আজঃ শনিবার ০২ মার্চ 2০২4
শিরোনাম

পেঁয়াজের বাজারে আগুন, নাগালের বাইরে মাছ-মাংস

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

ভারতের পেঁয়াজ আমদানি এখনও বন্ধ রয়েছে। আর দেশে মুড়ি কাটা পেঁয়াজের মৌসুমও শেষ। সেই সঙ্গে হালি পেঁয়াজের ভরপুর মৌসুম শুরু হতে আরও কিছুদিন বাকি। এরই মধ্যে আরেক দফায় বেড়েছে পেঁয়াজের দাম।

গত দুদিনে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি ২০ টাকা। ঢাকার বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা দরে, যা ছিল ১০০ টাকা। আর গত এক সপ্তাহে বেড়েছে ৪০ টাকা। তার আগের সপ্তাহে কেজি ছিল ৮০ টাকার মধ্যে।

অথচ বিগত বছরগুলোতে এ সময়ে পেঁয়াজের দর ছিল ৩০ থেকে ৩৫ টাকার মধ্যে। সে দৃশ্য এখন শুধুই গল্প। চড়া দামে পেঁয়াজ কিনতে বিরক্ত ক্রেতারা।

অপরদিকে বেড়েই চলেছে মাছ-মাংসের দাম। স্বস্তি নেই সবজির বাজারেও। বাজারে যেনো চৈত্রের দাবদাহ শুরু হয়েছে। তবে সরবরাহ বাড়ায় কিছুটা কমেছে আলু ও টমেটোর দাম। এ ছাড়া অন্যান্য শীতকালীন সবজির দাম এখনো ক্রেতাদের নাগালের বাইরে। যদিও সপ্তাহের ব্যবধানে এখন কিছুটা কমেছে সবজির দাম। করোলা, ঢেঁড়সসহ দুই একটি সবজির দাম চড়া থাকলেও বেশিরভাগ সবজি কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে।

শুক্রবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচা বাজার ঘুরে এসব চিত্র দেখা গেছে।

কারওয়ান বাজারে এক পাইকারি পেঁয়াজ ব্যবসায়ী বলেন, গত বুধবার রাতে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের কেজি ছিল ৭৮ থেকে ৮২ টাকা। বৃহস্পতিবার সকালেই কেজিতে ১৫ টাকা বেড়ে বিক্রি হয়েছে ৯৩ থেকে ৯৭ টাকা পর্যন্ত। মূলত পাইকারি বাজারে দর বাড়ার কারণে খুচরা বাজারে এর প্রভাব পড়েছে।

এদিকে শুক্রবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) বাজারে বেগুন বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৭০ টাকা যা কিছু দিন আগে ৮০ থেকে ১০০ টাকা ছিল, সিম প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা যা গত সপ্তাহে ছিল ৭০ টাকা, তবে বিঁচিযুক্ত সিম প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়, লাউ প্রতি পিস ৬০ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে যা আগে ছিল সর্বনিম্ন ৮০ টাকা। ফুলকপি, বাঁধাকপি প্রতি পিস ৩০ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হলেও গত সপ্তাহে ছিল ৪০ থেকে ৫০ টাকা।

এদিকে সরকার নির্ধারিত গরুর মাংস প্রতিকেজি ৬৫০ টাকা দরে বিক্রি করার কথা থাকলেও ব্যবসায়ীরা হাটের জোগান কম থাকার অজুহাতে ৭৫০টাকায় বিক্রি করছে। ছাগলের মাংস বিক্রি হচ্ছে ১১৫০ টাকা কেজি, ভেড়া ১০০০ কেজি, ব্রয়লার মুরগি ১৯০-২০০ টাকা কেজি, লাল লেয়ার মুরগি ২৮৫ কেজি, পাকিস্তানি জাতের সোনালি ২৮০-২৯০ টাকা কেজি, দেশি মুরগি প্রতিকেজি ৫৪০ টাকা, হাঁস ৪২০ টাকা কেজি বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা।

