আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর নামে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ৬৫১জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের নামে মিথ্যা অপপ্রচরের বিরুদ্ধে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির নেছারাবাদ থানায় একটি সাধারণ ডায়রী (জিডি) করা হয়েছে। উপজেলা যুবলীগ নেতা শাহ মো. নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে শুক্রবার বিকেলে ওই জিডি করেছেন।

জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন রেডিওগুলিস্তান নামের একটি ফেজবুক পেইজে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এর বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক এবং তাহার চরিত্র নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে একটি ভিডিও আপলোড করা হয়েছে। উক্ত পোষ্টকে কেন্দ্র করে তাহার চরিত্র ও পারিবারিক বিষয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে বিভিন্ন খারাপ মন্তব্যের সম্মুখিন হচ্ছে। অসত্য কুরুচিপূর্ণ লেখনী পোষ্ট করে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার প্রয়াস করছে।

এ ব্যাপারে মন্ত্রীর ছোট ভাই এস এম নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, রাজনৈতির প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে পিরোজপুরের একটি রাজনৈতিক অপশক্তি আমাদের পরিবারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও বানোয়াট অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছে। হঠাৎ করে মাদক সিন্ডিকেট, ঘুষ, দুর্নীতি বন্ধ, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসীদের আধিপত্য খর্ব হওয়ায় উত্তেজিত হয়ে ওই সিন্ডিকেট আমাদের পরিবারের ইমেজ নষ্ট করার চক্রান্ত করছে। এ বিষয়ে নাজিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি এবং ঢাকার সিআইডি পুলিশ বিভাগের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

পিরোজপুর-২ আসনের সাবেক এমপি অধ্যক্ষ শাহ আলম বলেন, মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের জনপ্রিয়তা সহ্য না করতে পেরে একটি কুচক্রী মহল এসব কুরুচিপূর্ণ, ভিত্তিহীন, অবিশ্বাস্য ও আপত্তিকর তথ্য প্রচারের ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, এর সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

উল্লেখ্য রেডিওগুলিস্তান ডট কম নামের একটি ফেসবুক পেইজে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক ও তার চরিত্র নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে একটি পোষ্ট আপলোড দেয়া হয়। এরপর থেকেই ওই পোষ্টকে মিথ্যা এবং বানোয়াট উল্লেখ করে হাজার হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারীরা নিন্দা জানিয়ে আসছেন। তারা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীকে সৎ এবং নিষ্ঠাবান একজন উন্নয়নের রুপকার উল্লেখ করে ওই পোষ্টের মাধ্যমে যারা ষড়যন্ত্র করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।


আরও খবর



দুই মাসের বিদ্যুৎ-পানি ও গ্যাস বিল মওকুফের আবেদন

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | ৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলমান মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার কারণে দেশে চলছে লকডাউন। ফলে বন্ধ হয়ে গেছে দেশের প্রায় মানুষের আয় রোজগার। এমন পরিস্থিতিতে সরকারের নির্বাহী আদেশে দুই মাসের বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাস বিল মওকুফ চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও ন্যাশনাল লইয়ার্স কাউন্সিলের চেয়ারম্যান এসএম জুলফিকার আলী জুনু।

সোমবার (০৩ মে) জনস্বার্থে তিনি এ আবেদন করেন।

আবেদনে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আপনি দেশের মানুষের অভিভাবক ও নির্বাহী প্রধান। দেশে বর্তমানে করোনার সংক্রমণ ও মহামারিতে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে ও অসংখ্য মানুষ মারা যাচ্ছেন। জনগণকে করোনার সংক্রমণ ও মহামারি থেকে রক্ষায় আপনি ও আপনার সরকার জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় সারা দেশে গত ৫ এপ্রিল থেকে লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ১৮ দফা স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত দিক নির্দেশনাও দিয়েছে।

