আজঃ শনিবার ১৫ জুন ২০২৪
শিরোনাম

পোশাককর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ অক্টোবর ২০২২ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক পোশাককর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেন ৪ ব্যক্তি। ধর্ষণ শেষে নির্যাতনের শিকার নারীকে বিবস্ত্র করে কাপড় ছিড়ে, হাত-পা বেঁধে চালানো হয় নির্যাতন। এরপর মুখে বিষ ঢেলে, ব্লেড দিয়ে শরীর চিরে পানিতে চুবিয়ে হত্যাচেষ্টা চালানো হয় ওই নারীকে। তখন স্থানীয় লোকজন ঘটনাটি দেখে ফেললে অভিযুক্তরা ওই নারীকে অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

বর্বর নির্যাতনের এ ঘটনা ঘটেছে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের বিধাই গ্রামে। দুই দিন ধরে নির্যাতিত ওই নারী হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন ওই গ্রামের নাজমুল (৩০), রফিকুল (৫০), শহিদ (৪৫) ও খোকন (৪০)। এ ঘটনার পর থেকে তারা পলাতক রয়েছেন।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তানসেন চৌধুরী বলেন, জাতীয় জরুরি পরিষেবা নম্বর-৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে মুমূর্ষু ও বিবস্ত্র অবস্থায় ওই নারীকে উদ্ধার করা হয়। তার মুখ থেকে বিষের গন্ধ বের হচ্ছিল। শ্রীপুর হাসপাতালে এনে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। তখন ওই নারী তার ওপর পাশবিক নির্যাতনের কথা জানান। অবস্থা আশঙ্কাকাজনক হওয়ায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ভিকটিমের ভাই-ভাবি জানান, ওই নারী পার্শ্ববর্তী ভালুকা উপজেলার স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। গত সোমবার রাত পৌনে ৭টার দিকে প্রতিবেশী যুবক নাজমুল ওই নারীকে জৈনা বাজার থেকে অটোরিকশায় তুলে নিয়ে যান। এরপর বিধাই গ্রামের জনৈক রুস্তম আলীর বাড়ির পাশে এলে অভিযুক্তরা একটি নির্মাণাধীন বাড়িতে ওই নারীকে নিয়ে যান।

তখন তাকে বিবস্ত্র করে পরনের কাপড় দিয়ে হাত-পা বেঁধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে ব্লেড দিয়ে হাত ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে চিরে দেয়। এরপর ওই নারীর মুখে বিষ ঢেলে, পানিতে চুবিয়ে হত্যাচেষ্টা চালানো হয়। তখন স্থানীয় কয়েকজন বিষয়টি দেখে ফেললে অভিযুক্তরা ওই নারীকে সেখানে ফেলে পালিয়ে যান। প্রথমে স্থানীয়রা ওই নারীকে মৃত ভেবে পুলিশে খবর দেয়। এরপর শ্রীপুর থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ভিকটিমের ভাই অভিযোগ করে আরও জানান, একটি মোবাইল চুরির ঘটনার জের ধরে অভিযুক্তরা তার বোনকে তুলে নিয়ে বর্বর নির্যাতন করেছে। তার বোনের প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তাকে রক্ত দিতে হচ্ছে। গত দুই দিন ধরে তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

শ্রীপুর থানার পরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান আমাদের সময়কে বলেন, নির্যাতনের শিকার ওই নারীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



ফের জলাবদ্ধতার কবলে সিলেট

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
এস এ শফি, সিলেট

Image

বৃষ্টির পানিতে আবারও ডুবল সিলেট মহানগরীর শতাধিক এলাকা। শনিবার (৮ জুন) রাত ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টার রেকর্ড ২২০ মিলিমিটার বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার কবলে পড়ল সিলেট নগরের বিভিন্ন এলাকা। এ নিয়ে এক সপ্তাহের ব্যবধানে দুইবার জলাবদ্ধতার দুর্ভোগ পোহাতে হলো নগরের বাসিন্দাদের।

এর আগে ২ জুন রাতে কয়েক ঘণ্টার বৃষ্টিতে নগরজুড়ে তীব্র জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। তখন অধিকাংশ এলাকার পানি পরদিন নেমে গেলেও অন্তত ১২টি এলাকার পানি নামতে বেশ কিছুদিন সময় লেগেছিল। এ অবস্থায় গতকাল আবার ডুবল শহর।

