আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

পেছাল ঢাবি ভর্তি পরীক্ষা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। এতে পরীক্ষা পূর্বঘোষিত তারিখ থেকে প্রায় দুই মাস পিছিয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি কমিটির এক জরুরি ভার্চুয়াল সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ঢাবি জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে।

পুনর্নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৬ আগস্ট (শুক্রবার), ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৭ আগস্ট (শনিবার), ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ১৩ আগস্ট (শুক্রবার), ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ১৪ আগস্ট (শনিবার) এবং ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (সাধারণ জ্ঞান) ৩১ জুলাই (শনিবার) অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার (অংকন) তারিখ যথাসময়ে জানিয়ে দেয়া হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, পুনর্নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী সকল ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র আগামী ১০ জুলাই থেকে পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট পূর্ব পর্যন্ত ডাউনলোড করা যাবে। এছাড়া ভর্তি পরীক্ষার অন্যান্য নির্দেশনা ও শর্ত অপরিবর্তিত থাকবে।


আরও খবর



‘শিশুবক্তা’ রফিকুল দুই দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ | ১৩৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া 'শিশুবক্তা' রফিকুল ইসলামের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সকালে তার রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটনের গাছা থানার ওসি কাজী ইসমাঈল হোসেন।

গত মঙ্গলবার গাজীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাকে সাত দিনের জন্য রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আবেদন করে পুলিশ। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এ ব্যাপারে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (প্রসিকিউশন) শুভাশীষ ধর বলেন, রফিকুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য সাত দিনের জন্য রিমান্ড চেয়ে গত মঙ্গলবার গাজীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করে পুলিশ। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রাষ্ট্রবিরোধী, উসকানিমূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে গত ৮ এপ্রিল র‍্যাবের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বর্তমানে তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে বন্দি।


আরও খবর



রাজধানীতে অর্থ বহনের ক্ষেত্রে ডিএমপির নির্দেশনা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | ৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাজধানীতে ব্যবসা-বাণিজ্যের কারণে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বেড়ে যায়। এসময় তৎপর হয়ে ওঠে চুরি ও ছিনতাইচক্র থেকে শুরু করে মলম পার্টি ও অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা। এসব চক্রের হাত থেকে নগরবাসীকে বাঁচাতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)মানি এস্কর্ট সেবা দিচ্ছে। এছাড়া এই সময়ে অর্থ বহনের ক্ষেত্রেও নির্দেশনাও দিয়েছে ডিএমপি।

ডিএমপির মিডিয়া উইং আসন্ন ঈদের নিরাপত্তা ব্যবস্থার অংশ হিসেবে কিছু নির্দেশনা দিয়েছে। নিচে তা উল্লেখ করা হলো-

ডিএমপির নির্দেশনাগুলো হলো

১. বড় অংকের অর্থ একা বহন করবেন না। একাধিক বিশ্বস্ত ব্যক্তিকে সঙ্গে রাখুন। অর্থ বহন সংক্রান্ত কোনো তথ্য আগেই অন্যকে জানানো থেকে বিরত থাকুন।

২. পায়ে হেঁটে অথবা রিকশায় অর্থ বহনের পরিবর্তে মোটরসাইকেল কিংবা গাড়িতে অর্থ বহন করুন।

৩. নগদ অর্থ বহনের আগে নিশ্চিত হয়ে নিন যেন আপনার দোকান বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কেউ দুষ্কৃতকারীদের না জানিয়ে দেয়।

৪. দৈনিক নগদ অর্থ বহনের প্রয়োজন হলে মাঝে মাঝে ভিন্ন পথ ব্যবহার করুন যেন দুষ্কৃতকারীরা পূর্বেই ওঁৎ পেতে থাকার সুবিধা নিতে না পারে।

৫. অর্থ বহনের সময় ব্যাগ এমনভাবে ব্যবহার করুন যেন বাইরে থেকে বোঝা না যায়। এতে দুষ্কৃতকারীরা প্রলুব্ধ হওয়ার সুযোগ পাবে না।

৬. বড় নোট ব্যবহারে সচেষ্ট হন।

৭. সব টাকা একসঙ্গে না রেখে বিভিন্ন জায়গায় যেমন: পকেটে, ব্যাগে, সঙ্গীয় ব্যক্তির সঙ্গে ভাগ করে রাখুন।