দেশে লকডাউন চলছে। মৃত্যুহার ও করোনায় আক্রান্তের হারও কিছুটা কমে এসেছে। দীর্ঘ লকডাউনে মধ্যবিত্ত ও নিন্নবিত্ত মানুষের আয় রোজগার প্রায় শূন্যের কোটায় চলে এসেছে। এর মধ্যে চলছে পবিত্র রমজান মাস, সামনে ঈদ। পরিবার পরিজন ও সন্তানদের নিয়ে জীবিকা নির্বাহে মানুষকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। আয় রোজগার না থাকায় নির্দিষ্ট সময়ে বাসা ভাড়া দিতে না পারায় সমাজের অনেক সম্মানিত পেশার শিক্ষিত লোকজনদের অপমানিত হতে হচ্ছে। লকডাউনে আয় রোজগার না থাকায় দেশের অনেক মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত লোকজন যথাসময়ে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানির বিলের টাকা নিয়মিত পরিশোধ করতে না পারায় সংযোগ বিচ্ছিন্নের আশঙ্কায় রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী আপনার একটি নির্বাহী আদেশে দেশের মানুষ কিছুটা শান্তিতে থাকতে পারে। তাই করোনার মহামারি ও দীর্ঘ লকডাউনের বিষয় বিবেচনা করে জনস্বার্থ ও জনদুর্ভোগ বিবেচনায় বেসরকারি পর্যায়ের দুই মাসের পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস বিল মওকুফ করে দেওয়ার নির্বাহী নির্দেশনা জারি করতে আপনার মহানুভবতা কামনা করছি।


আরও খবর



শর্ত সাপেক্ষে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত : কদের

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | ২১৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রোজার ঈদ সামনে রেখে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শর্ত সাপেক্ষে গণপরিবহন চালুর কথা জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার বিআরটিএ ও বিআরটিসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, ঈদুল ফিতর সামনে রেখে আগামী ৬ মে থেকে গণপরিবহন চালু করার সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে সরকার।

তবে শর্ত হল, সিটি সার্ভিস ও জেলার বাস সার্ভিস অন্য জেলায় প্রবেশ করতে পারবে না। বাস ছাড়ার আগে সম্পূর্ণ স্বাস্থবিধি মেনে পুরো বাসে জীবাণুনাশক ছিটাতে হবে। যাত্রী, বাসচালক ও সহকারীকে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক সিট খালি রেখে গণপরিবহন চালাতে হবে।

শিগগিরই এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে প্রজ্ঞাপণ জারি করা হবে বলে জানান সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, জেলার গাড়িগুলো জেলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে এবং কোনোভাবেই জেলার সীমানা অতিক্রম করতে পারবে না। সিটির ক্ষেত্রেও সিটি পরিবহন সিটির বাইরে যেতে পারবে না। ঢাকার কোনো গাড়ি ঢাকা জেলার সীমারেখার বাইরে যেতে পারবে না।

পরিবহনগুলোকে অবশ্যই অর্ধেক আসন খালি রেখে নতুন সমন্বয়কৃত ভাড়ায় চলতে হবে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা যাবে না, পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীদের মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যাবহার বাধ্যতামূলক করতে হবে এবং প্রতি ট্রিপে গাড়ি জীবাণুমুক্ত করাও বাধ্যতামূলক।

এদিকে মহামারীর এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর শুধু শহরের মধ্যে সীমিত আকারে যানবাহন চালুর অনুমতি দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে বলে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম জানিয়েছেন।

সোমবার মহাখালীতে এক অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি মনে করি ঈদের সময় গণপরিবহন চালু করা ঠিক হবে না। গতকাল আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হয়েছে সমস্ত মেয়রদের সাথে। সেখানে সবাই একমত হয়েছেন যে ইন্ট্রাসিটি চলতে পারে, কিন্তু ইন্টারসিটি না।


আরও খবর



শক্তিশালী কালবৈশাখী হতে পারে আজ

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ মে 2০২1 | ১২৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
কালবৈশাখী ঝড়ের তীব্রতা অনেক বেশি থাকবে। ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটারের বেশি গতি থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। দুপুর থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালবৈশাখী ঝড় আঘাত হানতে পারে

