আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

অন্ধকার জগতের রানী ছিলেন ডিজে নেহা

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ২৩৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর মৃত্যুর রহস্যজট এখনো খোলেনি। পরিবারের অভিযোগ, ওই ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।

অন্যদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, বিষক্রিয়া ওই ছাত্রীর মৃত্যুর কারণ হতে পারে। এ ঘটনায় গ্রেফতার ভুক্তভোগীর বান্ধবী ফারজানা জামান ওরফে ডিজে নেহা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে নিজের অন্ধকার জগত সম্পর্কে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার গ্রেফতারের পর শুক্রবার ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়ে নেহাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ। রোববার রিমান্ডের তৃতীয় দিনে নেহার ফোনবুকে পুলিশ ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের ডজনখানেক শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীর নম্বর পেয়েছে। যেগুলো সাংকেতিকভাবে সংরক্ষণ করা। এসব ধর্নাঢ্যদের অনেকের কাছে মদ, তরুণী সরবরাহ করতেন তিনি। কখনও কখনও নেহা নিজেই তাদের সঙ্গ দিয়েছেন। বিনিময়ে তাদের কাছ থেকে হাতিয়েছেন মোটা অঙ্কের টাকা। 

তদন্তসংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে, ডিজে নেহার পছন্দের মোবাইল ফোনে (আইফোন) টার্গেট করা ব্যবসায়ী ও ধনী যুবকদের নম্বর ক্লায়েন্ট-১, ক্লায়েন্ট-২, ক্লায়েন্ট-৩ এমন ধারাবাহিকভাবেই সংরক্ষণ করা আছে। জিজ্ঞাসাবাদে নেহা জানিয়েছেন, গত বছরের মার্চে চট্টগ্রামের এক গাড়ি ব্যবসায়ীর সঙ্গে একটি পার্টিতে তার পরিচয় হয়।

এরপর ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে কৌশলে ৬ মাসে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন নেহা। নেহার এসব কাজে সহযোগিতা করতেন তারই চাচাতো ভাই শাফায়াত জামিল বিশাল। বিশাল সার্বক্ষণিক নেহার সঙ্গেই থাকতেন।

Share

আরও খবর



স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন ১০ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ মার্চ ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
এটি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সরকার ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতি বছর এ পুরস্কার দিয়ে আসছে। স্বাধীনতা পুরস্কারের ক্ষেত্রে পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে ৫ লাখ টাকা

জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার, কবি মহাদেব সাহা, সুরকার-গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ারসহ ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠান ২০২১ সালের স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছে।

রবিবার (৭ মার্চ) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এবার প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল এ পুরস্কার পাচ্ছে।

এটি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সরকার ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতি বছর এ পুরস্কার দিয়ে আসছে। স্বাধীনতা পুরস্কারের ক্ষেত্রে পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে ৫ লাখ টাকা, ১৮ ক্যারেট মানের ৫০ গ্রাম স্বর্ণপদক, পদকের একটি রেপ্লিকা ও একটি সম্মাননাপত্র দেয়া হবে।

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ ক্ষেত্রে এবার চারজন স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন- মরহুম এ কে এম ফজলুর রহমান, শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার, মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খুরশিদ উদ্দিন আহমেদ ও মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পাচ্ছেন ড. মৃন্ময় গুহ নিয়োগী। সাহিত্যে পুরস্কার পাচ্ছেন কবি মহাদেব সাহা। সংস্কৃতিতে নাট্যজন আতাউর রহমান ও সুরকার-গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন। সমাজসেবা/জনসেবা ক্ষেত্রে পুরস্কার পাচ্ছেন অধ্যাপক ডা. এম আমজাদ হোসেন। গবেষণা ও প্রশিক্ষণে স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল।

Share

আরও খবর
জাতীয় পতাকা দিবস আজ

মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1




মুশতাকের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে, তার মৃত্যুতে কষ্ট পেয়েছি: রেজাউল করিম

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৪১৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মুশতাকের মৃত্যুর পর ডিজিটাল আইন নিয়ে অনেকে অনেক কথা বলছে, আমি বলতে চাই কেউ মুশতাককে পিটিয়ে মারেনি, তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। আমিও তার মৃত্যুতে কষ্ট পেয়েছি

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে চলমান আলোচনা আর বিতর্কের মাঝেই আইনটি পর্যালোচনা করার সুযোগ রয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। তিনি বলেন, আলোচনা করে আইনের অনাকাঙ্খিত ধারাগুলো সংশোধন করা সম্ভব।

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ নিয়ে আয়োজিত ভার্চুয়াল সেমিনারে অংশ নিয়ে মন্ত্রী বলেন, কোন আইনই সম্পূর্ণ নয়, নয় বিতর্কের উর্ধ্বে । আইনের যথাযথ প্রয়োগ যেমনি আছে তেমনি আছে অপ্রয়োগ। আর তাই প্রয়োজনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটির প্রয়োজনীয় সংশোধন করে সংস্কার করা যেতে পারে।