দেশি জাতের টেঙরা মাছ ১০০০ টাকা কেজি, মেনি মাছ কেজিপ্রতি ৮০০ টাকা, পাবদা ৮০০ টাকা কেজি, শিং মাগুর ১২০০ টাকা কেজি, চিতল ৬০০ টাকা কেজি, নদীর রুই ৬০০ টাকা কেজি, নদীর পাঙ্গাস কেজিপ্রতি ১২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর চাষের টাটকিনি মাছ ৬০০ টাকা কেজি, চিংড়ি ৯০০ টাকা কেজি, কৈ ১৫০০ টাকা কেজি, বড় চিংড়ি ৮০০ টাকা কেজি, রুই ৩৮০-৪০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

রাজধানীর মগবাজারে নিত্যপণ্য কিনতে আসা এক ক্রেতা বলেন, শীতের মৌসুমে আমরা অতিরিক্ত বাড়তি দামে সব ধরনের সবজি কিনেছি। আগে কোন বছরেও সবজির দাম এতটা বেশি ছিল না। সব পণ্যের দামই চড়া।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, শীতের শেষ সময়ে বাজারের চাহিদা অনুযায়ী সবজির জোগান কম, গাড়ি ভাড়া বেশি হওয়ায় দাম বাড়ছে সব রকমের সবজির। তবে টমেটো আর আলুর দাম কমেছে।

এদিকে বাজারে ফার্মের মুরগির ডিমের দামও চড়া। বাজারভেদে বিক্রি হচ্ছে প্রতি ডজন ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা দরে। যা দুই সপ্তাহ আগে আরও ১০-১৫ টাকা কম ছিল। একই ভাবে কিছুটা বাড়তি দামে ব্রয়লার মুরগি ২১০ থেকে ২২০ টাকা দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে।


আরও খবর
এক মাসে রিজার্ভ বাড়ল ৬৩ কোটি ডলার

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




টাইগারদের কোচ হতে চান রস টেইলর

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

ভারতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ কিছু কোচের পোস্ট ফাঁকা আছে। বিশ্বকাপের পর পেস বোলিং কোচ অ্যালান ডোনাল্ডের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেনি বিসিবি। কোচিং স্টাফে নেই ব্যাটিং, স্পিন বোলিং ও ফিল্ডিং কোচ।

ওই জায়গা পূরণ করতে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড থেকে অনেকে কোচ হওয়ার জন্য আবেদনপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়া স্থানীয় সাবেক ক্রিকেটারাও কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করেছেন। মার্চের শ্রীলঙ্কা সিরিজের আগে ওই সংক্ষিপ্ত তালিকা থেকে কোচ চূড়ান্ত করতে চায় বিসিবির কমিটি। 

বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক গতিময় পেসার শন টেইট। তিনি আফগানিস্তান জাতীয় দলের পেস বোলিং পরামর্শক ও পাকিস্তানের পেস বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন।

নিউজিল্যান্ড সিরিজ শরিফুল-হাসান মাহমুদদের পেস বোলিং কোচ ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কলিমোর। তিনি এইচপির কোচ হিসেবে বিসিবির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ। এখন জাতীয় দলের কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করেছেন। এছাড়া পেস বোলিং কোচ হিসেবে স্থানীয় মাহবুব আলি জাকি আবেদন করেছেন।

ব্যাটিং কোচ হওয়ার জন্য বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটার তুষার ইমরান আবেদন করেছেন। ওই ক্যাটাগরিতে বড় নাম বলতে হবে নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্তি ব্যাটার রস টেইলরকে। এছাড়া বয়সভিত্তিক দলের সঙ্গে কাজ করা বাংলাদেশ দলের সাবেক হেড কোচ স্টুয়ার্ট ল ব্যাটিং কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করেছেন। তবে স্পিন বোলিং কোচ চেয়ে কোন বিজ্ঞপ্তি দেয়নি বিসিবি। রঙ্গনা হেরাথ বছরে ২০০ দিন কাজ করার প্রস্তাব দিয়েছিল বিসিবি। হেরাথ ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন।


আরও খবর



টাঙ্গাইলে ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল, উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