৮. গলি পথ কিংবা নির্জন পথ ব্যবহারের পরিবর্তে অপেক্ষাকৃত ব্যস্ত সড়ক ব্যবহার করুন।

৯. ট্র্যাফিক সিগন্যাল বা জ্যামে পড়লে অতিরিক্ত সতর্ক থাকুন।

১০. সিসি ক্যামেরা আছে এমন ব্যাংকে লেনদেন করুন। ব্যাংক থেকে বের হওয়ার পর বোঝার চেষ্টা করুন সন্দেহজনক কেউ আপনাকে অনুসরণ করছে কি না।

১১. বড় অংকের অর্থ পরিবহনের কাজটি রাতে না করে দিনের বেলায় সম্পন্ন করার চেষ্টা করুন।

১২. এটিএম বুথে টাকা তুলতে গেলে বুথের ভেতরে কেউ আছে কি না নিশ্চিত হয়ে নিন। কেউ থাকলে তিনি বের হওয়ার পর বুথে প্রবেশ করুন।

১৩. এটিএম বুথের অভ্যন্তরে আর্থিক লেনদেনে ব্যবহৃত পিন নম্বরটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন।

১৪. সম্ভব হলে এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে টাকা ট্রান্সফারের কাজটি চেকের মাধ্যমে সম্পন্ন করুন।

১৫. বড় অংকের টাকা পরিবহনে প্রয়োজনে পুলিশ এস্কর্ট ব্যবহার করুন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহায়তা

সহায়তা প্রত্যাশী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে সংশ্লিষ্ট থানা অথবা পুলিশ কন্ট্রোলরুমে যোগাযোগ করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তবে পুলিশ এস্কর্ট প্রত্যাশী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে যানবাহনের ব্যবস্থা করতে হবে। কন্ট্রোলরুমের নম্বর : ফোন : ৯৫৫১১৮৮, ৯৫১৪৪০০, ৫৫১০২৬৬৬, ০১৩২০০৩৭৮৪৫ ও জাতীয় জরুরি সেবা : ৯৯৯


আরও খবর



শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহরিতে পাতে রাখুন আম-ডাল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | ১১৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলছে মাহে রমজান। এবার গরমের মধ্যেই রোজা হচ্ছে। সারাদিন রোজা থাকার পর সন্ধ্যায় ইফতারে ঠান্ডাজাতীয় খাবার খাওয়ার জন্য প্রাণ শুধু ছটফট করে। সেহরি ও ইফতারে যে কারণে খাবারের দিকে এ মাসে একটু বেশিই সতর্ক থাকা হয়। কেননা, এমনসব খাবার খেতে হবে যা কিনা শরীরকে সারাদিন ঠান্ডা রাখবে ও ভালো রাখতে সহায়তা করবে।

গ্রীষ্মকাল চললেও এখন বেশ কিছু মৌসুমী ফলমূল পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। সেহরি ও ইফতারের পর পরিপূর্ণ খাবারে যদি একটু নজর রাখা যায় তাহলেই স্বাস্থ্যসম্মত ও শরীর ঠান্ডা রাখার খাবার রাখা সম্ভব। পাঠকদের জন্য রোজায় উপযুক্ত কিছু রেসিপি তুলে ধরা হলো-

আম-ডাল : কাঁচা আম এখন বাজারে সচরাচরই পাওয়া যায়। টক খাওয়ার ফলে শরীরে রোদ খুব বেশি প্রভাব ফেলতে পারে না। কাঁচা আম শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে। ডালের সঙ্গে কাঁচা আম প্রায় সকলেই খেয়ে থাকি আমরা।

উপকরণ : হাফ কাপ কাপ মুগ বা মসুর ডাল, ছোট ছোট ২টা কাঁচা আম, ২টা পেঁয়াজ কুঁচি, ২ টেবিল চামচ আদাকুঁচি, ২ টেবিল চামচ রসুনমিহি, ১/৪ চামচ হলুদগুঁড়ো, ২ টেবিল চামচ সর্ষের তেল, ১/৪ চা চামচ জিরা ও স্বাদমত লবণ।

