আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

মঠবাড়িয়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১৪৭জন দেখেছেন
Share
মনিরুল ইসলাম, মঠবাড়িয়া

Image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার বেতমোর বাসিন্দা মোকফের আলীর ছেলে এমাদুল হক (৫০) এনজিওর টাকা আত্মসাতের মামলায় পিরোজপুর দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক হাকিম পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ১ লাখ ৫ হাজার ৮শত টাকা জরিমানা করেন। যার মামলা নং সিআর ১৪৮/১৮।

এমাদুল দীর্ঘদিন পলাতক থাকায় মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল রাতে এস আই আসাদের নেতৃত্বে একদল চৌকস পুলিশ সদস্যদের অভিযানে তাকে গ্রেফতার করেন।

এস.আই. আসাদ সাইফ জানান, ২০১৮ সালে আদালতে একটি এন.জি.ওর দায়ের করা টাকা আত্মসাতে মামলায় ৫ বছরের সাজা হলে এমাদুল হক পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। বিজ্ঞ আদালত ৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ডসহ তাকে ১ লাখ ৫ হাজার ৮শ টাকা জরিমানা করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বেতমোর নিজ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মাসুদুজ্জামান মিলু গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান গ্রেফতারকৃত এমাদুলকে শুক্রবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: মঠবাড়িয়া
Share

আরও খবর



এবার দুনিয়া মাতাবেন বেয়ার গ্রিলস

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সারা দুনিয়া চষে বেড়িয়েছেন তিনি। ভয়ঙ্কর সব গহীন জঙ্গল, জলাশয়, নদী-সমুদ্র পাড়ি দিয়েছেন অজানাকে জানার জন্য। নিজে জেনেছেন, জানিয়েছেন সবাইকে। অনেক অজানা স্থান, সম্প্রদায়, ধর্ম-সংস্কৃতি, প্রাণি, বৃক্ষ, পাথর, রহস্যকে তিনি পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন আমাদের সঙ্গে।

সেই অদ্ভূত রোমাঞ্চকর অভিযাত্রীর নাম এডওয়ার্ড মাইকেল বেয়ার গ্রিলস। সবাই তাকে বেয়ার গ্রিলস নামেই চেনে। ৪৩ বছর বয়সী ৬ ফুট উচ্চতার এই নির্ভীক মানুষটি তুমুল জনপ্রিয় সারাবিশ্বে। তার ভক্তকুলেরও অভাব নেই, যারা অপেক্ষায় থাকেন কখন, কোথায়, নতুন কোন ভ্রমণের গল্প আর অজানা রহস্য নিয়ে হাজির হবেন বেয়ার।

এবার সেই ভক্তদের জন্য রয়েছে দারুণ সুসংবাদ। অনলাইন স্ট্রিমিং জায়ান্ট সাইট নেটফ্লিক্সের সঙ্গে দুইটি বিশেষ অনুষ্ঠান নিয়ে কাজ করতে যাচ্ছেন বেয়ার।

সম্প্রতি পিপলস তাদের এক প্রতিবেদনে এ তথ্যই নিশ্চিত করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, নেটফ্লিক্সের বিশেষ দুটি অ্যাডভেঞ্চার জার্নিতে দেখা যাবে বেয়ার গ্রিলসকে। প্রথমটি প্রকাশ হতে যাচ্ছে ১৬ ফেব্রুয়ারি। প্রথম এই স্পেশাল সেগমেন্টের নাম দেওয়া হয়েছে অ্যানিমেল অন দ্য লুস। অনেকটা ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড -এর আদলে তৈরি হয়েছে এর দৃশ্যপট।

ভক্তদের সাড়া পাওয়ার উপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হবে সেগমেন্টগুলোর সময়সীমা। এগুলো ৪৫-৯০ মিনিট করা হবে। প্রথম পর্বের শুটিংয়ের কাজ প্রায় শেষ। এবার চলছে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ।