টাঙ্গাইলের বাসাইলে কমিউটার ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়েছে। এতে দুই ঘণ্টা ধরে উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৭টা ২০ মিনিটের দিকে উপজেলার হাবলা ইউনিয়নের সোনালিয়া দক্ষিণপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

মহেড়া রেল স্টেশন অফিসার সোহেল মিয়া বলেন, সকাল ৭টা ১০ মিনিটে টাঙ্গাইল স্টেশন থেকে টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে। ঘটনাস্থলে এলে ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়।

টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনটির পরিচালক মুহাম্মদ ওমর আলী বলেন, সকাল ৭টা ২০ মিনিটের দিকে ট্রেনটি বিকল হয়েছে। ফলে সব ট্রেনের যাতায়াত বন্ধ রয়েছে। ঢাকা থেকে রিলিফ ট্রেন এলে এরপর ট্রেনটি সরানো হলে চলাচল স্বাভাবিক হবে।


আরও খবর



শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আ. লীগের কর্মসূচি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে বিস্তারিত কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। সোমবার আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই কর্মসূচি জানানো হয়েছে।

ভাষা শহীদদের স্মরণে ও ভাষার প্রতি সম্মান প্রদর্শনে নেওয়া কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, ২০ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের পর দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন। ভোর সাড়ে ৬টায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় এবং বঙ্গবন্ধু ভবনসহ সারাদেশে সংগঠনের সবগুলো শাখা কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ এবং কালো পতাকা উত্তোলন।

এছাড়া, সকাল ৭টায় কালো ব্যাজ ধারণ, প্রভাতফেরি সহকারে আজিমপুর কবরস্থানে ভাষা শহীদদের কবরে ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন। নিউ মার্কেটের দক্ষিণ গেট থেকে প্রভাতফেরি শুরু হবে।

পরের দিন (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আলোচনা করবেন দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবী ও জাতীয় নেতারা।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের সবগুলো কর্মসূচি যথাযথভাবে পালনের জন্য আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীসহ সব সহযোগী সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।


আরও খবর



রেলে আয়ের চেয়ে ব্যয় বেশি : রেলপথমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

গত অর্থ বছরে রেলওয়ের আয়ের তুলনায় ১৫২৪ কোটি টাকা ব্যয় বেশি হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী জিল্লুল হাকিম।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুহাম্মদ সাইফুল ইসলামের এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে তিনি এ তথ্য জানান। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিম বলেন, ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরের রেলওয়ের ব্যয় ছিল ৩৩০৭ কোটি টাকা, পক্ষান্তরে রেলওয়ের আয় ছিল ১৭৮৩ কোটি টাকা। আয়ের তুলনায় ১৫২৪ কোটি টাকা ব্যয় বেশি হয়েছে। এ ব্যয়ের মধ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা, পেনশন ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত ছিল।

এছাড়া রেলওয়ে পুলিশ, রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী, স্কুল, হাসপাতালের মাধ্যমেও দেশের জনগণ সামাজিক ও নিরাপত্তামূলক সেবা পেয়ে আসছে, যার ব্যয় রেলওয়ে থেকে নির্বাহ করা হয়। এতে রেলওয়ের ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে। মূলত স্বল্প খরচে জনগণকে সেবা দেওয়ার সরকারি নীতির কারণে ভাড়া বৃদ্ধিপূর্বক আয়-ব্যয়ের সমন্বয় করা হচ্ছে না।

রেলমন্ত্রী বলেন, সরকারের পলিসি অনুযায়ী বাংলাদেশ রেলওয়েকে বাণিজ্যিক তথা লাভজনক/অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে নয়, সেবাদানকারী সংস্থা হিসেবেই বিবেচনা করা হয়ে থাকে।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




বগুড়ার চরাঞ্চলে বাদামের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বগুড়া প্রতিনিধি

