আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

নকল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির দায়ে যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাবনায় নিজ কারখানায় নকল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির দায়ে একজন এবং অস্ত্র-গুলিসহ আরও এক যুবলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

গ্রেপ্তাকৃতরা হলেন জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মো. আজমল শেখ (৩৫) মো. রাজ আহম্মেদ রনি (৪০)।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে (ডিবি অফিস চত্বরে) এক সংবাদ সম্মেলনে রাতের অভিযানের তথ্য তুলে ধরেন পুলিশ সুপার মো. মহিবুল ইসলাম খান।

পুলিশ সুপার বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল বুধবার রাতে পৌর এলাকার ছোট শালগাড়িয়া মহল্লায় অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করে ডিবি পুলিশের একটি দল। সেখানে গিয়ে হাতে নাতে এলাকার সন্ত্রাসী ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামি মো. আজমল শেখকে আটক করে। এ সময় তাঁর কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও সাত রাউন্ড তাজা গুলি জব্দ করা হয়। এ সময় একই স্থানে আরও একটি অবৈধ যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানার সন্ধান পায় ডিবি পুলিশ। সেখানে অভিযান চালিয়ে বিপুল মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন কোম্পানির নামে ছাপাকৃত ফ্রুট সিরাপ উদ্ধার করা হয়। সেখানে এই অবৈধ গোপন কোম্পানির মালিক মো. রাজ আহম্মেদ রনিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক অসিত কুমার ও সাগর কুমার সাহা বাদী হয়ে আজমল শেখের নামে অবৈধ অস্ত্র আইনে ও রাজ আহমেদ রনির নকল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির অভিযোগে মামলা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. রোকনুজ্জামান, ডিবি ওসি মো. আব্দুল হান্নান, ডিবি পুলিশ পরিদর্শক জিন্নাত সরকার। এই অভিযানের পৃথক দুটি মামলার প্রস্তুতি চলছে। পৃথক দুটি মামলার (ডিবি) পুলিশের উপপরিদর্শক অসিত কুমার ও সাগর কুমার সাহা বাদী হয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে পাবনা জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আলী মতুর্জা বিশ্বাস সনি বলেন, যুবলীগের নাম ভাঙিয়ে কেউ সন্ত্রাসী ও অবৈধ কর্মকাণ্ড করলে তাঁর দায় দল নেবে না। তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর
পাবনায় ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে নিহত ২

শুক্রবার ২২ জানুয়ারী ২০২১




আগামীকাল সৌদিতে ঈদ

প্রকাশিত:বুধবার ১২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ৪৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সৌদি আরবে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৩ মে) দেশটি ঈদ উদযাপন করবে। এবার দেশটিতে পবিত্র রমজান মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হচ্ছে।

গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল মঙ্গলবার (১১ মে) সৌদি আরবের চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠক করে। কিন্তু সেদিন চাঁদ দেখা যায়নি। তবে ৩০ দিন রোজা শেষে বৃহস্পতিবার দেশটিতে ঈদ পালন করা হবে। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে।

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখেই সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, ওমান, মিসর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় সব দেশে পবিত্র রমজান পালন এবং ঈদ উদযাপনসহ ইসলাম ধর্মের সকল ধর্মীয় উৎসব ও ইবাদত-বন্দেগি করা হয়ে থাকে।

ভৌগলিক কারণে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর একদিন পরই সাধারণত বাংলাদেশের আকাশে চাঁদ দেখা যায়। এ জন্য সৌদির সঙ্গে মিল রেখে একদিন পরই বাংলাদেশে রমজান পালন ও ঈদ উদযাপন করা হয়। তবে মুসলিমরা ধর্মীয় নিয়ম অনুযায়ী চাঁদ দেখা সাপেক্ষে সব ধর্মীয় উৎসব ও ইবাদত করে থাকেন।

