আজঃ বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২
শিরোনাম

নিউমার্কেটে উড়ছে সাদা পতাকা

প্রকাশিত:বুধবার ২০ এপ্রিল ২০22 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ এপ্রিল ২০22 | ১৫৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর নিউ মার্কেটে ব্যবসায়ী ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনার পর ওই এলাকার মার্কেটগুলোতে শান্তির সাদা পতাকা উত্তোলন করেছেন ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (২০ এপ্রিল) দুপুরের পর থেকে নিউ মার্কেট এলাকার বিভিন্ন ভবনে সাদা পতাকা উড়তে দেখা যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট তৃতীয়তলা, নুরজাহান মার্কেটের প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয়তলা, গাউছিয়া, চাঁদনী চক ও নিউ সুপার মার্কেটসহ ওই এলাকার বিভিন্ন মার্কেটে শান্তির আহ্বান জানিয়ে সাদা পতাকা উত্তোলন করেছেন ব্যবসায়ীরা।

নিউ মার্কেট দোকান মালিক সমিতির সভাপতি ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন বলেন, আমরা ব্যবসায়ী ও কর্মচারীদের বলেছি, শিক্ষার্থীরা যদি কারো ওপর হামলা করে শান্তি পায়, তাহলে তারা হামলা চালিয়ে যাক। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমরা কোনো প্রকার অনাকাঙ্খিত সংঘর্ষে লিপ্ত হব না।

তিনি বলেন, আমরা শান্তি চাই। আমরা শান্তির জন্য নিউমার্কেটের বিভিন্ন ভবনে সাদা পতাকা উত্তোলন করেছি।

নিউমার্কেট জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) শাহেন শাহ বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলা করতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে দুই ট্রাকের সংঘর্ষে তিনজন নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | ৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের মালবাহী দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহতরা সবাই ধানকাটা শ্রমিক। তারা কুমিল্লায় ধানা কাটা শেষে রাতে ট্রাকে করে বাড়ি ফিরছিলেন। বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকা-গাজীপুর বাইপাস সড়কে জিন্দাপার্ক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ।

নিহতরা হলেন জয়পুরহাট জেলার কালায় থানার শিকতা গ্রামের ধানকাটা শ্রমিক আবদুল মজিদ (৪৫), শহিদুল ইসলাম (৫০) ও মো. আয়েদ (৪৫)। হাইওয়ে পুলিশের গাজিপুরের নাওজোর থানার উপপরির্দক (এসআই) মো. ফরিদুজামামান জানান, তারা কুমিল্লায় ধানা কাটা শেষে রাতে একটি টিনের ট্রাকে করে বাইবাস সড়ক হয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে জিন্দাপার্ক এলাকায় বিপরিত দিক থেকে আসা একটি ভুট্টার ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় দুই ট্রাকের।

এসময় ট্রাকের উপরে থাকা টিনে কাটা পড়ে ওই তিনজন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে তাদের লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



ব্যবসায়ী-শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২১ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২১ এপ্রিল ২০২২ | ৪১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতের নাম মোরসালিন (২৬) তিনি দোকান কর্মচারী ছিলেন। এ নিয়ে নিউমার্কেটে সংঘর্ষের ঘটনায় দুইজনের মৃত্যু হলো।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর বাচ্চু মিয়া।

নিহত মোরসালিনের বাড়ি কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার কালাইনগর গ্রামে। তার বাবার নাম মো. মানিক মিয়া। কামরাঙ্গীরচরের পশ্চিম রসুলপুরে স্ত্রী অনি আখতার মিতু এবং দুই মেয়ে সুমাইয়া ইসলাম লামহা (৭) ও আমির হামজাকে (৪) নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন।

তার স্ত্রী অনি আখতার মিতু জানান, নিউমার্কেটে একটি শার্টের দোকানে মাসে নয় হাজার টাকা বেতনে চাকরি করতেন তার স্বামী। সেই টাকা দিয়ে তাদের সংসদ চলত। মঙ্গলবার সকালে নিউমার্কেটে কর্মস্থলের উদ্দেশে তিনি বাসা থেকে বেরিয়ে যান।

গত মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরের দিকে দ্বিতীয় দিনের সংঘর্ষের সময় নুরজাহান মার্কেটের সামনে ইটের আঘাতে আহত হয়েছিলেন মোরসালিন। পরে শাকিল ও অপর এক যুবক অচেতন অবস্থায় রিকশায় করে মোরসালিনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেই দিন হাসপাতালে নিয়ে আসা শাকিল জানিয়েছিলেন, ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সংঘর্ষের সময় নুরজাহান মার্কেটের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় ইটের আঘাতে মোরসালিন আহত হন। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

