আজঃ শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

মুফতি হান্নানের নির্দেশে গ্রেনেড হামলায় অংশ নেয় সেলিম : র‌্যাব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার অভিযানে গ্রেপ্তার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি মো. ইকবাল হোসেন (ইকবাল) জাহাঙ্গীর সেলিম মুফতি হান্নানের নির্দেশে সে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় সরাসরি অংশগ্রহণ করে।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তারের পর তার স্বীকারোক্তিতে সে জানায়, মুফতি হান্নান হামলা পরিচালনার জন্য তাকে গ্রেনেড সরবরাহ করেছিল। হামলা চলাকালীন সময়ে সে মঞ্চকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছুঁড়েছিল। ঘটনার পর সে ঝিনাইদহে গমন করে এবং সেখানে আত্মগোপনে অবস্থান করতে থাকে।

গ্রেপ্তার পরবর্তীতে ইকবালকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, জঙ্গী ইকবাল এইচএসসি পাস। স্কুল ও কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল। জঙ্গি ইকবাল ১৯৯৪ সালে কেসি কলেজ, ঝিনাইদহে ছাত্র সংসদে ছাত্রদলের নির্বাচিত শ্রেণি প্রতিনিধি ছিল। সে ১৯৯৫ হতে ১৯৯৮ পর্যন্ত মালয়শিয়ায় প্রবাসী কর্মজীবী হিসাবে অবস্থান করে।

দেশে ফিরে এসে জঙ্গি ইকবাল আইএসডি ফোন ও অন্যান্য ব্যবসা-বাণিজ্য শুরু করে। এসময় সে, সর্বহারা ও স্থানীয় প্রভাবশালীদের সাথে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে। ২০০১ সালে তার চিন্তা-চেতনা ও মনস্তাত্বিক পরিবর্তন আসে। সে ঝিনাইদহের স্থানীয় এক জঙ্গী সদস্যদের মাধ্যমে হরকাতুল জিহাদ বাংলাদেশ (হুজিবি)তে যোগদান করে। ২০০৩ সালে মুফতি হান্নান ও অন্যান্য শীর্ষ নেতাদের সান্নিধ্যে চলে আসে এবং জঙ্গি প্রশিক্ষণ নিতে থাকে। সে ২০০৪ সালে আগস্ট মাসে মুফতি হান্নানের নির্দেশে ঢাকায় চলে আসে এবং গোপন আস্তানায় অবস্থান করতে থাকে। সেখানে হুজিবি নেতা মুফতি হান্নানসহ অন্যান্য সমমানদের সাথে গভীর সম্পর্ক তৈরি হয় এবং মুফতি হান্নানের সাথে বিভিন্ন স্থানে দলীয় গোপন বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে থাকে।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা সম্পর্কে সে জানায়, মুফতি হান্নানের নির্দেশে সে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় সরাসরি অংশগ্রহণ করে। মুফতি হান্নান হামলা পরিচালনার জন্য তাকে গ্রেনেড সরবরাহ করেছিল। হামলা চলাকালীন সময়ে সে মঞ্চকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছুঁড়েছিল। ঘটনার পর সে ঝিনাইদহে গমন করে এবং সেখানে আত্মগোপনে অবস্থান করতে থাকে।

ঘটনা পরবর্তীতে র‌্যাব জঙ্গি ইকবাল হোসেনকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশে একাধিক স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। ২০০৮ সালে জঙ্গি ইকবালকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশে ঝিনাইদহে তার নিজ বাড়িতে এবং পরবর্তীতে গাজীপুর ও সাভারসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। এ সময় আত্মগোপনে থাকাকালীন সে নিরাপত্তাকর্মী, শ্রমিক, রিকশা মেকানিক ইত্যাদি ছদ্মবেশ ধারণ করেছিল।

