আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

প্রথম দিনেই সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ড গড়লো ‘কনজ্যুরিং থ্রি’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাড়া জাগানো ভৌতিক ছবিগুলোর সিনেমাগুলোর মধ্যে অন্যতম কনজ্যুরিং। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে এই ছবির সিকুয়েল কনজ্যুরিং থ্রি। করোনাকালে মুক্তির প্রথম দিনে সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ড গড়েছে এই ছবি। প্রথম দিনেই এই ছবি আয় করে নিয়েছে প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার।

পরিচালক মাইকেল কেভস-এর দাবি, কনজ্যুরিং' সিরিজের এই ছবিটিই নাকি সবচেয়ে ভয়ের। ১৯৮১ সালে একটি হত্যা মামলায় জড়িয়ে পড়া আর্নে জনসনের জীবনের অলৌকিক ঘটনা নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবিটি।

দ্য কনজ্যুরিং ২০১৩ সালের ১৯ জুলাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় মুক্তি পায়। এটি নির্মাণে ব্যয় হয় প্রায় ২ কোটি মার্কিন ডলার। আর এটি প্রায় ৩১ কোটি ৮০ লাখ মার্কিন ডলার আয় করে সর্বকালের সেরা আয়ের ভৌতিক চলচ্চিত্রের খেতাব অর্জন করে।

নিউজ ট্যাগ: কনজ্যুরিং থ্রি

আরও খবর



ভারতে দ্বিতীয় ঢেউয়ে স্বস্তি ফিরছে, মৃত্যু কমে ২৬৭৭

প্রকাশিত:রবিবার ০৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৬ জুন ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রায় দুই মাস তাণ্ডব চালানোর পর ধারাবাহিকভাবে প্রতিদিনই কিছু কিছু করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা কমছে ভারতে। শনিবারের তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছয় হাজার কমেছে। সেদিন সাড়ে ৩ হাজারে পৌঁছানো মৃত্যু কমে রোববার তা কমে এসে দাঁড়িয়েছে আড়াই হাজারের ঘরে।

রবিবার (৬ জুন) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার ও ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের থেকে জানা গেছে এ তথ্য।

জানা গেছে, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ১৪ হাজার ৪৬০ জন। নতুন সংক্রমিত রোগী কমেছে ৬ হাজারের বেশি। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ৮৮ লাখ ৮ হাজার ৩৭২ জন এবং মারা গেছেন ৩ লাখ ৪৬ হাজার ৭৮৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৬৭৭ জনের। গত দিনের তুলনায় রোববার এই সংখ্যা কমেছে সাত শতাধিক।

এছাড়াও প্রতিদিনই সক্রিয় রোগী থেকে সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেক মানুষ। কয়েক মাস আগেও দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ছিল ৩৭ লাখের বেশি। তবে শেষ এক মাসে সেই সংখ্যা কমতে কমতে ১৪ লাখের ঘরে নেমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগী কমেছে ৭৮ হাজারের বেশি। এ পর্যন্ত মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৪ লাখ ৭৭ হাজার ৭৯৯ জন।



আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




টিকা উৎপাদনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | হালনাগাদ:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | ১৩১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনাভাইরাসের টিকা সংগ্রহের পাশাপাশি দেশে উৎপাদনেরও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে প্রযুক্তি হস্তান্তরের বিষয়ে বিভিন্ন দেশ ও উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা চলছে।

বুধবার (২ জুন) জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য বেগম মনিরা সুলতানের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংসদের বৈঠকে প্রশ্নোত্তর পর্ব টেবিলে উত্থাপিত হয়।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার করোনা মহামারি থেকে মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে শুরু থেকেই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দেশব্যাপী ও অঞ্চলভিত্তিক লকডাউন কার্যকরসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘাষোণা করা হয়। পাশাপাশি দরিদ্র মানুষকে ত্রাণ সহযোগিতা প্রদানসহ জীবিকা ও অর্থনীতি বাঁচাতে সরকার বিভিন্ন প্রণোদনামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। চিকিৎসক-নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, প্রশাসনসহ করোনা মোকাবিলায় ফ্রন্টলাইন যোদ্ধাদের জন্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান, আর্থিক প্রণোদনা প্রদান, যথাসময়ে টেস্টিং কিট আমদানি এবং দেশের বিভিন্ন স্থানে ল্যাব স্থাপনসহ করোনা পরীক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করায় ভাইরাসের বিস্তার রোধে দক্ষিণ এশিয়াসহ অনেক উন্নত দেশের চেয়ে বাংলাদেশ সক্ষমতার প্রমাণ দিয়েছে।

