আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় শত শত যানবাহন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৪৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে পারের অপেক্ষায় রয়েছে শত শত যানবাহন। পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমসিম খাচ্ছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিসি) ও স্থানীয় প্রশাসন।

শিমুলিয়া বাংলাবাজার নৌপথে তীব্র স্রোত ও পদ্মা সেতুর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে সাময়িক সময়ের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। ওই ঘাটের যানবাহনগুলো পাটুরিয়া ঘাট পয়েন্টে আসায় এই বাড়তি চাপ সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে।

আজ মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে পাটুরিয়া ঘাট পয়েন্টে এ দৃশ্য চোখে পড়ে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিআইডাব্লিউটিসি'র দুটি ট্রাক ট্রার্মিনালে তিন শতাধিক ট্রাক, ওজন স্কেলের সামনে থেকে ফায়ার সার্ভিস পর্যন্ত আড়াই শ এবং ঢাকা আরিচা মহাসড়কে উথুলী সংযোগ মোড়ে আরো দেড় শ সাধারণ পণ্যবোঝাই ট্রাক নৌপথ পারের অপেক্ষায় আছে। এছাড়া পারের অপেক্ষায় চার শতাধিক ছোট গাড়ি ও যাত্রীবাহী পরিবহন।

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবির বলেন, পাটুরিয়া ঘাট পয়েন্টে যানবাহনের চাপ থাকায় উথুলী সংযোগ মোড়ে দেড় শতাধিক পণ্যবোঝাই ট্রাক আটকে রাখা হয়েছে। ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ কমে আসলে পাটুরিয়া ঘাটের দিকে পাঠানো হবে ওইসব ট্রাক।

পাটুরিয়া ঘাট পয়েন্টে ট্রাফিকের দ্বায়িত্বরত কর্মকর্তা (টিআই) শামিম হোসেন বলেন, দুর্গাপূজার জন্য ঘাট এলাকায় সকাল থেকেই ছোট গাড়ির চাপ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরিণ নৌ পরিবহন করপোরেশন (বিআইডাব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ১৯টি ফেরির মধ্যে ১৮টি ফেরি মানুষ ও যানবাহন পারাপারের কাজে নিয়োজিত। বাকি একটি রো রো ফেরি মেরামতের জন্য রাখা হয়েছে ভাসমান কারখানায়।


আরও খবর



পুঁজিবাজারে সূচকের পতন

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেষ দেড় ঘণ্টার শেয়ার বিক্রির চাপে টানা ছয় কার্যদিবস উত্থানের পর সোমবার (৪ অক্টোবর) পুঁজিবাজারে সূচক পতন হয়েছে। বেশিরভাগ শেয়ার ও সূচক পতন হলেও বেড়েছে লেনদেন।

ব্যাংক-বিমা এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ প্রায় সব খাতের শেয়ারের দাম কমায় এদিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ২৮ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূচক কমেছে ৩৭ পয়েন্ট।

ডিএসইর তথ্য মতে, সোমবার ডিএসইতে ৩৭৬টি কোম্পানির ৫৭ কোটি ৮৯ লাখ ৪১ হাজার ৬৬৯টি শেয়ার হাত বদল হয়েছে। এর মধ্যে ৪৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২৯৭টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির।

দিনশেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২৮ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ৩২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক দশমিক ২২ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৫৯৩ পয়েন্টে ও ডিএসই-৩০ সূচক ২৩ দশমিক ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৭৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৭৫৫ কোটি ২০ লাখ ৫৯ হাজার টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৪৩৯ কোটি ২৪ লাখ ৯৩ হাজার টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো লিমিটেডের শেয়ার। দ্বিতীয় স্থানে ছিল লর্ফাজহোলসিমের শেয়ার, তৃতীয় স্থানে ছিল ওরিয়ন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের শেয়ার। এরপর যথাক্রমে ছিল বেক্সিমকো ফার্মা, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, ইফাদ অটোস, জিপিএস ইস্পাত, শাইনপুকুর সিরামিক এবং পাওয়ার গ্রিড লিমিটেড।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩৭ পয়েন্ট কমে ২১ হাজার ৪৭৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬৬টির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২৪৮টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