এর আগে একই  সংঘর্ষের ঘটনায় আহত হয়ে নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় নাহিদ হাসান (১৮) নামে এক যুবকের। 

গত মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ওয়ানস্টপ ইমার্জেন্সি সেন্টারে আইসিইউতে রাত ৯টা ৪০ মিনিটে তিনি মারা যান।


আরও খবর



কাঞ্চন-শ্রীময়ী কি বিয়ে করেছেন?

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ও সাংসদ কাঞ্চন মল্লিকের সঙ্গে অভিনেত্রী শ্রীময়ী চট্টরাজের সম্পর্ক নিয়ে গত বছর ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হয়েছিল। বিষয়টা প্রকাশ্যে আসে কাঞ্চনের স্ত্রী পিঙ্কির অভিযোগের ভিত্তিতে। তিনি থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। ফাঁস করেন কাঞ্চন-শ্রীময়ীর পরকীয়ার কথা। যদিও তখন কাঞ্চন ও শ্রীময়ী দুজনেই প্রেমের কথা অস্বীকার করেছিলেন। বলেছিলেন, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে তাদের মধ্যে। ওই ঘটনার পর থেকে কিছুটা দূরত্ব মেনে চলছেন তারা।

ফের আলোচনায় কাঞ্চন-শ্রীময়ীর সম্পর্ক। এবার আর প্রেম নয়, একেবারে বিয়ের গুঞ্জনে গড়িয়েছে। শুক্রবার (৬ মে) ছিল কাঞ্চনের জন্মদিন। এদিন বিশেষভাবে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শ্রীময়ী। দুজনের ঘনিষ্ঠ একটি ছবি পোস্ট দিয়েছেন অভিনেত্রী। সেখানে দেখা যায়, সাদা পাঞ্জাবি ও মেরুন রঙের ধুতি পরেছেন কাঞ্চন। তার পাশে টুকটুকে লাল শাড়ি পরে লাজুক ভঙ্গিমায় দাঁড়িয়ে শ্রীময়ী। দুজনের মুখেই উচ্ছ্বল হাসি।

এমন সাজসজ্জায় কাঞ্চ-শ্রীময়ীকে দেখার পর অনেকেই প্রশ্ন করছেন, তারা কি বিয়েটা সেরে ফেলেছেন? এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলকাতার গণমাধ্যমকে শ্রীময়ী বলেন, এবার তাহলে সন্তানের খবরও দেবে সবাই! এটা আসলে অনেক আগের পুজোর ছবি। জন্মদিনে সবাই জমকালো ছবি দেন। তাই এটি দিয়েছি।

তবে বিয়ের ইঙ্গিতও দিয়েছেন শ্রীময়ী। কাঞ্চন মল্লিক এখনো পিঙ্কির সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্কে আছেন। তাদের বিচ্ছেদ না হলে নতুন করে ঘর বাঁধা সম্ভব নয়। শ্রীময়ী বলেন, ডিভোর্স না হয়ে বিয়ে সম্ভব নয়। তার আগেই সবাই বিয়ে দিয়ে দিচ্ছেন! এসবে আর অবাক হই না। তবে খারপ লাগে।


আরও খবর



চলতি বাজেট: পালটে গেছে খরচের হিসাব-নিকাশ

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ২৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ এবং করোনাভাইরাসের শেষ ধাক্কায় পালটে গেছে চলতি বাজেটের খরচের হিসাবনিকাশ। স্বাভাবিক পরিবেশে বছরের শুরুতে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করলেও শেষদিকে চতুর্মুখী চাপে পড়েছে বাজেট। ফলে ব্যয় বেড়েছে অপ্রত্যাশিতভাবে কয়েকটি খাতে। আবার প্রত্যাশিত অনেক খাতে পুরোপুরি ব্যয় করা সম্ভব হয়নি।  আকস্মিক চাপ সৃষ্টি করেছে মূল্যস্ফীতি ও ভর্তুকিতে। ব্যয় বেড়েছে সুদ পরিশোধ ও ও সরকারি চাকরিজীবীদের বেতনভাতায়। মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৪ শতাংশের মধ্যে রাখার যে ঘোষণা দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী, সেটি নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হয়নি। একই কারণে বিশ্ববাজারে পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় খরচ-ভর্তুকিতেও খরচ বেড়েছে।

