আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

মঠবাড়িয়ায় শিশু হত্যার অভিযোগে বাবা ও সৎ মাসহ গ্রেপ্তার ৩

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ১২৮জন দেখেছেন
মনিরুল ইসলাম, মঠবাড়িয়া

Image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় হানজালা নামের ৫ বছরের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগে প্রধান আসামী সৎ মা শাহানা বেগম (৩০) বাবা নুর নবী জুয়েল (৩৫) ও চাচা বেল্লাল (৩৬) কে গ্রেপ্তার করেছে মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ। শনিবার সকালে নিহত হানজালার নানী হাসি বেগম মঠবাড়িয়া থানায় এ হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। থানা পুলিশ আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে চট্টগামের ইপিজেড এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত জুয়েল পৌর শহরের ৩ নং ওয়ার্ডের স্লুইজ গেইট এলাকার ইউসুব মোল্লার ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই শিশিুটির মা-বাবার বিচ্ছেদ হবার পরে নানীর কাছে বড় হওয়া শিশু হানজালাকে গত ১৪ এপ্রিল বেড়াতে নিয়ে যায় সৎ মা শাহানা বেগম। পরে শিশুটিকে অমানুষিক নির্যাতন করেন তার সৎ মা। আহত শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে বরিশাল প্রেরণ করেন। শিশুটির বাবা ও সৎ মা বরিশাল না নিয়ে গোপনে হাসপাতাল সড়কের মা ও শিশু ক্লিনিকে ভর্তি করে। ক্লিনিকেও শিশুটির অবস্থার অবনতি ঘটলে পরে সেখান থেকে ১৫ এপ্রিল সকালে শিশু হানজালাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষণা করেন। এদিকে এম্বুলেন্সে করে শিশুটির লাশ গভীর রাতে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সামনে ফেলে রেখে পাষন্ড বাবা ও সৎ মা পালিয়ে যায়।

মঠবাড়িযা থানার ওসি মাসুদুজ্জামান বলেন, শিশুটির পাষন্ড বাবা, সৎ মা ও চাচাকে শনিবার সকালেই গ্রেপ্তার করা করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: হত্যা মঠবাড়িয়া

আরও খবর



গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত দেড় হাজার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21 | ৯৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগে ১ হাজার ৫১২ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া বিভাগের মধ্যে পটুয়াখালী জেলায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যালয়ের দৈনিক ডায়রিয়া রোগীর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিভাগের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ভোলা জেলায় ৩২৫ জন, পটুয়াখালীতে ৩২১ জন, বরগুনায় ২৫৬ জন, বরিশালে ২৪৭ জন, ঝালকাঠিতে ২৩৯ জন ও পিরোজপুরে ১২৪ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এ নিয়ে বরিশাল বিভাগে চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত সাড়ে ৩ মাসে ৩২ হাজার ১৮৩ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। যারমধ্যে সর্বোচ্চ ভোলায় আট হাজার ৯০ জন, পটুয়াখালীতে ৭ হাজার ৩৪১ জন, বরগুনায় ৪ হাজার ৮৪৯ জন, বরিশালে ৪ হাজার ৩৬৯ জন, পিরোজপুরে ৪ হাজার দুইজন এবং ঝালকাঠিতে ৩ হাজার ৫৩২ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত সাড়ে ৩ মাসের বেশি সময় ধরে বরিশাল বিভাগে যে পরিমাণ মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন তারমধ্যে অর্ধেকের বেশি আক্রান্ত হয়েছে গেলো এক মাসে। গেলো মাসে বরিশাল বিভাগে মোট ১৭ হাজার ৬৭২ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর মাসিক হিসেবে গত একমাসের মধ্যে সব থেকে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন গত সাতদিনে। গত ৭ দিনে বরিশাল বিভাগে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ২০ জন।

আর গত সাড়ে ৩ মাসের বেশি সময়ে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে আটজনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে গত ৭ দিনেই ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ জনের।

মারা যাওয়া আটজনের মধ্যে বরিশাল জেলায় চারজন এবং পটুয়াখালী ও বরগুনায় দুইজন করে চারজন রয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, অতিরিক্ত গরমে অনিরাপদ পানি ও খাবার খাওয়ার ফলেই ডায়রিয়ার সংক্রমণ বাড়ছে। তবে এ বছর হঠাৎ করে ডায়রিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় প্রতিটি কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেইসঙ্গে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা হচ্ছে।

