আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

নেত্রকোণায় করোনা প্রতিরোধে শিল্পীদের অংশগ্রহণে জনসচেতনতামূলক প্রচারণা

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নেত্রকোণা থেকে মোনায়েম খান

নিজে সুস্থ থাকি, অন্যকে সুস্থ রাখি এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে নেত্রকোণা জেলা শহরে শিল্পীদের অংশগ্রহণে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক প্রচারণার উদ্বোধন করা হয়।

জনস্বার্থে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার বেলা ১১ঘটিকার সময় জেলা শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনের সড়কে জনউদ্যোগ ও উদীচির সহযোগিতায় জনসচেতনতামূলক প্রচারণায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আব্দুর রহমান।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদা আক্তার, শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন, জনউদ্যোগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা হায়দার জাহান চৌধুরী, প্রেসক্লাবের সাবেক সম্পাদক ও জনউদ্যোগ নেত্রকোণা সম্মানিত ফেলো শ্যামলেন্দু পাল, উদিচীর সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অসিত কুমার ঘোষ, সাংবাদিক সঞ্জয় সরকারসহ জেলার সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ ও জেলায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নেত্রকোণা সহ সারাদেশের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান। ও করোনা সচেতনতায় মাক্স ও লিপলেট  বিতরণ করা হয়। শেষে করোনা মোকাবেলায় উদীচির শিল্পীদের সাংস্কৃতিক উনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করা হয়।


আরও খবর



৩৫ লাখ নিম্ন আয়ের পরিবারকে ২ মে থেকে অর্থ সহায়তা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ১২৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীনতা ও আয়ের সুযোগ কমে যাওয়া থেকে দেশের অতিদরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সুরক্ষা দিতে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার কার্যক্রম নেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, গত বছর করোনা মহামারির কারণে নিম্ন আয়ের যারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এবং কর্মহীন হয়ে পড়েছিল, তাদেরকে সহায়তার জন্য নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান কর্মসূচি চালু করা হয়েছিল। ২০২০ সালে করোনা মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ লাখ নিম্ন আয়ের পরিবারকে পরিবারপ্রতি ২ হাজার ৫০০ টাকা করে ৮৮০ কোটি টাকা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়। মোবাইল ব্যাংকিং বা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি এই অর্থ দেওয়া হয়েছিল।

গতবারের ধারাবাহিকতায় এবারও চলমান করোনা মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ লাখ নিম্ন আয়ের পরিবারকে পরিবারপ্রতি ২ হাজার ৫০০ টাকা করে মোট ৮৮০ কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা দিতে সম্মতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২ মে) তিনি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। এ কার্যক্রমের আওতায় ৩৫ লাখ পরিবারকে ইএফটির মাধ্যমে তাদের নির্দিষ্ট মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টে বা ব্যাংক একাউন্টে অর্থ সহায়তা সরাসরি পাঠানো হবে।

অতিদরিদ্র, কর্মহীন নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠী যাতে এ কার্যক্রমের আওতায় আসে, সে লক্ষ্যে বরাদ্দ দেওয়ার ক্ষেত্রে দুর্যোগপ্রবণ, অতিদরিদ্র এলাকা এবং জনসংখ্যার অনুপাত বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে দিনমজুর, কৃষক, শ্রমিক, পরিবহন শ্রমিক ইত্যাদিপেশার নিম্ন আয়ের লোকজন যাতে এ আর্থিক সহায়তা পান তা নিশ্চিত করা হয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রকৃত দরিদ্র ব্যক্তি চিহ্নিত করা হয়েছে, যাতে কেবলমাত্র প্রকৃত অতি দরিদ্র জনগোষ্ঠী এ অর্থ পায়।

নিউজ ট্যাগ: অর্থ সহায়তা

আরও খবর



আগামীকাল থেকে সময় বাড়ল ব্যাংক লেনদেনের

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | ১২৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউন ছিল ৫ মে পর্যন্ত। পরে এ লকডাউন আরও ১১ দিন বাড়িয়ে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত করা হয়েছে। এ জন্য আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৬ মে) থেকে ব্যাংকে লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত।