 

নিউজ ট্যাগ: সূচকের পতন

আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




বিকেলের দিকে ভারতীয় উপকূলে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ভারতের আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, উড়িষ্যা ও অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনাম ও গোপালপুরের মধ্যবর্তী কালিঙ্গপত্তনামে আছড়ে পড়বে ঘূ্ণিঝড়় ‘গুলাব’

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় গুলাব বর্তমানে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া অতি গভীর নিম্নচাপটি পরিণত হয়েছে ঘূর্ণিঝড়ে। রোববার বিকেলের দিকে গুলাব ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ-উড়িষ্যা উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে।

এদিকে অন্ধ্রপ্রদেশের উত্তর ও উড়িষ্যার দক্ষিণ উপকূলবর্তী এলাকায় কমলা সতর্কতা জারি করেছে ভারত। রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া।

ভারতের আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, উড়িষ্যা ও অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনাম ও গোপালপুরের মধ্যবর্তী কালিঙ্গপত্তনামে আছড়ে পড়বে ঘূ্ণিঝড়় গুলাব’। রোববার বিকেল ৩টা থেকে ৫টার মধ্য়ে ঘূর্ণিঝড়টি আছড়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ সময় বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ৯৫ কিলোমিটার।

এদিকে গুলাবের প্রভাবে গঙ্গা নদীর তীরবর্তী পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলোতে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বেশি প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে।

রোববার উড়িষ্যা ও অন্ধ্রপ্রদেশের মধ্যবর্তী কালিঙ্গপত্তনামে ঘূ্ণিঝড়় গুলাব’ আছড়ে পড়লেও ছত্তিশগড়ের দক্ষিণে তা আঘাত করবে সোমবার। এরপর ঘূর্ণিঝড়টি দুর্বল হতে থাকবে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব সরাসরি না পড়লেও পশ্চিমবঙ্গকে বেশ ভোগাবে গুলাব। সোমবার থেকেই দুই চব্বিশ পরগনা এবং দুই মেদিনীপুরে ভারী বৃষ্টি শুরু হতে পারে। সোমবার উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হওয়ার কথা। সেটি শক্তি বাড়িয়ে নিম্নচাপে পরিণত হবে। মঙ্গলবার সেটি পশ্চিমবঙ্গের উপকূল এলাকায় পৌঁছাবে। তার প্রভাবে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলোতে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। সেই বৃষ্টি চলবে বুধবারও।

ঘূর্ণিঝড় গুলাবের নামকরণ করেছে পাকিস্তান। এর অর্থ গোলাপ ফুল’।

নিউজ ট্যাগ: ঘূর্ণিঝড় গুলাব

আরও খবর



ইতিহাস গড়ে সুপার টুয়েলভে পা রাখল নামিবিয়া

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | ২১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নামিবিয়া এসেছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মঞ্চে। তাতেই গড়া হয়ে গিয়েছিল ইতিহাস। সে ইতিহাসে আরো একটা পাতা যোগ করল আফ্রিকা মহাদেশের এই দেশটি। অঘোষিত নকআউট ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সুপার টুয়েলভে চলে গেল নামিবিয়া।

শারজায় আজ শুক্রবার দলকে ইতিহাস গড়ার ভিত তৈরি করতে নামিবিয়ার বোলাররা সফল হয়। আয়ারল্যান্ডকে মাত্র ১২৫ রানেই আটকে দেন তারা। পরের কাজটুকু করেছেন ব্যাটাররা। ১০ বল আর ৮ উইকেট হাতে রেখেই উৎসবে মাতে নামিবিয়া।

