আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

পিইসি-জেএসসি পরীক্ষা থাকছে না : শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

২০২৩ সাল থেকে পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) এবং অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা থাকবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি জানান, তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত বার্ষিক পরীক্ষা নেয়া হবে না। নতুন শিক্ষাক্রমের রূপরেখা অনুযায়ী ক্লাস থ্রি পর্যন্ত কোনো পরীক্ষা নেই। পিইসি পাবলিক পরীক্ষা না। এই পরীক্ষা অন্য সমাপনী পরীক্ষার মতোই হবে।এইচএসসির রেজাল্ট হবে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির চূড়ান্ত পরীক্ষার ফল মিলিয়ে।

ব্রিফিংয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন শিক্ষাক্রমের রূপরেখা অনুযায়ী দশম শ্রেণি পর্যন্ত বিজ্ঞান-মানবিক ও বাণিজ্য কোনো বিভাগ থাকবে না। পরিবর্তন হতে পরে এইচএসসি পরীক্ষার নামও। একই সাথে গ্রেডিং সিস্টেমেও পরিবর্তনের ইঙ্গিত দেন ডা. দীপু মনি।

দশম শ্রেণি পর্যন্ত সবাইকে ১০টি বিষয়ের সব পড়তে হবে। মাদরাসা ও কারিগরির ক্ষেত্রে তাদের নির্দিষ্ট বিষয়সহ পড়তে হবে বলেও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

সনদ সর্বস্ব শিক্ষা নয়, পারদর্শিতাকে নতুন রূপরেখায় জোর দেয়া হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে প্রাথমিক, মাধ্যমিক সব শ্রেণির ক্ষেত্রে এই রূপরেখা বাস্তবায়ণ হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।


আরও খবর



ওষুধ কেনার আগে ইনভয়েস দেখার পরামর্শ

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ওষুধ বিক্রির সময় প্রতিটি কোম্পানি ফার্মেসিকে একটি ইনভয়েস দেওয়া হয়। এর মধ্যদিয়ে কোম্পানিটি ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের তালিকাভুক্ত কি না তা সহজে বুঝতে পারবেন একজন ক্রেতা। ফার্মেসি কর্তৃপক্ষ যদি ইনভয়েস দেখাতে না পারেন তাহলে বুঝতে হবে সেখানে ঝামেলা আছে। তাই ওষুধ কেনার আগে ফার্মেসি থেকে ইনভয়েস দেখে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি দক্ষিণ বিভাগ) পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম।

সম্প্রতি একের পর এক নকল ওষুধের চালান ও সরবরাহকারীরা ডিবির হাতের ধরা পড়ছে। সর্বশেষে শনিবার ডিএমপির গোয়েন্দা (ডিবি) লালবাগের কোতোয়ালি জোনাল টিম রাজধানীর মিটফোর্ড এলাকার বাবুবাজার সুরেশ্বরী মেডিসিন প্লাজার নিচতলার মেডিসিন ওয়ার্ল্ড ও লোকনাথ ড্রাগ হাউস এবং পাশের হাজি রানি মেডিসিন মার্কেটের নিচতলার রাফসান ফার্মেসিতে অভিযান পরিচালনা করে প্রচুর পরিমাণে নকল ও অবৈধ ওষুধ জব্দ করে। এ সময় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন : মেডিসিন ওয়ার্ল্ড ফার্মেসির ফয়সাল আহমেদ, লোকনাথ ড্রাগ হাউসের সুমন চন্দ্র মল্লিক ও রাফসান ফার্মেসির লিটন গাজী। রবিবার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গতকাল শনিবার অভিযানে তিন সরবরাহকারীসহ প্রচুর পরিমাণে নকল ওষুধ জব্দ করা হয়। অভিযানে আই-পিল, নেপ্রোক্সি প্লাস ৫০০+২০০ এম.জি, বেটনোভেট-সি, প্রোটভিট ২০সহ বিভিন্ন রোগের নকল ওষুধ জব্দ করা হয়।

এ গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, সব থেকে বড় কথা হচ্ছে জনগণ যে এসব ভুয়া ওষুধ খেয়ে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে জনগণেরও একটি সচেতনতার দায়বদ্ধতা আছে। যেসব দোকানে ওষুধ বিক্রি হয় সেসব দোকানে ওষুধের রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও বৈধ ওষুধের তালিকা ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের পক্ষ থেকে দেওয়া থাকে। ওষুধ কিনতে যাওয়ার সময় এসব তালিকা দেখার অধিকার সাধারণ ক্রেতাদের আছে। এছাড়া কোম্পানি ইনভয়েস প্রতিটি ফার্মেসিতে থাকে। ওষুধ বিক্রির সময় কোম্পানিগুলো এই ইনভয়েস ফার্মেসিগুলোকে দেয়। নকল ও ভুয়া ওষুধ সেবন থেকে বিরত থাকতে ফার্মেসিতে গিয়ে ক্রেতাদের অবশ্যই তালিকাগুলো দেখা উচিত। ইনভয়েস না দেখে ওষুধ কেনা উচিত নয়।