এদিকে, গত দুইদিন বরিশালের বিভিন্ন উপজেলার হাসপাতালগুলোতে আইভি স্যালাইন সঙ্কট দেখা দিলে, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সুশীল সমাজের নেতারা ব্যক্তি উদ্যোগে তা সংগ্রহ করে রোগীর চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা হয়।

এদিকে সঙ্কট চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন হাসপাতালের সামনে ৯২ টাকা মূল্যের খাবার স্যালাইন ১২০ থেকে ২০০ বা তার অধিক মূল্যে বিক্রির খবর পাওয়া গেছে। যদিও চাহিদা অনুযায়ী সরকারিভাবে বাড়তি স্যালাইন সরবরাহ করায় এখন এ সঙ্কট নেই বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা।


আরও খবর



বাংলাদেশে অনুমোদন পেল সিনোফার্মের টিকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আজকে আমরা সিনোফার্মের টিকার অনুমোদন দিলাম। এই টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার ২৮ দিন পর দ্বিতীয় ডোজ দিতে হবে

রাশিয়ার স্পুৎনিক-ভির পর এবার চীনা কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরির জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিলো সরকার।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) মহাখালীতে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান জানান, চীন প্রথম দফায় ৫ লাখ ডোজ দিচ্ছে। এর বাইরে আগামী দুই সপ্তাহে চীনের ভ্যাকসিন আসার সম্ভাবনা আছে।

মাহবুবুর রহমান বলেন, আজকে আমরা সিনোফার্মের টিকার অনুমোদন দিলাম। এই টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার ২৮ দিন পর দ্বিতীয় ডোজ দিতে হবে।

এর আগে মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) রাশিয়ার স্পুটনিক-ভি ভ্যাকসিন দেশে প্রয়োগের জরুরি অনুমোদন দেয় ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর।


আরও খবর



আজ বিশ্ব ভয়েস দিবস

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | ১২২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ বিশ্ব ভয়েস (কণ্ঠ) দিবস। প্রতি বছর ১৬ এপ্রিল বিশ্বজুড়ে পালিত হয় দিবসটি। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য এক বিশ্ব, অনেক ভয়েস

কণ্ঠ ও কণ্ঠনালির সমস্যা এবং কণ্ঠকে সুস্থ রাখার উপায় সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরিই দিবসটির মূল উদ্দেশ্য।

ব্রাজিলিয়ান ভয়েস কেয়ার পেশাদারদের দ্বারা ১৯৯৯ সালে প্রথম শুরু হয়েছিল ভয়েস উদযাপন। পরে এটি ব্রাজিলিয়ান ভয়েস ডে হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি আর্জেন্টিনা ও পর্তুগালের মতো দেশেও উদযাপিত হয়েছিল।

পরবর্তীকালে, ২০০২ সালে আমেরিকান একাডেমি অফ ওটোলারিঙ্গোলজিস্ট-হেড এবং নেক সার্জারি এটি উদযাপন শুরু করলে, আনুষ্ঠানিকভাবে এটি বিশ্ব ভয়েস দিবস হিসাবে স্বীকৃত হয়।

প্রাপ্ত এক তথ্যে জানা গেছে, দেশের ৫ কোটিরও বেশি মানুষ কণ্ঠের নানা সমস্যায় ভুগছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন স্বরভঙ্গে। এ ছাড়া দেশের ক্যান্সার আক্রান্তদের প্রায় ৩০ ভাগই নাক, কান ও গলার ক্যান্সারে আক্রান্ত। তাদের এক-তৃতীয়াংশ শুধু গলার ক্যান্সারে ভুগছেন।

নাক, কান ও গলা বিশেষজ্ঞ ডা. সতীনাথ সরকারের মতে, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই গলা বসা বা কণ্ঠস্বর ভাঙার কারণ হলো শ্বাসনালিতে সংক্রমণ। এমনকি সাধারণ ঠান্ডা লাগা বা দীর্ঘক্ষণ জোরে কথা বললেও গলার স্বর ভাঙতে পারে। তবে দীর্ঘদিন এই সমস্যা হচ্ছে, কিছুতেই সারছে না, বিশেষ করে আপনি যদি ধূমপায়ী হয়ে থাকেন, তবে সতর্ক হোন। ফুসফুস বা শ্বাসতন্ত্রের ক্যানসারে ভোকাল কর্ড বা এর স্নায়ু আক্রান্ত হয়ে গলা বসে যেতে পারে। থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যায়ও অনেক সময় গলার স্বর বসে যায়। এ ছাড়া গলার কোনো অস্ত্রোপচারে ভোকাল কর্ড বা স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্ত হলেও গলা বসে যেতে পারে।