১২৬ রানের লক্ষ্য, টি-টোয়েন্টিতে মামুলিই বলা যায়। ক্রেইগ উইলিয়ামস (১৬ বলে ১৫) আর জ্যান গ্রিন (৩২ বলে ২৪)-নামিবিয়ার দুই ওপেনারই ধীরগতির ইনিংস খেলেন। তবে ২ উইকেটে ৭৩ রান তুলে ফেলা দলটির রান তাড়ায় তেমন দুশ্চিন্তায় পড়তে হয়নি তৃতীয় উইকেট জুটির কল্যাণে। অধিনায়ক গেরহার্ড এরাসমাস আর ডেভিড ওয়াইজ ৩১ বলে ৪৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ম্যাচ বের করেই মাঠ ছাড়েন।

এরাসমাস ৪৯ বলে ৩ বাউন্ডারি আর এক ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ৫৩ রানে। ১৪ বলে ১ চার আর ২ ছক্কায় ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন নামিবিয়াকে সুপার টুয়েলভে তোলার অন্যতম রূপকার ওয়াইজ।

এর আগে ব্যাটিংয়ে নেমে উড়ন্ত সূচনা করেছিল আয়ারল্যান্ড। ওপেনিংয়ে ৭.২ ওভারে ৬২ রানের জুটি গড়েন পল স্টারলিং ও কেভিন ওব্রায়েন। ২৪ বলে ৫টি চার ও এক ছক্কায় ৩৮ রান করে ফেরেন পল স্টারলিং। ২৪ বলে ২টি চারের সাহায্যে ২৫ রান করে ফেরেন কেভিন ওব্রায়েন। ১৪.২ ওভারে দলীয় ৯৪ রানে ফেরেন গ্যারেথ ডেলানি।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর নামিবিয়ান বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে চাপে পড়ে যায় আইরিশরা। এরপর একমাত্র অ্যান্ড্রু বলবার্নি ছাড়া তাদের কোনো ব্যাটার দুই অঙ্কও ছুঁতে পারেননি। আইরিশ অধিনায়ক ২৮ বলে খেলেছেন ২১ রানের ইনিংস। নামিবিয়ার পক্ষে জন ফ্রাইলিঙ্ক ৩টি, ডেভিড ভিসে ২টি এবং জেজে স্মিট ও বের্নার্ড শোল্টজ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) শারজায় খেলাটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায়। প্রথম পর্বে গ্রুপ 'এ'তে থাকা চারটি দল হলো- শ্রীলংকা, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও নামিবিয়া। নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে বড় জয় পাওয়া শ্রীলংকার মূল পর্ব নিশ্চিত।

দুই ম্যাচের একটাও না জেতা নেদারল্যান্ডের বিদায়ও নিশ্চিত হয়ে গেছে। আর আজ নামিবিয়ার জয়ের মধ্য দিয়ে 'এ' গ্রুপের বাকি দল হিসেবে জায়গা পেল বিশকাপে।

নামিবিয়া একাদশ

পিকি ইয়া, জেন গ্রিন, ক্রেইগ উইলিয়ামস, গেরহার্ড ইরাসমাস (অধিনায়ক), ডেভিড ভিসে, জেজে স্মিট, মাইকেল ভ্যান লিঙ্গেন, জন ফ্রাইলিংক, লফটি-ইটন, রুবেন ট্রাম্পেলম্যান, বার্নার্ড শোল্টজ।

আয়ারল্যান্ড একাদশ

পল স্টার্লিং, কেভিন ওব্রায়েন, অ্যান্ড্রিউ বালবার্নি (অধিনায়ক), গ্যারেথ ডেলানি, কার্টিস ক্যাম্পার, হ্যারি টেক্টর, নেইল রক, সিমি সিং, মার্ক এডায়ার, জশ লিটল, ক্রেইগ ইয়ং।