শক্তিশালী কালবৈশাখী ঝড় আজ রবিবার আঘাত হানতে পারে। এছাড়া দেশের কয়েকটি স্থানে রাতে ঝড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি হতে পারে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক জানান, আজ কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। তবে কালকের কালবৈশাখী ঝড়ের তীব্রতা অনেক বেশি থাকবে। ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটারের বেশি গতি থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। দুপুর থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালবৈশাখী ঝড় আঘাত হানতে পারে। কোনও কোনও এলাকায় সকালেও ঝড় বয়ে যেতে পারে।

এদিকে সন্ধ্যায় দেওয়া আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকায় কালবৈশাখী ঝড়ও বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এছাড়া রাঙ্গামাটি, কুমিল্লা, নোয়াখালী, নেত্রকোনা, রাজশাহী, পাবনা এবং পটুয়াখালী অঞ্চলসহ ঢাকা, সিলেট ও খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কোন কোন স্থানে প্রশমিত হতে পারে।


আরও খবর



খালেদার সিটি স্ক্যান রিপোর্ট ভালো : চিকিৎসক

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যান রিপোর্ট ভালো এসেছে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসক প্রফেসর ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাত সাড়ে দশটার দিকে এভারকেয়ার হাসপাতালের সামনে সাংবাদিকদের সাথে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ম্যাডামের হাই রেজ্যুলেশনের সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। প্রভিশনাল রিপোর্টও পেয়েছি। এটা অত্যন্ত মিনিমাম। এখন আমরা চিকিৎসকরা আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমানসহ অন্য যেসব চিকিৎসক আছেন সবাই মিলে আলোচনা করে যদি ওষুধ যোগ করা লাগে তা করা হবে।

তিনি বলেন, করোনা যেকোনো সময় যেকোনো পরিস্থিতি হতে পারে। সেজন্য এক সপ্তাহ সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে।

খালেদা জিয়া শঙ্কামুক্ত কি না জানতে চাইলে ডা. জাহিদ বলেন, মাত্র এক সপ্তাহ হলো, করোনার ক্ষেত্রে ১২/১৩ দিনের আগে কিছু বলা যায় না। তবে সিটি স্ক্যানের প্রভিশনাল রিপোর্ট খুবই ভালো। এটা মাইল্ড পর্যায়ে আছে। শুক্রবার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট পাওয়ায় পরে বিস্তারিত জানানো হবে। এসময় তার সাথে ডা. মামুন ছিলেন।

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে গিয়েছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু। বাইরে এসে তিনি বলেন, ম্যাডামের রিপোর্ট ভালো, সেজন্য বাসায় ফিরে গেছেন। আপনার সাথে কী কথা হলো জানতে চাইলে বুলু বলেন, আমাকে তিনি ধমকের সুরে বলেছেন এই পরিস্থিতিতে কেন এসেছো। আমি বললাম ম্যাডাম আপনাকে দেখতে এসেছি।  তখন তিনি বললেন,  কেমন আছো তোমরা।  আমি বলেছি ভালো।

এর আগে সিটি স্ক্যান করার পর রাত সাড়ে দশটার দিকে বাসায় ফিরে যান খালেদা জিয়া।


আরও খবর



‘লকডাউন’ বাড়ছে আরো ১ সপ্তাহ

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | ২০৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় চলমান লকডাউনের (বিধিনিষেধ) মেয়াদ আরও সাত দিন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামী ৫ মে পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ বহাল থাকবে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আয়োজনে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে একজন কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে গত ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে আট দিনের কঠোর লকডাউন শুরু হয়। লকডাউনের মধ্যে পালনের জন্য ১৩টি নির্দেশনা দেয়া হয় সরকারের পক্ষ থেকে। সেই মেয়াদ শেষ হয় গত বুধবার (২১ এপ্রিল) মধ্যরাতে। তবে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় লকডাউনের মেয়াদ আগামী ২৮ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।


আরও খবর