গতকাল রাত ১২টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত সরেজমিন দেখা গেছে, নগরের দরগামহল্লা, পায়রা, চৌহাট্টা, জিন্দাবাজার, কাজলশাহ, মেডিকেল রোড, বাগবাড়ি, কালীবাড়ি, হাওলাদারপাড়া, সোবহানীঘাট, উপশহর, যতরপুর, তেরোরতন, সোনারপাড়া, কেওয়াপাড়া, সাগরদিঘিরপার, পাঠানটুলা, মিয়া ফাজিলচিশত, জালালাবাদ, হাউজিং এস্টেট, শাহি ঈদগাহ, ঘাসিটুলা, হাওয়াপাড়া, মীরাবাজার, শিবগঞ্জ, মাছিমপুর, জামতলা ও তালতলা এলাকায় পানি থইথই করছে। ঘরমুখী মানুষেরা যানবাহনের অভাবে পানি মাড়িয়ে হেঁটেই ফিরছিলেন।

ভুক্তভোগী ব্যক্তিরা বলেন, পাহাড়ি ঢল ও ভারী বৃষ্টিতে গত ২৯ মে মধ্যরাত থেকে সিলেটের ১০টি উপজেলা ও নগরে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। তবে পানি নামতে শুরু করায় কয়েক দিন ধরে বন্যা পরিস্থিতির অনেকটাই উন্নতি হলেও সুরমা নদী টইটম্বুর। এতে নগরে ভারী বৃষ্টি হলে নগর দিয়ে প্রবাহিত ছড়া ও খাল দিয়ে পানি নদীতে মিশতে পারছে না। এ কারণে গতকাল বৃষ্টি হলে নগর মুহূর্তেই জলমগ্ন হয়ে পড়ে।

বাগবাড়ি বর্ণমালা পয়েন্ট এলাকায় ঊরুসমান পানি জমে। এখানকার বাসিন্দা অরিন্দম রায় বলেন, টানা কয়েক ঘণ্টার বৃষ্টিতে প্রচুর পানি মূল রাস্তায় জমে যায়। রাস্তা তলিয়ে যাওয়ায় যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা দেখা দেয়। এতে ওই এলাকায় প্রচণ্ড যানজট দেখা দেয়। এ ছাড়া অনেক বাসাবাড়িতেও পানি ঢুকে পড়েছে।

একাধিক বাসিন্দা বলেন, নগরের ৪২টি ওয়ার্ডের সব নিচু এলাকা তলিয়ে গেছে। অনেকে রাতের খাবার প্রস্তুত করার আগেই রান্নাঘর পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েন। এ ছাড়া অনেক বাসাবাড়িতে বৃষ্টির পানির সঙ্গে ভেসে ময়লা-আবর্জনাও ঢুকে পড়েছে। সব মিলিয়ে চরম ভোগান্তি পোহান লোকজন। অথচ জলাবদ্ধতা নিরসনে সিটি করপোরেশন গত দেড় দশকে প্রায় ১ হাজার ১০০ কোটি টাকা ব্যয় করেছে।

উপশহর এলাকার এক বাসিন্দা বলেন, এক সপ্তাহ না পেরোতেই আবার ভারী বৃষ্টিতে উপশহর এলাকা ডুবেছে। মুহূর্তেই এই এলাকার বিভিন্ন ব্লক কোমরসমান পানিতে তলিয়ে গেছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই উপশহর এলাকা ডুবে যায়, এটাই যেন রীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে। অথচ এই উপশহর এলাকাই নগরে সবচেয়ে অভিজাত এলাকা হিসেবে পরিচিত।

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাও পানিতে প্লাবিত হয়েছে।

জলাবদ্ধতার বিষয়ে জানতে সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমানের যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাজলু লস্কর গতকাল গভীর রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাসে লিখেছেন, বৃষ্টির পানি দ্রুত নামার জন্য কাজ করছে সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা।

সিলেট আবহাওয়া অধিদফতরের সহকারি আবহাওয়াবিদ শাহ মো. সজীব হোসাইন জানান, গতকাল সন্ধ্যা ছয়টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত মাত্র ৩ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে রাত ৯টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ২২০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।


আরও খবর



এমপি আনারের মরদেহ গুম করা সিয়াম কলকাতায় গ্রেফতার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