প্রণালী : প্রথমেই ভালো করে ডাল ও আম ধুয়ে নিন। একটি কড়াইতে আদা, রসুন ও পেঁয়াজ দিয়ে ভালো করে ডাল সিদ্ধ করে নিন। সিদ্ধ হলে ঘুটুনি দিয়ে ডাল ঘুটে একদম গলিয়ে নিবেন। আম ছোট ছোট টুকরো করে কেটে ডালের মধ্যে ঢেলে দিন। স্বাদমত লবণ দিন। পরিমাণমত পানি দিয়ে ধীরে ধীরে গরম করতে থাকুন। ডাল ঘন হয়ে আসতে শুরু করলে অন্য একটি পাত্রে তেল গরম করতে দিন। তাতে এবার জিরা ফোঁড়ন দিন। বাকি আদা-রসুন ইত্যাদি ভেজে নিয়ে তার মধ্যে অন্য পাত্রে থাকা ডাল ঢেলে দিন। দুই তিন মিনিট জাল করে নেয়ার পর নামিয়ে ফেলুন। হয়ে গেল আম-ডাল।

নিউজ ট্যাগ: আম-ডাল

আরও খবর



মূল পদ্মা সেতুর পাশাপাশি সংযোগ সেতু দৃশ্যমান

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ১২১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তের ৪৩৮টি সুপার গার্ডারের সবশেষ গার্ডারটি বসছে মাওয়া প্রান্তে। শনিবার (১ মে) এ গার্ডার বসার মধ্য দিয়ে মূল সেতুর পাশাপাশি সংযোগ সেতুর সোয়া তিন কিলোমিটারেরও বেশি দৃশ্যমান হবে। এটি বসে যাওয়ার পরই সংযোগ সেতু পূর্ণাঙ্গ দৃশ্যমান হবে।

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর এবার সংযোগ সেতুও দৃশ্যমান হচ্ছে। সংযোগ সেতু্টি পদ্মার দুই পাড়ের সঙ্গে মেলবন্ধনের সেই স্মরণীয় মুহূর্ত ঘিরে চলছে কর্মযজ্ঞ।

মহান মে দিবসেও শ্রমিকরা ৩৮ মিটার দীর্ঘ ও ৮৪ মেট্রিক টন ওজনের গার্ডারটি বসাতে কাজ করে যাচ্ছেন। সেতুর ভায়াডাক্টের মাওয়া প্রান্তে সবশেষ ৪৩৮তম সুপার গার্ডারটি বসানো হচ্ছে। এই কাজে অংশ নিতে পেরে শ্রমিকরা বেজায় খুশি।

মূল সেতু দৃশ্যমান হওয়ার পাঁচ মাসের মধ্যেই সংযোগ সেতুও পূর্ণাঙ্গ দৃশ্যমান হচ্ছে। পুরো সেতুর অবকাঠামো মাওয়াকে জাজিরার সঙ্গে যুক্ত করছে।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ রজব আলী বলেন, এই গার্ডারটি বসে গেলে মাওয়া এবং জাজিরা প্রান্তের সংযোগের আর কোনো বাধা থাকবে না এবং পদ্মা সেতু প্রকল্প আরেক ধাপ এগিয়ে গেল।

নিউজ ট্যাগ: পদ্মা সেতু

আরও খবর



আখাউড়ায় ভারতফেরত নারীর করোনা শনাক্ত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে আসা এক নারীর করোনা শনাক্ত হয়েছে। দেশে আসার তিনদিন পর করা পরীক্ষার ফলাফলে করোনা পজিটিভ হয়। ওই নারীকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন সেন্টার থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসোলেশন ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়েছে। মরজিনা নামক ওই নারীর বাড়ি বগুড়া সদর উপজেলার সুত্রাপুর গ্রামে।

মঙ্গলবার আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. রাশেদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ওই নারী ভারতের দিল্লিতে চিকিৎসা শেষে ৭ মে দেশে ফেরেন। করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়েই তিনি দেশে ফেরেন। করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ার পর সোমবার রাতে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ জানান, কোয়ারেন্টিনে থাকা ওই নারীর শরীরে করোনাভাইরাস আছে কিনা, সেটি শনাক্তের জন্য রোববার নমুনা নেওয়া হয়। নমুনার ফল পজিটিভ এসেছে। তবে তার শরীরে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাস ভারতীয় করোনা ভ্যারিয়েন্ট কিনা, সেটি জানতে জিন সিকোয়েন্সিং পরীক্ষা।


আরও খবর