গতানুগতিক অন্যান্য বছরের মতো এবারও বাজটে কাটছাঁট করা হয়েছে। অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি অর্থবছরের আট মাসে (জুলাই-ফেব্রুয়ারি) ২ লাখ ২২ হাজার ৯১৫ কোটি টাকা ব্যয় করতে পেরেছে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়। ফলে সংশোধিত বাজেটের সব টাকা ব্যয় করতে হলে আগামী জুন (বাকি চার মাসে) পর্যন্ত ৩ লাখ ৭০ হাজার ৫৮৫ কোটি টাকা খরচ করতে হবে। ওই হিসাবে দৈনিক ব্যয় হবে ৩ হাজার ৮৮ কোটি টাকা। সংশ্লিষ্টদের মতে, বিপুল অঙ্কের টাকা প্রতিদিন ব্যয় করা কঠিন। ফলে শেষ পর্যন্ত বাজেট পুরোপুরি বাস্তবায়ন নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে। যদিও প্রতিবছর শতভাগ বাজেট বাস্তবায়ন হয় না। তবে ধারণা করা হচ্ছে এ বছর আরও কম হবে।

গতানুগতিক অন্যান্য বছরের মতো এবারও বাজেট কাটছাঁট করা হয়েছে ১০ হাজার ১৮১ কোটি টাকা। বছরের শুরুতে ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করলেও শেষদিকে সংশোধিত বাজেট দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৯৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকায়। বিশেষ করে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের পণ্য ও সেবা কেনাকাটা, সম্পদ সংগ্রহ ও পূর্তকাজ, শেয়ার ও ইকুইটিতে বিনিয়োগ এবং বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকে বরাদ্দ কমানো হয়েছে। এডিপি কাটছাঁট করা হয়েছে ১৭ হাজার ৭৭৪ কোটি টাকা। সংশোধিত এডিপি হচ্ছে ২ লাখ ৭ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা।

এ বছর রাজস্ব খাত থেকে কোনো কাটছাঁট করা হচ্ছে না। অর্থ বিভাগের ধারণা, শুরুতে ৩ লাখ ৮৯ হাজার কোটি টাকা আদায়ের যে লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে, সেটি অর্জন সম্ভব। তবে বৈশ্বিক যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে বিশ্ববাজারে জিনিসপত্রের মূল্য বেড়েছে। এতে মূল্যস্ফীতিতে বড় ধরনের চাপ সৃষ্টি হয়। ফলে বছরের শুরুতে ৫ দশমিক ৪ শতাংশের ঘরে রাখার যে ঘোষণা, সেটি সংশোধিত বাজেটে বাড়িয়ে ৫ দশমিক ৭ শতাংশ করা হয়। কিন্তু সেখানেও রাখা সম্ভব হয়নি। বর্তমান মূল্যস্ফীতির হার ৬ দশমিক ২২ শতাংশ বিরাজ করছে। এছাড়া কৃষকের সার, জ্বালানি তেল ও খাদ্যের দাম বেড়েছে বিশ্ববাজারে। বেশি দামে আমদানি করে কম মূল্যে ভোক্তার দোরগোড়ায় পৌঁছাতে ভর্তুকি দিতে হচ্ছে বেশি। চলতি বছরে খাদ্যে ভর্তুকি ৫ হাজার ৪২৭ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। এ খাতে অতিরিক্ত বরাদ্দ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে ৭৩ কোটি টাকা। বেশি মূল্যে জ্বালানি ও এলএনজি গ্যাস কিনে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহারের কারণে এ খাতে ভর্তুকি বেড়েছে ৩ হাজার কোটি টাকা। বছরের শুরুতে বিদ্যুতে ৯ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি থাকলেও এখন গুনতে হচ্ছে ১২ হাজার কোটি টাকা।