আরও খবর
সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশের বিপক্ষ দল

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১




ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ২২৪ জন হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায়  দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে আরও ২২৪ জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন। শনিবার (৯ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো ডেঙ্গু বিষয়ক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। নতুন ভর্তিদের মধ্যে ঢাকাতে ১৫৬ জন এবং ঢাকার বাইরে ভর্তি হয়েছেন ৫৯ জন।

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ৯৭৩ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার ৪৬টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ৭৯০ জন এবং অন্যান্য বিভাগে বর্তমানে সর্বমোট ১৮৩ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন।

এ বছরের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ১৯ হাজার ৯১৮ জন। একই সময়ে তাদের মধ্যে থেকে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৮ হাজার ৮৭২ জন রোগী। এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে ৭৩ জনের মৃত্যুর হয়েছে।


আরও খবর
২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৪ জনের মৃত‌্যু

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১

ডেঙ্গু: আরও ১২৩ জন হাসপাতালে

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১




মাধ্যমিকে শিক্ষক হতে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঘুষ: টিআইবি

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যক্রমে অধ্যক্ষ, প্রধান শিক্ষক বা সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেতে তিন থেকে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঘুষ লেনদেন হয় বলে জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টান্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। এছাড়া অন্যান্য পদেও নিয়মবহির্ভূত আর্থিক লেনদেনের চিত্র পেয়েছে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি। এই অর্থ আদায়ের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডি, এসএমসি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকসহ শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তারা।

বুধবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে গবেষণাপত্র তুলে ধরে টিআইবি। নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামানসহ সংস্থাটির কর্মকর্তারা এতে উপস্থিত ছিলেন। গবেষণায় বলা হয়েছে, শুধু শিক্ষক নিয়োগ নয়, সরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক বদলিতেও নিয়মবহির্ভূত আর্থিক লেনদেন চলছে।

টিআইবির ভাষ্য অনুযায়ী, অধ্যক্ষ, প্রধান শিক্ষক, সহকারী প্রধান শিক্ষকের ক্ষেত্রে সাড়ে তিন থেকে ১৫ লাখ টাকা, এনটিআরসিএর সুপারিশকৃতদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগদানের ক্ষেত্রে ৫০ হাজার থেকে দুই লাখ টাকা, সহকারী গ্রন্থাগারিক নিয়োগে দুই থেকে তিন লাখ টাকা, শিক্ষক এমপিওভুক্ত পাঁচ হাজার থেকে এক লাখ টাকা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন ও নিরীক্ষায় ৫০ হাজার থেকে পাঁচ লাখ টাকা, পাঠদান অনুমোদন এক থেকে পাঁচ লাখ টাকা, স্বীকৃতি নবায়ন পাঁচ থেকে ৩০ হাজার টাকা এবং শিক্ষক বদলিতে এক থেকে দুই লাখ টাকা ঘুষ লেনদেন হচ্ছে।

টিআইবি বলছে, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রসার বা মানোন্নয়নে সরকারের বিভিন্ন ইতিবাচক পদক্ষেপ রয়েছে। তবে তা সত্ত্বেও গুরুত্বপূর্ণ এই খাতের প্রত্যাশিত উৎকর্ষ অর্জনে এখনো ঘাটতি আছে। ২০১০ সালে জাতীয় শিক্ষানীতি হলেও এখনো অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বাস্তবায়িত হয়নি। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও নীতিগতভাবে প্রাধান্য না পাওয়ায় শিক্ষা আইনটি এখন পর্যন্ত পাস হয়নি।

গবেষণার ভিত্তিতে ২০টি সুপারিশ করেছে টিআইবি। সেগুলো হলো-

১. শিক্ষানীতি ২০১০ এর আলোকে পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে অতি দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