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে বিশ্বের যেসব দেশ টিকাদান কার্যক্রম প্রথমদিকে শুরু করতে সক্ষম হয়, বাংলাদেশ তার অন্যতম। যথাসময়ে করোনার টিকা প্রাপ্তির বিষয়ে সরকার শুরু থেকেই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। টিকা সংগ্রহে সরকার কর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপসমূহ হলো- সরকার কর্তৃক ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট হতে সংগৃহীত এবং ভারত সরকারের কাছ থেকে উপহার হিসেবে প্রাপ্ত মোট ১ কোটি ২ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দ্বারা করোনা টিকাদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ১৮ মে পর্যন্ত দেশের চল্লিশোর্ধ্ব ও সম্মুখসারির বিভিন্ন জনগোষ্ঠীকে মোট ৯৬ লাখ ৪১ হাজার ৩১২ ডোজ টিকা প্রদান করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ভারত হতে টিকা সংগ্রহের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। ভারতে করোনা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটায় এপ্রিলে ভারত সরকার টিকা রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। ফলে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক বিকল্প উৎস হিসেবে চীন ও রাশিয়া থেকে টিকা সংগ্রহের উদ্যোগ নেয়া হয়। ইতোমধ্যে চীনের সিনোফার্ম থেকে টিকা ক্রয়ের বিষয়টি মন্ত্রিসভা কমিটিতে অনুমোদন করা হয়েছে। জুন, জুলাই ও আগস্ট; প্রতিমাসে ৫০ লাখ করে টিকা চীন থেকে পাওয়া যাবে। চীন সরকারের কাছ থেকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের পাঁচ লাখ ডোজ উপহার হিসেবে পাওয়া গেছে। এসব ভ্যাকসিন প্রদানের কাজ ২৫ মে শুরু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও), কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটি হতে ২০ শতাংশ জনগোষ্ঠীর জন্য ভ্যাকসিন সংগ্রহের কাজ চলছে। ইতোমধ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় জরুরিভিত্তিতে ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহের জন্য কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটি বরাবর পত্র পাঠিয়েছে। ফাইজারের টিকার ১ লাখ ৬২০ ডোজ আজ (২ জুন) দেশে পৌঁছাবে বলে নিশ্চিত করেছে কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটি কর্তৃপক্ষ। সরকার রাশিয়া হতে টিকা আমদানির জন্যেও ইতোমধ্যে আনুষঙ্গিক কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। মহামারি মোকাবিলায় পর্যাপ্ত পরিমাণে ভ্যাকসিন সংগ্রহের জন্য নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন দেশ ও ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নিবিড় যোগাযাগ চলছে।


আরও খবর



এলএসডিসহ গ্রেফতার পাঁচ শিক্ষার্থী ৫ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:সোমবার ৩১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ৩১ মে ২০২১ | ২০৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীতে এলএসডিসহ (লাইসার্জিক অ্যাসিড ডাইথ্যালামাইড) গ্রেফতার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ শিক্ষার্থীর প্রত্যেককে ৫ দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার বিকালে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের বিচারক আতিকুল ইসলাম এই আদেশ দেন। দুপুরে তাদের আদালতে হাজির করে প্রত্যেকের ১০ দিন করে রিমান্ড চান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।

এর আগে রবিবার রাজধানীর শাহজাহানপুর, রামপুরা, বাড্ডা ও ভাটারা এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি গ্রুপের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে ভয়ংকর মাদক ২ হাজার মাইক্রোগ্রাম এলসডি, আইস ও গাঁজা জব্দ করা হয়েছে।

পরে ওই দিন রাতেই এক ব্রিফিংয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানায়, গত এক বছর ধরে দেশে এলএসডির ব্যবসা চালিয়ে আসছে তারা।

ঢাকা মেট্রোপলিটন (ডিএমপি) পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. আ. আহাদ বলেন, অনলাইন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তারা আসক্ত হয়ে এলএসডি সেবন শুরু করে। মূলত বিদেশ থেকে এলএসডি মাদক সংগ্রহ করে তারা। রাজধানীতে ১৫টি গ্রুপ রয়েছে যারা এলএসডি বিক্রি করে আসছে। গ্রুপগুলো গত এক বছর ধরেই এই এলএসডি বিক্রি ও সেবনের সঙ্গে জড়িত।


আরও খবর



আন্দোলনের নামে জলঘোলা করলে রাজপথে সমুচিত জবাব : কাদের

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আন্দোলনের নামে সহিংসতা সৃষ্টি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাইলে সরকার রাজপথে সমুচিত জবাব দেবে বলে বিএনপিকে আবারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