এছাড়া অন্যান্য খাতে ভর্তুকি বেড়েছে ৫ হাজার কোটি টাকা। শুরুতে অন্যান্য খাতে ১০ হাজার ৩০০ কোটি টাকা ভর্তুকি বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু এখন দেওয়ার হচ্ছে ১৫ হাজার ৩০০ কোটি টাকা। মূল্যবৃদ্ধির কারণে কৃষকের সারে অতিরিক্ত ভর্তুকি বেড়েছে ২৫০০ কোটি টাকা। শুরুতে ৯৫০০ কোটি টাকা দেওয়া হলেও এখন বরাদ্দ বাড়িয়ে ১২ হাজার কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্থ বিভাগের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, এ বছর ভর্তুকি, প্রণোদনা খাতে মোট ৫৩ হাজার ৮৫২ কোটি টাকা রাখা ছিল। এখন সেটি বৃদ্ধি পেয়ে ৬৬ হাজার ৮২৫ কোটি টাকা করা হয়েছে। এ খাতে মোট বেড়েছে ১২ হাজার ৯৭৩ কোটি টাকা। এ বছর সরকারি বেতনভাতা খাতে বরাদ্দের চেয়ে আরও অতিরিক্ত ব্যয় হবে ১৫০০ কোটি টাকা। এটি বেড়েছে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় স্বাস্থ্য খাতে ডাক্তার, নার্সসহ নতুন জনবল নিয়োগের কারণে। করোনাভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্য খাতের সংকট পুরোপুরি ফুটে উঠেছিল। সারা দেশে নার্স ও চিকিৎসকের সংকট প্রকট আকার ধারণ করে। রোগীদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে হিমশিম খায় হাসপাতালগুলো।

এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় ৪ হাজার চিকিৎসক, ১৪০০ মিডওয়াইফারি, ৮১২৮ জন সিনিয়র নার্স নিয়োগ দেওয়া হয়। এই মিডওয়াইফারি ও সিনিয়র নার্সদের বেতনভাতা আগামী জুন পর্যন্ত প্রয়োজন হবে ২১৬ কোটি টাকা। আর চিকিৎসকের বেতন বাবদ গুনতে হবে ২৯ কোটি ১১ লাখ টাকা, যা প্রতিমাসেই পরিশোধ করা হচ্ছে। এছাড়া অন্যান্য ব্যয়সহ মোট প্রয়োজন ৪১০ কোটি ১১ লাখ টাকা। এছাড়া প্রশাসনে নতুন জনবল নিয়োগের কারণে এ ব্যয় বেড়েছে। করোনার কারণে গত দুই বছর স্থগিত ছিল জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া। এসব কারণে এ বছর সরকারের পরিচালনা খাতের ব্যয় বেড়েছে। শুরুতে পরিচালনা বাবদ ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৩৫৭ কোটি টাকা থাকলে সংশোধিত বাজেটে ৩ লাখ ৮৫ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়। অর্থাৎ নতুন বরাদ্দ বেড়েছে ৭ হাজার ৫৯৩ কোটি টাকা। এ বছর ঋণের সুদ পরিশোধ খাতে অতিরিক্ত ২ হাজার ৬৫৫ কোটি টাকা গুনতে হচ্ছে। বছরের শুরুতে অভ্যন্তরীণ ঋণের সুদ বাবদ ৬ হাজার ৫৮৯ কোটি টাকা ধরা হয়। কিন্তু সেটি বৃদ্ধি পেয়ে ৯ হাজার ২৪৪ কোটি টাকায় উঠেছে।


আরও খবর



ঠাকুরগাঁওয়ে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঠাকুরগাঁও শহরের আশ্রমপাড়া মহল্লার শিশু পার্কের পাশে একটি নতুন বাড়ির নির্মান কাজে মাটির খোঁড়ার সময় বাক্স ভর্তি ২৭টি পরিত্যক্ত অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, এখানে নাজির হাওলাদার নামের এক বীর মুক্তিযোদ্ধার একটি পুরাতন ভবন ছিল। ভবনটি ভেঙে নতুন করে নির্মাণের জন্য কাজ শুরু করেছেন তার নাতি হানিফ। মঙ্গলবার দুপুরে মাটি খোঁড়ার কাজ করছিলেন শ্রমিকরা। এ সময় অস্ত্র দেখতে পেয়ে তারা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে এখন পর্যন্ত ২৭টি অস্ত্র উদ্ধার করে।

মঙ্গলবার (১৭ মে) বিকেল ৩টার দিকে অস্ত্রগুলো উদ্ধার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন। পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, অস্ত্রগুলো পরিত্যক্ত। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের সময় এগুলো ব্যবহৃত হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, অস্ত্র আরও আছে কি না তা জানতে পুলিশ কাজ করছে। ভবনের মালিককে খবর দেওয়া হয়েছে। তিনি পঞ্চগড়ে থাকায় আসতে দেরি হচ্ছে। আমরা তার জন্য অপেক্ষা করছি।


আরও খবর