Image

বগুড়া সারিয়াকান্দি উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া যমুনা নদীর চরে এখন সবুজের সমারোহ । শুরু হয়েছে কৃষি বিপ্লব। আগে চরের মানুষ যেখানে দুমুঠো খাবার খেতে পেতনা। তারা এখন তাদেরও আদরের ছেলে মেয়েদের স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় পাঠায় লেখাপড়া শেখার জন্য। বদলে গেছে চরের অবকাঠামো গত চেহারা।

সারিয়াকান্দি চালুয়াবাড়ী ইউনিয়নের হাটবাড়ি চরে গিয়ে দেখা গেছে সেখানকার জনবসতি দাড়ানোর সময় নেই। সব সময় তারা ব্যস্ত সময় পার করছে।

সুইজারল্যান্ড ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে এমফরসি প্রকল্পের আওতায় দেশের অন্যান্য জেলা উপজেলার ন্যায় সারিয়াকান্দি ও ফুলছড়ি উপজেলায় শুরু হয়েছে কৃষি বিপ্লব। চীনা বাদাম একটি স্বল্পমেয়াদি অর্থকরী ফসল। এটি একটি উৎকৃষ্ট ভোজ্য তেলবীজ। চীনা বাদামের বীজে শতকরা ৪৮ থেকে ৫০ ভাগ তেল এবং শতকরা ২২ থেকে ২৯ ভাগ আমিষ রয়েছে।

বাদাম মুলত বছরে দুই বার চাষ করা যায়। বাসন্তী বাদাম মূলত দুই দানা থাকে। এছাড়া ঝিংগা বাদামে তিন থেকে চারটি করে দানা থাকে। ত্রিদানা বাদামেও তিন-চারটি করে দানা থাকে। কৃষকরা তরমুজ, শিম, বেগুন, মরিচ, গোল আলু, ভুট্টা, সরিষা, তিলের পাশাপাশি চাষ করছেন চীনা বাদাম। জামালপুরের সরিষাবাড়ী, মাদারগঞ্জ, ইসলামপুর, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার যমুনার দুই পাশে জেগে ওঠা চরে বাদাম চাষ হয়।

দেশের অন্যান্য জেলায় উৎপাদিত বাদামের তুলনায় সারিয়াকান্দির বাদাম আকারে বেশ বড় ও সুস্বাদু হয়। ফলে চাহিদাও ব্যাপক। দেশের চাহিদার প্রায় ৩০ ভাগ বাদাম পাওয়া যায় উত্তর অঞ্চলে। এসব বাদাম রাজধানীসহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

হাটবাড়ি গ্রামের কৃষক সজিব ও মামুন জানান, আমরা পড়াশুনার পাশাপাশি মাঠে বাবাকে সাহায্য করি। আমাদের চরে এবার বাদামের মূল মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বাদামের ফলন বেশি হবে বলে আশা করছেন কৃষকরা।

এ উপজেলার বাদাম চাষি শাকিল জানান, এবার বৃষ্টিপাত ও শীত কম হওয়ায় বাদাম গাছে রোগ-বালাই নেই বললেই চলে। ফলে ফলন বেশি হবে। তিনি আরও বলেন আর ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যেই বাদাম তোলা শুরু হবে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার তুলনামূলক বাদামের ফলন বেশি হবে।

পল্লী উন্নয়ন একাডেমীর যুগ্মপরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক (এমফোরসি) ড. মোঃ আব্দুল মজিদ প্রামানিক বলেন, এমফোরসি-২য় পর্যায় শীর্ষক প্রকল্পের মাধ্যমে চরাঞ্চলে অনাবাদী জমি আবাদের আওতায় আনতে আমরা এক যোগে কাজ করে যাচ্ছি।

বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. মতলুবর রহমান জানান, চলতি বছর বেশ জমিতে বাদাম চাষ হচ্ছে। হেক্টর প্রতি চীনা বাদামের গড় ফলন মাত্র ১.৫০ মেট্রিক টন। উন্নত প্রযুক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে চীনা বাদামের ফলন বৃদ্ধির যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

তিনি আরও জানান মূলত ঝিংগা বাদাম, ত্রিদানা বাদাম ও বারি বাদাম চাষ করা হয়। তবে বাসন্তী বাদামের চাষ হয় বেশি।


আরও খবর