কলকাতার নিউটাউনে বাংলাদেশি সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ। এদের মধ্যে সিআইডির হাতে গ্রেফতার একজন বাংলাদেশি নাগরিক। তার নাম সিয়াম। ১৩ মে হত্যাকাণ্ডের দিন তিনি সঞ্জীবা গার্ডেনসের ওই ফ্ল্যাটে ছিলেন বলে জানা গেছে। এমপির মরদেহের খণ্ডিত অংশ গুমের দায়িত্ব ছিল সিয়ামের ওপর।

ওই একই ঘটনায় জুবের নামে এক ক্যাবচালককেও আটক করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। টানা জিজ্ঞাসাবাদ চলছে তাকে। এরই মধ্যে তার গাড়িটিও জব্দ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে জব্দ করা হয় সাদা রঙের মারুতি গাড়িটিকে।

পুলিশ সূত্রে খবর, গত ৩০ এপ্রিল অনলাইন রেন্টালের মাধ্যমে গাড়িটি ভাড়া করেছিলেন আততায়ীরা। গত ১২ মে ভারতে আসেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। তিনি ওঠেন বরানগরের পূর্ব পরিচিত গোপাল বিশ্বাসের বাড়িতে। পরদিন, ১৩ মে চিকিৎসা করাতে যাবেন বলে গোপালের বাড়ি থেকে বের হন এমপি আনার।

ওইদিন রাতেই নিউটাউনের সঞ্জীবা গার্ডেনসের একটি ফ্ল্যাটে তাকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। ১৪ মে প্রথম পর্যায়ে এমপির মরদেহের খণ্ডিত অংশ একটি ট্রলিব্যাগে করে ফ্ল্যাট থেকে বের করা হয়। এরপর তোলা হয় ওই সাদা রঙের ক্যাবে।

সূত্র জানিয়েছে, সিআইডির হাতে গ্রেফতার সিয়ামের দায়িত্ব ছিল ওই মরদেহের টুকরোগুলোকে সরিয়ে দেওয়া।

সঞ্জীবা গার্ডেনসের ওই ফ্ল্যাট থেকে বেশ কিছু প্লাস্টিক ব্যাগ পাওয়া গেছে। পুলিশের ধারণা, এমপি আনারের মরদেহের টুকরোগুলো সরানোর উদ্দেশ্যে ব্যাগগুলো আনা হয়েছিল।

জিজ্ঞাসাবাদে ক্যাবচালক জানিয়েছেন, গত ১৪ মে এক নারী ও দুই পুরুষকে ট্রলিব্যাগসহ অ্যাকসিস শপিং মলের সামনে নামিয়ে দেন তিনি।

সিসিভিটি ফুটেজ দেখে সিআইডি জানতে পেরেছে, অ্যাক্সিস শপিং মলে নামানোর আগে নজরুল তীর্থের কাছে গাড়িটি প্রায় ১৫ মিনিট দাঁড়িয়ে ছিল।

সেই সময় দেহাংশ কোথায় ফেলা হবে তা নিয়ে আলোচনা হয় গাড়ির মধ্যেই। সিআইডি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ক্যাবচালক সেই আলোচনা শুনতে পারেন। এরপর অভিযুক্তদের অ্যাক্সিস শপিং মলের সামনে নামিয়ে দেন তিনি। ফলে ক্যাবচালক অনেক কিছুই জানেন, যা তিনি বলছেন না বলে অনুমান তদন্তকারীদের।

বাংলাদেশি এমপি খুনের ঘটনায় এরই মধ্যে নিউটাউন থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

এদিকে, এই ঘটনায় আরও একটি গাড়ি জব্দ করা হয়েছে। ওই গাড়িতে চড়ে এমপি আনার কলকাতা নিউমার্কেট ও সঞ্জীবা গার্ডেনসে গিয়েছিলেন। বুধবার সন্ধ্যায় নিউটাউন থানার সামনে এনে গাড়িটির ভেতর থেকে আলামত সংগ্রহ করেছে ফরেনসিক টিম। জানা গেছে, মালিক গাড়িটিকে ভাড়ায় ব্যবহার করতে দিয়েছিলেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে নিউটাউন থানার পুলিশ।


আরও খবর



কোচ জাভিকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বার্সেলোনা কোচ জাভি হার্নান্দেজকে বরখাস্ত করা হয়েছে। মৌসুমে কোনো শিরোপা জিততে না পারায় তাকে বরখাস্ত করেছে লা লিগার ক্লাবটি। আগামী রোববার সেভিয়ার বিপক্ষে লা লিগার ম্যাচটিই হবে বার্সায় জাভির শেষ ম্যাচ।

