আজঃ বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

পাট থেকে প্যাড: ইনোভেশন পিচ প্রতিযোগিতায় প্রথম হলেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আইসিডিডিআর'বি তাদের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে জানিয়েছে, পুরস্কার অংক হিসেবে ফারহানা সুলতানাকে ৫ হাজার মার্কিন ডলার দিয়েছে এএসটিএমএইচ

পাটের সেলুলোজভিত্তিক স্যানিটারি প্যাড তৈরির প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য ৪র্থ ইনোভেশন পিচ প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ড পুরষ্কার জিতেছেন আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআর'বি) সহকারী বিজ্ঞানী ফারহানা সুলতানা।

আমেরিকান সোসাইটি ফর ট্রপিক্যাল মেডিসিন অ্যান্ড হাইজিন (এএসটিএমএইচ) এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

এবারের আয়োজনের প্রতিপাদ্য ছিলমহামারি ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় স্বাস্থ্য সম্মত বিশ্ব সম্প্রদায়।

আইসিডিডিআর'বি তাদের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে জানিয়েছে, পুরস্কার অংক হিসেবে ফারহানা সুলতানাকে ৫ হাজার মার্কিন ডলার দিয়েছে এএসটিএমএইচ। একইসঙ্গে তিনি ২০২২ সালে অনুষ্ঠিতব্য ৫ম ইনোভেশন পিচ প্রতিযোগিতায় বিচারক হবেন।

ড. মোবারক আহমেদ খানের (বাংলাদেশ জুট মিলস কর্পোরেশনের বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা) সঙ্গে সমন্বয় করে ফারহানা সুলতানা ম্যানুয়ালি পাটের সেলুলোজভিত্তিক ডিসপোজেবল প্যাড তৈরি করে এর পরীক্ষা চালিয়েছেন।

পাটের সেলুলোজ একটি নতুন উপাদান এবং বর্তমানে দেশে এমন প্যাড তৈরির কোনো মেশিন নেই যা এর উৎপাদনে সাহায্য করবে।

আইসিডিডিআর'বি জানিয়েছে, পুরস্কারের অর্থ দিয়ে সুলতানা আরও অধিক সংখ্যক প্যাড উৎপাদনের জন্য পরীক্ষা চালাবেন, একটি ব্যবসায়িক পরিকল্পনা তৈরি করবেন, নিজের দক্ষতা বৃদ্ধিতে কাজ করবেন এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনার বিভিন্ন উপায় খুঁজবেন।


আরও খবর
করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মঙ্গলবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২১




আজ আপনার জন্মদিন হলে

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ আপনার জন্মদিন হলে পাশ্চাত্য জ্যোতিষে আপনি ধনু রাশির জাতক/ জাতিকা। আপনার জন্মসংখ্যা : ৮। আপনার ওপর প্রভাবকারী গ্রহ : বৃহস্পতি ও শনি। আপনার শুভ সংখ্যা : ৮ ও ৩। শুভ বার : বৃহস্পতি ও শনি। শুভ রত্ন : নীলা ও পোখরাজ।

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

পড়াশোনার প্রতি আগ্রহ বোধ করতে পারেন। পথ চলাচলে সতর্কতা অবলম্বন করুন। বিলাসদ্রব্য ক্রয় করতে পারেন। অসুস্থ মায়ের যত্ন নিন। উত্তেজনা পরিহার করুন।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২০ মে)

দিনটি মিশ্র সম্ভাবনাময়। গলায় কোনও সমস্যা অনুভব করতে পারেন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ঠাণ্ডা সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। ছোট ভাইবোনদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখুন।

মিথুন (২১ মে-২০ জুন)

আর্থিক দিক মোটামুটি ভালো থাকতে পারে। পাওনা টাকা আদায়ের জন্য তাগাদা দিন। মূল্যবোধ বজায় রাখুন। অধীনদের কাজে লাগাতে চেষ্টা করুন। পড়াশোনায় আনন্দ পাবেন।

কর্কট (২১ জুন-২০ জুলাই)

শরীর ভালো থাকতে পারে। অসুস্থদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে পারে। জ্ঞাতিশত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। অপরের প্রতি সদাচরণ করুন। পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে চলুন।

সিংহ (২১ জুলাই-২১ আগস্ট)

গোপন শত্রুরা ক্ষতি করার চেষ্টা করতে পারে। গোপন শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। শারীরিক অসুস্থতাকে অবহেলা করবেন না। দূরের যাত্রা হতে পারে। অকারণ ব্যয় পরিহার করুন।