আরও খবর
করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু আরও কমল

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




করোনায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২৭ হাজার ১৪৭ জনের।

নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৯০৭ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৪০ হাজার ১১০ জনে। মৃত ৩৮ জনের মধ্যে পুরুষ ১৩ জন ও নারী ২৫ জন।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৯১৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৯৭ হাজার ৯ জন। সারাদেশে সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৮০৮টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়েছে। এসব ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৩০ হাজার ১৬৯টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৯ হাজার ৭৫৬টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৯৩ লাখ ৯৩ হাজার ৩৬৫টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ৬ দশমিক ৪১ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৪০ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ২০ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৮ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে সাতজন, খুলনা বিভাগে আটজন, সিলেট বিভাগে তিনজন, রংপুর বিভাগে দুজন ও ময়মনসিংহে একজন রয়েছেন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ৩৫ জন ও বেসরকারি হাসপাতালে তিনজন মারা গেছেন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে দু’জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে নয়জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে দু’জন, ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে একজন ও ১০০ বছরের ঊর্ধ্বে একজন রয়েছেন।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৫০৭ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন এক হাজার ৫৬ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন তিন লাখ ৭৬ হাজার ৩৫২ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন তিন লাখ ৩০ হাজার ৬১৬ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৪৫ হাজার ৭৩৬ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।


আরও খবর
করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু আরও কমল

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বংশানুক্রমে চাকরি দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বংশানুক্রমে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের চাকরি দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের জন্য প্রকল্প অনুমোদনের সময় এই নির্দেশ দেন তিনি।

শেরে-বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভা হয়। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন একনেকের চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ে সভার সিদ্ধান্ত জানান।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, পৌরসভায় পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের জন্য আবাসিক ভবন নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে একনেক। প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ১৪২ কোটি টাকা। পুরো টাকাই সরকার দেবে। দেশের ৮ বিভাগের ৫৯ জেলার ৬৬ পৌরসভায় মোট ৩ হাজার ৪০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে।

বৈঠকের আলোচনার প্রসঙ্গ তুলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, পরিচ্ছন্নকর্মীদের জন্য আবাসিক ভবন নির্মাণের প্রস্তাব উত্থাপন করলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এতদিন পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের কোনো নাগরিক সুবিধা ছিল না। তাঁদের জন্য যেসব ফ্ল্যাট করা হবে, সেখান থেকে ভাড়া আদায় করা যাবে না। তখন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ফ্ল্যাট পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য টাকার প্রয়োজন হবে। তখন প্রধানমন্ত্রী ন্যূনতম টাকা নেওয়ার কথা বলেন। পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের পরবর্তী সব প্রজন্মকে এ পেশায় অগ্রাধিকার দেওয়ার বিষয়েও নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী।

পৌরসভা, সিটি করপোরেশন, সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে ঝাড়ুদার, ক্লিনার বা সুইপার পদে সরাসরি নিয়োগে মোট জনবলের ৮০ শতাংশ পদ জাত হরিজনদের জন্য বরাদ্দ রেখে ২০১২ সালের ১০ অক্টোবর প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। জাত হরিজন প্রার্থী না পাওয়া গেলে সেসব পদে অন্যদের নিয়োগ দেওয়া যায়। তবে অনেক ক্ষেত্রেই হরিজানদের জন্য এই কোটা মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। দেশে দলিত জনগোষ্ঠীর মানুষের সংখ্যা ৪৩ লাখ ৫৮ হাজার।


আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




৪৮ বিলিয়ন ডলারের রেকর্ড গড়লো বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ আগস্ট ২০২১ | ৫৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশের বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয়ন বা রিজার্ভ একের পর এক রেকর্ড গড়ছে। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৮ দশমিক শুন্য ৪ বিলিয়ন ডলার বা ৪ লাখ ৯ হাজার ৮৬ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ১৫ পয়সা হিসাবে)।

এর মধ্য দিয়ে রিজার্ভ অতীতের চেয়ে বেড়ে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। এ রিজার্ভ দিয়ে ১২ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব (প্রতি মাসে ৪ বিলিয়ন ডলার আমদানি ব্যয় হিসেবে)।

আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, একটি দেশের কাছে তিন মাসের আমদানি ব্যয় মেটানোর সমপরিমাণ বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ থাকতে হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর কাজী ছাইদুর রহমান জানিয়েছেন, মঙ্গলবার দিনের শুরুতে রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪৬ দশমিক ৫৮ বিলিয়ন ডলার। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) ১ দশমিক ৪৫ বিলিয়ন ডলারের এসডিআর বরাদ্দ (ঋণ-সহায়তা) যোগ হওয়ায় দিন শেষে রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ৪৮ দশমিক শুন্য ৪ বিলিয়ন ডলার বা ৪ হাজার ৮০৪ কোটি ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, এর আগে গত ২৯ জুন রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছিল ৪৬ দশমিক শূন্য ৮২ বিলিয়ন ডলার। যা ওই সময় অতীতের রেকর্ড অতিক্রম করেছিল। এছাড়া গত ৩ মে দেশের রিজার্ভ প্রথমবারের মতো ৪৫ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছিল। ওইদিন রিজার্ভ বেড়ে দাঁড়ায় ৪৫ দশমিক ১০ বিলিয়ন ডলারে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রিজার্ভ ৪৪.০২ বিলিয়ন বা ৪ হাজার ৪০২ কোটি ডলার ছাড়ায়। এর আগে, ২০২০ সালের ৩০ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ ৪৩ বিলিয়ন ডলার, ১৫ ডিসেম্বর ৪২ বিলিয়ন এবং ২৮ অক্টোবর রিজার্ভ ৪১ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছিল। এই অক্টোবরেই বাংলাদেশের রিজার্ভ প্রথম ৪০ বিলিয়ন ডলার ছাড়ায়। এরপর ধারাবাহিকভাবে রিজার্ভের পরিমাণ বাড়তে থাকে।

রিজার্ভ ১০০ কোটি ডলারের নিচে নামলে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হবে এমন আশঙ্কায় ২০০১ সালে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) আমদানি বিল বাকি রাখতে বাধ্য হয়। আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, একটি দেশের কাছে অন্তত তিন মাসের আমদানি ব্যয় মেটানোর সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রার মজুত থাকতে হয়।

বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, ভুটান, মিয়ানমার, শ্রীলঙ্কা, ইরান ও মালদ্বীপ এই ৯টি দেশ বর্তমানে আকুর সদস্য। দেশগুলো থেকে বাংলাদেশ যেসব পণ্য আমদানি করে তার বিল দুই মাস পরপর আকুর মাধ্যমে পরিশোধ করে। আকুর বিল পরিশোধ করলে রিজার্ভ কিছুটা কমে যায়।

ব্যাংকাররা জানান, রিজার্ভে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে রেমিট্যান্স। রেমিট্যান্সের উপর ভর করে রিজার্ভ অতীতের চেয়ে বেড়ে রেকর্ড গড়েছে। রেমিট্যান্সের উপর প্রনোদনা বাড়ানোর মাধ্যমে ভবিষ্যতে রিজার্ভ আরো বাড়বে বলে আশা করছেন তারা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে দেশে ১৮৭ কোটি ১৪ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার (১.৮৭ বিলিয়ন) রেমিট্যান্স এসেছে। আগে ২০২০-২১ অর্থবছরে মোট রেমিট্যান্স আহরনের পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৪৭৭ কোটি ৭৭ লাখ মার্কিন ডলার।



আরও খবর
পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠি অপ্রত্যাশিত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, জাতীয় প্রেসক্লাবসহ ১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠি অপ্রত্যাশিত। মনে হয়, একটা ভুল বোঝাবুঝির মাধ্যমে চিঠিটা দিয়েছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এভাবে চিঠিটা দেওয়া উচিত হয়নি।’ আজ সোমবার সচিবালয়ে সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক নেতা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, মনজুরুল আহসান বুলবুল, কুদ্দুস আফ্রাদ, আবুল কালাম আজাদ, আব্দুল জলিল ভুইয়া, ওমর ফারুক, সাজ্জাদ আলম খান তাপু। আজ সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে সাংবাদিক নেতারা তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঘটনাগুলো অপ্রত্যাশিতভাবে ঘটেছে। আমি জানতাম না। মনে হয় তথ্যমন্ত্রীও জানতেন না। আপনারা যখন আমাকে জানিয়েছেন, আমি সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের সঙ্গে আলাপ করেছি। তিনিও আপনাদের মতো একটি চিঠির কথা বলেছেন। সেই চিঠির উৎপত্তি কোথায় সেটাও দেখেছি।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, আমরা বিষয়টি আরেকটু দেখে নেই। কোথা থেকে কীভাবে কী হয়েছে দেখে ব্যবস্থা নেব। অবশ্যই আপনাদের সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে। আপনারা কষ্ট পেয়েছেন, ব্যথা পেয়েছেন। সেই জায়গাটায় কিছু করতে না পারলেও পরবর্তী সময়ে এমনটা যাতে না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখব। আমি এনএসআই, সিআইডি, এসবি, বাংলাদেশ ব্যাংক সবার সঙ্গেই আলাপ করছি।


আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১