বুধবার (৯ জুন) ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ হুঁশিয়ারি দেন।

তিনি বলেন, বিএনপির বহুদলীয় গণতন্ত্র ছিল বহুদলীয় তামাশা। ক্ষমতায় যেতে ফখরুল সাহেবরা রঙিন চশমার ফাঁক দিয়ে রঙিন খোয়াব দেখছেন। ২০০৬ সালে এক কোটি ২৫ লাখ ভুয়া ভোটার দিয়ে বিএনপি গণতন্ত্রের কফিনে শেষ পেরেক মারতে চেয়েছিল মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ নাকি গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে বিএনপি নেতাদের এমন নির্লজ্জ বক্তব্য শুনলে জনগণ হাসে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, হ্যাঁ-না ভোটের মাধ্যমে বিএনপিই গণতন্ত্রকে হত্যা করেছিল।

১৯৭৮ সালে সামরিক উর্দি পরে অস্ত্রের মুখে বিচারপতি সায়েমকে সরিয়ে কে প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন করে রাষ্ট্রপতি হয়েছিল, বিএনপি নেতাদের স্মরণ করে দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির গণতন্ত্র ছিল কারফিউ গণতন্ত্র। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ১৫ ফেব্রুয়ারির ভোটারবিহীন নির্বাচন কোন গণতন্ত্র?

বিরোধী দল হিসেবে গণতন্ত্রের বিকাশে বিএনপি কী ভূমিকা রেখেছে জাতি তা জানতে চায় উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, সর্বশেষ নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে বিএনপি আবারও প্রমাণ করেছে, তারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। বিচারপতিদের বয়স বাড়িয়ে দলীয় লোক কে এম হাসানকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান করতে চেয়েছিল বিএনপি, জনগণকে স্মরণ করে দিয়ে ওবায়দুল কাদের জানান, সেই পরিস্থিতিই বাংলাদেশে ওয়ান ইলেভেন সৃষ্টির মূল কারণ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সংবিধান সম্মতভাবে পৃথিবীর অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশের মতো যথাসময়ে নির্বাচন হবে। অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে বলেও জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে ক্ষমতার পরিবর্তন চাইলে আগামী নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা করার আহ্বান জানান।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, বিএনপি কি নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতার পরিবর্তন চায়? তারা গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনের দুঃস্বপ্ন দেখছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।


আরও খবর



রাতারাতি গোঁফ গজালো শ্রীলেখার!

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | ১২৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টালিউডের আলোচিত অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। রাতারাতি তার ইয়া বড় গোঁফ গজিয়েছে! এটি কীভাবে সম্ভব? শনিবার (২৯ মে) নেটমাধ্যমে কৌতুহলে ফেটে পড়েছে নেটাগরিকরা।

শ্রীলেখা জানিয়েছেন, লকডাউনে স্যালুনে যেতে পারছেন না। ফলে, ভ্রূ আর ঠোঁটের উপরে বাড়তি লোম গজিয়েছে। শনিবার সে দিকে চোখ যেতেই নিজেকে নিয়ে রসিকতা করার লোভ সামলাতে পারেননি। ছবিতে গোঁফের ইমোজি বসিয়ে নেটমাধ্যমে ভাগ করে নিতেই এই কাণ্ড। তার পরেই কটাক্ষ তাঁর, নিজের ফুটেজেই জনপ্রিয় হচ্ছি!

এই অভিনেত্রী আরও বলেন, 'আমায় কিছু বলতে হচ্ছে না। নেটাগরিকেরাই আমার হয়ে জবাব দিয়ে দিচ্ছেন।'

টালিগঞ্জের অভিনেত্রীদের বিরুদ্ধেও বিস্ফোরক শ্রীলেখা। তিনি বলেন, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়-ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সম্পর্ক, স্বজনপোষণ নিয়ে যখন মুখ খুলেছিলাম, তখন জনৈক অভিনেত্রী আমার বিরুদ্ধে অনেক কথা বলেছিলেন। আমার শরীর নিয়ে যখন এত নোংরামি হল, আমাকে বাজারি বলা হয়েছিল, তখন তিনি কোথায়? এক বারের জন্যেও ইন্ডাস্ট্রির কেউ তো এ সবের প্রতিবাদ জানালেন না।'

সিনে দুনিয়ার বাইরের মানুষেরা বেশি ভাল। শ্রীলেখার উদাহরণ, দেখুন, ওরা কী সুন্দর গোঁফ এবং রসালো ঠোঁটের রেয়ার কম্বিনেশন খুঁজে নিয়েছেন।


নিউজ ট্যাগ: শ্রীলেখা মিত্র

আরও খবর