নিউজ ট্যাগ: সৌদিতে ঈদ

আরও খবর



হেফাজত নেতা মামুনুল হক ৭ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হকের ফের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় রাজধানীর মতিঝিল ও পল্টন থানার পৃথক দুই মামলায় তাঁর এ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরি শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামুনল হকের আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদীন মেজবাহ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

২০১৩ সালের মতিঝিল থানার মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মনিরুজ্জামান হেফাজত নেতা মামুনুলকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদনসহ ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে হাজির করেন। অপরদিকে, চলতি বছরের ২৬ মার্চ বায়তুল মোকাররমের ঘটনায় পল্টন থানার মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক কামরুল ইসলাম আসামি মামুনুল হককে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদনসহ ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। এ সময় আসামিপক্ষের আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদীন মেজবাহ রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

এর আগে ১৯ এপ্রিল মোহাম্মদপুর থানায় করা চুরি ও মারধরের মামলায় মামুনুল হকের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ৭ দিনের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আজ আদালতে হাজির করা হয়। ১৮ এপ্রিল রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টকাণ্ড, একাধিক বিয়ে আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের বিরোধিতা করে হেফাজতের নৈরাজ্যসহ নানা কারণে আলোচনার কেন্দ্রে ছিলেন মাওলানা মামুনুল হক। নরেন্দ্র মোদির সফরের সময় ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত সহিংসতায় দেশে ১৭ জনের মৃত্যু হয়। এসব সহিংসতার ঘটনায় সারাদেশে প্রায় অর্ধশতাধিক মামলা হয়েছে। মামুনুলকে এসব ঘটনার মূল ইন্ধনদাতা হিসেবে মনে করছে পুলিশ।


আরও খবর



মামুনুল ইস্যুতে ডিসি হারুন বক্তব্য

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ এপ্রিল ২০২১ | ১২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ রোববার (১৮ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুর জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) হারুন-অর-রশিদ গ্রেপ্তার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিসি হারুন বলেন, ২০২০ সালের মোহাম্মদপুর থানার একটি ভাঙচুর ও নাশকতার মামলায় তদন্ত চলছিল। তদন্তে হেফাজত নেতা মামুনুলের সম্পৃক্ততার বিষয়টি সুস্পষ্ট হওয়ায় আমরা তাকে গ্রেপ্তার করেছি। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডিসি হারুন বলেন, বায়তুল মোকাররম, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া, হাটহাজারির ঘটনার পর থেকেই তিনি নজরদারিতে ছিলেন। সবকিছু মিলিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে আপাতত মোহাম্মদপুর থানার মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

তিনি বলেন, আজ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে এবং আগামীকাল সোমবার (১৯ এপ্রিল) তাকে আদালতে তোলা হবে। কোন কোন মামলায় কি করা যাবে সেটা আমরা আমাদের ঊর্ধ্বতনদের সাথে আলোচনা করে ঠিক করবো।

হারুন-অর-রশিদ বলেন, মামুনুলকে গ্রেপ্তারের সময় কোনও ধরনের বাধার সম্মুখীন হতে হয়নি।

নরেন্দ্র মোদির সফরের সময় ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত সহিংসতায় দেশে ১৭ জনের মৃত্যুর হয়। এসব সহিংসতার ঘটনায় সারাদেশে প্রায় অর্ধশতাধিক মামলা হয়েছে। এসব ঘটনার মূল ইন্ধনদাতা হিসেবে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের দিকেই সন্দেহের তীর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর।


আরও খবর



ভারত থেকে বাংলাদেশে আসা যাত্রীদের মধ্যে করোনা শনাক্ত

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ মে 2০২1 | ১০২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
নির্দেশনা অনুযায়ী দেশে ফেরত আসা যাত্রীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা আগত যাত্রীদের সার্বিক দেখাশোনার জন্য চেকপোস্টের আন্তর্জাতিক টার্মিনালে মনিটরিং

শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশে যাত্রী এসেছে ৭০ জন। এদের পাঠানো হয়েছে খুলনার বিভিন্ন হোটেলে। গত ৬ দিনে সবমিলে দেশে ফেরত আসা যাত্রীর সংখ্যা ১ হাজার ২৬ জন। দেশে ফেরত আসা এসব যাত্রীদের মধ্যে করোনা শনাক্ত পাওয়া গেছে ৭ জন। তাদের যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশি যাত্রীদের চাপে ভরে গেছে বেনাপোলের আবাসিক হোটেল ও মাদরাসা। চাপ সামলাতে শনিবার থেকে দেশে ফেরা যাত্রীদের ৭৫ কিলোমিটার দুরে জেলা সদর নড়াইলের পর এবার নেয়া হচ্ছে খুলনায়।

রবিবার (২ মে) দুপুর ১টার মধ্যে দেশে ফিরেন আরও প্রায় ৮০ জন বাংলাদেশি। এদের বিশেষ ব্যবস্থায় খুলনায় নেয়া হচ্ছে। গতকাল পর্যন্ত দেশে ঢুকেছে ৯৪৬ জন। প্রথম তিনদিনের প্রায় ৬ শতাধিক যাত্রীকে রাখা হয় বেনাপোলের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে। বেনাপোলে পর্যটন মোটেলসহ হোটেলের সংখ্যা ১২। স্থান সংকুলান না হওয়ায় ২৯ তারিখ দেশে ফেরত আসা যাত্রীদের রাখা হয় ঝিকরগাছার গাজীর দরগা মাদ্রাসায়। ৩০ তারিখের যাত্রীদের পাঠানো হয়েছে নড়াইলের বিভিন্ন হোটেলে।

সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী দেশে ফেরত আসা যাত্রীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা আগত যাত্রীদের সার্বিক দেখাশোনার জন্য চেকপোস্টের আন্তর্জাতিক টার্মিনালে মনিটরিং সেল বসিয়ে দেখা শোনা করছেন।

বেনাপোলের পোর্টভিউ হোটেলের সত্ত্বাধিকারী আলহাজ্ব ওয়াজেদ আলী জানান, আজ থেকে তার হোটেলে অবস্থান নেয়া প্রায় ৫০ জন রোজাদার যাত্রীকে তার পরিবারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে সন্ধ্যায় ইফতার এবং রাতে সেহরির ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঈদের আগের দিন পর্যন্ত সকল রোজাদার যাত্রীদের খাবার দেয়া অব্যাহত থাকবে।


আরও খবর



পদ্মা পারের অপেক্ষায় অর্ধলাখ মানুষ

প্রকাশিত:বুধবার ১২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো মানুষের জনস্রোত থামছেই না। গাড়ি রেখে ফেরিতে যাত্রী পারাপার করলেও ১৬টি ফেরি নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে ঘাট কর্তৃপক্ষ। শিমুলিয়া ঘাট ও তার আশেপাশের এলাকায় অন্তত ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ পদ্মাপারের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শিমুলিয়া ঘাট থেকে মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি শেখ মো. শিমুল জানান, যখন কোন ফেরি ঘাটে আসছে তখনই হুমড়ি খেয়ে পড়ছে যাত্রীরা। এতে ফেরিতে থাকা যানবাহন নামতে বিলম্ব হচ্ছে। বিঘ্ন হচ্ছে মানুষ পারাপার। গতকাল ঘাট ফাঁকা থাকলেও আজ (বুধবার) সকাল থেকেই হুমড়ি খেয়ে পড়ছে যাত্রীরা। বেলা যত বাড়ছে যাত্রীর চাপ তত বেড়েই চলছে।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহম্মেদ আরটিভি নিউজকে বলেন, এ মুহূর্তে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে ১৬টি ফেরি চলছে। পারাপারের জন্য ঘাটে এখনও প্রায় ৫০-৬০ হাজার যাত্রী অবস্থান করছেন। লঞ্চ ও স্পিডবোটের মাধ্যমে পারাপারের ব্যবস্থা না থাকায় ফেরিতে যাত্রী বহনে বেগ পেতে হচ্ছে।


আরও খবর