এর আগে বুধবার (৫ মে) পর্যন্ত ব্যাংকিং লেনদেন চালু ছিল সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা। ঈদের কারণে ব্যাংকে চাপ বাড়ায় ব্যাংকিং লেনদেনের সময় বাড়িয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক বুধবার নতুন করে এ সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ৬ মে থেকে ১৬ মে পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত চলবে। আর আনুষঙ্গিক কাজের জন্য ব্যাংক খোলা থাকবে বেলা সাড়ে তিনটা পর্যন্ত।

নিউজ ট্যাগ: ব্যাংক লেনদেন

আরও খবর



মেয়ের বাবার সম্পত্তি আত্মসাতের উদ্দেশ্য

অপহরণ করে কলেজছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | ১৫১জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

প্রথমে প্রেমের প্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় অপহরণ করে নিয়ে জোর করে বিয়ে। উদ্দেশ্য, একমাত্র মেয়ের বাবার অর্থ-সম্পত্তি আত্মসাৎ করা। আর এ লক্ষ্যে এক কালেজছাত্রীকে দেড় মাস আটকে রেখে  অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়। মেয়ের বাবা থানায় প্রথমে সাধারণ ডায়েরী ও পরে অপহরণ মামলা দিলে পুলিশ নানা কৌশল অবলম্বন করে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। অপহরণকারীদের প্রস্তাব ও তাদের কথামতো চলতে অস্বীকৃতি জানালে তারা মেয়েটিকে আটকে রেখে প্রতিনিয়ত শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতো। পাশাপাশি তাকে চেতনানাশক ও নেশাজাতীয় দ্রব্য খাওয়ানো হতো। অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সোহাগদল ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে। উদ্ধারের পর মেয়েটির কাছ থেকে জানা গেছে, সোহাগদল এলাকার ব্যবসায়ীর একমাত্র মেয়ে একাদশ শ্রেণীর দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। ব্যবসায়ী বাবার অর্থ-সম্পত্তি আত্মসাতের  উদ্দেশ্যে পার্শ্ববর্তী সারেংকাঠি ইউনিয়নের বিষ্ণুকাঠি গ্রামের মো. আবুল কালামের ছেলে মাইনুল ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি মেয়ের কাছে শুনতে পেয়ে বাবা ওই ছেলের পরিবারের কাছে নালিশ করেন। পরে গত ২০ ফেব্রুয়ারি ছাত্রীটি প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে মাইনুল, তার ভাই আমান, মামা মামুন ও চাচাতো ভাই কামরুল মিলে তাকে অচেতন করে অপহরণ করে নিয়ে যায়। জ্ঞান ফিরে মেয়েটি দেখতে পায় তাকে একটি গাড়িতে করে কোথাও নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এসময় মেয়েটি ব্যাগ থেকে মোবাইল বের করে তার বাবার কাছে ফোন দিতে চাইলে অপহরণকারীরা তার গলায় চাকু ধরে মোবাইল ও সাথে থাকা স্বর্ণালঙ্কার ছিনিয়ে নেয়। তাকে চুপচাপ বসে থাকতে বলা হয়। একটি মাহিন্দ্র জিপে করে তাকে খুলনার রামপালে নিয়ে গিয়ে জোর করে মাইনুলের সাথে বিয়ে দেয়া হয়। এসময় মাইনুলের পিতা আবুল কালাম ও মা মারুফা বেগমও উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তীতে মেয়েটি তার বাবার কাছ থেকে টাকা এনে দিতে অস্বীকৃতি জানালে অপহরণকারীরা তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন শুরু করে। পাশাপাশি তাকে চেতনানাশক ও নেশাজাতীয় দ্রব্য খাওয়ানো হতো। এদিকে হেলাল, মাইনুল ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে মেয়েকে অপহরণের মামলা দায়ের করেন বাবা। সেই মামলায় জামিন পেতে মাইনুল মেয়েটিকে জীবননাশের হুমকি দিয়ে আদালতে তাদের পক্ষে সাক্ষ্য দেয়াতে বাধ্য করে। বর্তমানে মাইনুল ও তার পরিবার ওই মামলায় জামিনে রয়েছেন।