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যুকে দুঃখজনক ও অনাকাঙ্খিত উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, 'মুশতাকের মৃত্যুর পর ডিজিটাল আইন নিয়ে অনেকে অনেক কথা বলছে, আমি বলতে চাই কেউ মুশতাককে পিটিয়ে মারেনি, তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। আমিও তার মৃত্যুতে কষ্ট পেয়েছি। '

সেমিনারে বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক আইনটির অধিকাংশ ধারায় জামিন অযোগ্যতা, পরোয়ানা ছাড়াই পুলিশের তল্লাশি, জব্দ ও গ্রেফতারের ক্ষমতা থাকাকে এ আইনের দুর্বলতা হিসেবে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, জনগণের মতপ্রকাশ ও বাকস্বাধীনতা সুরক্ষায় সরকাররে দ্রুত আইনের ২১, ২৫, ২৮ ও ৩৫ এ চারটি ধারা সংশোধনের উদ্যোগ নিতে হবে।

আলোচনা সভায় সিজেএস এর পরিচালক ড. মনজুর আহমেদ চৌধুরী জানান, পুলিশ সদর দফতর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী গেল বছরের পহেলা জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের ২৫ ফেব্রুযারি পর্যন্ত সারা দেশে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে ৭৮৩টি মামলা দায়ের হয়েছে। যার মধ্যে ঢাকা বিভাগ শীর্ষে রয়েছে। যেখানে মামলা হয়েছে ১১২টি। তবে এসময় দেশের ৫টি জেলায় এ আইনে কারো বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়নি। মামলা শূন্য ৫টি জেলা হলো- চাপাঁইনবাবগঞ্জ, নীলফামারি, কুড়িগ্রাম, রাজবাড়ী ও শরীয়তপুর।

সেন্টার ফর গর্ভন্যান্স স্টাডিজের নিজস্ব সমীক্ষায় আরো বলা হয়, এখন পর্যন্ত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে যাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে তাদের মধ্যে শীর্ষে আছেন সাংবাদিক ও গণমাধ্যমকর্মীরা। জরিপে বলা হয়েছে ১৩ দশমিক ৬৮ শতাংশ মামলা হয়েছে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে, রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ১৩ দশমিক ৩৯ শতাংশ, শিক্ষার্থীদের ২ দশমিক ৯১ শতাংশ, শিক্ষক ২ দশমিক ৯১ শতাংশ, বেসরকারি চাকুরিজীবী ২ দশমিক ১৮ শতাংশ, ব্যবসায়ি ২ দশমিক ১৮ শতাংশ, সরকারি চাকুরিজীবী ১ দশমিক ৭৫ শতাংশ ও আইনজীবী শূণ্য দশমিক ৪৪ শতাংশ। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়েরের পরিমাণ ২৬ দশমিক ২৮ শতাংশ বলেও তুলে ধরা হয়।

এদিকে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনকে মানুষের জন্য জরুরি আইন বলে মন্তব্য করেন ডাক যোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য জাকিয়া পারভীন খানম। তিনি বলেন, ডিজিটাল মাধ্যমে অপরাধ কমাতেই সরকার আইনটি পাস করেছেন।

নিউজ ট্যাগ: শ ম রেজাউল করিম
Share

আরও খবর
ঢাবিতে ভর্তির আবেদন শুরু

সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১




রাজধানীতে ধর্ষণের শিকার কিশোরীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১৩৪জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মায়ের সঙ্গে অভিমান করে তার দুই মেয়ে সেদিন বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। রাতে বাসায় না ফেরায় খুব চিন্তিত হয়ে পড়েন। এরপর আত্মীয়স্বজনসহ সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেন

রাজধানীতে ধর্ষণের শিকার কিশোরী মেয়েটির পাশে ছিল একটি চিরকুট। চিরকুটে লেখা ছিল মা–বাবাকে খুব ভালোবাসে।’ চিরকুটটি ১৩ বছরের এক কিশোরীর বিছানার পাশে পাওয়া গিয়েছিল। পুলিশ বলছে, আত্মহত্যার আগে সে এই চিরকুটটি লিখে গিয়েছিল।

স্থানীয় পুলিশ ও মামলার নথি থেকে জানা যায়, রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর বাসা থেকে গত ২৯ জানুয়ারি বিকেলে মায়ের সঙ্গে রাগ করে দুই বোন বের হয়। তাদের মধ্যে একজনের বয়স ১৩ বছর ও অন্যজনের ৭ বছর। বড় বোন তার এক বান্ধবীকে (১৪) সঙ্গে নেয়। এরপর ঘুরতে ঘুরতে তিনজন জুরাইন বাসস্ট্যান্ডে একটি বাসে ঘুমিয়ে পড়ে। ভোররাতে বাস থেকে নেমে একজন নিরাপত্তারক্ষীর সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর সেখানে আসা দুই কিশোর তিনজনকে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে রিকশায় করে তারা নিয়ে যায়।