কন্যা (২২ আগস্ট-২২ সেপ্টেম্বর)

জ্যেষ্ঠ ভাইবোনদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখুন। প্রয়োজনে তাদের সহযোগিতা গ্রহণ করুন। কোনও আশা পূরণ হতে পারে। আর্থিক দিক ভালো যেতে পারে। শ্রমিকনেতাদের জন্য সময় অনুকূল থাকবে পারে।

তুলা (২৩ সেপ্টেম্বর-২২ অক্টোবর)

সামাজিক কাজে অংশ নিতে পারেন। সে ক্ষেত্রে সাফল্যের সম্ভাবনা আছে। সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পেতে পারে। বেকারদের কর্মপ্রাপ্তির প্রচেষ্টা জোরদার করুন। অসুস্থ পিতার প্রতি যত্নবান হওয়ার চেষ্টা করুন।

বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর-২১ নভেম্বর)

সামাজিক যোগাযোগ চালিয়ে যান। সে ক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। ভাগ্যোন্নয়নে প্রচেষ্টা জোরদার করুন। তীর্থযাত্রা হতে পারে।

ধনু (২২ নভেম্বর-২০ ডিসেম্বর)

কোনও ধরনের সামাজিক সমস্যার উদ্ভব হতে পারে। আপনার নামে কোনও অপবাদ রটতে পারে। জৈবিক কামনা-বাসনাকে সংযত রাখুন। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে না। বিক্রয়-বাণিজ্যে লোকসান হতে পারে।

মকর (২১ ডিসেম্বর-১৯ জানুয়ারি)

দাম্পত্য সম্পর্ক ভালো থাকতে পারে। অপরের প্রতি সদাচরণ করুন। ব্যবসায়িক দিক ভালো থাকতে পারে। যৌথ ব্যবসায় নিজের কর্তৃত্ব বজায় রাখার চেষ্টা করুন। বিক্রয়-বাণিজ্যে লাভযোগ আছে।

কুম্ভ (২০ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

শত্রুরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে। শত্রুদের দুর্বল ভাববেন না। নিজের সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে সতর্ক থাকুন । শরীর অসুস্থ হতে পারে। অবহেলা না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

সন্তানের প্রতি খেয়াল রাখুন। নিজের মনোভাব স্পষ্ট ভাবে প্রকাশ করুন, অন্যথায় সুযোগ হাতছাড়া হতে পারে। ধর্মীয় কাজে আনন্দ পাবেন। পড়াশোনার প্রতি মনোযোগী হওয়ার চেষ্টা করুন।

 

নিউজ ট্যাগ: আজকের রাশিফল

আরও খবর
আজ আপনার জন্মদিন হলে

বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

আজ আপনার জন্মদিন হলে

বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১




উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছাতে সর্বাত্মক কাজ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, সম্প্রতি বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছে। এটি নিঃসন্দেহে একটি খুশির খবর। কিন্তু এ নিয়ে আত্মতুষ্টিতে ভুগলে চলবে না। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের কাতারে শামিল হওয়ার লক্ষ্যে এখন থেকে সর্বাত্মকভাবে কাজ শুরু করতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তিতে বুধবার (১ ডিসেম্বর) আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে আচার্য ও রাষ্ট্রপতি এ আহ্বান জানান। বঙ্গভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি যুক্ত ছিলেন।

চতুর্থ শিল্পবিপ্লব এগিয়ে চলছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, কয়েক বছর পরই পঞ্চম শিল্পবিপ্লবের ঢেউ বইতে শুরু করবে। তাই চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে পঞ্চম শিল্পবিপ্লবের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে পথিকৃতের ভূমিকা নিতে হবে। আমাদের শিক্ষার্থীরা যাতে তথ্যপ্রযুক্তিসহ জ্ঞান-বিজ্ঞানের সকল শাখায় বিশ্বব্যাপী সফলতার সঙ্গে এগিয়ে যেতে পারে, সেভাবে তাদেরকে গড়ে তুলতে হবে। আমি আশা করব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ যাত্রাপথে নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে।