এ বিষয়ে ওই কলেজছাত্রীর বাবা হেলাল উদ্দিন জানান, মাইনুল মাদক ব্যবসা, চুরি, নারী কেলেঙ্কারীসহ নানা ধরনের অপকর্মের সাথে জড়িত। মাইনুল ও তার পরিবার আমার অর্থ-সম্পত্তি আত্মসাতের উদ্দেশ্যে আমার মেয়েকে অপহরণ করেছে। এমনকি তারা জামিনে এসে অপহরণ মামলা এড়াতে আমার বিরুদ্ধে তাদের ঘরে ভাঙচুরের মিথ্যা অভিযোগ এনেছে। তারা আমার মেয়েকে আটকে রেখে দিনের পর দিন যে অমানুষিক নির্যাতন করেছে তাতে আমার মেয়ের জীবন আজ বিপন্ন।


আরও খবর



করোনায় আরও ৮৮ জনের প্রাণহানি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৮৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।  এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৮৬৯ জনের।

নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৬২৯ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৩৯ হাজার ৭০৩ জনে।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ২২৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৪৭ হাজার ৬৭৪ জন। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩৪৯টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১২২টি, জিন এক্সপার্ট ৩৪টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ১৯৩টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ২৬ হাজার ৪১৩টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৫ হাজার ৮৯৬টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫৩ লাখ ৩ হাজার ৮টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১৪ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯৫ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৭ দশমিক ৫৬ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৭ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৮৮ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৫৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৮ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৫ জন। এছাড়া রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, রংপুর বিভাগে তিন জন করে ১২ জন রয়েছেন।

এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৫৩ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৩৪ জন, হাসপাতালে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে এক জনকে।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরে ঊর্ধ্বে ৬০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ছয় জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ছয় জন, শূন্য থেকে ১০ বছরের নিচে এক জন রয়েছেন।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৬৩৪ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৪৬৯ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ১৯ হাজার ১৭০ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ১ লাখ ৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৯ হাজার ১৬৫ জন।

এর আগে গত ৭ এপ্রিল দেশে একদিনে করোনা শনাক্ত হয় সাত হাজার ৬২৬ জন। যা দেশে একদিনে করোনা শনাক্তে সর্বোচ্চ রেকর্ড। আর গত ৬ এপ্রিল একদিনে করোনা শনাক্ত হয়েছিল সাত হাজার ২১৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।


আরও খবর



ভাইকে খুনের অভিযোগে নায়িকা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | ১০৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভাইকে খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন অভিনেত্রী শানায়া কাটওয়ে। ভাই রাকেশ কাটওয়েকে (৩২) হত্যার অভিযোগে  পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ঘটনাটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে কন্নড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে।

নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, রাকেশ খুনের ঘটনায় ধারওয়াড় জেলা পুলিশ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এরা হলেন. তৌসিফ চন্নপুর (২১), আমান গিরানিওয়াল (১৯), আলতাফ মোল্লা (২৪ ) ও নিয়াজ আহমেদ কাটিগর (২১)। তাদের জেরা করেই বেরিয়ে আসে রাকেশ হত্যার পিছনে শানায়া জড়িত থাকার তথ্য।

পুলিশ জানায়, নিয়াজের সঙ্গে শানায়ার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। আর এই সম্পর্ক নিয়ে আপত্তি ছিল ভাই রাকেশের। এর জেরে নিয়াজ প্রেমিকাকে নিয়ে রাকেশকে হত্যার চক্রান্ত করে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, রাকেশকে তার বাড়িতেই খুন করা হয় এবং ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলেন শানায়াও। এরপর নিয়াজ ও বাকি তিন অভিযুক্ত রাকেশের মৃতদেহ টুকরো টুকরো করে বনাঞ্চলে ফেলে দেন।


আরও খবর