আজঃ রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

পোলট্রি খাতে অতিরিক্ত কর: মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগামী অর্থবছর থেকে পোলট্রি খাতের করমুক্ত আয়সীমা কমানো হতে পারে। বর্তমানে বার্ষিক আয়ের প্রথম ২০ লাখ টাকার জন্য পোলট্রি খাতের বিনিয়োগকারীদের কোনো কর দিতে হয় না। ২০ থেকে ৩০ লাখ টাকার (পরের ১০ লাখ টাকা) ওপর ৫ শতাংশ এবং ৩০ লাখ টাকার বেশি হলে ১০ শতাংশ হারে কর বসে; কিন্তু আগামী বাজেটে পোলট্রি খাতের বিনিয়োগকারীদের জন্য কিছুটা দুশ্চিন্তার খবর আসতে পারে। করপোরেট খাতকে যখন করছাড়, কর মওকুফসহ অন্যান্য নীতি সহায়তা দেয়া হচ্ছে, পোলট্রি ও মাছ চাষের উদ্যোক্তাদের কাঁধে তখন ২০২২-২৩ অর্থবছরে অতিরিক্ত করের বোঝা চাপতে চলেছে। প্রথমে মহামারির ধক্কায় লোকসান গুনেছে দেশের পোলট্রি শিল্প। তারপর বেড়েছে উৎপাদন খরচ। এবার মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে নতুন কর ব্যবস্থার ধাক্কা আসছে খাতটির ওপর। আগামী অর্থবছর থেকে পোলট্রি খাতের করমুক্ত আয়ের সীমা অর্ধেক হয়ে ১০ লাখ টাকায় নেমে আসছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রথম ১০ লাখের পর দ্বিতীয় ১০ লাখ টাকা আয়ের ওপর ৫ শতাংশ কর দিতে হবে পোলট্রি খামার মালিকদের। আর ২০ লাখ টাকার বেশি বার্ষিক আয়ের ওপর কর দিতে হবে ১০ শতাংশ। ৩০ লাখ টাকার বেশি আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ কর দিতে হবে, বর্তমানে এ পরিমাণ আয়ের ওপর করের হার ১০ শতাংশ।

আগামী অর্থবছর থেকে মাছ ও পোলট্রি হ্যাচারির পাশাপাশি মাছ চাষ ও পোলট্রি খামারকে একক ট্যাক্স স্ল্যাবের আওতায় আনার পরিকল্পনা করছে সরকার। বর্তমানে মাছ ও পোলট্রি হ্যাচারি এবং মাছ চাষের জন্য একই ধরনের করকাঠামো কার্যকর রয়েছে। কর ফাঁকির সুযোগ বন্ধ করে কর সংগ্রহ বাড়ানোর লক্ষ্যে হাতে নিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তারই অংশ হিসেবে এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। শিল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এতে মহামারির ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার জন্য সংগ্রামরত খাতটির অবস্থা আরো খারাপ হবে। ফিডের মূল্য ও উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি মূল্য বৃদ্ধি অবস্থাকে আরো খারাপের দিকে নিয়ে যাবে আশঙ্কা তাদের। পোলট্রি খামারিরা এখন লোকসান দিয়ে ব্যবসা চালাচ্ছেন। প্রতি কেজি মুরগির উৎপাদন খরচ বেড়ে ১২২ টাকা হলেও বিক্রি করতে হচ্ছে ১২০ টাকায়। এই পরিস্থিতিতে তাদের ওপর আরো কর আরোপের যে পদক্ষেপ সরকার নিয়েছে, তা খুবই হতাশাজনক বলে মন্তব্য করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

তারা বলেন, তাদের অস্তিত্বই যখন ঝুঁকির মধ্যে আছে, তখন সরকার কী করে বাড়তি কর আরোপ করে? ফিড তৈরির কাঁচামালের দাম ৬৫ শতাংশ বাড়লেও আগে থেকেই মহামারির ধাক্কায় জর্জরিত খামারিদের ওপর আমরা এই দামের ২৯ শতাংশের বেশি চাপাতে পারিনি। নতুন ট্যাক্স স্ল্যাব তাদের টিকে থাকার লড়াই আরো কঠিন করে তুলবে এবং শিল্পটির প্রবৃদ্ধিতে বাধা সৃষ্টি করবে। চড়া উৎপাদন খরচের কারণে লোকসান দিয়ে টিকতে না পেরে অনেক পোলট্রি খামারিই এরই মধ্যে ব্যবসা গুটিয়ে নিয়েছেন। খাদ্য তৈরির কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহূত সয়াবিনের আমদানির ওপর নিয়ন্ত্রক শুল্ক আরোপ করা হলে একে বিলাসবহুল পণ্য হিসেবে বিবেচনা করা হবে। এতে আরো বাড়বে তাদের ভোগান্তি।