তিনি আরও জানান, সে ২০০৮ সালে দেশ ত্যাগ করে। প্রবাসে আত্মগোপন থাকাবস্থায় প্রথমে সেলিম এবং পরবর্তীতে জাহাঙ্গীর নাম ধারণ করে। এক পর্যায়ে, সে প্রবাসে অবৈধ অভিবাসী হিসেবে চিহ্নিত হলে তাকে ২০২০ সালের শেষের দিকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়। দেশে ফেরত এসে জঙ্গি ইকবাল আত্মগোপনে থেকে সমমানদের সাথে পুনরায় যোগাযোগ স্থাপন করে।

উল্লেখ্য, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা (NSI) এবং র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখা জঙ্গি ইকবাল সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে এবং জঙ্গি ইকবালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Share

আরও খবর



শ্রীপুরে কেমিক্যাল কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে একজনের লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১২০জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:

গাজীপুরের শ্রীপুরে এএসএম কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে অগ্নিকাণ্ডে একজনের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১১টায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম মো. আলমগীর হোসেন (৩৫)।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার টেপিরবাড়ী গ্রামের ওই কারখানার হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড প্ল্যান্টে আগুন লাগে। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ২১ শ্রমিক আহত হন।

আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট কাজ করে। রাত ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম বলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের গঠিত তদন্ত কমিটিকে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

Share

আরও খবর



নতুন নীতি না মানলে ব্যবস্থা নেবে হোয়াটসঅ্যাপ

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১২৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ব্যবহারকারীদের জন্য নিজেদের নীতিমালায় পরিবর্তন আনার ঘোষণা দিয়েছে তাৎক্ষণিক বার্তা আদান প্রদানের জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ। তবে নতুন নিয়ম ব্যবহারকারীরা মেনে না নিলে তাদের আইডির পরিণতি কী হতো সেটা এতদিন অনিশ্চিত ছিল।

অবশেষে প্রযুক্তি বিষয়ক অনলাইন পোর্টাল টেকক্রাঞ্চ এর জবাব দিয়েছে।

টেকক্রাঞ্চ বলছে, সম্প্রতি এ বিষয়ে হোয়াটস অ্যাপের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে, এক ই-মেইল বার্তায় ফেসবুক মালিকানাধীন হোয়াটসঅ্যাপ নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে।

হোয়াটসঅ্যাপ বলছে, যেসব ব্যবহারকারী আগামী ১৫ মে এর মধ্যে নতুন এ নিয়ম মেনে নেবেন না, তাদের আইডি শুরুতেই বন্ধ হয়ে যাবে না। তবে বেশ কিছু ফিচার তাদের জন্য সীমিত করে দেবে প্ল্যাটফর্মটি। পুরো বিষয়টি থাকছে এখানে:

১) শুরুর দিকেই হোয়াটসঅ্যাপ আইডি বা অ্যাকাউন্ট পুরোপুরি বন্ধ বা মুছে যাবে না।

২) ব্যবহারকারীরা ইনকামিং কল রিসিভ করতে পারবেন। এছাড়াও নোটিফিকেশন দেখতে পারবেন। তবে নিজেরা কোনো মেসেজ (বার্তা) পাঠাতে বা অন্যের পাঠানো বার্তা পড়তে পারবেন না।

৩) নিয়ম মেনে না নেওয়ার কারণে কোনো অ্যাকাউন্ট যদি একবার মুছে ফেলা হয়, সেটি আর ফেরত পাওয়া যাবে না।

৪) ব্যবহারকারীর সব মেসেজ বা বার্তা মুছে ফেলা হবে।

৫) ব্যবহারকারীর আইডি সব হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে বের করে দেওয়া হবে।

৬) অনেক ব্যবহারকারীই হোয়াটসঅ্যাপের ব্যাকআপ রাখেন। তবে আগে থেকে সংরক্ষণ করে রাখা ব্যাকআপও মুছে ফেলা হবে।

৭) তবে ব্যবহারকারীরা চাইলে আগামী ১৫ মে এর পূর্বে নিজেদের চ্যাটের যাবতীয় তথ্য ডাউনলোড করে রাখতে পারবেন।