প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতার কারণে দিবসটি পালনে এবার কোনো সরব কর্মসূচী নেই।


আরও খবর



বাংলাদেশ ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আপনার যখন অন্যান্য দেশকে করোনার টিকা দেবেন, তখন বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেন দেওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ৬০ মিলিয়ন ডোজ অ্যাস্ট্রেজেনেকার টিকা সংরক্ষিত রয়েছে। তবে তারা সেটি ব্যবহার

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ১০ থেকে ২০ মিলিয়ন (দুই কোটি) টিকা চাওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬ মে) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ কথা জানান।

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে ড. আব্দুল মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে ৬০ মিলিয়ন ডোজ টিকা অতিরিক্ত রয়েছে। আমরা যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে ১০ থেকে ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছি।

তিনি বলেন, বৈঠকে বলেছি, আপনার যখন অন্যান্য দেশকে করোনার টিকা দেবেন, তখন বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেন দেওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ৬০ মিলিয়ন ডোজ অ্যাস্ট্রেজেনেকার টিকা সংরক্ষিত রয়েছে। তবে তারা সেটি ব্যবহার করছে না। আর আমাদের এখানে দ্বিতীয় ডোজ সম্পূর্ণ হচ্ছে না। সে কারণেই জরুরি ভিত্তিতে আমরা টিকা চেয়েছি।

এক প্রশ্নের উত্তরে ড. আব্দুল মোমেন বলেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জরুরিভাবে চার মিলিয়ন টিকা চেয়েছি। যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তিনি এটা জোরালোভাবে দেখছেন। টিকা উৎপাদনে রাশিয়া একটি প্রোপোজাল দিয়েছে। সে অনুযায়ী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

তিনি বলেন, চীনা রাষ্ট্রদূত আমাদের জানিয়েছেন, তাদের টিকা আগামী ১২ মে ঢাকা এসে পৌঁছাবে। তবে এ টিকা আনার খরচ আমরা বহন করছি। আমাদের বিমান দিয়ে এ টিকা নিয়ে আসা হচ্ছে।  আর রাশিয়া ও চীনে এখন দীর্ঘ ছুটি রয়েছে। সে কারণে টিকা পেতে দেরি হচ্ছে। তবে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি।


আরও খবর



যেসব কারণে দম্পতি বাবা-মা হওয়ার স্বাদ পান না

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্পার্ম কাউন্ট নিয়ে আজকাল অনেক পুরুষই সমস্যার মধ্যে আছেন। এজন্য চিকিৎসকের কাছে ছোটাছুটিও করেন তারা। স্পার্ম কাউন্ট কম হওয়ায় অনেক দম্পতি বাবা-মা হওয়ার স্বাদ পান না।

তবে নিজেরা একটু সচেতন থাকলে এ ধরনের সমস্যা এড়ানো সম্ভব। এজন্য অবশ্য অনেক আগে থেকেই সতর্ক হতে হবে। তা নাহলে সামনে থাকবে ভয়ানক বিপদ। দেখে নিন, প্রতিদিন কোন কাজগুলো সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা বা স্পার্ম কাউন্ট কমায়-

ড্রাগ

অ্যানাবলিক স্টেরয়েড পেশীর শক্তি ও বৃদ্ধিকে নিয়ন্ত্রণ করে। এতে অণ্ডকোষ সংকুচিত হয়ে যায় এবং স্পার্ম কাউন্ট কমে যায়। অর্থাৎ মাদক গ্রহণে সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা হ্রাস পায়।

অ্যালকোহল

অ্যালকোহল পান করার অভ্যাস থাকলে সাবধান। টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমায় অ্যালকোহল যা আপনার সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা হ্রাস করবে। বিশেষ করে যারা অতিরিক্ত মাত্রায় অ্যালকোহল পান করেন তাদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ধূমপান

টোবাকো মানবদেহের জন্য অনেক ক্ষতিকর। পাশাপাশি এটা স্পার্ম কাউন্টও কমিয়ে দেয়। এজন্য আপনার ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা ভেবে হলেও ধূমপান থেকে বিরত থাকুন।

অবসাদ

যদি আপনি ডিপ্রেশনের শিকার হন, অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। আপনার স্পার্ম কাউন্ট কম হওয়ার অন্যতম কারণ এটা।

ওজন

ওবেসিটি বা অতিরিক্ত ওজনের কারণে স্পার্ম কাউন্ট কমে যেতে পারে। এজন্য ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন।


আরও খবর