আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লাইন মেরামত কাজের জন্য নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জ এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ-গোদনাইল আরএমএস (গ্যাসের চাপ নিয়ন্ত্রণ ও তদারকি কেন্দ্র) এবং গোদনাইল টিবিএসে (টাউন বার্ডর স্টেশন) কয়েকটি ভালবে লিকেজ দেখা যায়। জরুরি ভিত্তিতে ভালব প্রতিস্থাপনের জন্য সমগ্র নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জ এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখতে হয়েছে।

ভালব প্রতিস্থাপন কাজ শেষে শিগগিরই গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক করা হবে বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।


আরও খবর



ফ্লাইট চালুর দাবিতে প্রবাসীদের সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ | ৬১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লকডাউনের চতুর্থ দিনে ফ্লাইট চালুর দাবিতে সড়ক অবরোধ করে রেখেছেন প্রবাসীরা। শনিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের সামনে তারা সড়ক অবরোধ করে রাখেন।

এসময় সড়কে যানচলাচল বন্ধ থাকে বেশ কিছু সময়। পরে শতাধিক প্রবাসী কর্মীরা সোনারগাঁও হোটেল সংলগ্ন সৌদি এয়ারলাইন্সের টিকিট কাউন্টার অফিসের সামনে ভিড় জমান।

এসময় এয়ারলাইন্স অফিসের সামনে দাড়িয়ে ফ্লাইট চালুর দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন বিক্ষুদ্ধরা।

আজ শনিবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের রিয়াদগামী ফ্লাইট (বিজি৫০৩৯) সকাল ৬টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। এ কারণে এয়ারলাইন্সের নির্দেশনা অনুসারে ছয় ঘণ্টা আগে রাত ১টার মধ্যেই হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসেছিলেন যাত্রীরা।

কিন্তু সৌদি আরবে অবতরণের অনুমতি না পাওয়ায় ফ্লাইটটি বাতিল হয়েছে। এতে ক্ষুব্ধ প্রবাসী কর্মীরা রাত থেকেই বিমানবন্দর চত্ত্বরে বিক্ষোভ শুরু করেন।


আরও খবর



শেখ মুজিবুর রহমান শুধু একটি নাম নয় : রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সরকার ও রাজনৈতিক দল যখন সততা, আন্তরিকতা দিয়ে জনস্বার্থে কাজ করে তখন জাতির উন্নতি ও কল্যাণ নিশ্চিত হবে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, সাধারণ হতদরিদ্র মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণে দল-মত নির্বিশেষে তাদের পাশে দাঁড়াতে পারলে দেশের রাজনীতিতে নতুন অধ্যায়ের সূচনা হবে। মুজিববর্ষে এটাই হবে সবচেয়ে বড়ো অর্জন।

আজ সোমবার (২২ মার্চ) স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষ্যে আয়োজিত ১০ দিনের আয়োজনের ষষ্ঠ দিনে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সোমবার আয়োজনের থিম বাংলার মাটি আমার মাটি। শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী।

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ এখন স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ অর্জন করেছে। বাংলাদেশ এখন উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হওয়ার পথে দ্রুত অগ্রসরমান।

জলে-স্থলে-আকাশে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ় করতে চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। তিনি দেশকে সোনার বাংলা হিসাবে গড়তে চেয়েছিলেন। আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই আরাধ্য কাজ সম্পন্ন করেছেন, বাংলাদেশের স্থল ও সমুদ্রসীমা স্থায়ীভাবে নির্ধারণ করেছেন।

৫৭তম দেশ হিসাবে বাংলাদেশ মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পাঠিয়েছে যা সফলভাবে কাজ করছে। জাতির পিতার স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়ার। তারই দেখানো পথে জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে অযুত বাধা পেরিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যাতে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হতে পারে, সে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, শেখ মুজিবুর রহমান শুধু একটি নাম নয়। বঙ্গবন্ধু একটি প্রতিষ্ঠান, একটি সত্তা, একটি ইতিহাস। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশকে আলাদা করে দেখার কোনও সুযোগ নেই। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করে জাতি এগিয়ে যাক ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার পথে।


আরও খবর



মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত ৪৫৯ জন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এ পর্যন্ত ৪৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। গ্রেফতার হয়েছে ২ হাজার ৫৫৯ জন। নিহতদের মধ্যে শিশু-নারী থেকে শুরু করে শিক্ষক-যুবকরাও আছেন।

সোমবার (২৯ মার্চ) বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থার প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা গেছে।

রাজনৈতিক বন্দিদের সহযোগিতা সংক্রান্ত সংস্থার এএপিপি  প্রতিবেদনে বলা হয়েছে গেল ২৭ মার্চের তাণ্ডবে পাইগিই দাগুন শহরতলীতে ৬০টি ঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। যখন সামরিক জান্তার সশস্ত্র বাহিনী এসব ঘরে আগুন দেয় তখন তারা আগুন নেভাতে বাধাও দেয় স্থানীয়দের।

২৮ মার্চ পর্যন্ত সামরিক জান্তা সরকার ২ হাজার ৫৫৯ জনকে গ্রেফতার করেছে। তার মধ্যে ৩৭ জনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। গেল কয়েকদিনের আন্দোলন, বিক্ষোভ, ধরপাকড় ও গুলিবর্ষণের ঘটনায় ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ তাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছে। ৩ হাজারের অধিক মানুষ মিয়ানমারের সীমান্ত পাড়ি দিয়ে থাইল্যান্ডে শরনার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছে।

