আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

নেত্রকোনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উৎসবের আমেজ

প্রকাশিত:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
Image

নেত্রকোনা থেকে মোনায়েম খান: নেত্রকোনায় খুলে দেওয়া হয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেওয়া হচ্ছে ক্লাস। করোনা মহামারির কারণে দেড় বছর বন্ধ পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ায় খুশি শিক্ষার্থীরা। এতে করে নেত্রকোনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেগুলোতে বইছে  উৎসবের আমেজ।

দীর্ঘ ১ বছর ৫ মাস ২৪ দিন পর আজ রবিবার প্রথম শ্রেণী থেকে উচ্চ মাধ্যমিক স্থর পর্যন্ত প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ায় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ লক্ষ্য করা গেছে।

নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমান সকালে পৌর শহরের সাতপাই মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়, নেত্রকোনা উচ্চ বিদ্যালয়, আদর্শ শিশু বিদ্যালয়, নেত্রকোনা সরকারি কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন।

এ সময় তিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের সাথে কথা বলেন এবং করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত থাকার জন্য মাস্ক ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ ওবায়দুল্লাহ,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকতা আবু হাসান মোঃ রেজাউল করিম, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন, জেলা প্রেসক্লাব সম্পাদক এম, মোখলেছুর রহমান খান, পিটিআই সুপার জাহানারা খাতুনসহ অন্যরা।

নেত্রকোনা আদর্শ শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মাজারুল ইসলাম বলেন, আমাদের কোমলমতি শিশুদের করোনাভাইরাস সক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রেখেছি।

সাতপাই মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমতাজ মহল বলেন, দীর্ঘদিন পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পর শিক্ষার্থীদের আমরা আনুষ্ঠানিক ভাবে ফুল দিয়ে বরণ করেছি। শিক্ষার্থীরাও বিদ্যালয়ে এসে শিক্ষক এবং সহপাঠিদের পেয়ে খুব খুশি হয়েছে।


আরও খবর



সশরীরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | ৬১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনার কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত থাকা পরীক্ষা আগামী সেপ্টেম্বর থেকে সশরীরে শুরু হচ্ছে। পরীক্ষাসংশ্লিষ্ট সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে অনুসরণ করতে বলা হয়েছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সোমবার রাতে এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতির অবনতি হলে চলমান বিভিন্ন পরীক্ষা গত মার্চ মাসে স্থগিত ঘোষণা করা হয়।  বিধিনিষেধ উঠে যাওয়া এবং টিকা কার্যক্রম সম্প্রসারণের পর সোমবার (৩০ আগস্ট) রাতে পরীক্ষার নেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

এতে বলা হয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা গ্রহণ এবং পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে অনুসরণ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। পরীক্ষা কেন্দ্রে দুই জন পরীক্ষার্থীর মাঝে অন্তত ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রেখে (আসন বিন্যাসের নমুনা-১ অথবা আসন বিন্যাসের নমুনা-২ এর অনুরূপভাবে) আসন ব্যবস্থা করতে হবে। এক্ষেত্রে প্রয়োজনে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে কেন্দ্রে পরীক্ষা গ্রহণ করা যাবে। সব শিক্ষক, পরীক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারী মাস্ক পরিধান করে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করবেন। মাস্ক সঠিক নিয়মে পরতে হবে এবং মাস্ক ছাড়া কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না। শুধুমাত্র পরীক্ষার্থীর পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য সাময়িক মাস্ক খোলা যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও নির্দেশনা দিয়ে বলা হয়, পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের আগে হাত ধোয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সাবান এবং পানির ব্যবস্থা রাখতে হবে।  প্রয়োজনে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৮ বছর ও তার বেশি বয়সী সবাইকে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হচ্ছে। যেসব শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী এখনো টিকা গ্রহণ করেননি, তাদের টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

এ ছাড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জারি করা সব স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার জোরাল নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে।