নিউজ ট্যাগ: বেয়ার গ্রিলস
Share

আরও খবর



আল-জাজিরার প্রতিবেদন সরানোর অপেক্ষায় ফেসবুক

প্রকাশিত:সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আল-জাজিরার বিতর্কিত প্রতিবেদন সরানোর জন্য আদালতের রায়ের অপেক্ষায় রয়েছে ফেসবুক, তবে রায় এখনো বের হয়নি বলে জানিয়েছেন বিটিআরসির আইনজীবী খন্দকার রেজা-ই রাকিব।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সুপ্রিমকোর্টে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ইউটিউবও রায়ের জন্য অপেক্ষা করছে। তবে টুইটার ও ইনস্টাগ্রামের বিষয়ে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই।

অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন সরাতে এর আগে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি এক রিটের শুনানি হয় হাইকোর্টে। সেখানে আদালত আল জাজিরায় সম্প্রচারিত অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন সব ইন্টারনেট মাধ্যম থেকে অপসারণ করতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দেন।

আল জাজিরার ওই প্রতিবেদনের প্রতিবাদে গত ৮ ফেব্রুয়ারি কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটির সম্প্রচার বন্ধ এবং অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার্স মেন' প্রতিবেদনটি ফেসবুক ও ইউটিউব থেকে সরানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: আল-জাজিরা
Share

আরও খবর



ছোট ভাইকে অপহরণ করে কিডনি বিক্রির হুমকি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১৪জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ছোট ভাইয়ের কিডনি বিক্রির চেষ্টায় ফেঁসে গেলেন বড় ভাই। ছোট ভাই রায়হান এহসান রিহানকে (৫) অপহরণ করেন বড় ভাই ফাহাদ বিন ইহসান তারেক। অপহরণের অভিযোগে বড় ছেলের বিরদ্ধে হাজীগঞ্জ থানায় মামলা করেন বাবা মো. আবু তাহের। পরে পুলিশ তারেককে গ্রেপ্তার করে।


সোমবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, তদন্তের মাধ্যমে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পুলিশ জানায়, রিহানকে অপহরণের পর বাসায় একটি চিঠি লিখে যান বড় ভাই।

চিঠিতে তারেক যা যা লিখেন

আমি শুধু এই দিনটির অপেক্ষায় ছিলাম। আমি যেদিন কিডনি বিক্রি করেছিলাম, ঠিক সেদিন থেকে আপনারা আমার অবহেলা করা শুরু করেছেন। অথচ আপনাদের অত্যাচারে আমি বাধ্য হয়েছি নিজের অঙ্গ বিক্রি করতে। আপনারা আমার জীবনের সব শেষ করে দিয়েছেন।

সেখানে তিনি আরও বলেন, আমার সন্তানের মুখ আজ পর্যন্ত দেখি নাই। আমার জীবন নষ্ট করে আপনারা শান্তিতে থাকবেন ভাবলেন কীভাবে? আমি এতোদিন অপেক্ষা করেছি। আপনাদের হাতে সুযোগ থাকা সত্ত্বেও আপনারা আমার কোনো ব্যবস্থা করে দেন নাই। আপনার সন্তান যেখানে বেকার সেখানে আপনারা হিন্দুর সন্তানকে ২০ লক্ষ টাকা দেন ব্যবসা করার জন্য। আপনাদের টাকা-পয়সা মানুষের জন্য। আপনাদের সবকিছু মুখ বুজে সহ্য করেছি। আমার মতো এবার আপনাদের ছোট ছেলে কিডনি দেবে। আপনারা আমার ব্যবস্থা করেন নাই তাই এটা ছাড়া আমার আর কিছুই করার ছিল না। আপনারা আপনাদের টাকা-পয়সা নিয়েই থাকেন। আর মানুষের ছেলেদেরই বড় বানান। আমার কিডনি বিক্রির সময় যেমন কিছু করতে পারেন নাই। এবারও পারবেন না।

চিঠির সূত্র ধরেই হাজীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তারেকের বাবা। পরে কৌশলে তারেককে পাঁচ লাখ টাকা দেওয়ার কথা বলে হাজীগঞ্জে নিয়ে আসেন। পরে হাজীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোশারফ তারেককে গ্রেপ্তার করেন।

তারেকের মা ফরিদা সুলতানা সাংবাদিকদের বলেন, আমার ছেলে আগে থেকেই মাদক সেবন করতো। নেশার কারণে সে অনেক টাকা নষ্ট করেছে। তাই আমরা তাকে টাকা দিতে সাহস করিনি।