শিশুসহ দুই কিশোরীকে কদমতলী এলাকায় নির্মাণাধীন একটি ভবনের কাছে নিয়ে যায় দুই কিশোর। সেখানে একটি ভবনের দোতলায় নিয়ে ১৩ বছর বয়সী কিশোরীকে ধর্ষণ করে এক কিশোর। সকালে ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী ও তার বোনকে দনিয়া এলাকায় খুঁজে পান তাদের বাবা। এ ঘটনায় যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের মধ্যে দুই কিশোর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

খুদে ব্যবসায়ী কিশোরীর বাবা বলেন, সেদিন ছিল শুক্রবার। মায়ের সঙ্গে অভিমান করে তার দুই মেয়ে সেদিন বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। রাতে বাসায় না ফেরায় খুব চিন্তিত হয়ে পড়েন। এরপর আত্মীয়স্বজনসহ সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেন। দুই মেয়েকে না পেয়ে যাত্রাবাড়ী থানায় যান সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে। পরে সকালে তিনি দনিয়া এলাকায় মেয়েদের খুঁজে পান।

তিনি আরও বলেন, দুই মেয়ে আর স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার। কিন্তু ধর্ষণের শিকার হয়ে মেয়েটি আত্মহত্যা করল। যারা তার অল্পবয়সী মেয়েকে ধর্ষণ করেছে, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

পুলিশ পরিদর্শক শাহীনুর রহমান বলেন, কিশোরীর আত্মহত্যার ঘটনাটি মর্মান্তিক, হৃদয়বিদারক। আদালতে দুই আসামি জবানবন্দিতে পুরো ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ দিয়েছে। কিশোরী ধর্ষণে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

যাত্রাবাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহিনুর রহমান বলেন, দুই বোনের মধ্যে বড় বোন কদমতলী এলাকায় ধর্ষণের শিকার হয়। পরে ওই কিশোরী বাসায় ফিরে বিষপানে আত্মহত্যা করে। দুই কিশোর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। যে কিশোর ধর্ষণ করেছে, সে পলাতক। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Share

আরও খবর



ওজন কমাতে টমেটো তুলনাহীন

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাজারে টমেটোর সরবরাহ প্রচুর, দামও খুবই কম। এই টমেটো গুণে ভরপুর। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি ও খনিজ পদার্থ। টমেটো দেহের রক্তচাপের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, ত্বক উজ্জ্বল করতে সিদ্ধহস্ত। তবে ওজন কমানোর উপকরণ হিসাবে টমেটো তুলনাহীন।

টমেটো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। বিটা-ক্যারোটিন ও লাইকোপেনে সমৃদ্ধ টমেটো চোখের দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তবে এক গ্লাস টমেটোর রস দ্রুত মেদ কমাতে সহয়তা করে। টমেটোর রসে ক্যালরির পরিমাণ খুবই কম। একটি ১০০ গ্রাম টমেটোতে মাত্র ১৭ গ্রাম ক্যালরি থাকে। এতে মূলত পানির পরিমাণই বেশি। একটি টমেটোতে প্রায় ৯৪ শতাংশ শুধু পানিই থাকে। তাই এটি ওজন কমাতে সাহায্য করে।

টমেটোতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট লাইকপেনে, যা কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ, চোখ ও ত্বকের সুরক্ষা এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। গবেষণায় দেখা যায়, লাইকোপেনে প্রাকৃতিকভাবে মেটাবলিজম নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এর ফলে শরীরের মেদ ঝরে ওজন দ্রুত কমে। 

গবেষকদের মতে, টমেটো শরীরে কারনিটাইন নামক একটি অ্যামাইনো এসিড তৈরি করে, যা শরীরের মেদ কমাতে সাহায্য করে। 

নিউজ ট্যাগ: টমেটো
Share

আরও খবর



মিয়ানমারে বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি, নিহত ২

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | ৬৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী আন্দোলন নিয়ন্ত্রণ করতে গুলি চালিয়ে ২ জনকে হত্যা করেছে দেশটির পুলিশ। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে মার্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ের এ ঘটনায় শনিবার ৪০ জনের মতো আহত হয়েছেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় শিপইয়ার্ডে কর্মীদের কাজে যোগ দিতে বাধ্য করলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে বিক্ষোভকারীদের। হাজার-হাজার কর্মীদের মতো এই শ্রমিকেরাও সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদ জানিয়ে কর্মবিরতি ঘোষণা করেন। ১ হাজারের বেশি বিক্ষোভকারী এদিন শিপইয়ার্ডে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন।

১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে দেশটির বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ চলছে। কাঁদানে গ্যাস, জলকামান, রাবার বুলেট ছুড়ে বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হয়েছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এর মধ্যে ৯ ফেব্রুয়ারি রাজধানী নেইপিদোতে সেনাশাসন বিরোধী বিক্ষোভকালে গুলিতে আহত হন ২০ বছরের এক নারী। তিনি স্থানীয় একটি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শুক্রবার মারা যান।

এ ঘটনার পর সহিংসতা থেকে সরে আসতে দেশটির সেনাবাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

নিউজ ট্যাগ: মিয়ানমার পুলিশ
Share

আরও খবর