আরও খবর



ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডির বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের ই-কমার্স সাইট ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় প্রতারণা মামলা দায়ের করেছেন এক গ্রাহক। আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, গতকাল বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বগ্রাম এলাকার বাসিন্দা মো. আরিফ বাকের এই মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলায় ইভ্যালি এমডি মোহাম্মদ রাসেলকে এক নম্বর আসামি ও চেয়ারম্যান শামীমাকে দুই নম্বর আসামি করা হয়েছে। এই মামলায় ইভ্যালির আরও বেশকজন কর্মকর্তাকে অজ্ঞাতনামা দেখিয়ে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে আরিফ বাকের উল্লেখ করেছেন, ইভ্যালির অনলাইন প্লাটফর্মে ৩ লাখ ১০ হাজার ৫৯৭ টাকার পণ্য অর্ডার করেও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তা পাননি তিনি। নিরুপায় হয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ করেন তিনি।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, গত ২৯ মে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে অভিযোগকারী আরিফ বাকের ও তার বন্ধুরা চলতি বছরের মে ও জুন মাসে কিছু পণ্য অর্ডার করেন। পণ্যের অর্ডার বাবদ সব মূল্য বিকাশ, নগদ ও সিটি ব্যাংকের কার্ডের মাধ্যমে সম্পূর্ন পরিশোধ করেন তারা।

পণ্যগুলো ৭ থেকে ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে ডেলিভারি ও নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে পণ্য সরবরাহে ব্যর্থ হলে প্রতিষ্ঠান সমপরিমাণ টাকা ফেরত দিতে অঙ্গীকারাবদ্ধ ছিল। কিন্তু ওই সময়সীমার মধ্যে পণ্যগুলো ডেলিভারি না পাওয়ায় বহুবার ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধিকে ফোন করা হয়। সর্বশেষ গত ৫ সেপ্টেম্বর যোগাযোগ করে অর্ডার করা পণ্যগুলো পাওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন আরিফরা।

একপর্যায়ে ইভ্যালি পণ্য প্রদান ও টাকা প্রদানে ব্যর্থ হওয়ার পর ৯ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির ধানমন্ডির অফিসে যান আরিফ ও তার বন্ধুরা।

মামলার এজাহারে আরিফ বলেন, ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেলের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তারা উত্তেজিত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করেন। একপর্যায়ে অফিসের অভ্যন্তরে থাকা ইভ্যালির রাসেল উত্তেজিত হয়ে তার রুম থেকে বেরিয়ে এসে আমাকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করেন এবং আমাদের পণ্য অথবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান। আমাদের ভয়ভীতি ও হুমকিসহ চরম দুর্ব্যবহার করেন। এতে আমরা আতঙ্কে দিনাতিপাত করছি। পণ্যগুলো বুঝে না পাওয়ায় আমি আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।


আরও খবর
স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আদালতে হাজির করা হচ্ছে ইভ্যালির রাসেলকে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




বিকল্প জ্বালানীতে বসুন্ধরা এলপিজির আন্তর্জাতিক অর্জন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ সেপ্টেম্বর 2০২1 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০২ সেপ্টেম্বর 2০২1 | ৫৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বাংলাদেশের প্রথম এলপি গ্যাস কোম্পানি হিসেবে বিগত ২০বছর ধরে, রান্নার বিকল্প জ্বালানি সরবরাহে হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে এবং প্রায় লক্ষাধিক মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে

বাংলাদেশে টেকসই উন্নয়নে অর্জনের পথে 'বিকল্প জ্বালানী' নিশ্চিত করতে ধারাবাহিক প্রচেষ্টার জন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে বসুন্ধরা এলপিজি।

 

সম্প্রতি যুক্তরাজ্য ভিত্তিক অর্থনীতি সাময়িকী বিজনেস ট্যাবলয়েড বসুন্ধরা এলপি গ্যাসকে বেস্ট এলপি গ্যাস কোম্পানি হিসেবে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

 

প্রতি বছর নিজ নিজ ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্বদের এ পুরস্কার দেয় লন্ডন ভিত্তিক অনলাইন সংবাদ ম্যাগাজিন। কোনো প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট শিল্পখাতে সম্ভাবনা ও দক্ষতা বিবেচনায় নেয়া হয় বলে জানানো হয়।

 

আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাওয়ায়, বসুন্ধরা গ্রূপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফিয়াত সোবহান সকল ভোক্তা, বিক্রেতা, পরিবেশকসহ সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। সেইসঙ্গে এই শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রাখতে আরও দৃঢ়তার সঙ্গে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

 

বাংলাদেশের প্রথম এলপি গ্যাস কোম্পানি হিসেবে বিগত ২০বছর ধরে, রান্নার বিকল্প জ্বালানি সরবরাহে হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে এবং প্রায় লক্ষাধিক মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে।

 

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের হেড অফ সেলস জাকারিয়া জালাল বলেন , বসুন্ধরা এলপি গ্যাস দুই দশকেরও অধিক সময়ের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে দেশে এলপিজি বাজারকে শক্তিশালী করতে গুরুত্ব পূর্ণভূমিকা পালন করছে। বাংলাদেশ এবং বিশ্বব্যাপী ব্র্যান্ডকে শক্তিশালী করার জন্য স্বল্প মেয়াদী এবং দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনার প্রতিফলনেই এই আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি।

