিভিরও রয়েছে। ভারতে এখন প্রচুর রেমডেসিভিরের সংকট রয়েছে। সে কারণে এ ওষুধ পাঠানো হচ্ছে।

এদিকে জরুরি ওষুধ পাঠানোর ঘোষণায় ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়েছে। ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন টুইটারে জানিয়েছে, করোনার এ সংকটকালে ভারতের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করায় ও সহযোগিতার হাত বাড়ানোর জন্য বাংলাদেশকে ধন্যবাদ। বাংলাদেশ-ভারত একসঙ্গে এ মহামারি জয় করবে আশা প্রকাশ করা হয়েছে।

ভারতে করোনা অবনতি হওয়ায় বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) বাংলাদেশ সরকার জরুরি সহায়তার ঘোষণা দেয়।


আরও খবর



করোনায় মারা গেলেন অভিনেতা এস এম মহসীন

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ এপ্রিল ২০২১ | ১০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর বাবার ফুসফুস মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় আইসিইউতে নেওয়া হয়েছিল। করোনাভাইরাস শনাক্তের পর প্রথমে তাকে রাজধানীর হলি ফ্যামিলি

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত অভিনেতা এস এম মহসীন।

রাজধানীর বারডেম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার সকাল সাড়ে ৯টায় এ অভিনেতার মৃত্যু হয়েছে বলে তার ছোট ছেলে রাশেক মহসীন জানান।

রাশেদ মহসীন বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর বাবার ফুসফুস মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় আইসিইউতে নেওয়া হয়েছিল। করোনাভাইরাস শনাক্তের পর প্রথমে তাকে রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল; অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরে ইসপালস হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছিল। সপ্তাহখানেক আগে সেখান থেকে বারডেম হাসপাতালে নেওয়া হয়।

চার দশকের বেশি সময় ধরে মঞ্চ ও টেলিভিশনে অভিনয় করছেন এস এম মহসীন। অভিনয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের ২০২০ সালে একুশে পদক প্রদান করে সরকার। দীর্ঘদিন তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্য বিভাগ অনুষদের সদস্য হিসেবে কাজ করেছেন। জাতীয় থিয়েটারের প্রথম প্রকল্প পরিচালক হিসাবে যুক্ত ছিলেন। অনিমেষ আইচের পরিচালনায় গরম ভাত অথবা নিছক ভূতের গল্প নাটকের অভিনয় করে টিভি নাটকের দর্শককের কাছে আলাদা পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। এছাড়াও মহর আলী, সাকিন সারিসুরিসহ বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি।

রাশেক মহসীন জানান, আসরের পর পরীবাগ মসজিদে জানাজা শেষে আজিমপুর কবরস্থানে সমাহিত করা হবে এস এম মহসীনকে।


আরও খবর