তারেক বলেন, আমি আমার ছোট ভাইকে অপহরণ করেছি শুধু টাকার জন্য। কিডনি বিক্রির কথাটি চিঠিতে লিখে মা-বাবাকে ভয় দেখিয়েছিলাম। তারা আমাকে বাধ্য করেছেন এমন ঘটনা ঘটাতে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোশারফ বলেন, সোমবার অপহরণকারীকে আটক করা হয়েছে এবং অপহৃত রিহানও আমাদের জিম্মায় রয়েছে। মঙ্গলবার অপহরণকারীকে আদালতে পাঠানো হবে।

নিউজ ট্যাগ: অপহরণ চাঁদপুর
Share

আরও খবর
চাঁদপুরের বাস দুর্ঘটনার ভিডিও ভাইরাল

মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১




করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯১

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও তিনজন নারী। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল আট হাজার ৩২৯ জনে। এছাড়া এই সময়ে ৩৯১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচ লাখ ৪২ হাজার ২৬৮ জনে।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাবিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ২১৪টি ল্যাবরেটরিতে ১৪ হাজার ৭৪২টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৪ হাজার ৬০৩টি পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৩৯ লাখ ৮ হাজার ২৫৭টি। ২৪ ঘণ্টায় সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও ৩৯১ জন।

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৩৮ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৮৯ হাজার ৯৩২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ২ দশমিক শূন্য ৬৮ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৮৭ শতাংশ, শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৫৩ শতাংশ।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৫ জনের শূন্য থেকে দশোর্ধ্ব একজন, ত্রিশোর্ধ্ব একজন, চল্লিশোর্ধ্ব একজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব চারজন এবং ষাটোর্ধ্ব নয়জন রয়েছেন। এছাড়া ১৫ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে রয়েছেন ১১ জন, চট্টগ্রাম দুজন, রাজশাহীতে একজন এবং রংপুর বিভাগে একজন।

Share

আরও খবর



বিশ্ববিদ্যালয়ের আগে স্কুল খুলছে কেন?

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ৬৩জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তথা স্কুল-কলেজ-মাদরাসা খুলবে ৩০ মার্চ। আর বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়া হবে আরও দুই মাস পর ২৪ মে।

করোনা মহামারির কারণে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একসঙ্গে বন্ধ ঘোষণা করা হলেও স্কুল-কলেজ-মাদরাসা কেন আগে খুলছে সেই প্রশ্ন অভিভাবক-শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট অনেকের।

বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা নিজেদের সতর্ক রেখে ক্লাসে ফিরতে পারলেও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা বয়সের তুলনায় নিজেদের কতটা নিরাপদ রাখতে পারবেন-এ প্রশ্ন তুলেছেন সমালোচক মহল।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, স্কুল-কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে হলে থাকার বিষয়টি যুক্ত নয়। এছাড়া বয়স কম হওয়ায় তাদের টিকা নেওয়ার বিষয়টিও বাধ্যবাধকতায় পড়ে না। এজন্যই স্কুল-কলেজ আগে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি গত ২২ ফেব্রুয়ারি অনলাইনে সংবাদ সম্মেলনে জানান, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, সব বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান ঈদুল ফিতরের পর ২৪ মে থেকে শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো ১৭ মে থেকে খুলে দেওয়া হবে।

শিক্ষামন্ত্রী আরও জানান, হলগুলো খুলে দেওয়ার আগেই আবাসিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী সবাইকেই টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

এরপর গত ২৭ ফেব্রুয়ারি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে শিক্ষামন্ত্রী জানান, আগামী ৩০ মার্চ থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

অর্থাৎ স্কুল-কলেজ খোলার দুই মাস পর বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দিচ্ছে সরকার। তবে পঞ্চম, দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন প্রতিষ্ঠানে আনা হলেও অন্য শ্রেণিগুলোর জন্য প্রতিদিন খোলা থাকবে না স্কুল-কলেজ।

শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের দ্বাদশ, মাধ্যমিক পর্যায়ে দশম এবং প্রাথমিক পর্যায়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন (সপ্তাহে ছয় দিন) ক্লাস হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিকে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ, ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সপ্তাহে একদিন ক্লাস অনুষ্ঠিত হবে। নবম এবং একাদশ শ্রেণির সপ্তাহে দুদিন করে ক্লাস হবে। তারপর পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলে একটু একটু করে বাড়িয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় শতভাগ ক্লাস চালু হবে।

কিন্তু প্রায় এক বছর পর স্কুল-কলেজ খুলতে যাওয়ার মধ্যে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা কতটা হবে তা নিয়েই প্রশ্ন সমালোচকদের। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সরব অনেকেই।

স্কুল আগে খোলা নিয়ে অভিভাবকদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে দাবি করে অভিভাবক ঐক্য ফোরামের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউল কবির দুলু বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা তো টিকা নিয়ে ক্লাসে যাবে। কিন্তু স্কুল-কলেজের বাচ্চাদের টিকার অনুমোদন নেই।

তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে উপযোগী সব শিক্ষক-কর্মচারী এবং অভিভাবকদেরও দুই ডোজ টিকা নিশ্চিত করতে হবে। আর স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হলেও স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মানা হচ্ছে কিনা- তা মনিটর করতে হবে। অন্যথায় আবারও স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হবে এবং প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দিতে হবে।

এ নিয়ে সোমবার (১ মার্চ) মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বলেন, স্কুলগুলো হলের সঙ্গে সম্পর্কিত না। আর স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের টিকা নেওয়ার বাধ্যবাধকতা নেই। এজন্যই স্কুল-কলেজগুলো আগে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

স্কুল-কলেজের খোলার প্রস্তুতির জন্য আগে যেসব নির্দেশনা বা গাইডলাইন দেওয়া হয়েছে তা পালন করতে হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা অধিপ্তরের মহাপরিচালক গোলাম ফারুক।

বিশ্ববিদ্যালয়র আগে স্কুল-কলেজ কেন খুলে দেওয়া হচ্ছে- সেই প্রশ্নে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা এমএ খায়ের বলেন, এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়াটা জরুরি হয়ে পড়েছে। এক বছর তারা ক্লাসরুমে যেতে পারেনি। আর তাদের পরীক্ষার কথা বিবেচনা করে শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের জন্য খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, স্কুল-কলেজ খোলা হলেও শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন স্কুলে আসতে হবে না। এই পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের টিকা নেওয়ার অনুমোদন নেই। আর স্কুল-কলেজের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বাংলাদেশে গত ৮ বছরের মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কয়েক ধাপে বাড়ানোর পর সেই ছুটি ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছিল। শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের পর আরও একমাস বেড়ে স্কুল-কলেজ-মাদরাসা খুলছে ৩০ মার্চ মঙ্গলবার।

তবে শিক্ষা ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, ৩০ মার্চ খুললেও তার কয়েকদিন পর টানা ছুটি পড়বে। কিন্তু এবার রোজার মধ্যেও ক্লাস চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

এবছর পবিত্র রমজান, মে দিবস, বুদ্ধ পূর্ণিমা, শব-ই-কদর, জুমাতুল বিদা ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ১৪ এপ্রিল থেকে ১৯ মে ৩১ দিন ছুটি থাকবে। এছাড়া ঈদুল আযহা ও গ্রীষ্মকালীন অবকাশে ১৭ থেকে ২৯ জুলাই পর্যন্ত ১২ দিন বন্ধ পাবে স্কুলগুলো। দুর্গাপূজা, ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী, লক্ষ্মীপূজা ও প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে ১১ থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ৯ দিন বন্ধ থাকবে।

শীতকালীন অবকাশ, বিজয় দিবস, যিশুখ্রিস্টের জন্মদিন বা বড় দিন উপলক্ষে ১৫ থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৩ দিন ছুটি থাকবে। রমজান মাসে ক্লাস চালিয়ে যাওয়া নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণারও বিরোধিতা করেছেন অনেক শিক্ষক।

Share

আরও খবর
ঢাবিতে ভর্তির আবেদন শুরু

সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১