এক বছর আগে মুনাফা করে এখন লোকসান গুনলেও কর কর্মকর্তারা তা মানতে নারাজ বলেও অভিযোগ করেন সংশ্লিষ্ট উদ্যোক্তারা। তারা বলেন, কৃষিভিত্তিক শিল্পের সবাই-ই যেকোনো মুহূর্তে ক্ষতির ঝুঁকিতে আছে, তাদের আগের হিসাবের রেকর্ড যা-ই হোক না কেন। কিন্তু আমরা কর কর্মকর্তাদের এই বিষয়টা মানাতেই পারছি না। সয়াবিন আমদানির ওপর ৫ শতাংশ নিয়ন্ত্রক শুল্ক আরোপের ফলে প্রতি কেজি মুরগির উৎপাদন খরচ ৫ টাকা করে বেড়ে যাবে।

গত চার দশকে পোলট্রি শিল্প বিকশিত হয়ে ৪০ হাজার কোটি টাকার খাতে পরিণত হয়েছে। দেশের মাংসের চাহিদার ৪০ শতাংশেরও বেশি মেটাচ্ছিল খাতটি। করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবের আগে পোলট্রি খাতের প্রবৃদ্ধির হার ছিল ১২-১৫ শতাংশ; কিন্তু মহামারির ধাক্কায় এই খাতের প্রবৃদ্ধি নেতিবাচক অবস্থায় চলে গেছে বলে জানান শিল্পসংশ্লিষ্টরা। মহামারির ধাক্কা থেকে পুনরুদ্ধারের যে চেষ্টা তারা চালিয়ে যাচ্ছেন, তা ব্যাহত হচ্ছে ক্রমবর্ধমান ফিড খরচের জন্য এমনিটই জানান তারা।


আরও খবর
এলপিজির নতুন দাম নির্ধারণ রোববার

শুক্রবার ০১ ডিসেম্বর ২০২৩




কাশ্মিরে হাউসবোটে আগুন, বাংলাদেশি তিন পর্যটকের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ১২ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারত শাসিত জম্মু ও কাশ্মিরের রাজধানী শ্রীনগরের ডাল লেকে হাউসবোটে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। এতে তিন বাংলাদেশী পর্যটক নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ।

শনিবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। একটি বোটে আগুন লাগার পর তা ছড়িয়ে পড়ে আরো ছয়টি বোটে এবং পার্শ্ববর্তী কাঠের ছাউনিতে।

এ পর্যটন বোটগুলো ছিল ঘাট নম্বর ৯-এ। স্থানীয়রা কয়েক ঘণ্টা ধরে আগুন নেভাতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। পরে ফায়ার সার্ভিস সেখানে পৌঁছায়।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহত তিন পর্যটক বাংলাদেশী। তবে তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

কাশ্মিরে তীব্র শীতের সময় ঘনিয়ে আসছে। তার আগে এ সময় প্রচুর পর্যটক সেখানে ভিড় করেন। আর এ সময়ই এমন দুর্ঘটনাটি ঘটলো।

সূত্র : জি নিউজ


আরও খবর



জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য সাদেকা হালিম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
Image

জবি প্রতিনিধি

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন অধ্যাপক সাদেকা হালিম। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক এবং বর্তমানে বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন এ নিয়োগ দিয়েছেন। এ বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী চার বছরের জন্য তাঁকে এই পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

অধ্যাপক সাদেকা হালিম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়াত উপাচার্য ইমদাদুল হকের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন। ক্যানসারে আক্রান্ত অধ্যাপক ইমদাদুল হক সম্প্রতি মারা গেছেন।

অধ্যাপক সাদেকা হালিম তথ্য কমিশনের প্রথম নারী কমিশনার ছিলেন। জাতীয় শিক্ষানীতি-২০১০এর প্রণয়ন কমিটিরও সদস্য ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সাবেক এই ডিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন ১৯৮৮ সালে। তিনি কানাডার ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি করেছেন। তাঁর বাবা অধ্যাপক ফজলুল হালিম চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য। তাঁদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে।


আরও খবর



রিহ্যাবে নেয়া হয়েছে গায়ক নোবেলকে

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

কণ্ঠশিল্পী মইনুল হাসান নোবেলকে মাদকাসক্ত পুনর্বাসন কেন্দ্রে (রিহ্যাব) নেওয়া হয়েছে। ক্রমেই মাদকাসক্তে জড়িয়ে পড়ায় পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে বৃহস্পতিবার ঢাকার নিকটবর্তী একটি মাদকাসক্ত পুনর্বাসন কেন্দ্রে নেওয়া হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় নোবেলের পারিবারিকসূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