বেশ কিছুদিন ধরে টানা পোড়নের পর আজ শুক্রবার তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বরখাস্তের ঘোষণা দেয় বার্সা। আজ জাভিকে বরখাস্ত করে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে বার্সা। সেখানে ক্লাবের প্রেসিডেন্ট হুয়ান লাপোর্তোর উদ্ধৃতি দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট জোয়ান লাপোর্তা জাভি হার্নান্দেজকে বলেছেন যে, তিনি (জাভি) ২০২৪-২৫ মৌসুম থেকে আর কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন না।

জাভিকে দায়িত্ব থেকে অপসারণ নিয়ে বার্সার পক্ষ থেকেও একটি বিবৃতি দেওয়া হয়। যেখানে বলা হয়, বার্সেলোনা কোচ হিসাবে কাজের জন্য জাভিকে ধন্যবাদ জানাতে চায়। যিনি একজন খেলোয়াড় এবং প্রথম দলের অধিনায়ক হিসাবে অতুলনীয় ক্যারিয়ারে শেষ করেছেন এখানে। ভবিষ্যতে তার সর্বোত্তম মঙ্গল কামনা করে ক্লাব।

তবে কাকে জাভির স্থলাভিষিক্ত করা হবে সে বিষয়ে এখনো কোনো ইঙ্গিত দেয়নি বার্সা। স্প্যানিশ গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে, সাবেক বায়ার্ন মিউনিখ এবং জার্মানি কোচ হ্যান্সি ফ্লিককে জাভির জায়গায় নেওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।


আরও খবর



ট্রেনে ঈদযাত্রা: কাল থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আগামী ১৭ জুনকে পবিত্র ঈদুল আজহার সম্ভাব্য দিন ধরে আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট অগ্রিম বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। বরাবরের মতো এবারও ঈদের আগে বিশেষ ব্যবস্থায় ৫ দিনের ট্রেনের আসন বিক্রি করা হবে।

আগামীকাল রবিবার (০২ জুন) ঈদ উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের এই ট্রেন যাত্রার আসন বিক্রি শুরু হবে। যাত্রীদের সুবিধার্থে এবারও শতভাগ আসন অনলাইনে বিক্রি করা হবে।বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বলছে , এবার ঢাকা থেকে বহির্গামী ট্রেনের মোট আসন সংখ্যা হবে ৩৩ হাজার ৫০০টি। যা শতভাগ অনলাইনে বিক্রি করা হবে। আগামীকাল ২ জুন থেকে যাত্রা শুরুর ১০ দিন আগের আন্তঃনগর ট্রেনের আসন অগ্রিম হিসেবে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় বিক্রি করা হবে। পশ্চিমাঞ্চলে চলাচল করার সকল আন্তঃনগর ট্রেনের আসন সকাল ৮টায় এবং পূর্বাঞ্চলে চলাচল করা সকল ট্রেনের আসন দুপুর ২টায় বিক্রি করা হবে।

এছাড়া ঈদের আগে আন্তঃনগর ট্রেনের ১২ জুনের আসন বিক্রি হবে ২ জুন; ১৩ জুনের আসন বিক্রি হবে ৩ জুন; ১৪ জুনের আসন বিক্রি হবে ৪ জুন; ১৫ জুনের আসন বিক্রি হবে ৫ জুন; ১৬ জুনের আসন বিক্রি হবে ৬ জুন।


আরও খবর



রাঙামাটিতে বজ্রপাতে নারীসহ ৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় পৃথক স্থানে বজ্রপাতে এক নারীসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৫ জুন) বিকেলে এসব ঘটনা ঘটে।

লংগদু থানা পুলিশের ওসি হারুনুর রশিদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লংগদু উপজেলার আটারকছড়া ইউনিয়নের করল্যাছড়ি চেয়ারম্যান টিলার মো. ইব্রাহিমের স্ত্রী রিনা বেগম (৩৬) নিজ বাড়িতে বজ্রপাতে মারা যান। এ ছাড়া কাপ্তাই হ্রদে বোট চলমান অবস্থায় বজ্রপাতে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।

রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (লংগদু সার্কেল) মো. আবদুল আউয়াল জানান, লংগদু উপজেলার দুই স্থানে বজ্রপাতে মোট চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে। সেখানে পৌঁছানোর পর বিস্তারিত জানা যাবে।


আরও খবর