 

গত দুই দশকে ধারাবাহিকভাবে  বেস্ট ব্র্যান্ড এবং সুপার ব্রান্ড  স্বীকৃতি পাওয়া বসুন্ধরা এলপি  গ্যাসের অর্জনে যুক্ত হলো বিজনেস ট্যাবলয়েডের অ্যাওয়ার্ড।


আরও খবর
পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




ঢাকায় কমছে ডেঙ্গু আক্রান্ত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | ৬৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৬৭ জন ডেঙ্গু রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের অধিকাংশই রাজধানীর বাসিন্দা।

এর মধ্যে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ২১৭ জন এবং ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫০ জন। চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গুতে মারা গেছেন ৪০ জন।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) বিকেলে সারাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের নিয়মিত ডেঙ্গু বিষয়ক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে নতুন ২৬৭ জন ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৯০ জনে।

ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৯৬৫ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১২৫ জন।

 

নিউজ ট্যাগ: ডেঙ্গু আক্রান্ত

আরও খবর
করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু আরও কমল

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টিকা নিলেও করোনা মহামারির সংকটকালে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এই করোনাকালে সবাই যেন স্বাস্থ্য সুরক্ষাটা মেনে চলে। যারা টিকা নিয়েছেন তাদের প্রতিও অনুরোধ করব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে, তারাও সুস্থ থাকুক। আমাদের দেশের মানুষ এবং প্রবাসী যারা আছেন প্রত্যেকেরই মঙ্গল কামনা করি।

মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) সংসদে জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর মৃত্যুতে আনা শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনাকালে এই আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

শোক প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদ নেতা বলেন, এই সংসদে আমরা এতজন সদস্য হারালাম এটা সত্যিই খুব দুঃখজনক। এরকম প্রতিদিন-প্রতিমুহূর্তে শোক প্রস্তাব নিতে চাই না। আল্লাহ সবাইকে সুস্থ রাখুক।

জাতীয় পার্টির প্রয়াত সংরক্ষিত সংসদ সদস্য মাসুদা রশীদ চৌধুরীকে স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা আরও একজন সংসদ সদস্যকে হারালাম। তিনি অত্যন্ত বিদুষী ছিলেন। তার মতো শিক্ষা-দীক্ষা ও জ্ঞানসম্মত মানুষ মেয়েদের মধ্যে কমই পাওয়া যায়। এছাড়া তিনি একাধারে রাজনীতিবিদ, চিত্রশিল্পী, সমাজসেবক, নারী উদ্যোক্তা, খেলাধুলাসহ নারীদের নতুনভাবে প্রেরণা যুগিয়েছেন। এরকম বহুগুণ সম্পন্ন মানুষ আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। এটা আমাদের সমাজের জন্য বিরাট ক্ষতিসাধন হলো।

চলতি অধিবেশন দুই জন সংসদ সদস্যের মৃত্যু দিয়ে শুরু হয়েছে উল্লেখ করে সংসদ নেতা বলেন, দুর্ভাগ্য হলো এই সংসদের একের পর এক সদস্য হারাচ্ছি। এবার যখন শুরু করলাম দুইজন সংসদ সদস্য হারালাম। আবার এবার মুলতবি অধিবেশনের আগে কালকেই পেলাম এই মৃত্যুর (মাসুদা রশীদ চৌধুরী) খরব। সত্যি খুবই হৃদয় ভারাক্রান্ত হলো। মাসুদা রশীদ চৌধুরীর বহুমুখী প্রতিভা নারী সমাজকে প্রেরণা দেবে। সামনে এগিয়ে যাওয়ার শক্তি ও সাহস যোগাবে।

শোক প্রস্তাব আলোচনায় সদ্যপ্রয়াত সংসদ সদস্যের বর্ণাঢ্য জীবনের আলোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি (মাসুদা রশীদ) একজন চিত্রশিল্পী ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স পাস করেছেন, বিদেশে পড়ালেখা করেছেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তিনি শিক্ষকতা করেছেন। ডিবেটিং ও রোভার স্কাউট সর্বক্ষেত্রে তার বিচরণ ছিল। এমন গুণ সম্পন্ন একজন মানুষ আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। আমি মনে করি, এটি সত্যিই আমাদের সমাজের জন্য একটি বিরাট ক্ষতি।

প্রধানমন্ত্রী তাঁর শোক প্রস্তাব আলোচনায় মাসুদা রশীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।



আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১