গত শনিবার ২৭ মার্চ ছিলো মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী দিবস। সেদিন রাজধানী নেপিদোতে সেনা কুচকাওয়াজের পরপরই সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভে চরম দমনপীড়ন চালানো হয়। রয়টার্স জানিয়েছে, একদিনেই নিহত হয় ১১৪ জন। শুধু মান্দালয় শহরেই শিশুসহ অন্তত ৪০ জন ও ইয়াঙ্গুনে ২৭ জন নিহত হন। বিক্ষোভ চলাকালীন এদিনই সবচেয়ে রক্তাক্ত দিন পার করেছে মিয়ানমার।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, দুই মাস আগে ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে অভ্যুত্থানের পর শনিবারেই এক দিনে সবচেয়ে বেশি বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হয়েছে।

এর আগে গত ১৪ মার্চ নিহত হয়েছিল ৯০ জন। ৩ মার্চ সামরিক বাহিনীর হামলা ও গুলিতে নিহত হয়েছিল ২৫ জন। ২৮ ফেব্রুয়ারি ১৮ জন ও ২০ ফেব্রুয়ারি ২ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

গেল ১৯ ফেব্রুয়ারি সামরিক সরকার বিরোধী বিক্ষোভে সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে আন্দোলনকারীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু হয়। সেটা ছিল অভ্যুত্থানের পর প্রথম মৃত্যু।

এরপর ক্রমেই দানা বাধে জান্তা সরকার বিরোধী আন্দোলন। তার সঙ্গে কঠোর হয় জান্তা সরকারও। তাদের সশস্ত্র বাহিনীর হামলা ও দমন-পিড়নের ঘটনায় বাড়তে থাকে মৃত্যুর মিছিলও।

গত ১ ফেব্রুয়ারি রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। গ্রেপ্তার করা হয় এনএলডির নেতা অং সান সু চিসহ তাঁর দলের শীর্ষ নেতাদের। সেই থেকে শহর-নগরগুলোয় সেনাশাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর



লকডাউনের মেয়াদ বাড়বে কি না সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চলমান সাত দিনের লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হবে কি না, আগামী বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) সেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

সোমবার (৫ এপ্রিল) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকের ব্রিফিংয়ে প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এ কথা জানান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন।

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়তে থাকায় সোমবার (৫ এপ্রিল) সকাল ৬টা থেকে আগামী সাত দিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। এ দফায় আগামী ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত থাকবে এই লকডাউন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ১৮ দফা নির্দেশনা অনুযায়ী, ৫০ শতাংশ লোকবল দিয়ে সরকারি অফিস চালানোর কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু আমরা লকডাউনের মধ্যে দেখতে পাচ্ছি সচিবালয়ের সব দফতর খোলা- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমরা তাদের বলে দিয়েছি, তাদের কমফোর্ট অনুযায়ী কমানোর জন্য। দরকারি কাজ চালানোর জন্য যতটুকু দরকার ততটুকুই থাকবে।

তিনি বলেন, দেখি আমরা সাত দিন পর কী অবস্থা হয়। বৃহস্পতিবার আমরা রিভিউ করব ইনশাআল্লাহ। মানুষকে তো কো-অপারেট করতে হবে। আপনারা তো বলছেন সবাই যদি একটু মাস্ক পরে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে, তবে তো অসুবিধা হওয়ার কথা নয়।

পরিস্থিতি বর্তমানের মতো থাকলে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হবে কি না- জানতে চাইলে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, দেখি, আমরা বৃহস্পতিবার বসব।

নিউজ ট্যাগ: লকডাউন

আরও খবর



সৌদি এয়ারলাইন্সের অফিসের সামনে যাত্রীদের ভিড়

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | ৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজও সৌদি এয়ারলাইন্সের রাজধানীর কারওয়ান বাজারে প‌্যান প‌্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের অফিসের সামনে ভিড় করেছেন প্রবাসী যাত্রীরা।

আজ সোমবার (১৯ এপ্রিল) ভোর থেকে প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের ফটকের সামনে তারা অপেক্ষা করছেন। তবে এ সময় সামাজিক দূরত্ব মানতে দেখা যায়নি। কারও কারও মাস্কও থুতনিতে ঝুলতে দেখা গেছে।

সৌদি এয়ারলাইন্সের অফিস সকাল ১০টায় খোলার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে দায়িত্বরত আনসার সদস্যা মো. মোক্তার।

জানা গেছে, শনিবার (১৭ এপ্রিল) থেকে সৌদি এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ প্রবাসীদের টিকিট দেওয়া শুরু করেছে। গত ১৪ এপ্রিল থেকে যাত্রীদের টিকিট দেওয়া হচ্ছে। রবিবার (১৮ এপ্রিল) সৌদি প্রবাসীদের ১৪ থেকে ১৮ এপ্রিলেরর যাত্রীদের টিকিট দেওয়া হয়েছে। একইভাবে সোমবারও অপেক্ষারত যাত্রীদের পূর্ববর্তী ও পরবর্তী তারিখের টিকিট দেওয়া হবে। তবে রবিবার রাত ১১ পর্যন্ত যেসব যাত্রী লাইনে দাঁড়িয়েও টিকিট পাননি, তাদেরকে সৌদি এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ টোকেন দিয়েছে। টোকেন পাওয়া যাত্রীদের সোমবার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকিট দেওয়া হবে। টিকিটের জন‌্য ভোর থেকেই প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের সামনে ভিড় করতে থাকেন যাত্রীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে টিকিটের লাইন আরও দীর্ঘ হয়।

নিউজ ট্যাগ: সৌদি এয়ারলাইন্স

আরও খবর