কিছুদিন আগেই নোবেল কুড়িগ্রামে একটি কনসার্টে গিয়ে মাতাল অবস্থায় মঞ্চে ওঠেন। সেখানে জড়ানো কণ্ঠে গান গাইতে শুরু করলে দর্শক-শ্রোতারা পানির বোতল ছুঁড়তে শুরু। বিষয়টি নিয়ে দেশব্যাপী তোলপাড় হয়।

আরও পড়ুন>> গায়ক নোবেলকে ডিভোর্স দিলেন স্ত্রী

সম্প্রতি খুলনা থেকে এক তরুণীকে নিয়ে আসেন বলে জানা যায়। পরিবার ওই তরুণীকে নিতে ঢাকায় এলে নোবেলের সঙ্গে তাকেও মাদক সেবন করতে দেখেন। বিষয়টি ফেসবুক লাইভে জানিয়েছেন তরুণীর স্বামী। সম্প্রতি মেয়েটি খুলনায় ফিরে গিয়েছেন।

জানা গেছে, তরুণীর স্বামী ও ভাই নোবেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। এর থেকে বাঁচার জন্যই তাকে রিহ্যাবে নেওয়া হয়েছে এমনটাও বলছে অপর একটি সূত্র।


আরও খবর



আবারও ঢাকায় ফিরে এলেন লিটন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৭ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

এর আগেও একবার বিশ্বকাপের মাঝপথে ঢাকায় এসেছিলেন ওপেনার লিটন কুমার দাস। বিশ্বকাপ চলাকালে দ্বিতীয়বারের মত ঢাকায় এলেন তিনি। জানা গেছে, পারিবারিক প্রয়োজনেই দল ছেড়ে ঢাকায় এসেছেন লিটন। এবার তিনি দেশে ফিরেছেন চোটের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়া অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের সঙ্গে।

আগামী শনিবার (১১ নভেম্বর) পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে দলের সাথে লিটনকে দেখা যাবে কিনা, সেটি এখনও নিশ্চিত করে জানা যায়নি।

তবে একটি সূত্রে জানা গেছে, ৯ নভেম্বর পুনে গিয়ে দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারেন তিনি। এর আগে গত ১ নভেম্বর একই কারণে ঢাকায় এসেছিলেন লিটন।

গতকাল সোমবার দিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩ উইকেটের জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে ব্যাট করতে নেমে ভালোই শুরু করেছিলেন ওপেনার লিটন দাস। তবে দলের জন্য বড় অবদান রাখতে পারেননি এই ডানহাতি ব্যাটার। ২২ বলে ২৩ রান করা লিটনকে লেগবিফোর উইকেটের (এলবিডব্লিউ) ফাঁদে ফেলেন লঙ্কান পেসার দিলশান মদুশঙ্কা।


আরও খবর
ইউরো ২০২৪ এর ড্র অনুষ্ঠিত

রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩




নির্বাচনের আগে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার অভিযান চলবে: র‌্যাব

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেছেন, জাতীয় নির্বাচনের আগে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চলমান রয়েছে, যারা চিহ্নিত অপরাধী তাদের আইনের আওতায় আনতে কাজ চলছে। এ কার্যক্রম চলমান থাকবে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। খন্দকার মঈন বলেন, সংবিধানের ১২৬ ধারা অনুযায়ী সব নির্বাহী বিভাগ নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করছে। নির্বাচন কমিশন থেকে জারিকৃত বিভিন্ন নির্দেশনা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে র‌্যাব

আরও পড়ুন>> রাজনৈতিক দলকে একে-অপরের প্রতি সহনশীল হতে হবে: প্রধান বিচারপতি

তিনি বলেন, অবরোধ শুরুর পর থেকে পরবর্তী সময় যাত্রীবাহী, পণ্যবাহী যানবাহন ও তেলবাহী লরিসহ ১৭ হাজারের বেশি গাড়িকে স্কট প্রদান করেছে র‌্যাব। দুশোর বেশি কনভয়কে স্কট প্রদান করে নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছে দিয়েছে। আমরা এটা করছি যাতে অর্থনৈতিক চেইনটা ঠিক থাকে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, নাশকতাকারীরা স্থান কাল পাত্র ভেদে কিছু চোরাগুপ্তা হামলা করছে। এসব হামলা প্রতিরোধে র‌্যাব সদস্যরা বিভিন্ন জায়গায় ছদ্মবেশে অবস্থান করছে, গণপরিবহনে যাত্রীবেশে অবস্থান করছে। আমরা বেশ কয়েকজনকে নাশকতার সময় হাতেনাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।


আরও খবর
নবম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ চলছে

রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