মাতৃভাষা রক্ষা থেকে স্বাধীকার আন্দোলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবগাঁথা উল্লেখ করে আচার্য বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাঙালি জাতির শিক্ষা, সংস্কৃতি, ইতিহাস-ঐতিহ্য, গবেষণা-উদ্ভাবন, মুক্তবুদ্ধি চর্চা, প্রগতিশীল ভাবনা, জাতি-গঠন ও দেশাত্মবোধের চেতনার এক তেজোদীপ্ত আলোকবর্তিকা; বাঙালির আশা-আকাঙ্ক্ষার এক অনন্য বাতিঘর। প্রতিষ্ঠাকালে ১২টি বিভাগ ও ৮৭৭ জন শিক্ষার্থী নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহাসিক পথচলা শুরু হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন ৮৪টি বিভাগ ও অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৩৮ হাজার। দুইজন নারী শিক্ষার্থী নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হলেও বর্তমানে ছাত্রীর সংখ্যা ৪০ শতাংশের বেশি। দেশে নারীর ক্ষমতায়নের এটি একটি বিশাল সাফল্য।

আবদুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ সৃষ্টির পূর্বেকার ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় স্বাধীনতা-উত্তর সময়েও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সকল অগণতান্ত্রিক, অপসংস্কৃতি ও সামরিক স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন-সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে চলেছে। এরই স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত করা হয়। মুজিব জন্মশতবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রিসার্চ ইন্সটিটিউট ফর পিস অ্যান্ড লিবার্টি স্থাপনও একটি অনন্য উদ্যোগ।



আরও খবর



নথি গায়েব: স্বাস্থ্যের ৪ কর্মচারী বহিষ্কার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নথি গায়েবের ঘটনায় স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের চার কর্মচারীকে চিহ্নিত করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের সবাইকে।

সচিবালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. নুর আলী। তিনি বলেন, ওই চার কর্মচারীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থাও চলমান রয়েছে।

বহিষ্কার হওয়া চার কর্মচারী হলেন- ক্রয় ও সংগ্রহ-২ শাখার সাঁট মুদ্রাক্ষরিক-কাম-কম্পিউটার অপারেটর আয়েশা সিদ্দিকা ও জোসেফ সরদার, প্রশাসন-২ এর (গ্রহণ ও বিতরণ ইউনিট) অফিস সহায়ক বাদল চন্দ্র গোস্বামী এবং প্রশাসন-৩ শাখার অফিস সহায়ক মিন্টু মিয়া।

এর আগে স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের ২৯ নম্বর কক্ষ থেকে ১৭টি নথি হারানোর কথা জানিয়ে গত ২৮ অক্টোবর শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

জিডি সূত্রে জানা যায়, ২৭ অক্টোবর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা অফিস করে নথিগুলো ফাইল ক্যাবিনেটে রাখেন। পরের দিন দুপুর ১২টার দিকে কাজ করতে গিয়ে দেখেন ফাইলগুলো ক্যাবিনেটে নেই।

উপসচিব নাদিয়া হায়দার শাহবাগ থানায় জিডিটি করেন। জিডি হওয়ার পরই সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। নথি গায়েবের ঘটনা অনুসন্ধানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শাহ আলমকে প্রধান করে ৪ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়।


আরও খবর



চাঁদে জমি উপহার পেলেন মিম

প্রকাশিত:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | ৬২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নজরকাড়া গ্ল্যামারে শোবিজ মাতিয়ে চলেছেন বিদ্যা সিনহা মিম। আজ বুধবার (১০ নভেম্বর) তার জন্মদিন। বিশেষ দিনটি পরিবারের সঙ্গে কাটিয়েছেন নায়িকা। জন্মদিনে প্রিয় মানুষ, ভক্ত-অনুরাগীদের শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছেন এই অভিনেত্রী। বিশেষ দিনটিতে চাঁদে জমি উপহার পেয়েছেন মিম।

বিশেষ এই উপহার প্রসঙ্গে বিদ্যা সিনহা মিম গণমাধ্যমকে বলেন, 'তিন-চার বছর আগে জন্মদিনে বাবা আমাকে একটি গাড়ি দিয়েছিল। ওটা আমার কাছে অন্যরকম প্রিয় ছিল। এবার জন্মদিনে যদি বলি, আমার ছোট বোন আমাকে যে গিফট করবে সেই চিন্তাই করিনি। ওর গিফটটা খুবই সুইটেড। সে আমার জন্য চাঁদে জমি কিনে আমাকে গিফট করেছে। আমার নামেই কিনেছে। রাত ১২টার সময় সেই কাগজ আমাকে দিয়েছে।'

তিনি আরও বলেন, 'ও (বোন) ছোট মানুষ। ও যে এইটা করেছে, কোথায় থেকে যে ওর মাথায় এই জিনিসটা আসল! এটা আমার কাছে খুবই স্পেশাল।'