৮) যেসব ব্যবহারকারীর আইডি সাময়িকভাবে স্থগিত আছে, তাদের ক্ষেত্রে নতুন নিয়মের এসব শর্তাবলী আগামী ১৫ মে এর পর থেকে কার্যকর হবে।

নিউজ ট্যাগ: হোয়াটসঅ্যাপ
Share

আরও খবর
মঙ্গলের বুকে অবতরণ করলো পারসেভারেন্স

শুক্রবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১




৮ বছরের মেয়ে সন্তান রেখে নাসিরকে বিয়ে করলেন তামিমা (ভিডিও)

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | ২৭৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করেছেন ক্রিকেটার নাসির হোসেন। গেল বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি ) হলুদ ও শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) হয়েছে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা। এরমধ্যেই অভিযোগ উঠেছে স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরের সঙ্গে বিয়ে করেছেন স্ত্রী তামিমা তামি।

শনিবার দুপুরে রাইসা ইসলাম বাবুনি নামক এক ফেসবুক ব্যবহারকারীর একটি পোস্ট ভাইরাল হয়। যেখানে তামিমার স্বামী রাকিবের পক্ষে দাবি করা হয়েছে, এখনও তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক রয়েছে। তাদের ঘরে রয়েছে ৮ বছর বয়সী একটি মেয়ে সন্তানও। তালাক না দিয়ে নতুন বিয়ে করায় তামিমার বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন রাকিব।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে রাকিবের সঙ্গে নাসিরের একটি অডিও কলও রয়েছে। যেখানে নাসির রাকিবকে ফোন দিয়ে জানতে চান কেনো তিনি জিডি করেছেন। এদিকে ২০১১ সালে রাকিবের সঙ্গে তামিমার বিয়ে হয়। বর্তমানে সৌদিয়া এয়ার লাইন্সের কেবিন ক্রু হিসেবে কর্মরত রয়েছেন তিনি।

নাসিরের সঙ্গে একাধিকার যোগাযোগ করা হলেও তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে নাসিরের বড় ভাই নাসিম হোসেনের সঙ্গে জানতে চাওয়া হয়। তিনি বলেন, আপাতত মন্তব্য করতে চাচ্ছেন না। তার ছোট ভাই খুব শিগগিরই গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান নাসিম।

Share

আরও খবর



ওয়াসার পাম্প স্টেশনগুলো অচল : তাপস

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৭৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা ওয়াসা থেকে পাওয়া পানির পাম্প স্টেশনগুলো অচল বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। আজ বুধবার সকালে নগরীর মান্ডা খালে চলমান বর্জ্য অপসারণ ও উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদেরকে মেয়র এ তথ্য জানান।

এ সময় ডিএসসিসি মেয়র বলেন, আমরা ওয়াসার কাছ থেকে যে পাম্প স্টেশনগুলো পেয়েছি সেই পাম্প স্টেশনগুলো অচল। এটা এখন আমাদের একটি বড় প্রতিকূলতা হয়ে দেখা দিয়েছে। আমরা এখনো এগুলো চালু করতে পারিনি। যদি আমরা পাম্প স্টেশনগুলো চালু করতে না পারি, তাহলে পানি নিষ্কাশন আমাদের জন্য দুরূহ অবস্থা হয়ে দাঁড়াবে। তবে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আশা করছি আগামী এপ্রিলের মধ্যে আমরা এগুলো চালু করতে পারব।

মেয়র আরো বলেন, আমরা জানুয়ারি মাসের প্রথম থেকে খাল দখলমুক্ত এবং বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শুরু করেছি। যতই প্রভাবশালী হোক না কেন কেউ আমাদের এই কাজকে ব্যাহত করতে পারবে না। শ্যামপুর খাল ১০০ ফুট ছিল, তা দখল হয়ে খালের মাত্র ৮ ফুট জায়গা আমরা পেয়েছিলাম। সেটি আমরা দখলমুক্ত করেছি, আরও কাজ চলছে। একই রকম অবস্থা প্রায় সব খালেরই। সব খালেই আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। আজ আমরা মান্ডা খালে এসেছি, এখানেও দেখতে পাচ্ছি নতুন করে কিছু দখল হয়েছে। আমরা আজ থেকে এখানেও ব্যবস্থা নেব।