২. মাঠ পর্যায়ে সরাসরি রাজস্বখাতের আওতাভুক্ত সমন্বিত জনবল কাঠামো তৈরি করতে হবে।

৩. বয়স অনুযায়ী যেসব শিক্ষার্থীর জন্য কোভিড-১৯ টিকা প্রযোজ্য তাদের দ্রুত টিকার আওতায় আনতে হবে। অনলাইনে শিক্ষকদের দক্ষতা বৃদ্ধি, ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে ফিরিয়ে আনা, শিক্ষার্থীদের শেখার ঘাটতি পূরণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

আর্থিক বরাদ্দ সংক্রান্ত

৪. ইউনেস্কোর সুপারিশ অনুযায়ী জাতীয় বাজেটে শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হবে।

৫. এমপিওভুক্ত শিক্ষক ও কর্মচারীদের আর্থিক সুবিধা সামাজিক বাস্তবতার নিরিখে বৃদ্ধি করতে হবে। দ্রুত অবসর ভাতা প্রদানে বাজেটে বরাদ্দ রাখা এবং নতুন শিক্ষাক্রমে শিক্ষকদের অধিকতর দক্ষ করে তুলতে এবং শিক্ষক-শিক্ষার্থী অনুপাতে বৈষম্য দূরীকরণে প্রয়োজনীয় অর্থ ও অন্যান্য বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৬. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরবরাহকৃত ল্যাপটপ, প্রজেক্টরসহ অন্যান্য উপকরণ রক্ষণাবেক্ষণে প্রতিষ্ঠানসমূহের অনুকূলে আর্থিক বরাদ্দ প্রদান করতে হবে।

মানবসম্পদ

৭. উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের খসড়া নিয়োগবিধি দ্রুত চূড়ান্ত করতে হবে।

৮. বেসরকারি সকল নিয়োগ এনটিআরসিএ/বেসরকারি শিক্ষক নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে।

৯. শিক্ষকদের পদোন্নতির সুযোগ বৃদ্ধিতে পদক্রম বৃদ্ধি করতে হবে।

প্রশিক্ষণ

১০. প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকদের প্রশিক্ষণকালীন প্রশিক্ষণের ওপর কার্যকর মূল্যায়নে নিবিড় পরিবীক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

১১. প্রশিক্ষণের ওপর পরিপূর্ণ দক্ষতা ও জ্ঞান অর্জনে প্রদেয় প্রশিক্ষণের মেয়াদ বাড়াতে হবে।

অবকাঠামো ও লজিস্টিকস

১২. সব ধরনের কেনাকাটা ই-জিপির মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে।

১৩. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরবরাহকৃত আইসিটি উপকরণের হালনাগাদ তথ্য সংরক্ষণে একটি কেন্দ্রীয় তথ্যভাণ্ডার থাকতে হবে।

১৪. সরকারিভাবে/শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নিজস্ব উদ্যোগে প্রতিটি শ্রেণিকক্ষ পর্যায়ক্রমে স্থায়ী মাল্টিমিডিয়ার আওতায় আনতে হবে।

স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা

১৫. দরপত্র, কার্যাদেশ, প্রকল্পের ক্রয় ও নিরীক্ষা সংক্রান্ত সকল হালনাগাদ তথ্য সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে।

১৬. মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশান উইংয়ের প্রকাশিত বার্ষিক পরিবীক্ষণ প্রতিবেদনে বিভিন্ন প্রকল্পের অনিয়ম-দুর্নীতি এবং দুর্বলতার কারণসমূহ সুনির্দিষ্টভাবে তুলে ধরতে হবে।

১৭. এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বার্ষিক মূল্যায়ন ব্যবস্থা থাকতে হবে।

অনিয়ম-দুর্নীতি

১৮. শিক্ষক ও কর্মচারী এমপিওর অনলাইন সফটওয়্যারটি আরও সহজবোধ্য এবং ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু করতে হবে।

১৯. বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধে এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ক্রমে জাতীয়করণ করতে হবে।

২০. বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ করতে হবে।


আরও খবর