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়মিত ছবি পোস্ট করে সরব উপস্থিতির জানান দেন মিম। তার ফেসবুক ওয়ালে ভেসে বেড়ায় বাহারি ছবি। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশের পরপরই তার ছবিগুলো দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন নেটিজেনরা। রীতিমত অন্তর্জালে ঝড় তুলেন এই অভিনেত্রী। মিমের রূপ অনেক আগেই ভক্তদের হৃদয়ে দাগ কেটেছে। তার ছবি থেকে চোখ ফেরানো দায়। আর সেটি মাথায় রেখেই মিমের পোস্টে কমেন্ট করেন নেটিজেনরা।

বেশ কিছুদিন ধরেই পর্দায় মিমের উপস্থিতি কম। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে তার অভিনীত তিনটি সিনেমা। সেগুলো হলো- পরান, দামাল ও ইত্তেফাক।

সম্প্রতি বলিউডে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েও ফিরিয়ে দিয়েছেন বিদ্যা সিনহা মিম। কিন্তু যে কারণে তিনি সিনেমাটি ফিরিয়ে দিয়েছেন, সেটি জানার পর সকলেই তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। সিনেমার গল্পে বাংলাদেশকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে লোভনীয় প্রস্তাব পাওয়া সত্ত্বেও রাজি হননি এই লাক্স তারকা। অবশেষে সেই চরিত্রে অভিনয় করছেন আরেক লাক্স তারকা আজমেরি হক বাঁধন।


আরও খবর



কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে ১২৭৫ কোটি টাকা দেবে এডিবি

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সহায়তা করবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এজন্য ১৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ২৭৫ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে)।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) শেরেবাংলা নগরে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে (ইআরডি) এ সংক্রান্ত ঋণচুক্তি সই হয়েছে। সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও এডিবির পক্ষে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমং গিনটিং চুক্তিতে সই করেন।

দেশের তরুণ, বিদেশফেরত কর্মী এবং করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ উদ্যোক্তা বিশেষ করে কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের (সিএমএসই) জন্য ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। বাংলাদেশ ব্যাংক এ ঋণ দেশের ৩০ হাজার সিএমএসই উদ্যোক্তাদের মাঝে বিতরণ করবে। কর্মসংস্থান সৃষ্টি সহজতর করা এবং দুর্বল জনগোষ্ঠীকে মহামারির প্রভাব থেকে পুনরুদ্ধার করতে এ অর্থায়ন করা হচ্ছে।

এছাড়া গ্রামাঞ্চলে মানুষের আয় কমে গেছে এবং কৃষি ছাড়া অন্যান্য কর্মসংস্থানের সুযোগও কমে গেছে। পাশাপাশি গ্রামীণ উদ্যোক্তারাও মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন করোনার প্রভাবে। এসব জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করা হবে।

এডিবির এ অর্থে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ৩০ হাজার কুটির, মাইক্রো এবং ছোট আকারের উদ্যোগকে সহায়তা করা হবে। যুব, প্রত্যাবর্তনকারী অভিবাসী শ্রমিক এবং গ্রামীণ জনগোষ্ঠী দ্বারা পরিচালিত কুটির, মাইক্রো এবং ছোট আকারের উদ্যোগের জন্য বাংলাদেশকে এ অর্থায়ন করা হবে। ঋণের এ অর্থে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তা করা হবে।

ইআরডি সচিব বলেন, এডিবির ঋণ কোভিড-১৯ মহামারির সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করবে। ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থ-সামাজিক পুনরুদ্ধারে সহায়তা করার জন্য সরকারের প্রচেষ্টাকে এগিয়ে নেবে।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর গিনটিং বলেন, এডিবির এ প্রয়াস নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে। একটি ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে সিএমএসমইকে অর্থায়ন করা হবে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করা হবে। এক কথায় করোনা সংকটে পড়া মানুষকে সহায়তা করতেই ঋণ দিচ্ছে এডিবি।

প্রকল্পটির আওতায় ২০২৫ সালের মধ্যে কমপক্ষে ৪৫ হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে। অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে সহায়তার জন্য নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। নারীদের জন্য ২০ শতাংশ ঋণ নির্ধারণ করা হয়েছে। কর্মসূচির আওতায় ৯০ হাজার মানুষকে প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: এডিবি

আরও খবর
শেয়ারবাজারে মূল্যসূচকের বড় উত্থান

মঙ্গলবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে

সোমবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২১