এসময় ৪৫ দিনে প্রায় এক লাখ মেট্রিক টন বর্জ্য-মাটি খাল থেকে অপসারণ করা হয়েছে উল্লেখ করে শেখ তাপস বলেন, আগামী মার্চের মাঝামাঝি গিয়ে আমাদের কাজের কৌশল এবং পরিকল্পনা কিছুটা ঢেলে সাজাব। সে সঙ্গে এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত আমাদের কার্যক্রম প্রসারিত করব। যদিও এই কার্যক্রম অত্যন্ত দুরূহ কাজ তবুও আমাদের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এই গতিতে যদি আমাদের কাজ চলমান রাখতে পারি তাহলে ইনশাআল্লাহ্‌ জলাবদ্ধতা অনেকাংশেই নিরসন হবে এবং ঢাকাবাসীকে জলবদ্ধতা থেকে মুক্তির সুফল কিছুটা হলেও দিতে পারব।

এর আগে তিনি বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম সংলগ্ন আউটার স্টেডিয়ামে 'আন্তঃওয়ার্ড ক্রীড়া প্রতিযোগিতা - ২০২১' এর প্রথম ক্রিকেট ম্যাচ অবলোকন করেন মেয়র। পরে তিনি নগরীর ৬২ নম্বর ওয়ার্ডের কাজলার পাড় খাল পরিদর্শন করেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর মো. বদরুল আমিন, সচিব আকরামুজ্জামান, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরিফুল হক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কাজী মো. বোরহান উদ্দিন, মো. খায়রুল বাকেরসহ কর্পোরেশনের  ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং স্থানীয় কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Share

আরও খবর



অপহরণের শিকার ২৭৯ স্কুলছাত্রীকে মুক্তি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ৬৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নাইজেরিয়ায় অপহরণের শিকার ২৭৯ স্কুলছাত্রীকে মুক্তি দিয়েছে অপহরণকারীরা। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ জামফারার একটি আবাসিক স্কুল থেকে এসব ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছিল। জামফারার গভর্নর বেলো মাতাওয়াল্লির বরাতে আল জাজিরা ও রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

গভর্নর বেলো মাতাওয়াল্লি আজ মঙ্গলবার জানিয়েছেন, শিক্ষার্থীরা কর্তৃপক্ষের কাছে নিরাপদে রয়েছে। তাদের মুক্তির জন্য কোনও মুক্তিপণ দিতে হয়নি।

বেলো মাতাওয়াল্লি বলেন, আজ আমরা অপহৃত শিশুদের জীবিত হাতে পেয়েছি। তারা সবাই সুস্থ ও স্বাভাবিক আছে। আমি একটি শান্তি চুক্তি শুরু করেছি, যা ইতিবাচক ফল দিয়েছে। কাউকে কোনও মুক্তিপণ দিতে হয়নি।

এর আগে একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শুক্রবার মধ্যরাতে ৩১৭ ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছিল। তারা জামফানের জঙ্গব শহরের একটি সরকারি বালিকা বিজ্ঞান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সশস্ত্র অপহরণকারীদের একটি দল তাদের অপহরণ করেছিল।

ছাত্রীরা মুক্তি পেলেও কোন গোষ্ঠী তাদের অপহরণ করেছিল সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। নাইজেরিয়ার ওই অঞ্চলের একাধিক সশস্ত্র দল প্রায়ই মুক্তিপণের জন্য স্কুলছাত্রীদের আটক করে।

Share

আরও খবর
নেপালি পুলিশের গুলিতে যুবক নিহত

শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১

কুয়েতে মাসজুড়ে কারফিউ ঘোষণা

শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১